• টেইলরকে বিদায়ী উপহার দিতে পারার তৃপ্তি ল্যাথামের
    বিদায়ী টেস্ট নিয়ে অনেক কিছু ভেবে থাকতে পারেন রস টেইলর। তবে বাস্তবে যা হলো, তেমন কিছু নিশ্চয়ই তার ভাবনার সীমানাতেও ছিল না। নিউ জিল্যান্ডের সফলতম ব্যাটসম্যান টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন শেষ বলে উইকেট নিয়ে। দারুণ ক্যাচ নিয়ে উইকেট নেওয়ায় অবদান যার, সেই টম ল্যাথাম উচ্ছ্বসিত তাদের ক্রিকেট নায়কের এই প্রাপ্তিতে।
  • যে জন্য টেইলরকে প্রথম ইনিংসে গার্ড অব অনার
    কাগজে-কলমে আরও একটি ইনিংস বাকি তখনও। কিন্তু প্রথম ইনিংসেই রস টেইলরকে ‘গার্ড অব অনার’ দেয় বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে মুমিনুল হক দিলেন এর ব্যাখ্যা। জানালেন, দলের সবার মিলিত সিদ্ধান্তেই বিদায়ী কিউই ব্যাটসম্যানকে প্রথম ইনিংসে সম্মান জানাতে চেয়েছিলেন তারা।
  • দুই উইকেট আর কিছুটা প্রতিরোধের সেশন বাংলাদেশের
    প্রথম দিনের উইকেট ছিল অনেকটা আউটফিল্ডের মতোই সবুজ। দ্বিতীয় দিনে সবুজের আভা কমে আসে অনেকটা। তৃতীয় দিনে উইকেট প্রায় সাদা চেহারার। ব্যাটিংয়ের জন্য বলা যায় আদর্শ। সেই উইকেটে চার কিউই পেসারের সামনে বেশ প্রতিরোধ গড়ল ফলো-অনে পড়া বাংলাদেশ। তবে সঙ্গী এলো প্রথম ও দ্বিতীয় ঘণ্টার শেষ দিকে দুই থিতু ব্যাটসম্যানকে হারানোর হতাশা।
  • দারুণ ক্যাচে সাদমানকে হারাল বাংলাদেশ
    প্রথম দিনের উইকেট ছিল অনেকটা আউটফিল্ডের মতোই সবুজ। দ্বিতীয় দিনে সবুজের আভা কমে আসে অনেকটা। তৃতীয় দিনে উইকেট প্রায় সাদা চেহারার। ব্যাটিংয়ের জন্য আদর্শ বলা যায়। সেই উইকেটে চার কিউই পেসারকে নিরাপদেই খেলে পার করছিলেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার। কিন্তু দিনের প্রথম পানি পানের বিরতির ঠিক আগে আউট হয়ে গেলেন সাদমান ইসলাম।
  • হ্যাডলি-ভেটোরিদের পাশে নাম লিখিয়ে গর্বিত বোল্ট
    স্যার রিচার্ড হ্যাডলি, ড্যানিয়েল ভেটোরি, টিম সাউদি। এতদিন ছিলেন ৩ জন, সঙ্গে এবার যোগ হলেন ট্রেন্ট বোল্ট। নিউ জিল্যান্ডের ৯২ বছরের টেস্ট ইতিহাসের একটি জায়গায় একই বন্ধনীতে কেবল তারা চারজনই। এমন গৌরবময় অর্জনের অংশ হতে পেরে বোল্ট তাই উচ্ছ্বসিত।
  • মিরাজকে বোল্ড করে বোল্টের ৩০০
    নতুন বলে তিন উইকেট ধরা দিল দ্রুতই। এরপর বেশ কিছুটা সময় অপেক্ষা। অবশেষে কাঙ্ক্ষিত সেই মুহূর্তটির দেখা পেলেন ট্রেন্ট বোল্ট। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে মেহেদী হাসান মিরাজকে বোল্ড করে তিনি পা রাখলেন ৩০০ উইকেটে।
  • খেলতে মরিয়া হয়েও পারেননি মুশফিক
    ম্যাচের আগের দিন ছিল আভাস। ম্যাচের সকালে পেল চূড়ান্ত প্রকাশ। কুঁচকির চোটে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট থেকে ছিটকে যেতে হলো মুশফিকুর রহিমকে। যদিও মাঠে নামার প্রবল চেষ্টা তিনি করেছেন বলে জানালেন বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। তবে উতরাতে পারেননি ফিটনেস পরীক্ষায়।
  • সবুজ উইকেটে ল্যাথাম-কনওয়ের ব্যাটে পিষ্ট বাংলাদেশের আশা
    মেঘলা আকাশ, ঘাসে ভরা উইকেট। ম্যাচের আগে রস টেইলর যেমন বলেছিলেন, ‘বোলারদের জিভে জল আনা উইকেট।’ কাঙ্ক্ষিত টসও জিতলেন মুমিনুল হক। এরপর কেবল প্রয়োজন ওই সবুজের গালিচায় লাল বলে আগুনের হলকা ছড়ানো। কিন্তু মুমিনুলের পেস আক্রমণ পুরো সময়ই রইল মিইয়ে। বাংলাদেশের আশায় জল ঢেলে রানের জোয়ার বইয়ে দিল নিউ জিল্যান্ড।
  • একটি উইকেট ও অনেক হতাশার দুই সেশন বাংলাদেশের
    রেকর্ড গড়া জুটির পর একটি উইকেট অবশেষে ধরা দিল। একটি সুযোগও হাতছাড়া হলো। সঙ্গে ভীড় করল আরও অনেক হতাশা। সবুজ উইকেটেও বাংলাদেশের ধরে রাখল ধারহীন বোলিংয়ের ধারা। টম ল্যাথামের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি আর দুটি জুটিতে নিউ জিল্যান্ড দুইশ ছাড়িয়ে গেল দুই সেশনেই।
  • নির্ঘুম রাত শেষে মুমিনুলের আনন্দময় দিন
    চতুর্থ দিনের মাঠের লড়াই তো শেষ হলো। হোটেলে ফিরে রাতে মুমিনুল হকের লড়াই শুরু হলো নিজের সঙ্গে। চোখের পাতা যে এক করাই মুশকিল! রোমাঞ্চ-উত্তেজনার শিহরণ, শঙ্কা-সম্ভাবনার দোলাচল, পরদিন কী হয় না হয়, সবকিছু মিলিয়ে রাতটা একরকম নির্ঘুম কাটে বাংলাদেশ অধিনায়কের। দলের সবার অবস্থাও নিশ্চয়ই কম-বেশি এমনই! ভেতরের সেই ঝড়কে দমিয়ে মাঠে নেমে শেষ দিনেও দুর্দান্ত পারফর্ম করে দল। ধরা দেয় অসাধারণ জয়। অধিনায়কের কণ্ঠে এখন তাই তৃপ্তির সুর, মুখে মধুর হাসি।
  • এই জয় ভুলে যেতে চান মুমিনুল
    ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দেওয়া এক জয়। বাজে সময়ে স্বস্তির শ্বাস নেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া এক জয়। নিউ জিল্যান্ডের মাঠে ইতিহাস গড়া জয়। সময় এখন সাফল্য উপভোগ করার। কিন্তু মুমিনুল হক খুব ভালো করেই জানেন, কাজের কেবল অর্ধেক শেষ হয়েছে মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই ম্যাচ ভুলে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট মনোযোগ দিতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক। 
  • 'এখনও শিখছি', অসাধারণ বোলিংয়ের পর বললেন ইবাদত
    লাল বলে বাংলাদেশের পেস বোলিংয়ের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের একটা ছাপ রাখতে পেরেছেন তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, ইবাদত হোসেন চৌধুরিরা। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে তারা পাল্লা দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের পেস চতুষ্টয়ের সঙ্গে। সাফল্যের নিরিখে হয়ত সফরকারীরা একটু এগিয়েই থাকবেন। তবে ইবাদত হোসেন বললেন, তাদের সাফল্যের চূড়া এটা নয়। খুঁটিনাটি তো বটেই, পেস বোলিংয়ের অনেক মৌলিক ব্যাপার এখনও তারা শিখছেন।
  • জয়ের ভাবনায় ‘ওভার এক্সাইটেড’ নয় বাংলাদেশ দল
    মাউন্ট মঙ্গানুইতে রাতটি কেমন কাটবে বাংলাদেশ দলের? বাংলাদেশের ক্রিকেটে এমন মুহূর্ত খুব বেশি আসে না। নিউ জিল্যান্ডে গিয়ে এমন সম্ভাবনার হাতছানি নিয়ে রাতে ঘুমুতে যাওয়ার শিহরণও আগে কখনও পেতে হয়নি। রোমাঞ্চ-উত্তেজনার নানা অনুভূতিই তাই ক্রিকেটারদের মনে দোলা দেওয়ার কথা। লিটন দাস যদিও বলছেন, জয়-হার নিয়ে ভাবছেই না দলের কেউ।
  • ‘অসাধারণ খেলেছে মুমিনুল ও লিটন’
    নিজেদের ব্যাটিং লাইনআপ অনভিজ্ঞ, প্রতিপক্ষের পেস আক্রমণ ক্ষুরধার। কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জ তো আছেই। বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে তাই ছিল বড় শঙ্কার জায়গা। কিন্তু চমক উপহার দিয়ে সেই ব্যাটসম্যানরাই দেখাল অসাধারণ দৃঢ়তা। এমন পারফরম্যান্সে মুগ্ধ টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ ব্যাটসম্যানদের জানালেন কুর্নিশ।
  • প্রস্তুতি ম‍্যাচের আত্মবিশ্বাস থেকে মাহমুদুলের এই ইনিংস
    জাতীয় দলের হয়ে নিউ জিল‍্যান্ডে এটাই প্রথম সফর। তবে ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম নয়। দুই বছর আগে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে নিউ জিল‍্যান্ডে খেলার অভিজ্ঞতা আছে মাহমুদুল হাসানের। কন্ডিশনের সঙ্গে আগে থেকে পরিচিত এই টপ অর্ডার ব‍্যাটসম‍্যানের জন‍্য আরও সহায়ক হয় প্রস্তুতি ম‍্যাচ। জানালেন, সেই ম‍্যাচে রান পাওয়াটা তাকে টেস্টে ভালো করার আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে।
  • বাংলাদেশের বিপক্ষে বাদ পড়ে অবাক নন এজাজ
    এক মাসের মধ্যেই ক্রিকেটে চড়াই-উতরাই দেখে ফেলেছেন এজাজ প্যাটেল। ভারতের বিপক্ষে মুম্বাই টেস্টে ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে গড়েছিলেন ইতিহাস। পরের সিরিজেই কিনা তার জায়গা হলো না দলে! বাংলাদেশের বিপক্ষে ঘরের মাঠের সিরিজে তাকে না রাখায় হতাশ হলেও বাস্তবতা ঠিকই বুঝতে পারছেন বাঁহাতি এই স্পিনার।