• নেতৃত্বের জ্বালা বুঝছেন মুমিনুল
    বিদেশের মাঠে হোয়াইটওয়াশড হওয়ার অভিজ্ঞতা ছিল। এবার দেশের মাটিতেও সেই তেতো স্বাদ পেয়ে গেলেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। তার কাজ আরও কঠিন করে তুলেছে পারিপার্শ্বিকতা। সব মিলিয়ে মুমিনুলের উপলব্ধি, অধিনায়কত্ব খুবই চ্যালেঞ্জিং।
  • ব্যাটিং ধসের কারণ জানেন না অধিনায়ক
    লক্ষ্য নাগালের বাইরে ছিল না। উইকেটও খুব কঠিন নয়। বিধ্বংসী ছিল না প্রতিপক্ষের বোলিংও। সবই মানছেন মুমিনুল হক। তারপরও বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে ধস। ব্যাটসম্যানরা পারলেন না ইনিংস বড় করতে। কারণ তাহলে কি? জানা নেই বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়কের।
  • সাকিবের বদলি মাহমুদউল্লাহকে চেয়েছিলেন বিসিবি প্রধান
    সাকিব আল হাসানের সম্ভাব্য বদলি হিসেবে নাজমুল হাসানের প্রথম পছন্দ ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কিন্তু তাকে নেননি নির্বাচকরা। সৌম্য সরকারকে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য বেছে নেন তারা। এই প্রসঙ্গ ধরে বিসিবি প্রধান বললেন, দল নির্বাচনের ব্যাপার-স্যাপার বুঝে উঠতে পারছেন না তিনি।
  • এভাবে চলতে দেওয়া যায় না, বিসিবি প্রধানের হুঁশিয়ারি
    বঙ্গবন্ধু টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের খেলায় ক্ষুব্ধ বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান। খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশড হওয়াটা একেবারেই মানতে পারছেন না তিনি। পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বললেন, এভাবে চলতে দেওয়া হবে না।
  • ২০ বছরে উন্নতিই হয়নি: মুমিনুল
    টেস্টে বাংলাদেশ ক্রিকেটের কঙ্কাল বেরিয়ে এলো আরেকবার। খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হোয়াইটওয়াশড হওয়ার পর হাহাকার শোনা গেল মুমিনুল হকের কণ্ঠে। বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক স্বীকার করছেন, ২০ বছরে বাংলাদেশের তেমন কোনো উন্নতি তিনি দেখেন না।
  • কর্নওয়ালের স্পিনে ‘হোয়াইটওয়াশড’ বাংলাদেশ
    শেষ বিকেলের মরে আসা আলোয় বাংলাদেশের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। একাই দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর জয়ের মধ্যে। কিন্তু জয়ের নায়ক নন, দারুণ খেলেও শেষ পর্যন্ত তিনি হয়ে রইলেন ট্র্যাজেডির নায়ক। মিরাজকে ফিরিয়েই অসাধারণ এক জয়ের উল্লাসে মেতে উঠল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ঘরের মাঠে হোয়াইটওয়াশড হলো বাংলাদেশ।
  • ফিফটির পর তামিমের বিদায়, বিপাকে বাংলাদেশ
    দারুণ সব স্ট্রোকের ছটা, বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান। দলের পঞ্চাশ, তামিম ইকবালের ফিফটি দারুণ গতিময়তায়। এরপরই সব গড়বড়। দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে বাংলাদেশ।
  • ১১৭ রানে শেষ উইন্ডিজ, বাংলাদেশের লক্ষ্য ২৩১
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিরোধ বালির বাঁধের মতো গুঁড়িয়ে গেল লাঞ্চের পর। হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল ইনিংস। লাঞ্চের পর ২৩ মিনিটের মধ্যে ৪ উইকেট নিয়ে লক্ষ্য আড়াইশর নিচে রাখল বাংলাদেশ।
  • দুইশ ছাড়িয়ে উইন্ডিজের লিড
    আগের দিন বলই হাতে পাননি আবু জায়েদ। নতুন দিন সকালে ধীরগতির উইকেটেও এই পেসার বাংলাদেশকে এনে দিলেন দুটি উইকেট। কিন্তু দল তাকিয়ে ছিল যাদের দিকে, সেই স্পিনাররা প্রথম সেশনে পারলেন না একটির বেশি উইকেট নিতে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের লিড তাই পেরিয়ে গেল দুইশ।
  • রেকর্ডের অনুপ্রেরণায় এগিয়ে যেতে চান মিরাজ
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে যেন দুই হাত ভরে পাচ্ছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন প্রথম টেস্টে। পরের টেস্টে গড়েছেন দেশের হয়ে লাল বলে দ্রুততম একশ উইকেটের রেকর্ড। এই রেকর্ডের অনুপ্রেরণায় সাফল্যের পথে এগিয়ে যেতে চান মিরাজ। ক্যারিয়ারকে নিয়ে যেতে চান অনেক দূর।
  • প্রথম ঘণ্টায় চোখ উইন্ডিজের
    তৃতীয় দিন শেষ বেলায় দ্রুত ৩ উইকেট হারালেও ম্যাচে এখনও নিজেদেরকেই চালকের আসনে দেখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের রাকিম কর্নওয়াল। ভালো করেই জানেন, পরদিন সকালে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারালে উল্টে যেতে পারে চিত্রটা। তাই শুরুতে সাবধানী ব্যাটিং চাইলেন এই অফ স্পিনার।
  • উইন্ডিজ থেকেই উইন্ডিজকে হারানোর প্রেরণা মিরাজের
    দ্বিতীয় ইনিংসে দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়লেও বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দেওয়ার পথেই আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উইকেটে স্পিনারদের জন্য টার্ন মিলতে শুরু করায় তিনশ রানের আশেপাশের যে কোনো লক্ষ্যই ছোঁয়া কঠিন হবে বলে মনে করছেন মেহেদী হাসান। একই সঙ্গে চট্টগ্রাম টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় আশাও দেখাচ্ছে তাকে।
  • ধৈর্যের পরীক্ষায় জিতে সফল কর্নওয়াল
    উইকেটে খুব একটা সহায়তা নেই। অধিনায়ক ফিল্ডিং দিয়েছেন ছড়িয়ে-ছিটিয়ে। দুই ব্যাটসম্যান সাবলীল ব্যাটিংয়ে এগিয়ে নিচ্ছেন দলকে। মাথা ব্যথার কারণ হয়ে ওঠা জুটি ভাঙলেন রাকিম কর্নওয়াল। পাঁচ উইকেট নিয়ে দলকে শতরানের লিড এনে দেওয়ার পর বললেন, ধৈর্যের পরীক্ষায় জিতে এসেছে এই সাফল্য।
  • বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ালেও উইন্ডিজই এগিয়ে
    তৃতীয় দিনের শেষ বেলায় দ্রুত টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দিলেও ঢাকা টেস্টে পিছিয়েই বাংলাদেশ। শতরানের লিডের উপর দাঁড়িয়ে বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য দিতে লড়াই করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • বাংলাদেশের ১০ জনই ক্যাচ আউট
    সম্ভাবনা আগেও তৈরি হয়েছিল অনেকবার। কিন্তু কেউ না কেউ অন্যভাবে আউট হয়েছিলেন। এবার আর তা হলো না, প্রথমবার কোনো ইনিংস বাংলাদেশের সব ব্যাটসম্যান আউট হলেন ক্যাচ দিয়ে।
  • রেকর্ড গড়ে মিরাজের ১০০ উইকেট
    অপেক্ষা ছিল চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিন থেকে। সেদিন হয়নি, হয়নি সেই টেস্টের হতাশার শেষ দিনেও। মিরপুরে এসেও কেটে গেল দুই দিন। অবশেষে তৃতীয় দিন শেষ সেশনে শেষ হলো মেহেদী হাসান মিরাজের প্রতীক্ষা। রেকর্ড গড়ে এই অফ স্পিনার পা রাখলেন ১০০ উইকেটে।
  • তিনশর নিচে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ
    লিটন দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজ দারুণ একটি সেশন কাটানোর পর রাকিম কর্নওয়ালের স্পিনে ধস নামল বাংলাদেশের ইনিংসে। স্বাগতিকদের তিনশ রানের নিচে থামিয়ে শতরানের লিড পেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। 
  • লিটন-মিরাজের ব্যাটে বাংলাদেশের দারুণ সেশন
    মোহাম্মদ মিঠুন ও মুশফিকুর রহিমের দুটি উইকেট উপহারের ফলে অনেক শঙ্কায় পড়ে যাওয়া বাংলাদেশকে টানছেন লিটন দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজ। ফিফটি তুলে নেওয়া দুই ব্যাটসম্যান শতরানের জুটিতে এড়িয়েছেন ফলো অন। দলকে উপহার দিয়েছেন প্রথম উইকেটশূন্য সেশন।  
  • মুশফিকের আত্মহত্যা, মিঠুনের উপহার
    উইকেট ছুঁড়ে আসার কত ঘটনাই তো দেখা যায় ক্রিকেটে। কিন্তু মুশফিকুর রহিম যা করলেন, এমন কিছুর নমুনা বিরল। ব্যাখ্যা পাওয়াও কঠিন। দল লড়ছে ফলো অন এড়াতে, নিজে ফিফটি পেরিয়ে খেলছেন স্বচ্ছন্দে। এমন সময়ে কিনা আত্মঘাতী রিভার্স সুইপ!
  • সেঞ্চুরির সুযোগ আসবে ভেবে আক্ষেপ ভুলছেন জোসেফ
    এনক্রুমা বনার ফিরে যাওয়ার সময়ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তিনশ রানের নিচে থামানোর সম্ভাবনা টিকে ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু স্বাগতিকদের হতাশ করে জশুয়া দা সিলভার সঙ্গে শতরানের জুটিতে দলকে চারশ রানের সংগ্রহ এনে দেন আলজারি জোসেফ। দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেওয়ার আনন্দের পাশাপাশি আছে সম্ভাবনা জাগিয়েও তিন অঙ্ক ছুঁতে না পারার হতাশা। তবে, পরে আরও সুযোগ আসবে ভেবে আক্ষেপ ভুলছেন এই লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান।
  • ‘বলটি যদি ফিরে পেতাম’, জশুয়ার আক্ষেপ
    হাতছানি দিচ্ছিল প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি। দূরত্ব তখন কেবল দুটি বাউন্ডারির। কিন্তু এই পথটুকুই আর পেরোতে পারেননি জশুয়া দা সিলভা। এত কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি না পাওয়ায় হতাশা প্রকাশের ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিপার-ব্যাটসম্যান। তার কেবলই মনে হচ্ছে, আউট হওয়ার বলটি যদি আবার ফিরে পেতেন!
  • ‘টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দিতে মুমিনুলের চেয়ে ভালো কেউ নেই’
    চট্টগ্রাম টেস্টে হারের পর বাংলাদেশের বোলিংয়ের সঙ্গে মুমিনুল হকের অধিনায়কত্ব নিয়েও চলছে সমালোচনা। তবে এখনই তার নেতৃত্ব নিয়ে অধৈর্য হওয়ার কিছু দেখছেন না তামিম ইকবাল। বাঁহাতি এই ওপেনারের চোখে, টেস্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে মুমিনুলই সবচেয়ে যোগ্য। সময়ের সঙ্গে তিনি হয়ে উঠবেন আরও পরিণত।
  • ‘দ্যাট ওয়াজ নট অন’
    চোখধাঁধানো কয়েকটি শট। চাপ প্রতিপক্ষের ওপর ফিরিয়ে দেওয়া। তামিম ইকবাল ছুটছিলেন দারুণ গতিতে। কিন্তু এক মুহূর্তের খামখেয়ালিতে সেই অভিযানের সমাপ্তি। তাতে বিপদে দলও। দিন শেষে অভিজ্ঞ এই ওপেনারের উপলব্ধি, তার শটটি ঠিক ছিল না।
  • পুরোটাই বাংলাদেশের ভুল নয়, উইন্ডিজেরও কৃতিত্ব আছে: তামিম
    দ্বিতীয় দিনে নিজেদের লক্ষ্য পূরণ করে ঢাকা টেস্টে চালকের আসনে বসে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের আপাত লড়াই ফলো অন এড়ানোর-কেন এমন হলো, এর একটা জবাব মিলল তামিম ইকবালের কাছে। বাঁহাতি এই ওপেনার স্বীকার করে নিলেন নিজেদের ব্যর্থতা। একই সঙ্গে কৃতিত্ব দিলেন ক্যারিবিয়ানদেরও।
  • ‘চার উইকেটই পড়েছে ব্যাটসম্যানের ভুলে’
    কেউ আউট ওয়ানডে ঘরানার শটে, কেউ অপ্রয়োজনীয় শট খেলে। পরিণতি সবার একই, প্রতিপক্ষের জন্য উপহার নিজের উইকেট। তাতে বিপর্যস্ত দল। মিরপুর টেস্টে বাংলাদেশের টপ অর্ডারের যে দুরাবস্থা, সেটির দায় নিজেদের কাঁধেই নিচ্ছেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল।
  • জোসেফ ৮২, বাংলাদেশের প্রথম চার ব্যাটসম্যান ৬৯
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৮ নম্বর ব্যাটসম্যান আলজারি জোসেফের রান ৮২। সেই জোসেফ যখন নিজের আসল কাজেও সফল হলেন, বল হাতে ফেরালেন তামিম ইকবালকে, বাংলাদেশের প্রথম চার ব্যাটসম্যানের সম্মিলিত রান তখন ৬৯! টপ অর্ডারের করুণ চিত্র ফুটে উঠছে এতেই।
  • আবু জায়েদ-তাইজুলের জোড়া ৪, উইন্ডিজ ৪০৯
    দারুণ একটি জুটির পর লেজের গুটিয়ে যাওয়া। হতাশার দীর্ঘ প্রহরের পর স্বস্তির কিছুটা সময়। প্রথম ইনিংসের শেষ ভাগ দুই দলের জন্য হলো দুই রকম। জশুয়া দা সিলভা ও আলজারি জোসেফের জুটি ভাঙার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস ভেঙে পড়ল হুড়মুড়িয়ে। জুটি ভাঙতে নাকাল বাংলাদেশ শেষ ৪ উইকেট নিতে পারল দ্রুত।
  • প্রথম সেশনে এলোমেলো বাংলাদেশ
    নতুন দিনেও পুরোনো দিনের ছায়া। প্রথম দিনটি যেমন বাজে বোলিংয়ে শুরু করেছিল বাংলাদেশ, দ্বিতীয় দিনের শুরুর চিত্রও একইরকম। ধারহীন ও এলোমেলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান বাড়ল অনায়াসেই। সঙ্গে বাড়ল বাংলাদেশের হতাশা।
  • যেভাবে নিজেকে অনুপ্রাণিত করেন আবু জায়েদ
    নিজের ঘাটতিগুলো খুব ভালো করে জানেন। শক্তির জায়গাগুলোও বোঝেন। কি করা যাবে আর যাবে না, এ নিয়ে তার খুব ভালো ধারণা। ফিটনেস আরও ভালো করার চেষ্টা আছে। আছে আরও উন্নতির। এই সব মিলিয়েই আবু জায়েদ চৌধুরি হয়ে উঠেছেন টেস্টে বাংলাদেশের পেস আক্রমণের সেরা অস্ত্র।
  • ৩৫০ রানে চোখ উইন্ডিজের
    মিরপুরের উইকেটে প্রথম ইনিংসে সাড়ে তিনশ ছাড়ানো রানকে ভালো সংগ্রহ মনে করছেন এনক্রুমা বনার। জশুয়া দা সিলভা ও লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দলকে ততদূর নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।
  • ঢাকায় প্রত্যাশিত উইকেট পায়নি বাংলাদেশ
    সিরিজ বাঁচানোর টেস্টে যেমন উইকেট চেয়েছিল তেমন না পাওয়ার কথা বললেন আবু জায়েদ চৌধুরি। এই পেসারের ধারণা, মিরপুরে স্পিনারদের প্রত্যাশিত টার্ন পেতে আরও অপেক্ষা করতে হবে।
  • উইন্ডিজকে তিনশর নিচে থামাতে চায় বাংলাদেশ
    টস জিতেও প্রথম দিন ওয়েস্ট ইন্ডিজ খুব বেশি রান করতে না পারায় খুশি আবু জায়েদ চৌধুরি। ঢাকা টেস্ট শুরুর দিনে দলের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট বাংলাদেশের এই পেসার। জানালেন, ক্যারিবিয়ানদের তিনশ রানের নিচে গুটিয়ে দেওয়ার আশাবাদ।
  • বোলিংয়ে পুরো সন্তুষ্ট নন বাংলাদেশের বোলিং কোচ
    চট্টগ্রামে শেষ দিনের হতাশার পর টিম মিটিংয়ে কথার ঝড়। নতুন অনেক পরিকল্পনা। নতুন আশা। সবকিছুর পর মিরপুরে বাংলাদেশের বোলিংয়ে উন্নতির ছাপ মিলেছে বটে। তবে বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের মতে, এখনও উন্নতির অনেক বাকি আছে বোলারদের।
  • উইকেট দেখেই চট্টগ্রামে মুস্তাফিজ, মিরপুরে আবু জায়েদ
    বাংলাদেশের একাদশ নিয়ে ধাঁধা থাকে যেন সবসময়ই। চলতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজও ব্যতিক্রম নয়। একাদশে এক পেসার খেলানো নিয়ে জোর আলোচনা তো চলছেই। সেই একমাত্র পেসার বাছাই নিয়েও জেগেছে নানা প্রশ্ন। মিরপুর টেস্টের প্রথম দিন শেষে উত্তর পাওয়া গেল বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের কাছ থেকে।
  • দুই পেসার খেলানোর সাহস দেখাতে হবে, বলছেন বোলিং কোচ
    স্পিনারে ঠাসা বোলিং আক্রমণ। কিন্তু মিরপুর টেস্টের প্রথম দিনে উজ্জ্বল বাংলাদেশের পেস আক্রমণ। স্পিন বোলিংয়ে ৬৪ ওভারে এসেছে ২ উইকেট। পেস বোলিংয়ে প্রাপ্তি ২৬ ওভারে ৩ উইকেট। প্রথম দিনের অভিজ্ঞতা থেকে বাংলাদেশের বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের অভিমত, দেশের মাঠেও কখনও কখনও একাধিক পেসার খেলানোর সাহস দলকে দেখাতে হবে।
  • আবু জায়েদের ছোবল সামলে বনারের লড়াই
    স্পিনারদের ভালোভাবেই সামাল দিলেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা। তাদের পরীক্ষা নিলেন আবু জায়েদ চৌধুরি। বাংলাদেশের এই পেসারের ছোবল সামলে ঢাকা টেস্টে দলকে তিনশ ছাড়ানো সংগ্রহ এনে দিতে লড়ছেন এনক্রুমা বনার।
  • যে কারণে সুযোগ পেলেন না সাইফ
    প্রাথমিক দলেও না থাকা সৌম্য সরকার বদলি হিসেবে স্কোয়াডে এসে একাদশেও ঢুকে গেলেন। কিন্তু শুরু থেকেই যিনি স্কোয়াডে আছেন ওপেনার হিসেবে, সেই সাইফ হাসান চট্টগ্রামের পর মিরপুর টেস্টেও হয়ে রইলেন দর্শক। তার প্রতি কি সুবিচার হলো? প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন বলছেন, প্রস্তুতি ম্যাচে আর নেটে টিম ম্যানেজমেন্টের মন ভরাতে পারেননি সাইফ।
  • হতাশার প্রথম সেশনে কেবল ১ উইকেট
    প্রথম ঘণ্টার এলোমেলো বোলিংয়ের পর দ্বিতীয় ঘণ্টায় একটু ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছে বাংলাদেশ। ভাঙতে পেরেছে ক্যারিবিয়ানদের জমে যাওয়া উদ্বোধনী জুটি। তবে ওপেনারদের দৃঢ়তায় ঢাকা টেস্টে ভালো শুরু পেয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • ৩ পরিবর্তন নিয়ে বোলিংয়ে বাংলাদেশ
    দ্বিতীয় টেস্টে টস ভাগ্যকে পাশে পেলেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। অনুমিতভাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক নিলেন ব্যাটিং।
  • ঢাকা টেস্টে অগ্নিপরীক্ষার সামনে বাংলাদেশ
    দেশের মাটিতে স্পিন সহায়ক উইকেট বানিয়ে টেস্ট জেতার পরিকল্পনায় বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে বাংলাদেশ। লম্বা সময়ের ব্যবধানে হলেও চট্টগ্রামে হারের স্বাদ পেয়েছে টানা দুই টেস্টে। লাল বলের ক্রিকেটে পায়ের নিচে মাটির সন্ধানে থাকা দলটি এক অগ্নিপরীক্ষার সামনে দাঁড়িয়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ বাঁচাতে জয়ের বিকল্প নেই। আর যদি সঙ্গী হয় আরেকটি পরাজয়, তাহলে নিশ্চিতভাবেই বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেট নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে স্বাগতিকদের।
  • মিরপুর টেস্টে নেই সাদমান
    সাকিব আল হাসানকে চোটের কারণে হারানোর পর দ্বিতীয় টেস্টের আগে বাংলাদেশের জন্য আরেকটি বড় ধাক্কা। এবার নিতম্বের চোটে মিরপুর টেস্ট থেকে ছিটকে গেলেন ওপেনার সাদমান ইসলামও।
  • ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় মুশফিকের
    চার দিন ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে রেখেও চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ হেরে গেছে শেষ দিনের ব্যর্থতায়। ব্যক্তিগতভাবে মুশফিকুর রহিমের জন্যও ভালো কাটেনি টেস্ট। দুই ইনিংসেই আউট হয়েছেন উইকেটে থিতু হয়েও। তবে সব হতাশা পেছনে ফেলে তারা ঘুরে দাঁড়াতে প্রস্তুত, বলছেন দেশের সফলতম টেস্ট ব্যাটসম্যান।
  • বনারের আদর্শ পুজারা
    ম্যাচের যেকোনো পরিস্থিতিতেই বরফ শীতল চেতেশ্বর পুজারা। দৃঢ় মানসিকতায় উইকেট আঁকড়ে পড়ে থাকাই এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের সহজাত ধরন। বাংলাদেশের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে এনক্রুমা বনারও দেখান এমন ঘরানার ব্যাটিং। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই অলরাউন্ডার জানালেন, পুজারাকে আদর্শ মেনেই খেলেছেন ধৈর্যশীল ইনিংস। 
  • ঢাকায় আরও বড় চ্যালেঞ্জের দিকে তাকিয়ে উইন্ডিজ
    তিন বছরের বেশি সময় পর দেশের বাইরে টেস্ট সিরিজ জয়ের সুযোগ কাজে লাগাতে উন্মুখ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চট্টগ্রামে দলের অবিশ্বাস্য জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা এনক্রুমা বনার জানেন, কাজটা সহজ হবে না। ঢাকায় আরও কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে বলে মনে করেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।
  • উইন্ডিজ এতো ভালো ব্যাটিং করবে ভাবেনি বাংলাদেশ
    টেস্টের শেষ দিনে ৭ উইকেটে ২৮৫ রানের সমীকরণ ক্যারিবিয়ানরা মিলিয়ে ফেলবে, কল্পনাতেও ছিল না মেহেদী হাসান মিরাজের। তার কল্পনাতীত কাজটিই করে দেখায় প্রতিপক্ষ। কাইল মেয়ার্সের রেকর্ড গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে রূপকথার এক জয় পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সফরকারীরা এতো ভালো ব্যাটিং করে ফেলবে, একবারের জন্যও ভাবেনি বাংলাদেশ দল।
  • সাদমানকে নিয়ে শঙ্কা, টেস্ট দলে সৌম্য
    চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়া সাকিব আল হাসানের বদলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টের বাংলাদেশ দলে নেওয়া হয়েছে সৌম্য সরকারকে। স্পিনিং অলরাউন্ডারের জায়গায় ব্যাটসম্যান দলে নেওয়ার কারণ, শঙ্কা আছে সাদমান ইসলামকে পাওয়া নিয়েও।
  • সাকিব ভাই থাকলে ভালো হতো: মিরাজ
    সাকিব আল হাসানকে নিয়ে চট্টগ্রামে শুরু হওয়া হাহাকার বয়ে এলো ঢাকায়ও। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে সাকিবকে পাওয়া যায়নি তিন দিন। তার অভাব তীব্রভাবে অনুভব করেছে দল। মিরপুর টেস্টে তো তাকে পাওয়া যাবে না শুরু থেকেই। অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের তাই অকপট স্বীকারোক্তি, এই টেস্টেও সাকিবকে মনে পড়বে দলের।
  • বাংলাদেশকে ৩০০ রানে আটকানোর পরিকল্পনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ
    চট্টগ্রাম টেস্টে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাড়া করতে হয়েছিল প্রায় চারশ রান। এতো বড় লক্ষ্যের পেছনে মূল ভূমিকা রেখেছিল প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৪৩০ রান। বোলিং বিভাগে উন্নতি করে ঢাকা টেস্টে প্রতিপক্ষকে ৩০০ রানে বেঁধে রাখার পরিকল্পনা ক্যারিবিয়ান কোচ ফিল সিমন্সের।
  • সাকিবের অনুপস্থিতিতে সুবিধা দেখছেন না সিমন্স
    প্রতিপক্ষের জন্য যা বড় ধাক্কা, নিজেদের জন্য তা সুবিধাই হওয়ার কথা। ফিল সিমন্স অবশ্য তেমনটা ভাবছেন না। ঊরুর চোটে দ্বিতীয় টেস্টে সাকিব আল হাসান না থাকায় নিজেদের সুবিধা দেখছেন না ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রধান কোচ।
  • ছিটকে গেলেন সাকিব
    প্রায় পুরো ম্যাচ চালকের আসনে থেকেও চট্টগ্রাম টেস্টে হেরে যাওয়া বাংলাদেশ খেল আরেকটি ধাক্কা। চোট থেকে সেরে না ওঠায় ঢাকা টেস্টে খেলতে পারবেন না সাকিব আল হাসান। 
  • লয়েডের চিঠিতে অনুপ্রাণিত মেয়ার্সরা
    অভিজ্ঞদের অনেককে ছাড়া বাংলাদেশ সফরে আসা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটির পক্ষে বাজি ধরার খুব বেশি লোক হয়তো ছিল না। তবে নিজেদের সামর্থ্যে তাদের আস্থা ছিল অটুট। ক্যারিবিয়ানরা সেটির প্রমাণ দিয়েছে চট্টগ্রাম টেস্টে জিতে। সফরকারীদের জয়ের নায়ক কাইল মেয়ার্স বললেন, সফরের শুরুতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের প্রতি যে খোলা চিঠি লিখেছিলেন কিংবদন্তি ক্লাইভ লয়েড, তা বেশ অনুপ্রাণিত করেছিল তাদের।
  • আচ্ছন্ন মেয়ার্স, খুশিতে ভাসছেন ব্র্যাথওয়েট
    কেমন যেন একটা ঘোরের মধ্যে আছেন কাইল মেয়ার্স। রেকর্ড বইয়ে ঝড় তোলা ইনিংস, অবিশ্বাস্য জয় যেন স্পর্শ করতে পারছে না তাকে। উল্টো অবস্থা ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের, রান তাড়ায় অবিশ্বাস্য জয়ের মাহাত্ম্য খুব ভালোভাবেই উপলব্ধি করছেন তিনি।
  • প্রস্তুতি আর প্রতিজ্ঞায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়
    মহামারীকালেও টেস্ট খেলার মাঝে ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবুও এই সংস্করণের প্রস্তুতির জন্য তাদের ছিল বাড়তি মনোযোগ। ছিল গতবার হোয়াইটওয়াশড হওয়ার বদলা নেওয়ার দৃঢ় প্রতিজ্ঞা। শুরু থেকেই ক্যারিবিয়ানরা বলে আসছিল, বাংলাদেশে জিততে হলে প্রয়োজন সঠিক পরিকল্পনা আর বাস্তবায়ন। স্বাগতিকদের হতাশায় ডুবিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টে অবিশ্বাস্য জয়ের পর দলটির অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট বললেন, আগে থেকে ঠিক করা সেই মন্ত্রেই সাফল্য পেয়েছে তার দল।
  • ‘কাইল মেয়ার্স, রিমেম্বার দা নেইম’
    অবিশ্বাস্য এক জয়ে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রেকর্ড রান তাড়ায় দলকে পথ দেখানো কাইল মেয়ার্স হয়ে গেছেন ইতিহাসের অংশ। অভিষেক টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করা একমাত্র ব্যাটসম্যান যে তিনি!
  • নিজের সঙ্গে চ্যালেঞ্জ জিতে মেয়ার্সের ‘স্পেশাল’ ইনিংস
    বছর তিনেক আগের ঘটনা। ডমিনিকায় একটি অনুশীলন ক্যাম্প করছিলেন কাইল মেয়ার্স। সেই সময়টাতেই হানা দিল হারিকেন মারিয়া। মেয়ার্সের কক্ষের ছাদ উড়ে গেল। বিদ্যুৎ-ফোন-ইন্টারনেট লাইন বিচ্ছিন্ন হওয়ায় গোটা দুনিয়া থেকে একরকম বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলেন মেয়ার্স। বেশ কয়েক ঘণ্টা তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। তেমনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটেও তিনি একসময় হারিয়ে যেতে বসেছিলেন। সেই মেয়ার্স টেস্ট অভিষেকেই নিশ্চিত করলেন, তাকে এখন মনে রাখতেই হবে!
  • সাকিবের অভাব অনুভব করেছেন মুমিনুল
    মাঠের ভেতরে যেতে না পারলেও বাইরে সীমানা ঘেষেই দিনভর বসেছিলেন সাকিব আল হাসান। মুমিনুল হককে পরামর্শ দিতে দেখা গেছে তাকে। চা বিরতির পর দল মাঠে নামার আগে সবাইকে উজ্জীবিতও করেন এই অলরাউন্ডার। কিন্তু ২২ গজে তো আর তাকে পাওয়া যায়নি। চট্টগ্রাম টেস্টে হারার পর মুমিনুল বললেন, বোলার সাকিবকে মাঠে মনে পড়েছে তার।
  • ম্যাচ হারার পর মুমিনুল বললেন, ‘গোল বলের খেলা’
    পরিস্থিতি, পারিপার্শ্বিকতা, সবকিছুই ছিল পক্ষে। চার দিন ম্যাচে এগিয়ে থেকে জয়ের ক্ষেত্রও তৈরি করেছিল বাংলাদেশ। সেই মঞ্চে দাঁড়িয়েই অসাধারণ এক জয় পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এমন হারের পর বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক বলছেন, ক্রিকেট খেলার ধরনই এমন যে অবিশ্বাস্য অনেক কিছুই হয়।
  • রেকর্ড বইয়ে মেয়ার্স ও উইন্ডিজের ঝড়
    চট্টগ্রাম টেস্টে কাইল মেয়ার্সের দুর্দান্ত অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের অবিশ্বাস্য জয়ে ওলট-পালট হয়েছে রেকর্ড বইয়ের অনেক পাতা। অভিষেকেই মেয়ার্স আলাদা জায়গা করে নিয়েছেন ক্রিকেট ইতিহাসে। 
  • মেয়ার্সের ইতিহাস গড়া ইনিংসে উইন্ডিজের রূপকথার জয়
    মিড অনে বল পাঠিয়ে দ্রুত একটি রান। এরপর ব্যাট উঁচিয়ে বাতাসে ছোঁড়া। উদযাপন বলতে এইটুকুই। কাইল মেয়ার্সকে দেখে বোঝার উপায় নেই, কী কাণ্ড তিনি ঘটিয়ে ফেলেছেন! মুখের হাসি অবশ্য চওড়া। সেই হাসিতেই খুঁজে নেওয়া যায় ইতিহাস গড়ার প্রতিচ্ছবি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মাত্র ২৯ গড়ের ব্যাটসম্যান টেস্ট অভিষেকে রেকর্ডের মালা গেঁথে উপহার দিলেন অসাধারণ এক ডাবল সেঞ্চুরি। অবিশ্বাস্য রান তাড়ায় বাংলাদেশের আশা গুঁড়িয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেল মহাকাব্যিক জয়।
  • বাংলাদেশের আশা মাড়িয়ে বনার-মেয়ার্সের রেকর্ড
    খেলা শেষ দিন শেষ সেশনে গড়াবে, ভাবতে পেরেছিলেন কজন! অথচ শেষ সেশন শুরু হবে তিনটি সম্ভাবনা নিয়েই। জিততে পারে দুই দলের যে কোনোটি, হতে পারে ড্রও। কাইল মেয়ার্স ও এনক্রমা বনারের জুটি ইতিহাসে জায়গা করে নিয়েছে, বাংলাদেশকে হতাশ করেছে আর ম্যাচ নিয়ে এসেছে রোমাঞ্চকর এক মোড়ে।
  • বাংলাদেশের নিষ্ফলা প্রথম সেশন
    দুটি রিভিউ না নেওয়া। একটি ক্যাচ ফসকে যাওয়া। কয়েকবার অল্পের জন্য ব্যাটের কানা না ছোঁয়া। কয়েকবার কানা ছুঁয়েও একটুর জন্য ফিল্ডারের একটু সামনে পড়া। সুযোগ সৃষ্টি হলো বেশ কিছু। কিন্তু সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, উইকেটের পতন নেই একটিও! পুরো একটি সেশন নিরাপদে কাটিয়ে দিলেন কাইল মেয়ার্স ও এনক্রুমা বনার। বাংলাদেশের প্রাপ্তি হাহুতাশ আর হতাশা।
  • ইংল্যান্ডের ১৭ টেস্ট, বাংলাদেশের ৩, ডমিঙ্গোর হাহাকার
    আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ১৭ ম্যাচ খেলে ফেলেছে ইংল্যান্ড। চেন্নাইয়ে ভারতের বিপক্ষে তারা খেলছে ১৮তম টেস্ট। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতের এটি ১৪তম ম্যাচ। অস্ট্রেলিয়ারও ১৪ ম্যাচ হয়ে গেছে। নিউ জিল্যান্ড ও পাকিস্তান খেলেছে ১১টি করে। অথচ বাংলাদেশ খেলতে পেরেছে মোটে তিনটি। এত কম টেস্ট খেলার সুযোগ পাওয়া নিয়ে হতাশা জানালেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।
  • মুমিনুলের ফর্মে উচ্ছ্বসিত ডমিঙ্গো
    টানা দুই টেস্টে সেঞ্চুরি? অনেকেই চমকে উঠতে পারেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলতি সিরিজের আগে বাংলাদেশ সবশেষ টেস্ট খেলেছে এক বছর আগে। কজনেরই বা মনে আছে সেই টেস্টের মুমিনুল হকের সেঞ্চুরি! তবে কোচ তো আর এটি ভুলতে পারেন না। বাংলাদেশের প্রধান কোচ মনে করিয়ে দিলেন, মুমিনুলের এটি টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। অধিনায়কের ফর্মে দলের উচ্ছ্বাসের কথাও জানালেন কোচ।
  • প্রথম ঘণ্টায় নজর ক্যারিবিয়ানদের
    চট্টগ্রাম টেস্ট অনেকটাই বাংলাদেশের দিকে হেলে আছে। তবে নিজেদের সামর্থ্যের সেরাটা দিয়ে ম্যাচ বাঁচানোর সম্ভাবনা দেখছেন রাকিম কর্নওয়াল। পঞ্চম দিনের প্রথম ঘণ্টা ঠিকঠাক কাটিয়ে দিয়ে, সেশন ধরে এগিয়ে ম্যাচ বাঁচানোর ছক কষছেন এই অলরাউন্ডার।
  • মিরাজের তিন ছোবলের পর ক্যারিবিয়ানদের লড়াই
    উইকেটে উড়ছে ধুলো। বাউন্স অসমান। কিছু বল নিচু হচ্ছে বিপজ্জনকভাবে। টার্ন তো আছেই। এমন পিচে প্রায় চারশ রান তাড়া করা বা চার সেশনের বেশি টিকে থাকা যেন অসম্ভবের পায়ে মাথা কুটে মরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তবু হাল ছাড়ছে না। মেহেদী হাসান মিরাজের তিন শিকারে টপ অর্ডার ভেঙে পড়লেও ক্যারিবিয়ানরা লড়াই টেনে নিয়েছে শেষ দিনে।
  • উইন্ডিজকে ৩৯৫ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ
    বাংলাদেশের লিড ছুটছিল চারশর দিকে। দ্রুত কয়েকটি উইকেটে হঠাৎ ছন্দপতন। এরপর এলো ইনিংস ঘোষণা। চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে লক্ষ্য ৩৯৫ রান।
  • চট্টগ্রামে মুমিনুলের সপ্তম স্বর্গ
    একটি টেস্টের ব্যতিক্রম শেষে চেনা ধারার প্রত্যাবর্তন। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে মুমিনুল হকের ফিফটি ছোঁয়া মানেই সেঞ্চুরি! বাংলাদেশ অধিনায়ক উপহার দিলেন এই মাঠে তার সপ্তম সেঞ্চুরি।
  • সেঞ্চুরির কাছে মুমিনুল, তিনশ ছাড়িয়ে লিড
    শরীর তাক করা বাউন্সারে শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের হুঙ্কার, কেমার রোচের বৈচিত্রের চেষ্টা আর দুই প্রান্তে স্পিনার, প্রথম সেশনে মুমিনুল হকের সামনে কাজে লাগল না ক্যারিবিয়ানদের কোনো কৌশলই। দারুণ ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক সুবাস পাচ্ছেন সেঞ্চুরির। বাংলাদেশের লিড পেরিয়ে গেছে তিনশ।
  • মুমিনুলের ফিফটি, মুশফিকের বিদায়
    দলের লিড বাড়ানো আর ব্যক্তিগত মাইলফলক, চতুর্থ দিনের যাবতীয় লক্ষ্য পূরণের প্রথম ধাপ পেরোলেন মুমিনুল হক। বাংলাদেশ অধিনায়ক স্পর্শ করলেন ফিফটি।
  • ২৫০ রানই ‘যথেষ্ট’, বাংলাদেশের চাওয়া ‘৩৫০’
    ২১৮ রানের লিড হয়ে গেছে। চাইলে আর ৩২ রান করেই ইনিংস ঘোষণা করে দিতে পারে বাংলাদেশ। তাইজুল ইসলাম যে মনে করছেন, ২৫০ রানই যথেষ্ট জয়ের জন্য! তবে এই বাঁহাতি স্পিনার জানালেন, এই ‘যথেষ্ট’ রানে তৃপ্ত না হয়ে দল করতে চায় আরও ৫০-১০০ রান বেশি।
  • স্পিনারের দেশে অভাব ক্লোজ-ইন ফিল্ডারের
    অফিসিয়ালি ক্যাচ ছাড়ার তালিকায় ইয়াসির আলি চৌধুরির নাম থাকবে না। বলে হাত ছোঁয়াতে না পারলে তো আর ‘ক্যাচ ড্রপ’ হিসেবে গণ্য হয় না! তবে চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা যারা দেখেছেন, তারা জানেন, ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে কতগুলি সুযোগ হাতছাড়া করেছেন ইয়াসির।
  • বড় লিডের পর এলোমেলো বাংলাদেশের টপ অর্ডার
    বাংলাদেশের বোলিংয়ের স্বস্তি অনেকটা উবে গেল ব্যাটিংয়ে নেমে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসের শেষ দিকে উইকেটের যে স্রোত, প্রবল বেগে ধেয়ে এসে তা ভাসিয়ে দিল বাংলাদেশের টপ অর্ডারও। বড় লিডের পরও তাই দিনশেষে অস্বস্তির কাঁটার খোঁচাখুচি।
  • স্পিন ত্রয়ীর নৈপুণ্যে বাংলাদেশের বড় লিড
    স্পিন চতুষ্টয় নিয়ে শুরু করা ম্যাচের তৃতীয় সকালে বাংলাদেশ হয়ে গেল স্পিন ত্রয়ীর দল। ঊরুর চোটে দর্শক হয়ে রইলেন স্পিনারদের শিরোমণি সাকিব আল হাসান। তবে ক্যারিবিয়ানদের ভোগালেন বাকি তিন জন। মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও নাঈম হাসান মিলে দলকে এনে দিলেন বড় লিড।
  • নতুন চোটে সাকিবকে নিয়ে শঙ্কা
    কুঁচকির চোট কাটিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টে মাঠে নেমেছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু নতুন চোটে তাকে নিয়ে জেগেছে নতুন শঙ্কা। ঊরুতে চোট পাওয়ার পর আপাতত পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে এই অলরাউন্ডারকে।
  • তিন উইকেট আর চার সুযোগের প্রথম সেশন
    এক সেশনে ৩ উইকেট, সেশনটি তাই হওয়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু সেটি বলার জো নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যে রান তুলে ফেলেছে ১১৪! চার-চারটি সুযোগ নিতে পারেনি বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তাই ফলো অন এড়ানোর পথে।
  • দিনের শুরুতে মাঠে নেই সাকিব
    চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর আগেই বড় ধাক্কা বাংলাদেশ দলের জন্য। শুক্রবার খেলার শুরুর সময় মাঠে নামতে পারেননি সাকিব আল হাসান।
  • মিরাজের সেঞ্চুরিতে বিশপের উচ্ছ্বাস
    দুটি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দিয়েছেন দলকে। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের ধাপ পেরিয়ে রাঙিয়েছেন টেস্ট অভিষেক। এবার পেলেন প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ। মেহেদী হাসান মিরাজের এই অর্জনে উচ্ছ্বসিত জনপ্রিয় ক্যারিবিয়ান ধারাভাষ্যকার ও সাবেক ফাস্ট বোলার ইয়ান বিশপ।
  • বোলিং মিরাজের ‘অস্ত্র’, ব্যাটিং ‘আত্মবিশ্বাস’
    নিজের ব্যাটিং প্রতিভার প্রতি সুবিচার করছেন না মেহেদী হাসান মিরাজ, অভিযোগ শোনা যায় প্রায়। দল তার ব্যাটিংকে কতটা গুরুত্ব দিচ্ছে, সেই প্রশ্নও ওঠে নিয়মিত। কিন্তু মিরাজের কাছে ভাবনাটা এতটা সোজাপাপ্টা নয়। তিনি দেখেন বাংলাদেশ দলের বাস্তবতা, দলে জায়গার লড়াইয়ে নিজেকে এগিয়ে রাখার তাড়না। টেস্ট সেঞ্চুরির পরও তাই বোলিং সত্ত্বাই মিরাজের কাছে পাচ্ছে সর্বোচ্চ গুরুত্ব।
  • লিডের আশায় তৃতীয় দিনে তাকিয়ে ব্র্যাথওয়েট
    স্পিনাররা এখনও উইকেট থেকে খুব একটা সহায়তা পাচ্ছেন না। ফুটমার্ক থেকে দুয়েকটা বল তীক্ষ্ণ বাঁক নিচ্ছে বটে, তবে এখনও উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য বেশ সহায়ক। তাই লিড নেওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট।
  • মিরাজের ‘টেনশনে’ মুস্তাফিজের ‘ভয়’
    নিজের প্রথম সেঞ্চুরির অপেক্ষায় এক ব্যাটসম্যান। তখন যদি উইকেটে যান শেষ ব্যাটসম্যান, ভয় তার খানিকটা লাগার কথা বটে! আর সেঞ্চুরির কাছে থাকা ব্যাটসম্যান যদি হয় কাছের বন্ধু, তাহলে তো ভয়ের সঙ্গে রোমাঞ্চ-উত্তেজনা, সব অনুভূতি মিলিয়েই জট পাকানোর কথা ভেতরে। মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে উইকেটে যোগ দেওয়ার পর এমন অবস্থাই ছিল মুস্তাফিজুর রহমানের।
  • কোচ চেয়েছিলেন সেঞ্চুরি, বিশ্বাস ছিল না মিরাজের
    শিষ্যর কাছে গুরুর চাওয়া একটি সেঞ্চুরি। শিষ্য নিজের মনেই হাসেন। ব্যাটিং অর্ডারের এত নিচে নেমে সেঞ্চুরি তো সম্ভব নয়। গুরু তবু সাহস দেন। উজ্জীবিত শিষ্য সত্যিই সেঞ্চুরি উপহার দিয়ে ফেলেন! প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর মেহেদী হাসান মিরাজ শোনালেন তার প্রথম কোচ আল মাহমুদের কাছ থেকে পাওয়া সেই প্রেরণার গল্প।
  • সিনিয়রদের পরামর্শে ‘বুক বড় হয়ে যায়’ মিরাজের
    বেশ কিছুদিন আগে থেকে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ব্যাটিং অনুশীলন করছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। টেস্ট সিরিজের আগে তাকে কিছু পরামর্শ দেন তামিম ইকবাল। টেস্টের দ্বিতীয় দিনে উইকেটে যাওয়ার পর গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ পান সাকিব আল হাসানের কাছ থেকে। প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর মিরাজ কৃতজ্ঞতাভরে জানালেন, সিনিয়রদের কাছ থেকে পাওয়া প্রেরণার কথা।
  • মিরাজের শতকের পর মুস্তাফিজের জোড়া শিকার
    মেহেদী হাসান মিরাজের সেঞ্চুরিতে গড়ে দেওয়া ভিতে দাঁড়িয়ে নতুন বলে আগুন ঝরা বোলিং উপহার দিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংয়ে জোর ধাক্কা লাগল শুরুতেই। তবে অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত দিনটা খানিকটা স্বস্তিতে শেষ করতে পারল ক্যারিবিয়ানরা।
  • ৮ বছরের পরিক্রমা ও মিরাজের সেঞ্চুরি
    ২০১৩ সালের এপ্রিলে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে যুব টেস্টে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেনের পাশাপাশি ওই ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৫ বছর বয়সী এক ব্যাটসম্যান। সময়ের পরিক্রমায় সেদিনের সেই কিশোর দেশকে দুটি যুব বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দিয়ে, বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে আলোড়ন তুলে, টেস্ট আবির্ভাব রাঙিয়ে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও এখন পরিচিত মুখ। কিন্তু আরেকটি সেঞ্চুরি ছিল অধরা। অবশেষে এতটা পথ পেরিয়ে, আশা-হতাশা ছড়িয়ে, আবার তিনি পেলেন শতরানের স্বাদ। মেহেদী হাসান মিরাজ!
  • মিরাজের অসাধারণ সেঞ্চুরিতে চারশ পেরিয়ে বাংলাদেশ
    সিঙ্গেল নেওয়ার সময় শূন্যে লাফানো আর মুষ্ঠিবদ্ধ হাত বাতাসে ছুঁড়লেন এক দফায়। দ্বিতীয় রান নেওয়ার সময় আরেক দফায়। এরপর যেন ডানা মেলে দিয়ে ভেসে চললেন। একটু থেমে সিজদাও দেওয়া হয়ে গেল। মেহেদী হাসান মিরাজের উদযাপন যেন শেষই হচ্ছিল না। প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির অনির্বচনীয় স্বাদ বলে কথা!
  • টেস্টে ফিরেই সাকিবের ফিফটি
    ওয়ানডে সিরিজ যেখানে শেষ হয়েছিল, টেস্ট সিরিজ সেখান থেকেই শুরু করলেন সাকিব আল হাসান। ফিফটি দিয়ে শেষ হয়েছিল রঙিন পোশাকের সিরিজ, সাদা পোশাকের সিরিজের প্রথম ম্যাচেই উপহার দিলেন আরেকটি ফিফটি।
  • ওয়ারিক্যানের কাছে গুরুত্বপূর্ণ মুশফিকের উইকেট
    চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনে জোমেল ওয়ারিক্যানের শিকার ৩ উইকেট। তিনটিই থিতু হয়ে যাওয়া ব্যাটসম্যানের। তার বোলিংয়েই বাংলাদেশের স্কোর নাগালের বাইরে যেতে দেয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম দিনের তিন শিকারের মধ্যে এই বাঁহাতি স্পিনার সবচেয়ে এগিয়ে রাখছেন মুশফিকুর রহিমের উইকেটকে।
  • সাকিব-লিটনের ব্যাটে তাকিয়ে বাংলাদেশ
    প্রথম দিনে ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে আগে ব্যাট করার সুযোগ পুরোপুরি কাজে লাগাতে পারেনি ব্যাটসম্যানরা। দিন শেষে বাংলাদেশের রানও তাই নেই খুব ভালো অবস্থানে। দল অবশ্য এখনই বড় স্কোরের আশা ছাড়ছে না। সাকিব আল হাসান ও লিটন দাস যে এখনও উইকেটে আছেন!
  • ইনিংস বড় করতে না পারার আক্ষেপ সাদমানের
    ২৩৫ মিনিট উইকেটে বিচরণ। ১৫৪ বলের মুখোমুখি। প্রথম দিনে দলের সর্বোচ্চ ৫৯ রানের ইনিংস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে খারাপ নয় সাদমান ইসলামের পারফরম্যান্স। ১৪ মাস পর টেস্ট খেলতে নেমে এমন পারফরম্যান্সে ভালো লাগাও আছে তার। তবে ২৫ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান অতৃপ্ত ইনিংসটি আরও বড় করতে না পারায়।
  • যে কারণে রিভিউ নেননি সাদমান
    চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা সম্ভবত সাদমান ইসলামের আউট। এই বাঁহাতি ওপেনার কেন রিভিউ নিলেন না, এই প্রশ্ন সবার। দিনের খেলা শেষে জানা গেল কারণ। সাদমানের কাছে মনে হচ্ছিল, তিনি নিশ্চিত আউট!
  • দৃষ্টিকটূ সব আউটে বাংলাদেশের আক্ষেপের দিন
    টস জয়, আগে ব্যাটিং, স্বস্তিময় শুরু। প্রায় ১ বছর পর টেস্ট খেলতে নেমে আর কী চাই! রৌদ্রোজ্জ্বল দিনে বাংলাদেশের শুরুটা হলো ঝলমলে। হাতছানি দারুণ একটি দিনের। কিন্তু তা মিলিয়ে গেল নিজেদের দায়ে। সময় যত গড়াল, হারাতে থাকল ব্যাটিংয়ের আলো। কিছু বাজে শট আর রিভিউ না নেওয়ার বিস্ময়কর কাণ্ড মিলিয়ে সম্ভাবনাময় দিনটি শেষ পর্যন্ত হয়ে গেল ম্লান।
  • ফেরার ম্যাচে সাদমানের ফিফটি
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ফিফটি দিয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারের শুরু। তাদের বিপক্ষে আবার পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস দিয়ে শুরু হলো সাদমান ইসলামের ক্যারিয়ারের নতুন অধ্যায়। টেস্টে ফেরার ম্যাচেই দারুণ এক ফিফটি উপহার দিলেন বাঁহাতি এই ওপেনার।
  • আত্মঘাতী সাদমান-মুমিনুল, অস্বস্তিতে বাংলাদেশ
    প্রথম সেশনের দুই উইকেটের সঙ্গে দ্বিতীয় সেশনেও যোগ হলো জোড়া ধাক্কার হতাশা। বাজে শটে অধিনায়ক মুমিনুল হকের বিদায়। আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের পর সাদমান ইসলাম ও মুশফিকুর রহিমের যৌথ ভাবনায় রিভিউ না নেওয়া। সব মিলিয়ে আরেকটি সেশন ভালো হতে হতেও হয়ে উঠল না বাংলাদেশের জন্য।
  • ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে চার স্পিনার
    চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামের সবশেষ টেস্টে কোনো স্পেশালিস্ট পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। এবার অন্তত একজন পেসার আছে! সঙ্গে একাদশে স্পিনার চারজন। কাঙ্ক্ষিত টস জয়ও পক্ষে এসেছে বাংলাদেশের। টস জিতে মুমিনুল হক বেছে নিয়েছেন ব্যাটিং।
  • উদ্বোধনী জুটিতে তামিমের সঙ্গী কে?
    টেস্ট ম্যাচের দিন সকালে উইকেট দেখে একাদশ চূড়ান্ত করা নতুন কিছু নয়। তবে সাধারণত বোলিং আক্রমণের ক্ষেত্রে কিংবা বাড়তি ব্যাটসম্যান বা বোলার নেওয়ার সিদ্ধান্তের জন্যই শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত সেই অপেক্ষা করা হয়। বাংলাদেশ সেদিক থেকে মনে হয় একটি রেকর্ডই করে ফেলল। দুই ওপেনারের মধ্যে কে খেলবেন, এটাও নাকি ঠিক করা হবে ম্যাচের দিন সকালে!
  • টেস্টে ফেরার রোমাঞ্চ আর ১২০ পয়েন্টের আশা
    বাংলাদেশ দলের অনুশীলন তখন শেষ দিকে। বাংলাদেশ দলের অ্যানালিস্ট শ্রীনিবাসন চন্দ্রশেখরনকে ক্যাচিং অনুশীলন করাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল। সেটি নিয়ে সবার সে কী হাসাহাসি! অধিনায়ক মুমিনুল হক তখন বসে আছেন মাঠের মাঝখানে উইকেটের পাশে, সঙ্গে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। হয়তো দুজন কথা বলছিলেন সম্ভাব্য একাদশ নিয়ে, কৌশল নিয়ে। একটু পর নেটের পাশে চেয়ারে গোল হয়ে বসলেন দলের প্রায় সবাই। চলল আড্ডা, হাসি, মজা।
  • বাংলাদেশের হুমকি কর্নওয়াল
    উচ্চতা ৬ ফুট ৬ ইঞ্চি, ওজন ১৪০ কেজি। রাকিম কর্নওয়ালকে দেখলে সবার আগে নজর কাড়ে তার শারীরিক আকৃতিই। তবে ২২ গজে নামলে তিনি ক্রিকেট স্কিল দিয়েই ভুলিয়ে দিতে বাধ্য করেন অন্য সবকিছু। অফ স্পিনে তিনি দুর্দান্ত, ব্যাট হাতে কার্যকর। বুধবার থেকে শুরু হতে যাওয়া টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের জন্য বড় হুমকি হতে পারেন এই কর্নওয়াল।
  • মুমিনুলের পছন্দ আগ্রাসী নেতৃত্ব
    আচমকা পাওয়া নেতৃত্ব, বুঝে ওঠার আগেই একের পর এক বড় হারের ধাক্কা। টেস্ট অধিনায়কত্বের শুরুটায় টালমাটাল ছিলেন মুমিনুল হক। তবে ম্যাচ বেশি খেলতে না পারলেও এখন সময় গড়িয়েছে অনেক। বদলেছে প্রেক্ষাপট। এবার নিজের ঘরানা তৈরি করতে চান মুমিনুল। তার পছন্দ আক্রমণাত্মক অধিনায়কত্ব।
  • আফগানিস্তানের কাছে হার মনে রাখতে চান না মুমিনুল
    একসময় যেটির পরিচিত ছিল পয়মন্ত মাঠ, সেখানেই রচিত হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বিব্রতকর অভিজ্ঞতাগুলোর একটি। নবীন আফগানিস্তানের কাছে টেস্টে হার! দুঃস্বপ্নের হারের সেই মঞ্চেই আবার খেলতে নামার আগে টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক বলছেন, ওই হার তার ভাবনায়ও নেই।
  • মুমিনুলের পাশে সাকিব-তামিমদের চান ডমিঙ্গো
    আছে সংশয়, আছে প্রশ্ন। টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে মুমিনুল হকের ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তাও কম নেই। তবে নিজেকে গড়ে তোলার ও মেলে ধরার সময়টা তাকে দিতে চান রাসেল ডমিঙ্গো। বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচের মতে, মুমিনুলের নেতৃত্বে উন্নতির জন্য সিনিয়র ক্রিকেটারদের সমর্থন হবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।