• শামীমকে নিয়ে অধিনায়কের একটাই আক্ষেপ
    আটে নেমে দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। দুই দল মিলিয়েই ম্যাচে সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেট। ইনিংস খুব একটা বড় করতে না পারলেও ব্যাট হাতে অভিষেকে খারাপ করেননি শামীম হোসেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের প্রথম ইনিংস নিয়ে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর একটিই আক্ষেপ, ম্যাচ শেষ করে আসতে না পারা।
  • হারারেতে হেরে গেল বাংলাদেশ
    কিছুটা আলগা বোলিং, কিছুটা গা-ছাড়া ফিল্ডিং আর অতি বেশি আগ্রাসী ব্যাটিং প্রবণতা, সব কিছুর যোগফল পরাজয়। ম্যাচটি ছিল সিরিজ জয় নিশ্চিত করার। কিন্তু সফরে বাংলাদেশের সবচেয়ে বিবর্ণ সময় এলো এ দিনই। ব্যাটে-বলে উজ্জীবিত পারফরম্যান্সে সিরিজে সমতা ফেরাল জিম্বাবুয়ে।
  • শততম ম্যাচে শতরানের জুটিতে বাংলাদেশের জয়
    শততম ওয়ানডে আর শততম টেস্ট, দুটিতেই জয়ের স্বাদ পেয়েছিল বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি আর বাদ থাকবে কেন! সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ নাঈম শেখের শতরানের উদ্বোধনী জুটিতে গড়া হলো বড় জয়ের পথ। শততম টি-টোয়েন্টিও জিতে পূরণ হলো বাংলাদেশের অন্যরকম এক হ্যাটট্রিক।
  • জয়ের স্বস্তি নিয়ে সুরক্ষা বলয়ে সাকিব-তামিমদের ঈদ
    “প্রতিদিন সবাই ব্রেকফাস্টে আসে ট্র্যাকসুট পরে, আজকে সবার পরনে পাঞ্জাবি-পাজামা। এটাই আমাদের ঈদ। সকালে হোটেলে রেগুলার ব্রেকফাস্টই আমাদের ঈদের খাওয়া”, হারারে থেকে ফোনে হাসতে হাসতে বলছিলেন বাংলাদেশ দলে টিম লিডার আহমেদ সাজ্জাদুল আলম। সকালের নাশতার পর ঐচ্ছিক অনুশীলন সেশন আছে দলের, যাবেন ক্রিকেটারদের বেশ কজন। পরদিনই শুরু টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ঈদ নিয়ে বুঁদ থাকার সুযোগ কোথায়!
  • এবার টি-টোয়েন্টির চ্যালেঞ্জে তাকিয়ে সাকিব
    টেস্ট ও ওয়ানডের অভিযানের সমাপ্তি হয়েছে সফলতার স্বস্তিতে। অপেক্ষায় এবার ছোট সংস্করণের বড় চ্যালেঞ্জ। প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ের সঙ্গে যতটা, ততটাই কঠিন লড়াই এখানে নিজেদের সঙ্গে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট যে এখনও খুব ভালো খেলে না বাংলাদেশ! এই সংস্করণে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসানেরও ধারণা, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ সহজ হবে না।
  • দুইশর অপেক্ষায় মাহমুদউল্লাহ
    ১৪ বছরের পথচলা। বাংলাদেশের ক্রিকেটের অনেক উত্থান-পতন, কত বাঁক বদলের স্বাক্ষী। দেশের ক্রিকেটের এগিয়ে চলার নায়কদের একজনও। বর্ণাঢ্য সেই ক্যারিয়ারে এবার দারুণ একটি মাইলফলকে পা রাখতে চলেছেন মাহমুদউল্লাহ। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে পূর্ণ করতে যাচ্ছেন ২০০ ম্যাচ।
  • জিতলেও ব্যাটিংয়ে খুশি নন তামিম
    ম্যাচ জেতা হয়েছে, সিরিজ জয়ের স্বস্তি মিলেছে। তবে পারফরম্যান্সের ময়নাতদন্তে থাকছে অস্বস্তির ছাপও। ম্যাচটি তো হারতেও পারত বাংলাদেশ! চ্যালেঞ্জ খুব কঠিন ছিল না, তবু ভেঙে পড়ে দলের ব্যাটিং। অধিনায়ক তামিম ইকবালের মতে, আলগা শট খেলে ব্যাটসম্যানরাই ডেকে এ দিন ডেকে আনেন দলের বিপদ।
  • সাকিবময় ম্যাচে বাংলাদেশের সিরিজ জয়
    এই ইনিংসের জন্য কত অপেক্ষা! মহাদেব সাহার কবিতার মতো ‘কোটি কোটি মঙ্গল-বুধবার’ বা ‘লক্ষ লক্ষ শীত-বর্ষা’ পার হয়নি যদিও, তবে অপেক্ষা রূপ নিয়েছিল কাতর প্রতীক্ষায়। অবশেষে সেই ইনিংস উপহার দিলেন সাকিব আল হাসান। এমন এক দিনে, যেদিন ভীষণ জরুরি ছিল। এমন এক ক্ষণে, যখন তিনি না দাঁড়ালে ভেঙে পড়ত দল। রানে ফেরার দিনটি সাকিব রাঙালেন ম্যাচ জেতানো অপরাজিত ইনিংসে। হারের চোখরাঙানি থামিয়ে বাংলাদেশ পেল সিরিজ জয়ের স্বাদ।
  • নিজের আর সাকিবের বড় ইনিংস চান তামিম
    দল জিতলে আড়াল হয়ে যায় আনেক দুর্বলতাই। দেড়শ রানের মতো বড় ব্যবধানের জয় হলে তো কথাই নেই। তবে তামিম ইকবাল চাপা পড়তে দিচ্ছেন না ঘাটতির জায়গাটুকু। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ রেকর্ড গড়া জয় পেলেও টপ অর্ডারের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট নন বাংলাদেশ অধিনায়ক। কাঠগড়ায় তুলছেন তিনি নিজেকেও। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তামিমের চাওয়া, তার ও সাকিব আল হাসানের মতো অভিজ্ঞদের ব্যাটে বড় ইনিংস।
  • ‘জুনিয়রদের’ পারফরম্যান্সে খুশি ‘সিনিয়র’ তামিম
    দল বিপদে পড়েছে, উদ্ধার করেছেন লিটন দাস। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন আফিফ হোসেন। শেষ দিকে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এরকম ম্যাচ খুব বেশি আসে না বাংলাদেশের ক্রিকেটে, যখন অভিজ্ঞরাই পড়ে থাকেন আড়ালে। সেই অভিজ্ঞদের একজন, অধিনায়ক তামিম ইকবাল অবশ্য উচ্ছ্বসিত তাতে।
  • লিটনের সেঞ্চুরি, সাকিবের ৫ উইকেটে রেকর্ড গড়া জয়
    শুরু আর শেষে কত অমিল! ২২ ওভারের বেশি বাকি থাকতেই ম্যাচ শেষ, রেকর্ড ব্যবধানে জয়। এসবকিছুই বলবে, হেসেখেলে জয়। অথচ শুরুতে কী বিপাকেই না পড়েছিল বাংলাদেশ! পরিণত ব্যাটিংয়ে লিটন দাসের লড়িয়ে সেঞ্চুরি সেই বিপদ থেকে উদ্ধার করে দলকে। পরে বল হাতে জ্বলে ওঠেন সাকিব আল হাসান। শুরুটা নড়বড়ে হলেও তাই শেষটায় এক বিন্দুতে মিলে যায় বাংলাদেশের প্রত্যাশা আর প্রাপ্তি।
  • শূন্যের শীর্ষে তামিম
    রেকর্ডের খেলা ক্রিকেটে সব রেকর্ডই কাঙ্ক্ষিত নয়। তামিম ইকবাল যেমন বুঝতে পারছেন। বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যান এখন ব্যর্থতার একটি রেকর্ডেও এককভাবে সবার ওপরে। ওয়ানডেতে ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশিবার শূন্য রানে আউটের শিকার তিনিই।
  • ৩০ পয়েন্টের পথে ভালো শুরুর আশায় বাংলাদেশ
    দুটি পরিসংখ্যান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ ১৬ ওয়ানডের সবকটিতে জয় বাংলাদেশের। বাংলাদেশের বিপক্ষে সবশেষ দুই ওয়ানডে সিরিজেই জয় জিম্বাবুয়ের। খটকা লাগছে তো? দুটি পরিসংখ্যানই কিন্তু সত্যি! পরিবর্তন শুধু স্বাগতিকে। প্রথম পরিসংখ্যানটি বাংলাদেশের মাঠের, পরেরটি জিম্বাবুয়েতে।
  • ওয়ানডেতেও নেই উইলিয়ামস-আরভিন, ফিরলেন রাজা
    অনেক অপেক্ষার পর অবশেষে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দল দিল জিম্বাবুয়ে। আইসোলেশনে থাকায় একমাত্র টেস্টে খেলতে না পারা শন উইলিয়ামস ও ক্রেইগ আরভিনকে ওয়ানডেতেও পাচ্ছে না স্বাগতিকরা।
  • সাকিবের সামর্থ্যে সবটুকু বিশ্বাস তামিমের
    সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ ক্রিকেটের ধ্রুবতারা। তবে কিছুদিন ধরেই তিনি জ্বলছেন মিটমিট করে। নেই সেই চেনা তেজ। তামিম ইকবাল অবশ্য তাতে খুব একটা আঁধারে পড়ছেন না। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলছেন, সাকিব এই জ্বলে উঠলেন বলে!
  • ‘একাদশে জায়গার শক্ত দাবিদার সোহান’
    ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফর্ম করে স্কোয়াডে তো জায়গা করে নিলেন নুরল হাসান সোহান। একাদশে কি সুযোগ মিলবে? তামিম ইকবাল দেখালেন আশা। তবে করলেন না পুরোপুরি খোলাসা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে দলের সম্ভাব্য ব্যাটিং অর্ডার নিয়েও আগে থেকে কোনো ধারণা দিতে নারাজ বাংলাদেশ অধিনায়ক।
  • মুস্তাফিজ ‘ফিফটি-ফিফটি’, তামিম খেলবেন ‘ম্যানেজ করে’
    দেশ থেকেই চোট বয়ে নিয়ে গেছেন তামিম ইকবাল। তাকে খেলতে হবে খানিকটা ঝুঁকি নিয়ে। পারিবারিক কারণে দেশে ফিরেছেন মুশফিকুর রহিম। এর মধ্যেই দলের আরেক দুর্ভাবনা মুস্তাফিজুর রহমানের চোট। অধিনায়ক তামিম নিজের খেলা নিয়ে সবুজ সঙ্কেত দিলেও আশার কথা শোনাতে পারলেন না মুস্তাফিজকে নিয়ে।
  • দল জানায়নি জিম্বাবুয়ে, তামিম বললেন ‘আজব কাহিনী’
    বাংলাদেশ অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ের এক সংবাদকর্মী জানতে চাইলেন জিম্বাবুয়ের নতুন ক্রিকেটারদের নিয়ে। তামিম ইকবাল এক চোট হেসে বললেন, “আমি এটা নিয়ে কি বলব, কাদের সঙ্গে খেলব এটাই তো জানি না!”
  • মোসাদ্দেকের চোখে অনেক দলের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ
    আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ এখন সাতে, জিম্বাবুয়ে আছে ছয় ধাপ নিচে। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স, দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে ব্যবধান আরও বেশি। জিম্বাবুয়েতে ওয়ানডে সিরিজে তাই পরিষ্কার ফেভারিট বাংলাদেশ। তবে শুধু জিম্বাবুয়েই নয়, ওয়ানডেতে অন্য অনেক দলের চেয়েই নিজেদেরকে এগিয়ে রাখেন মোসাদ্দেক হোসেন।
  • ‘স্বপ্নের’ টেস্ট সেঞ্চুরি করে সাদমানের ফেরা
    বাংলাদেশের হয়ে শুধু টেস্ট ক্রিকেটেই খেলেন সাদমান ইসলাম। নিজেকে গড়ার চেষ্টা করেছেন টেস্টের উপযোগী হতে, টেস্টকে ঘিরেই তার আশা আর স্বপ্নের জগত। সেই স্বপ্নগুলোর একটি পূরণ হলো এবার জিম্বাবুয়েতে। একরাশ ভালোলাগা নিয়ে তাই ফিরতে পারলেন তিনি দেশে।
  • পায়ে টেপ পেচিয়ে ওয়ানডে সিরিজে খেলবেন তামিম
    তামিম ইকবালের জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ বিশ্রামে থাকা। তবে পয়েন্টের হাতছানি বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ককে বাধ্য করছে বিকল্প ভাবতে। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের সুপার লিগের অংশ বলে কথা। তাই পায়ে টেপ পেচিয়ে, যতটা সম্ভব নিরাপদে থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে খেলবেন তামিম।
  • টেস্ট ক্রিকেটে শেষ দিনে মাহমুদউল্লাহকে ‘গার্ড অব অনার’
    আর সব দিনের চেয়ে রোববার একটু ভিন্ন হলো খেলা শুরু হওয়ার আগের ছবি। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা মাঠে নেমে দুই পাশে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়ালেন। সতীর্থদের করতালিতে মাঠে ঢুকলেন মাহমুদউল্লাহ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারারে টেস্টের শেষ দিনই অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারের ক্যারিয়ারের শেষ দিন!
  • নিজেকে প্রমাণের চ্যালেঞ্জ জিতে খুশি মাহমুদউল্লাহ
    পারিপার্শ্বিকতা ছিল প্রতিকূল। মাহমুদউল্লাহ চেয়েছেন জয় করতে। ম্যাচের পরিস্থিতি ছিল কঠিন। মাহমুদউল্লাহ চেয়েছেন নিজের প্রতিজ্ঞা পূরণ করতে। পেরেছেন তিনি সবকিছুই। দেড় বছর পর টেস্টে ফিরে সব চাওয়া পূরণ করতে পেরে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার পাচ্ছেন দারুণ স্বস্তি।
  • দারুণ সেঞ্চুরিতে মাহমুদউল্লাহর ফেরা
    এখন তার থাকার কথা ছিল জিম্বাবুয়ে যাওয়ার উড়ানে। অথচ তিনি উড়লেন হারারের ২২ গজে! শুরুতে টেস্ট স্কোয়াডে না থেকেও পরে জায়গা পেয়ে, অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়ে একাদশে ঢুকে দলের বিপর্যয়ে ব্যাটিং করতে নেমে অসাধারণ সেঞ্চুরি। প্রায় দেড় বছর পর টেস্ট খেলতে নেমে মাহমুদউল্লাহ বুঝি জানিয়ে দিলেন ‘আমি ফিরেছি থাকতেই।’
  • জিম্বাবুয়েতে তিন সংস্করণেই সাকিব-সোহান, টি-টোয়েন্টিতে শামীম
    জিম্বাবুয়ে সফরে তিন সংস্করণেই সাকিব আল হাসানকে পাচ্ছে বাংলাদেশ। অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারের পাশাপাশি সব সংস্করণেই দলে আছেন নুরুল হাসান সোহান। তিন সংস্করণ মিলিয়ে একমাত্র নতুন মুখ শামীম হোসেন। তরুণ এই অলরাউন্ডার জায়গা পেয়েছেন টি-টোয়েন্টি দলে।
  • জিম্বাবুয়েতে টি-টোয়েন্টি খেলতে চান না মুশফিক
    জিম্বাবুয়ে সফরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছুটি চেয়েছেন মুশফিকুর রহিম। চার ম্যাচের এই সিরিজের দলে তাকে বিবেচনা না করতে নির্বাচকদের কাছে অনুরোধ করেছেন বাংলাদেশের অভিজ্ঞ এই কিপার-ব্যাটসম্যান।
  • শেষ ভালোর সঙ্গে বাংলাদেশের প্রাপ্তি রেকর্ড
    দাপুটে পথচলার সিরিজে শেষটায় হাতছানি ছিল দারুণ এক অর্জনের। প্রত্যাশিত জয়ে বাংলাদেশ পেল এতদিনের অধরা সেই স্বাদ। টি-টোয়েন্টি সিরিজেও উড়ে গেল জিম্বাবুয়ে। সাদা-রঙিন মিলিয়ে তিন সংস্করণেই প্রথমবার কোনো দলকে এক দফায় হারাল বাংলাদেশ।
  • সৌম্য-লিটনের ঝড়ে এগিয়ে বাংলাদেশ
    করোনাভাইরাসের কারণে সীমিত আকারে ম্যাচের টিকেট ছেড়েছিল বিসিবি। টি-টোয়েন্টির টানে তবু গ্যালারিতে এসেছিলেন হাজার সাতেক দর্শক। ব্যাটিং তাণ্ডবে তাদের মাতিয়ে রাখলেন লিটন কুমার দাস ও সৌম্য সরকার। দলও পেল প্রত্যাশিত জয়। ঝুঁকি নিয়ে আসা সেই দর্শকেরা মাঠ ছাড়লেন টইটুম্বুর বিনোদনের পূর্ণতায়।
  • পরের অধিনায়ক যেন ২০২৩ বিশ্বকাপের জন্য হয়: মাশরাফি
    নিজের কাজটুকু মাশরাফি বিন মুর্তজা করে রাখলেন। এবার তিনি আগ্রহ ভরে তাকিয়ে বিসিবির দিকে। বিদায়ী অধিনায়কের চাওয়া, নতুন অধিনায়ককে যেন দায়িত্ব দেওয়া হয় ২০২৩ বিশ্বকাপকে মাথায় রেখে।
  • ‘মুশফিককে হাস্যরসের পর্যায়ে নেওয়া উচিত নয়’
    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ ওয়ানডেতে আলোচনার কেন্দ্রে থাকতে পারত মুশফিকুর রহিমকে ঘিরে জটিলতা। কিন্তু মাশরাফি মুর্তজার নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণায় অনেকটাই আড়াল হয়ে গেছে তা। তার পরও অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনে এলো মুশফিকের প্রসঙ্গ। মাশরাফি নিজে থেকেই বললেন, মুশফিককে প্রাপ্য সম্মানটুকু দেওয়া উচিত।
  • ‘ভারতের কাছে ১ রানে হারের রাত ছিল বীভৎস’
    জয়ের জন্য শেষ ৩ বলে প্রয়োজন ২ রান। ক্রিজে অভিজ্ঞ দুই ব্যাটসম্যান। অথচ সহজ সমীকরণ মেলাতে না পেরে অবিশ্বাস্যভাবে ম্যাচ হেরে যায় বাংলাদেশ। মাশরাফি বিন মুর্তজা জানালেন, ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে সেই হারের রাতটা ছিল অধিনায়ক হিসেবে তার জন্য সবচেয়ে কষ্টের সময়।
  • সকালে মাশরাফির ভাবনা ‘ইটস এনাফ’, মাঠে এসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত
    বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে নিজের নাম সরিয়ে নিয়েছেন কিছুদিন আগে। নেতৃত্ব থেকে সরে যাওয়ার ভাবনাও মাশরাফি মুর্তজার মনে দোলা দিচ্ছিল কিছুদিন ধরেই। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জুড়ে চলেছে সেই দোলাচল। শেষ ম্যাচের আগের দিন সকালে তার মনে হয়েছে, যথেষ্ট হয়েছে। দুপুরে অনুশীলনে মাঠে এসে নিয়ে ফেলেছেন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। নেতৃত্বের পথচলার ইতি!
  • লাল পাসপোর্ট, গাড়ি নেইনি, ওসব থেকে দূরে থাকি : মাশরাফি
    বাংলাদেশে ক্রিকেটের যে তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তা, ক্রিকেট অধিনায়কের সম্মানও সেখানে অনেক উঁচুতে। পাশাপাশি মাশরাফি বিন মুর্তজার নিজের জাদুকরী সামর্থ্য তো ছিলই। সব মিলিয়ে তিনি দেখেছেন জনপ্রিয়তার চূড়া। তবে অধিনায়কত্ব থেকে বিদায় বেলায় বললেন, এসবকে তিনি কখনোই গুরুত্ব দিয়ে দেখেননি। উদাহরণ দিলেন, সংসদ সদস্য হওয়ার পরও নেননি অনেক সরকারী সুবিধা।
  • অধিনায়ক মাশরাফির বিদায় ছুঁয়ে গেছে মুশফিক-তামিমদের
    অন্য সব দিন সাধারণত স্ট্রেচিংয়ের পর শুরু হয় ফুটবল খেলা বা নানা কসরতে গা গরম পর্ব। এ দিন একটু ব্যতিক্রম। স্ট্রেচিংয়ের পর মাঠে গোল হয়ে বসলেন ক্রিকেটারদের সবাই। দাঁড়ানো শুধু একজন, মাশরাফি বিন মুর্তজা। নেতৃত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা সতীর্থদের সেখানেই জানিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। সবাইকে ছুঁয়ে গেছে অধিনায়কের বিদায়ের ঘোষণা।
  • নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা মাশরাফির
    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শেষে ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্ব পুর্নবিবেচনা করা হবে, জানিয়েছিল বিসিবি। তার আগেই নেতৃত্ব ছেড়ে দিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চলতি ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচই অধিনায়ক হিসেবে তার শেষ ম্যাচ।
  • ‘মুশফিক তো অবশ্যই, রেকর্ড ভাঙতে পারে লিটন-শান্তও’
    আগের রেকর্ড টিকে ছিল প্রায় ১১ বছর। তামিম ইকবালের ধারণা, তার এবারের রেকর্ড ভেঙে যাবে দ্রুতই। সম্ভাব্য যারা গড়তে পারেন নতুন রেকর্ড, তাদের মধ্যে মুশফিকুর রহিম তো আছেনই, তামিমের ভোট পাচ্ছেন লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্তও।
  • তামিমের ভাবনায় ছিল না ডাবল সেঞ্চুরি
    দেড়শ হয়ে গিয়েছিল ৪৫ ওভারে। পরের ওভারের প্রথম বলেই ছক্কা। দুইশ বেশ দূর, তবে সম্ভাবনা খানিকটা উঁকি দিচ্ছিল ঠিকই। তামিম ইকবাল অবশ্য পারেননি কাছাকাছি যেতে। ম্যাচের পরদিন জানালেন, ডাবল সেঞ্চুরির কথা মাথায়ও আসেনি তার।
  • তামিমের কাছে তবু এগিয়ে ১১ বছর আগের ইনিংস
    ১৫৪ ছাড়িয়ে এবার ১৫৮। রেকর্ড বইয়ে বুলাওয়েয়োর ইনিংস পেছনে পড়ে গেছে সিলেটের ইনিংসে। তবে দুই ইনিংসেরই নির্মাতা তামিম ইকবাল এগিয়ে রাখছেন আগের ইনিংসটিকেই। এবারের ইনিংস সর্বোচ্চ হলেও সেরা নয় বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যানের কাছে।
  • কাঙ্ক্ষিত ডাক পেয়ে সামনের দিকে তাকিয়ে আফিফ
    টি-টোয়েন্টিতে ধীরে ধীরে পায়ের নিচে মাটি শক্ত হচ্ছে। আশায় ছিলেন দেশের হয়ে ওয়ানডে খেলার। এবার হতে পারে অপেক্ষার অবসান। প্রথমবারের মতো ওয়ানডে দলে জায়গা পাওয়া আফিফ হোসেন জানালেন, সুযোগ কাজে লাগিয়ে টিকে যাওয়ার কথাই কেবল ভাবছেন। 
  • ‘তামিম ভাইয়ের সাথে আমার তুলনা কখনও হয় না’
    তামিম ইকবালের চেয়ে কম ম্যাচ খেলেই টেস্ট সেঞ্চুরির সংখ্যায় তাকে ধরে ফেলেছেন মুমিনুল হক। বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক ব্যাটিং গড়েও আছেন বেশ এগিয়ে। তবু তামিমের সঙ্গে নিজের তুলনা করতে চান না মুমিনুল। বরং তামিমকে এগিয়ে রাখছেন যোজন যোজন। 
  • বাংলাদেশের বড় জয়, ছোট স্বস্তি
    সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা, চারপাশ ঘোলাটে। কিন্তু প্রকৃতির প্রভাবে নয়, জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা চোখে অন্ধকার দেখল নাঈম হাসান ও তাইজুল ইসলামের স্পিনে। লড়াই জমল না তেমন। চতুর্থ দিন দ্বিতীয় সেশনেই ম্যাচ জিতে নিল বাংলাদেশ।
  • বাংলাদেশে তো এটা বাদ দেওয়ার সময়: মুশফিক
    টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম আট বছরে মুশফিকুর রহিমের সেঞ্চুরি ছিল মাত্র একটি। পরের সাত বছরে তার সেঞ্চুরির সংখ্যা ছয়টি। যার তিনটি আবার ডাবল। পরিসংখ্যান বলছে, ক্যারিয়ারের সেরা সময়ে আছেন মুশফিক। তবে তিনি তুলে ধরলেন বাংলাদেশের বাস্তবতা।
  • সেই ম্যাচ মনে পড়ছিল মুশফিকের
    সময়ের ব্যবধান এক বছরের বেশি। তবুও ২০১৮ সালের নভেম্বর যেন ফিরে এলো ২০২০-এর ফেব্রুয়ারিতে। বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের এক বছর আগে-পরের দুই টেস্ট মিলে গেল এক বিন্দুতে। দুই টেস্টেই মুশফিকুর রহিম করলেন ডাবল সেঞ্চুরি, মুমিনুল হক পেলেন সেঞ্চুরি। মুশফিক জানালেন, সেই টেস্টের দৃশ্যগুলো বারবার তার মনে পড়ছিল।
  • মুশফিকের উদযাপন ‘ডাইনোসর ভক্ত’ ছেলের জন্য
    ব্যাট উঁচিয়ে ধরা, মুষ্ঠিবদ্ধ হাত বাতাসে ছোঁড়া, বাঁধনহারা দৌড়, প্রথাগত এসব তো ছিলই। ডাবল সেঞ্চুরির উদযাপনে এরপরই চমকে দিলেন মুশফিকুর রহিম। ড্রেসিং রুমের দিকে তাকিয়ে ইশারা করলেন কিছু একটা। দুহাত দিয়ে কোনো কিছু বোঝাতে চাইলেন। এরপর ভঙ্গি করলেন হুঙ্কার ছোঁড়ার মতো। কি ছিল এসব? দিনের খেলা শেষে লাজুক হাসিতে মুশফিক জানালেন, সবই ছিল তার ২ বছর বয়সী ছেলে মায়ানের জন্য।
  • তিনশ করার সুযোগ তো দিল না: মুশফিক
    ডাবল সেঞ্চুরি যখন নাগালে, মুশফিকুর রহিম তখন ভাবছিলেন ট্রিপল সেঞ্চুরি নিয়ে। ভাবছিলেন, তৃতীয় দিন অপরাজিত থেকে চতুর্থ দিনে ছুটবেন তিনশর পথে। কিন্তু হুট করে বার্তা পেলেন, আজই ইনিংস ছাড়বে দল। তাতে বেশ অবাক মুশফিক। ডাবল সেঞ্চুরিতে থামতে হওয়ায় একটু হতাশও। তবে এটিও জানিয়ে দিয়েছেন, দলের চাওয়াই তার কাছে সবকিছুর ওপরে।
  • স্বস্তির সেঞ্চুরিতে তামিমকে ছুঁলেন মুমিনুল
    ক্যারিয়ারে এতটা চাপে বুঝি কখনোই ছিলেন না মুমিনুল হক। চেপে বসেছে নেতৃত্বের বিষম ভার। ব্যাট থেকে হারিয়ে গেছে রান। সমানে হারছে দল। সব মিলিয়ে অবস্থা ছিল জেরবার। অবশেষে দুঃসময়ের বলয় ভেঙে একটু স্বস্তির শ্বাস নিতে পারছেন মুমিনুল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে দারুণ এক সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।
  • বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে কিছু আক্ষেপ, কিছু আশা
    স্কোরকার্ডের চিত্র খুব একটা খারাপ নয়। বড় লিডের সম্ভাবনা নিয়েই দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। তবে সেই ছবিতেও লুকিয়ে আশা-হতাশার অনেক গল্প। তামিম ইকবাল, সাইফ হসান ও নাজমুল হোসেন শান্ত, আউট হওয়া তিন জনেরই আছে আক্ষেপের অধ্যায়। তবে আশার ঝিলিক মিলছে মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে।
  • মিরপুরের উইকেট দেখে অবাক জিম্বাবুয়ে
    স্পিন পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে এসেছেন বাংলাদেশে। প্রথম থেকে ঘুরবে এমন উইকেট প্রত্যাশিত ছিল জিম্বাবুয়ের। সেখানে একমাত্র টেস্টে মিলেছে সবুজ ঘাসের উইকেট। সফরকারীদের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক জানালেন, মিরপুরের উইকেট অবাক করেছে তাদের।
  • নাঈমের হাত ধরে একটু এগিয়ে বাংলাদেশ
    জিম্বাবুয়ের দিন নাকি বাংলাদেশের? নাঈম হাসানের নাকি ক্রেইগ আরভিনের! সরল সমীকরণ টানা কঠিন। তবে শেষ বিকেলের একটি ডেলিভারিই ব্যবধান গড়ে দিয়েছে খানিকটা। দারুণ সেই বলে সেঞ্চুরিয়ান আরভিনকে বোল্ড করেছেন নাঈম। তাতে বাংলাদেশ দিনটি শেষ করেছে স্বস্তিতে, অস্বস্তি নিয়ে জিম্বাবুয়ে।
  • চট্টগ্রাম থেকে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজ সিলেটে
    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের ভেন্যু পাল্টেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে হবে সবগুলো ম্যাচ।
  • উইন্ডিজের বিপক্ষে ‘টিপিক্যাল হোম কন্ডিশন’ চান মাহমুদউল্লাহ
    সিলেটের উইকেট ম্যাচ জুড়েই ছিল প্রায় প্রাণহীন। মিরপুরে টেস্ট উইকেট গত কয়েক বছরে স্পিন সহায়ক দেখা গেলেও এবার স্পিন খুব একটা ধরেনি। পঞ্চম দিনেও গ্রিপ করেনি খুব বেশি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসছে টেস্ট সিরিজে তাই ঘরের মাঠের ফায়দা পুরোপুরি নেওয়া যায়, এরকম উইকেট চান মাহমুদউল্লাহ।
  • খালেদকে নিয়ে অধিনায়কের অনেক আশা
    টেস্ট অভিষেকে উইকেটশূন্য সৈয়দ খালেদ আহমেদ পাশে পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহকে। অধিনায়ক মনে করেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটে ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল ডানহাতি এই পেসারের।
  • নিজের উন্নতির অনেক জায়গা দেখছেন মাহমুদউল্লাহ
    সেঞ্চুরিটি এসেছে বড় স্বস্তি হয়ে। দলে জায়গা নিয়ে দুর্ভাবনাও আপাতত মিলিয়ে গেছে। তবে আত্মতৃপ্তিতে ভোগার সুযোগ দেখছেন না মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক এই স্বস্তিকে রূপ দিতে চান ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের তৃপ্তিতে।
  • বড় জয়ে মান বাঁচাল বাংলাদেশ
    উদযাপনে আড়ম্বর খুব একটা দেখা গেল না। খানিকটা ‘হাই ফাইভ’ আর পরস্পরের পিঠ চাপড়ে দেওয়া। উচ্ছ্বাসের চেয়ে তাতে বেশি মিশে থাকল স্বস্তি। এই সিরিজ থেকে কিছু পাওয়ার প্রত্যাশা মাটিচাপা পড়েছিল সিলেটেই। মিরপুরে দায় ছিল মান বাঁচানোর। বড় জয়ে সেটুকু করতে পেরেছে বাংলাদেশ। সিরিজ শেষ করতে পেরেছে সমতায়।
  • স্বস্তির জয়ে সমতায় বাংলাদেশ
    অপরাজিত সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের হয়ে লড়াই করলেন ব্রেন্ডন টেইলর। অন্যদের কাছ থেকে পেলেন না খুব একটা সহায়তা। দুই স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামের নৈপুণ্যে পঞ্চম ও শেষ দিন দুই সেশনে কাজ সেরে ফেলল বাংলাদেশ। ২১৮ রানের জয়ে সমতায় সিরিজ শেষ করল স্বাগতিকরা।
  • সেঞ্চুরির তাড়া নেই মিরাজের
    ক্রিজে অন্য প্রান্তে দাঁড়িয়ে দেখলেন মুশফিকুর রহিমের ডাবল সেঞ্চুরি, মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি। আপনার সেঞ্চুরি কবে হবে? শুনে একটুও সময় না নিয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ জানালেন, তিন অঙ্ক ছোঁয়ার তাড়া নেই তার। আগে টেস্টে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে ব্যাটিংয়ের কৌশল শিখে নিতে চান মুশফিক-মাহমুদউল্লাহদের কাছ থেকে।
  • খাওয়াজার বীরত্ব থেকে প্রেরণা নিচ্ছে জিম্বাবুয়ে
    পেস-স্পিন মিলিয়ে প্রতিপক্ষের বোলিং দুর্দান্ত। নিজেরা আবার স্পিনে দুর্বল, শেষ দিনে হাতে ৭ উইকেট। এমন প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও অস্ট্রেলিয়া কদিন আগে টেস্ট ড্র করেছে উসমান খাওয়াজার বীরোচিত ব্যাটিংয়ে। সেই ম্যাচ থেকেই মিরপুর টেস্ট বাঁচানোর অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন জিম্বাবুয়ে কোচ লালচাঁন রাজপুত।
  • যে কারণে জিম্বাবুয়েকে ফলো অন করায়নি বাংলাদেশ
    চতুর্থ দিন খেলা শুরুর মিনিট দশেক আগে বাংলাদেশ দল জানায়, জিম্বাবুয়েকে ফলো অন না করিয়ে তারাই ব্যাটিংয়ে নামবে। কখন এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল, পেছনে কী ভাবনা ছিল দিন শেষে জানা গেল মেহেদী হাসান মিরাজের কথায়। 
  • ‘জিততে হলে বোলারদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে’
    উইকেটে ক্রমশ বোলারদের জন্য সাহায্য বাড়ছে। তবে সেটি এখনও এমন পর্যায়ে পৌঁছায়নি যে, ভালো জায়গায় বোলিং করলে বাকিটা উইকেটই করে দেবে। কষ্ট করে নিতে হবে জিম্বাবুয়ের শেষ আট উইকেট। মেহেদী হাসান মিরাজ মনে করেন, পঞ্চম ও শেষ দিনে বোলারদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।
  • শেষ দিনের স্বস্তির অপেক্ষায় বাংলাদেশ
    এক দিনেই দেখা গেল অনেক রঙ। টেস্ট ক্রিকেট রোমাঞ্চ ছড়াল তার নানা রূপ দেখিয়ে। তবে দিন শেষে উজ্জ্বল বাংলাদেশই। শুরুতে ধুঁকতে থাকা দলকে বাঁচিয়ে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারেও নতুন দম দিলেন মাহমুদউল্লাহ। শেষ বেলায় জিম্বাবুয়ের প্রতিরোধ ভাঙল স্পিনাররা। জয়ের মঞ্চ তৈরি করল বাংলাদেশ। অপেক্ষা এখন শেষ দিনে সেই মঞ্চে পা রাখার।
  • অপেক্ষার রেকর্ড গড়ে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি
    আফতাব আহমেদ তখনও বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট খেলেন। নিউ জিল্যান্ডের অধিনায়ক ড্যানিয়েল ভেটোরি। সাকিব আল হাসান হননি টেস্টে এক নম্বর অলরাউন্ডার। তখনও বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পাননি শচীন টেন্ডুলকার, অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন রিকি পন্টিং। মাহমুদউল্লাহ প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি করেছিলেন তখন। দ্বিতীয়টির দেখা পেতে পেতে বদলে গেল ক্রিকেট দুনিয়ার অনেক কিছুই। হয়ে গেল অপেক্ষার রেকর্ড!
  • শেষ বেলায় কাজ এগিয়ে রাখল বাংলাদেশ
    ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি করলেন মোহাম্মদ মিঠুন। সাড়ে আট বছর পর টেস্টে সেঞ্চুরি পেলেন মাহমুদউল্লাহ। জিম্বাবুয়েকে ফলো অন না করিয়ে নড়বড়ে শুরুর পর সফরকারীদের তাই প্রায় অসম্ভব লক্ষ্য দিতে পেরেছে বাংলাদেশ। শুরুতে দুটি সুযোগ হাতছাড়া করা স্বাগতিকরা শেষ বেলায় দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে এগিয়ে রেখেছে কাজ।
  • ফলো অনের সিদ্ধান্তে কৌশলী বাংলাদেশ
    ফলো অন করানোর অভিজ্ঞতা নেই বাংলাদেশের। সেই অভিজ্ঞতা এবার হবে? প্রশ্নের জবাবে নিরুত্তর তাইজুল ইসলাম। মিরপুর টেস্টে জিম্বাবুয়েকে বাংলাদেশ ফলো অন করাবে কি না, এ নিয়ে যত প্রশ্ন করা হল, বাঁহাতি স্পিনার তার সব এড়িয়ে গেলেন নয়তো কৌশলী উত্তর দিলেন।   
  • তৃতীয় দিনে এত ভালো উইকেট দেখে অবাক জিম্বাবুয়ে
    মিরপুর টেস্টে প্রথম দুই দিনের উইকেটে বোলারদের জন্য বেশ সহায়তা ছিল। প্রথম সেশনে আর্দ্রতা ছিল, বাড়তি সুইং পেয়েছিলেন পেসাররা। স্পিনারদের কিছু বলে ছিল শার্প টার্ন। তৃতীয় দিনে এই সবই ছিল অনুপস্থিত। জিম্বাবুয়ের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পিটার মুর জানিয়েছেন, এদিন ব্যাটিং ছিল বিস্ময়করভাবে সহজ।
  • তাইজুল অবিশ্বাস্য বোলিং করেছে: টেইলর
    ব্রেন্ডন টেইলরের জন্য দিনটি বড় এক প্রাপ্তির। দেশের বাইরে টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়েছেন প্রথমবার। তবে প্রতিপক্ষের একজন পারফরম্যান্সে এমন আলো ছড়াচ্ছেন যে তাকে নিয়ে মুগ্ধতাও কম নেই। এই সিরিজে তাইজুল ইসলামের বোলিং পারফরম্যান্সের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন জিম্বাবুয়ের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।
  • সাকিবের অনুপস্থিতিতে বাড়তি দায়িত্ব তাইজুলের উপভোগ
    সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে টেস্টে বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণের নেতৃত্ব তাইজুল ইসলামের কাঁধে। সেই চাপে নুয়ে পড়েননি বাঁহাতি স্পিনার। সিরিজে এখন পর্যন্ত জিম্বাবুয়ের তিন ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বোলিং করেছেন তিনি, নিয়েছেন সবচেয়ে বেশি উইকেট। এই সাফল্য তাকে তৃপ্তি দিচ্ছে না। সাকিবের অনুপস্থিতিতে পাওয়া বাড়তি ঠিকঠাক পালনের দিকে তার মনোযোগ।
  • এক রেকর্ড ছুঁয়ে আরও রেকর্ডে চোখ তাইজুলের
    একটি রেকর্ড ছুঁয়েছেন। হাতছানি আছে আরও কয়েকটির। রেকর্ড ছুঁয়ে ভালো লাগা আছে তাইজুল ইসলামের। চোখ রাখছেন সামনের সম্ভাবনায়ও। পাশাপাশি এটিও জানিয়ে দিলেন, তার সবচেয়ে বড় তৃপ্তি দল ভালো অবস্থানে থাকায়।
  • শেষ বিকেলে ঘুরে দাঁড়াল বাংলাদেশ
    দিনের মাঝামাঝি জিম্বাবুয়ে ছিল ফলো ফনের শঙ্কায়। দিনের শেষে সত্যি হলো সেটিই। কিন্তু মাঝের সময়টায় গড়ল তারা দারুণ প্রতিরোধ। বাংলাদেশকে হতাশার আঁধারে ডুবিয়ে জিম্বাবুয়েকে আশার আলো দেখাল ব্রেন্ডন টেইলর ও পিটার মুরের ব্যাট। তবে শেষ বিকেলের মরে আসা আলোয় আবার উজ্জ্বল হলো বাংলাদেশের সম্ভাবনা।
  • তাইজুল-মিরাজের স্পিনে বাংলাদেশের বড় লিড
    উইকেটে বোলারদের জন্য ছিল না খুব একটা সাহায্য। বেশ কয়েকটি সহজ-কঠিন সুযোগ হাতছাড়া করে তাদের কাজটা কঠিন করে তুলেছিলেন ফিল্ডাররা। দায়িত্বশীল এক ইনিংসে বাধার প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ব্রেন্ডন টেইলর। দলের খুব প্রয়োজনের সময় নিজেদের মেলে করলেন তাইজুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজ। স্পিন ভেল্কিতে প্রথম ইনিংসে দলকে এনে দিলেন বড় লিড।
  • ‘মিরাজকে বলেছিলাম, আমার দুইশ পর্যন্ত থাক’
    ডাবল সেঞ্চুরির দিকে যখন এগিয়ে যাচ্ছিলেন মুশফিকুর রহিম, উইকেটে সঙ্গীকে দেখে তার মনে খেলে গেল শঙ্কার ঢেউ। এই মেহেদী হাসান মিরাজের কারণে একবার সেঞ্চুরি পাননি অল্পের জন্য! এবার তাই মিরাজকে বলে রেখেছিলেন, ডাবল সেঞ্চুরি হওয়া পর্যন্ত যেন অন্তত সে উইকেটে থাকে।
  • ৫৮৯ মিনিট ব্যাটিংয়ের পরও যে কারণে কিপিংয়ে মুশফিক
    রেকর্ডময় ইনিংসটি নিয়ে মুগ্ধতার রেশ তখনও শেষ হয়নি, মুশফিকুর রহিম চমকে দিলেন নতুন করে। প্রায় ১০ ঘণ্টা ব্যাটিং করার পর যখন বিশ্রামই ছিল অনুমিত, জিম্বাবুয়ে ইনিংসের শুরু থেকেই আবার নেমে গেলেন কিপিংয়ে! দিন শেষে মুশফিক জানালেন, দলকে সাহায্য করতেই দাঁড়িয়েছেন উইকেটের পেছনে।
  • জয়ে ‘পূর্ণতা পাবে’ মুশফিকের রেকর্ড
    কোন ইনিংসকে এগিয়ে রাখবেন মুশফিকুর রহিম? বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে গল টেস্টে করা ডাবল সেঞ্চুরি নাকি রেকর্ডের মালায় সাজানো মিরপুর টেস্টের ডাবল সেঞ্চুরিকে? কিপার ব্যাটসম্যান জানালেন, কোন সেঞ্চুরি কোথায় থাকবে, নির্ভর করবে ম্যাচের ফলের ওপর।
  • আড়াইশতে চোখ ছিল মুশফিকের
    আর ৮ রান হলে মিরপুরে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের রেকর্ড গড়তেন মুশফিকুর রহিম। অধিনায়ক ইনিংস ঘোষণা করায় ২১৯ রানে থামতে হয় এই কিপার ব্যাটসম্যানকে। মাহমুদউল্লাহর ইনিংস ঘোষণায় আপত্তির কিছু দেখেন না জানিয়ে মুশফিক জানান, সময় পেলে অন্তত আড়াইশ রান করার ইচ্ছে ছিল তার।
  • ট্রিপল সেঞ্চুরির বিশ্বাসও পাচ্ছেন মুশফিক
    বাংলাদেশের ক্রিকেটকে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছিল তার ব্যাট। একাধিক ডাবল সেঞ্চুরিও প্রথম এল ওই ব্যাটেই। প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরি কবে পাবে বাংলাদেশ? প্রত্যয়ী কণ্ঠে মুশফিকুর রহিম বললেন, এই ইতিহাস গড়ার বিশ্বাসও তার আছে।
  • মুশফিকের উদযাপন স্ত্রীর জন্য
    সেঞ্চুরির উদযাপন ছিল একটু খ্যাপাটে। ডাবল সেঞ্চুরির উদযাপনে বাঁধভাঙা উল্লাসের সঙ্গে মিশে থাকল রোমান্টিকতার ছোঁয়া। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে দুই দিনে দেখা গেল মুশফিকুর রহিমের দুই রকম উদযাপন। জানা গেল পেছনের গল্পও। প্রথম উদযাপনে ছিল অধরা কিছুকে পাওয়ার উচ্ছ্বাস। পরের উদযাপন আগে থেকেই ঠিক করে রাখা, তার স্ত্রীর জন্য।
  • মুশফিকের কীর্তিতে উদ্ভাসিত বাংলাদেশ
    রানের জন্য দীর্ঘ হাহাকারের পর যেন রানের জোয়ার। একের পর এক ম্যাচে দুইশর নিচে গুটিয়ে যাওয়ার পর একজনের ব্যাটেই দুইশ। সর্বনিম্ন দলীয় ইনিংসের মুখ লুকানোর দিনগুলির পর এল ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসের বিস্ময়। রেকর্ডে উদ্ভাসিত মুশফিকুর রহিম গড়লেন ইতিহাস। ব্যাটিং ব্যর্থতার আঁধার ফুঁড়ে হাসল বাংলাদেশ।
  • রেকর্ডের মালায় মুশফিকের ডাবল সেঞ্চুরি
    টেস্টে কিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে তার খেলা দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচিত ইস্যুগুলোর একটি। সেই ভূমিকাতেই মুশফিকুর রহিম গড়ে ফেললেন ইতিহাস। টেস্ট ইতিহাসের প্রথম কিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে করলেন একাধিক ডাবল সেঞ্চুরি। অসাধারণ ইনিংসে আরও দারুণ কিছু কীর্তি দিয়ে মুশফিক সাজালেন রেকর্ডের মালা।
  • মুশফিকের ইতিহাস গড়ার দিনে বাংলাদেশের রানের পাহাড়
    লড়াইয়ের জন্য চাওয়া ছিল চারশ রান। মুশফিকুর রহিমের রেকর্ডময় এক ইনিংসে বাংলাদেশ সেই রান ছাড়িয়ে গেল বহু দূর। দারুণ সঙ্গ দিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসে মিরপুর টেস্টে নিয়ন্ত্রণ আরও দৃঢ় হলো বাংলাদেশের। শেষ বেলায় হ্যামিল্টন মাসাকাদজার উইকেট তুলে নিয়ে কাজ এগিয়ে রাখলেন তাইজুল ইসলাম।
  • ব্যবধান গড়ে দিয়েছে মুমিনুল-মুশফিক: জার্ভিস
    মিরপুরের উইকেটে পেসারদের জন্য ছিল দারুণ সহায়তা। সেটা কাজে লাগিয়ে প্রথম সেশনে ৫/৬ উইকেট তুলে নেওয়ার আশায় ছিল সফরকারীরা। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ান মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম। কাইল জার্ভিস মনে করেন, প্রথম দিনে দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন এই দুই সেঞ্চুরিয়ান।
  • আবেগ ছুঁয়ে গিয়েছিল মুমিনুলকে
    এমনিতে মাঠের ভেতরে বাইরে আবেগের বশ হতে খুব বেশি দেখা যায় না মুমিনুলকে। মিরপুর টেস্টের প্রথম দিনে ফিফটির পর তো ব্যাটই তুললেন না। কিন্তু সেঞ্চুরির পর তার উপযাপন নজর কাড়ল বেশ। মুমিনুল জানালেন, আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন বলে বুঝে উঠতে পারছিলেন না কি করবেন।
  • তবু আক্ষেপে পুড়ছেন মুমিনুল
    সেঞ্চুরি করে একবার, দেড়শ ছুঁয়ে আরেকবার। এক ইনিংসে দুইবার ব্যাট উঁচিয়ে ধরতে পেরেছেন মুমিনুল হক। শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে দেশের হয়ে সবচেয়ে বড় ইনিংসের রেকর্ড গড়েছেন। বিপর্যয় থেকে উদ্ধার করে দলকে নিয়ে গেছেন নিরাপদ ঠিকানায়। ড্রেসিং রুমে ফেরার সময় পেয়েছেন মাঠের প্রায় সবার দাঁড়ানো সম্মান। এরপরও দিনশেষে আক্ষেপে পুড়ছেন মুমিনুল। দিনটি যে শেষ করতে পারেননি উইকেটে থেকে!
  • প্রথম ইনিংসে অন্তত চারশ রান চান মুমিনুল
    শুরুর কঠিন সময় পার করে দিয়ে তিনশ রানের স্বস্তিতে ঢাকা টেস্টের প্রথম দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। মুমিনুল হক মনে করেন, ম্যাচের যা পরিস্থিতি তাতে প্রথম ইনিংসে তাদের চারশ রান করতে না পারার কোনো কারণ নেই।
  • মুমিনুলের ক্যারিয়ারের ‘ইন্টারেস্টিং’ সেঞ্চুরি
    জিম্বাবুয়ের সঙ্গে করলেন দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে করেছেন তিনটি। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি। সবকটি যদিও দেশের মাটিতেই, এবারের সেঞ্চুরিটি তবু একটু আলাদা মুমিনুল হকের কাছে। উইকেট ছিল চ্যালেঞ্জিং, পরিস্থিতি কঠিন। নিজের কাছে মুমিনুলের এই সেঞ্চুরি বেশ ‘ইন্টারেস্টিং’।
  • ‘আমার সেঞ্চুরির অর্ধেক কৃতিত্ব মুশফিক ভাইয়ের’
    ক্রিজে আসার পর মুমিনুল হককে মুশফিকুর রহিমের প্রথম কথা ছিল, ‘বেঁচে থাক, এই উইকেটে এমন কঠিন সময়ে বেঁচে থাকাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’ সতীর্থের কথায় স্থির হয় বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের অস্থির চিন্তা। গড়ে তুলেন বড় জুটি, তুলে নেন সেঞ্চুরি। মুমিনুল মনে করেন, তার এই ইনিংসের অর্ধেক কৃতিত্ব মুশফিকের।
  • মুমিনুল-মুশফিকের রেকর্ড জুটিতে বাংলাদেশের দিন
    কুয়াশামাখা সকাল নিয়ে এসেছিল বিপদের বার্তা। উইকেটে ছিল আর্দ্রতা, জিম্বাবুয়ের পেসারদের বোলিংয়ে থাকল ঝাঁঝ, বাংলাদেশের টপ অর্ডার ব্যর্থ আবার। বাতাসে ভাসছিল শঙ্কার রেণু। কিন্তু সময়ের সঙ্গে দিনটি হয়ে উঠল রৌদ্রোজ্জ্বল, মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিং দীপ্তিতে দলের ইনিংসও হয়ে উঠল ঝলমলে। বারবার দুইশর নিচে গুটিয়ে যাওয়া দলের এক জুটিতেই এল দুইশর বেশি। অনেক দিন পর টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ পেল আনন্দময় দিন।
  • সেঞ্চুরিতে মুমিনুলের ফেরা
    শন উইলিয়ামসকে কাট করে বাউন্ডারি, মুমিনুল হক ছুঁলেন ফিফটি। আরেক প্রান্ত থেকে ব্যাট তুলে তালি দিয়ে উৎসাহ জোগালেন মুশফিকুর রহিম। মুমিনুলের ভাবান্তর নেই। গত কিছুদিনের যা অবস্থা, তাতে ফিফটিও উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। কিন্তু একটু ব্যাট তোলা বা ন্যূনতম উদযাপনও দেখা গেল না। মুমিনুলের দৃষ্টি ছিল বড় কিছুতে। সেই লক্ষ্য পূরণ করে তবেই করলেন উদযাপন। সেঞ্চুরি!
  • অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডে ইমরুল
    কাইল জার্ভিসের দারুণ ডেলিভারিতে রেজিস চাকাভার দুর্দান্ত ক্যাচ। টেস্ট ক্যারিয়ারে শূন্য রানে আউট হওয়ার স্বাদ ইমরুল কায়েস পেলেন চতুর্থবার। কিন্তু এই শূন্য তাকে এনে দিল এমন এক রেকর্ড, যেটি তিনি চাননি।
  • টেস্ট অভিষেকে মিঠুনের রেকর্ড
    ২০০৬ সালের নভেম্বরে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক। অনেক পথ পেরিয়ে মোহাম্মদ মিঠুন টেস্ট ক্রিকেটে পা রাখলেন আরেক নভেম্বরে। মাঝে পার হয়ে গেছে এক যুগ। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খেলেছেন ৮৮ ম্যাচ। টেস্ট ক্যাপ পেয়েই গড়ে ফেললেন একটি রেকর্ড।
  • তিনশ রানের স্বস্তিতে দিন শেষ বাংলাদেশের
    প্রথম ঘণ্টায় তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে রেকর্ড গড়া জুটিতে পথ দেখালেন মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম। ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি করে ফিরে গেছেন মুমিনুল। ষষ্ঠ সেঞ্চুরিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথে রেখেছেন মুশফিকুর রহিম। দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনশ রানের স্বস্তিতে প্রথম দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ।
  • মিরপুরের উইকেট নিয়ে ধন্দে মাহমুদউল্লাহ-মাসাকাদজা
    দেশের মূল ক্রিকেট ভেন্যু মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেট এখনও বুঝে উঠতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ। দ্বিতীয় টেস্টের উইকেট কেমন আচরণ করবে তা নিয়ে সংশয়ে হ্যামিল্টন মাসাকাদজাও। জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক মনে করেন, কখনও কখনও গ্রাউন্ডসম্যানরাও মিরপুরের উইকেট বুঝে উঠতে পারেন না।
  • ‘১২০ ভাগ’ দিয়ে ফিরে আসার প্রত্যয় বাংলাদেশের
    সিলেট টেস্ট শেষের সেই মিইয়ে যাওয়া চেহারাটা নেই। মিরপুর টেস্ট শুরুর আগের দিন অনুশীলনে মাহমুদউল্লাহকে দেখা গেল দারুণ চনমনে। আগের চেয়ে তুলনামূলক প্রাণবন্ত উপস্থিতি সংবাদ সম্মেলনেও। কণ্ঠে ও আচরণে ইতিবাচকতার বার্তা নিয়ে বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত টেস্ট অধিনায়ক জানালেন, নিজেদের শতভাগের চেয়ে বেশি উজার করে দিয়ে মিরপুর টেস্টে ঘুরে দাঁড়বে দল।
  • ‘পাঁচ-ছয়ই হয়তো মুশফিকের সেরা পজিশন’
    সিলেট টেস্ট শেষে মাহমুদউল্লাহ বলেছিলেন, “মুশফিকের সঙ্গে কথা বলতে হবে।” সেই কথা হয়েছে। তবে বাস্তবতা খুব একটা বদলাচ্ছে না। মাহমুদউল্লাহ নিজে, মুশফিক, টিম ম্যানেজমেন্ট, সবার ভাবনার ফলাফল বলছে, টেস্ট ব্যাটিং অর্ডারে খুব ওপরে ওঠা হচ্ছে না মুশফিকুর রহিমের।
  • টেস্ট ব্যাটিংয়ে শৃঙ্খলার অভাব দেখছেন অধিনায়ক
    টানা আট ইনিংসে দুইশ ছুঁতে ব্যর্থ বাংলাদেশ। এর মধ্যে দেড়শ রানে যেতে পেরেছে মাত্র দুইবার। একবার গুটিয়ে গেছে পঞ্চাশের নিচে। মাহমুদউল্লাহ মনে করেন, শৃঙ্খলার অভাবে ব্যাটিংয়ে এই হতশ্রী দশা।
  • মাহমুদউল্লাহর ‘টেস্ট’
    বাংলাদেশ দলের জন্য মিরপুর টেস্ট কঠিন এক চ্যালেঞ্জ। জয় তো বটেই, নিজেদের সামর্থ্যের বার্তা দিতে প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেওয়া জয় জরুরি। তবে এই টেস্ট আরও কঠিন পরীক্ষা মাহমুদউল্লাহর জন্য। ফেরার লড়াইয়ে দলকে নেতৃত্ব দেওয়াই শুধু নয়, টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে তার ভবিষ্যত পথরেখা নির্ধারণেও বড় ভূমিকা রাখতে পারে এই টেস্টের পারফরম্যান্স।
  • ১৮ হলেও টেস্টে ‘প্রাপ্তবয়স্ক’ নয় বাংলাদেশ
    ১৮ বছর হয়ে গেলেও টেস্ট ক্রিকেটের ছন্দটা বুঝে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ মনে করেন, তাই এই সংস্করণে এখনও ফলের দিক থেকে প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে উঠতে পারেনি তাদের দল।
  • বাংলাদেশ জিততে মরিয়া, জানে জিম্বাবুয়ে
    ওয়ানডে সিরিজের পরের চিত্র পাল্টে গেছে প্রথম টেস্টের পর। রঙিন পোশাকে উড়ে যাওয়া জিম্বাবুয়ে সেই হতাশা দূরে ঠেলে সাদা পোশাকে পেয়েছে অভাবনীয় এক জয়। আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে অনেকটাই। দ্বিতীয় টেস্টে বাংলাদেশ যে কোনোভাবে জিততে চাইবে, জানে জিম্বাবুয়ে। তবে দলের ব্যাটসম্যান পিটার মুর জানাচ্ছেন, টেস্ট জয়ের আনন্দকে রূপ দিতে চান তারা সিরিজ জয়ের আনন্দে।
  • অভিষেক টেস্ট ভুলে যেতে চান আরিফুল
    টেস্টের যা ফল, তাতে ম্যাচটি ভুলে যাওয়ার মতোই। কিন্তু আরিফুল হকের তো এটি ছিল অভিষেক টেস্ট। ব্যাটিংয়ে দলের সেরা পারফরমারও ছিলেন তিনিই। এই টেস্ট তার মনে আলাদা জায়গা নিয়েই থাকার কথা। আরিফুল তবুও ভুলে যেতে চান অভিষেক টেস্ট। প্রথম টেস্টের পারফরম্যান্সে স্বস্তি কিছুটা থাকলেও স্বপ্ন তার অনেক বড়। শুরুর স্বস্তিকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যেতে চান স্বপ্ন ছোঁয়ার পথে।
  • মিরপুরে ঘুরে দাঁড়াবে বাংলাদেশ, নিশ্চিত তামিম
    মাঠের বাইরে থেকে দলের হার দেখা একটু বেশিই কঠিন। কিছু করতে না পারার অসহায়ত্ব কাজ করে। সঙ্গ দিতে না পারার অপরাধবোধ কাজ করে। তামিম ইকবালের সেই অভিজ্ঞতা হলো সিলেট টেস্টের সময়। তবে চোট নিয়ে দলের বাইরে থাকা ব্যাটসম্যানের নিশ্চিত বিশ্বাস, মিরপুর টেস্টে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াবে বাংলাদেশ দল।
  • ‘সেমি ব্যাটিংয়ে’ ফিরেছেন তামিম
    সিলেট টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে যখন ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ, নির্বাচকদের তখনই মনে পড়েছে তামিম ইকবালের কথা। খোঁজখবর নিয়েছেন তার। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট থেকে ফিরে জাতীয় দলের ফিজিও বিমানবন্দর থেকে সরাসরি চলে এসেছেন মিরপুর একাডেমি মাঠে, নেটে তামিমের ব্যাটিং দেখতে। তবে তামিম নিজের ভাবনায় অবিচল। হালকা নেট শুরু করেছেন কেবল, তার নিজের ভাষায় যেটি ‘সেমি ব্যাটিং’। আপাতত লক্ষ্য, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের প্রথম টেস্টের আগে পুরো ফিট হয়ে ওঠা।
  • ব্যাটসম্যানদের পাশে রোডস
    দলের টানা ব্যাটিং ব্যর্থতার দায় একক কারও উপর চাপাতে চান না স্টিভ রোডস। বাংলাদেশের প্রধান কোচ জানিয়েছেন, দলে যারা আছেন তাদের ভুল সংশোধন করে সামনের দিকে এগোনো তার লক্ষ্য।