• সানির ৫ উইকেট, মঈন-সালমানের দৃঢ়তা
    দ্বিতীয় ইনিংসে দেড়শর আগেই বরিশালের ছয় ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল ঢাকা মেট্রো। তবে প্রথম ইনিংসের মতো আবারও প্রতিরোধ গড়লেন দুই তরুণ সালমান হোসেন ও মঈন খান। ড্রয়ে শেষ হলো ঢাকা মেট্রো ও বরিশালের দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচ।
  • শামসুর-মার্শালের সেঞ্চুরি, আল আমিনের আক্ষেপ
    সেঞ্চুরি পূরণের পর বেশি দূর এগোতে পারলেন না শামসুর রহমান ও অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। পরে দারুণ এক ইনিংসে দলকে লিড এনে দিলেন আল আমিন। তবে আট রানের জন্য পেলেন না সেঞ্চুরির দেখা। শেষ বিকেলে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই বরিশালের তিন উইকেট তুলে নিয়ে তাদের চাপে রেখেছে ঢাকা মেট্রো।
  • তাসকিনের ৪ উইকেটের পর মার্শাল-শামসুরের দৃঢ়তা
    লোয়ার-অর্ডারের দৃঢ়তায় প্রথম ইনিংসে চারশ ছাড়ানো সংগ্রহ গড়ল বরিশাল। দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শামসুর রহমান ও অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুবের ব্যাটে ভালোই জবাব দিচ্ছে ঢাকা মেট্রো।
  • ফজলে মাহমুদের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে বরিশাল
    ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস এনে দিয়েছিলেন ভালো শুরু। সেই ভিতের উপর দাঁড়িয়ে দলকে টানলেন ফজলে মাহমুদ। তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। সঙ্গী হিসেবে পেলেন সালমান হোসেনকে। তাদের ব্যাটে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে বড় সংগ্রহ গড়ার পথে রয়েছে বরিশাল বিভাগ।
  • শানাজ-জাকিরের ফিফটিতে সিলেটের বড় লিড
    ইবাদত হোসেনের আগের দিনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের পর ব্যাট হাতে অবদান রাখলেন দলের প্রায় সবাই। দারুণ দুটি অর্ধশতক এলো শানাজ আহমেদ ও জাকির হাসানের ব্যাট থেকে। বরিশালের বিপক্ষে বড় লিড পেল সিলেট।
  • ইবাদতের ৫ উইকেটে সিলেটের দাপট
    ভারত সফরকে সামনে রেখে জাতীয় লিগে প্রথম খেলতে নেমে দুর্দান্ত বোলিং করলেন সিলেটের পেসার ইবাদত হোসেন। বরিশালের টপ অর্ডারকে কাঁপিয়ে দিলেন একাই, পেলেন পাঁচ উইকেট। অল্প রানে বরিশালকে গুটিয়ে দেওয়ার পর দুই ওপেনারের ব্যাটে ভালো শুরু পেয়েছে সিলেট।
  • দ্বিতীয় ইনিংসেও উজ্জ্বল নাঈম হাসান
    প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ৪ উইকেট পেলেন চট্টগ্রামের তরুণ অফস্পিনার নাঈম হাসান। শেষ সেশনে দ্রুত উইকেট হারিয়ে হারের শঙ্কায় পড়া বরিশালকে ম্যাচে রাখলেন মোসাদ্দেক হোসেন ও শামসুল ইসলাম। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের পর ড্র হলো দুই দলের ম্যাচ।
  • আবারও ব্যর্থ মোসাদ্দেক, নাঈমের ৪ উইকেট
    আগের ম্যাচে ৫ রান করা মোসাদ্দেক এবার করলেন ৪। জাতীয় দলের এই ব্যাটসম্যানের ব্যর্থতার দিনে চার উইকেট নিয়েছেন চোট কাটিয়ে ফেরা অফ স্পিনার নাঈম হাসান। শেষ দিকে নুরুজ্জামান প্রতিরোধ গড়লেও পরে তাকে ফিরিয়ে বরিশালের বিপক্ষে বড় লিড পেয়েছে চট্টগ্রাম।
  • সুযোগ হারালেন ইয়াসির, মাহিদুলের ৯ রানের আক্ষেপ
    ফিটনেস পরীক্ষায় উতরাতে না পারায় আগের ম্যাচে একাদশের বাইরে থাকা ইয়াসির আলী চৌধুরীর সামনে সুযোগ ছিল বড় ইনিংস খেলার। পারেননি চট্টগ্রামের এই তরুণ। ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটিকে সেঞ্চুরিতে রূপ দেওয়ার খুব কাছে গিয়ে পারেননি মাহিদুল ইসলাম। বরিশালের বিপক্ষে মাত্র ৯ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে ফিরেছেন এই কিপার-ব্যাটসম্যান।
  • আবারও ব্যর্থ মুমিনুল
    জাতীয় ক্রিকেট লিগে টানা তিন ইনিংসে ব্যর্থ মুমিনুল হক। ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে করেছিলেন ১১ ও শূন্য। দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম ইনিংসেও পাননি বড় রান। বরিশালের বিপক্ষে ম্যাচের প্রথম দিন ফিরেছেন ১৫ রান করে। অধিনায়কের ব্যর্থতার দিনে তিন ফিফটিতে বড় সংগ্রহের দিকে এগোচ্ছে চট্টগ্রাম।
  • তানভীর-মনিরের স্পিনে ইনিংস ব্যবধানে জিতল বরিশাল
    বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছিল প্রথম পাঁচ সেশনের খেলা। জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডে খেলা শুরু হয়েছিল সবার পরে। সেই ম্যাচ শেষ হলো সবার আগে। বোলারদের দাপটের ম্যাচে কামরুল ইসলাম রাব্বির তোপে তৈরি হয়েছিল মঞ্চ। বাকিটা সেরেছেন স্পিনাররা। তানভীর ইসলাম ও মনির হোসনের দারুণ বোলিংয়ে সিলেটকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়েছে বরিশাল।
  • রাব্বির তোপে ইনিংস ব্যবধানে হারের শঙ্কায় সিলেট
    দিনের শুরুতে সিলেটকে গুঁড়িয়ে দিলেন কামরুল ইসলাম রাব্বি ও নুরুজ্জামান। মাত্র ৮৬ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও স্বস্তিতে নেই অলক কাপালীর দল। বরিশালের বিপক্ষে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের চোখ রাঙানি সিলেটের সামনে।
  • রাব্বির ছোবলের পর জাকিরের লড়াই
    দুই ওপেনারকে দ্রুত ফিরিয়ে সিলেটকে বড় একটা ধাক্কা দিয়েছিলেন কামরুল হাসান রাব্বি। বরিশালের অভিজ্ঞ পেসারের ছোবল সামলে দলকে টানছেন তরুণ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান জাকির হাসান।
  • শিরোপা জিতে খুলনার রেকর্ড স্পর্শ করল রাজশাহী
    শিরোপার সুবাস মিলছিল আগের দিন থেকেই। ক্রিকেটীয় অনিশ্চয়তায় কেবল ছিল খানিকটা শঙ্কা। তবে সেই শঙ্কাকে কাছে ঘেঁষতে দেয়নি রাজশাহী। জুনায়েদ সিদ্দিকের দারুণ সেঞ্চুরিতে হারিয়েছে বরিশালকে। জাতীয় ক্রিকেট লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করে ছুঁয়েছে খুলনার রেকর্ড।
  • শিরোপার আরও কাছে রাজশাহী
    যে সম্ভাবনায় শুরু হয়েছিল শেষ রাউন্ড, শেষ দিনটির আগে সেই সম্ভাবনার একদম দুয়ারে দাঁড়িয়ে রাজশাহী। এখন কেবল শেষ পদক্ষেপ রাখার অপেক্ষা। জাতীয় ক্রিকেট লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করার খুব কাছে দলটি।
  • রাজশাহীতে মনিরের হ্যাটট্রিক
    দ্বিতীয় দিন দ্রুত উইকেট তুলে নিয়ে রাজশাহীকে বড় লিড নিতে দেননি মনির হোসেন। বরিশালের বাঁহাতি এই স্পিনারের হ্যাটট্রিকের আনন্দে ভাসার দিনে মাত্র তিন রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়তে হয়েছে তার সতীর্থ আল আমিন জুনিয়রকে।
  • বগুড়ায় চাপে খুলনা
    ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় রংপুরের বিপক্ষে চাপে পড়েছে খুলনা। দুই পেসার রবিউল হক ও সাজেদুল ইসলাম গত আসরের চ্যাম্পিয়নদের কাঁপিয়ে দেওয়ার পর লেগ স্পিনে ছোবল দিয়েছেন তানবীর হায়দার।
  • মনিরের ৫ উইকেটের পর জমে উঠেছে লড়াই
    প্রথম ইনিংসে দুই দলই ছিল সমতায়। লড়াই তুমুল জমে উঠেছে দ্বিতীয় ইনিংসেও। মনির হোসেনের দারুণ বোলিংয়ে লক্ষ্য নাগালের বাইরে যেতে দেয়নি বরিশাল। রংপুরও বাঁচিয়ে রেখেছে সম্ভাবনা। অপেক্ষা এখন শেষ দিনের নাটকীয়তার।
  • জ্বলে উঠলেন শুভাশিস, আবারও ব্যর্থ মোসাদ্দেক
    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের টেস্ট দল ঘোষণা হতে পারে যে কোনো সময়। তার আগে নির্বাচকদের বার্তা দিয়ে রাখলেন শুভাশিস রায়। জ্বলে উঠলেন জাতীয় লিগে। জাতীয় দলে জায়গা প্রত্যাশী আরেকজন ছিঁড়তে পারেননি ব্যর্থতার জাল। আবারও নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ মোসাদ্দেক হোসেন।
  • জ্বলে উঠলেন বোলার সোহাগ গাজী
    অফ স্পিনে তার কার্যকারিতাই প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিল। গত কিছুদিনে হয়ে উঠেছেন অলরাউন্ডার, যার বেশি সাফল্য ব্যাটিংয়ে। উইকেটও পেয়েছেন কিছু, তবে সেসব অনেক দামে কেনা। অবশেষে বল হাতে বলার মতো করে জ্বলে উঠতে পারলেন সোহাগ গাজী।
  • মুক্তারের ব্যাটিং বীরত্বের পর শাহরিয়ারের সেঞ্চুরি
    দারুণ এক ফিফটিতে রাজশাহীকে লিড এনে দিয়েছেন মুক্তার আলী। চমৎকার এক সেঞ্চুরিতে বরিশালকে পথ দেখিয়েছেন শাহরিয়ার নাফীস।
  • বরিশালে বোলারদের দাপট
    বৃষ্টির দাপটে দুই দিন বল মাঠে গড়ায়নি। তৃতীয় দিন যখন খেলা শুরু হলো তখন দেখা মিলল উইকেট বৃষ্টির। এক দিনেই শেষ হয়ে যাচ্ছিল দুই দলের একটি করে ইনিংস। বোলারদের দাপটে পড়েছে ১৯ উইকেট।
  • সাজেদুলের বোলিং ঝলকের পর জাভেদের ফিফটি
    ঘরোয়া ক্রিকেটের অভিজ্ঞ পেসারদের একজন। রংপুরকেও নেতৃত্বও দিচ্ছেন মোটামুটি নিয়মিত। কিন্তু দারুণ কোনো পারফরম্যান্স ছিল না অনেকদিন। সেই খরা ঘোচালেন সাজেদুল ইসলাম। বাঁহাতি পেসারের দারুণ বোলিং বড় স্কোর গড়তে দিল না খুলনাকে। এরপর ওপেনার জাহিদ জাভেদের ফিফটিতে রংপুর এগোচ্ছে লিডের পথে।
  • বড় ইনিংসের সুযোগ হাতছাড়া এনামুল-সৌম্যর
    জাতীয় দলের জায়গা হারিয়েছেন দুজন। আবার নির্বাচকদের মন জয় করতে চাই ধারাবাহিক ভাবে বড় ইনিংস। জাতীয় লিগের প্রথম রাউেন্ড দুজনই করেছিলেন সেঞ্চুরি। আবারও তাদের সামনে এসেছিল বড় ইনিংসের সুযোগ। কিন্তু সুযোগটা নিতে পারেননি এনামুল হক ও সৌম্য সরকার।
  • জিয়ার সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় আফিফ
    দুজনে যখন জুটি বেঁধেছিলেন উইকেটে, প্রতিপক্ষ তখন লিড নেওয়ার আশায়। কিন্তু দারুণ ব্যাটিংয়ে খুলনাকে শুধু উদ্ধারই করলেন না জিয়াউর রহমান ও আফিফ হোসেন, এনে দিলেন লিড। সেঞ্চুরি করে আউট হয়ে গেছেন জিয়া, তবে অপেক্ষায় আছেন আফিফ।
  • ব্যাট-বলের তুমুল লড়াই খুলনায়
    সাত জন ব্যাটসম্যান ছুঁয়েছেন বিশ। কিন্তু ফিফটি করতে পারেননি কেউ। চার জন বোলার নাম লিখিয়েছেন উইকেট শিকারে। একা সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেননি কেউ। দিন শেষে দুই দলের একটিকে একটু এগিয়ে রাখাও কঠিন। বরিশাল ও খুলনার ম্যাচের প্রথম দিনে লড়াই জমল দারুণ।
  • শেষ দিনে নাঈমের সেঞ্চুরি, মাহমুদের ৫ রানের আক্ষেপ
    প্রথম দিন ৮ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়েছিলেন নাঈম ইসলাম। চতুর্থ ও শেষ দিনে তিন অঙ্কের দেখা পেয়ে গেলেন রংপুরের এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। এর আগে মাত্র ৫ রানের জন্য ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়েন ফজলে মাহমুদ।
  • ফজলে মাহমুদ-সোহাগের সেঞ্চুরি
    আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি করে ফিরে গেছেন সোহাগ গাজী। অপরাজিত সেঞ্চুরিতে দলকে টানছেন ফজলে মাহমুদ। দুই সেঞ্চুরিতে রংপুরের বড় সংগ্রহের জবাব দিচ্ছে বরিশাল।
  • ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে আরিফুলের ডাবল সেঞ্চুরি
    আগের দিন সেঞ্চুরিতে পৌঁছানো আরিফুল হক পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। তার ব্যাটে ভর করে বরিশালের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়েছে রংপুর। জবাব দিতে নেমে শুরুটা খারাপ হয়নি বরিশালের।
  • আরিফুলের সেঞ্চুরি, নাঈমের ৮ রানের আক্ষেপ
    বরিশালের বিপক্ষে জাতীয় ক্রিকেট লিগের ম্যাচে মাত্র ৮ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়েছেন নাঈম ইসলাম। সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন আরিফুল হক। এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারের ব্যাটে প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়ছে রংপুর।
  • সালমান, মোসাদ্দেকের ফিফটিতে বরিশালের ড্র
    নাসির হোসেনের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে চাপে পড়ে যাওয়া ম্যাচে ড্র করেছে বরিশাল। দুই তরুণ সালমান হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেনের ফিফটিতে জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম স্তরে টিকে গেছে দলটি।
  • নাসিরের সামনে ট্রিপল সেঞ্চুরির হাতছানি
    ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে বরিশালকে পুড়িয়েছেন নাসির হোসেন ও আরিফুল হক। দুই জনের বিশাল জুটিতে প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়ছে রংপুর। দেড়শ রানের ইনিংস খেলে ফিরে গেছেন আরিফুল, ক্যারিয়ারের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরির হাতছানি নাসিরের সামনে।
  • নাসিরের সেঞ্চুরিতে রংপুরের লিডের আশা
    বিপিএলে ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ নাসির হোসেন জ্বলে উঠেছেন বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে। অপরাজিত সেঞ্চুরিতে বরিশালের বিপক্ষে লিডের পথে রেখেছেন রংপুরকে।
  • সোহাগ গাজীর ১ রানের আক্ষেপ
    বিপিএলে বল হাতে বড় ভূমিকা রেখেছেন রংপুরের শিরোপা জয়ে। তবে জাতীয় লিগে রংপুর তার প্রতিপক্ষ। বরিশালের হয়ে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে সোহাগ গাজী ভোগালেন রংপুরকেই। শেষ পর্যন্ত যদিও পুড়েছেন ১ রানের আক্ষেপে।
  • রাজ্জাক-নাহিদুলের স্পিনে ফলো অনে বরিশাল
    ব্যাটসম্যানদের রান পাহাড়ের পর দায়িত্ব ছিল বোলারদের। খুলনার বোলাররা সেটি পূরণ করেছেন ভালোমতোই। খুলনার বিপক্ষে ফলো অনে পড়েছে বরিশাল।
  • জিয়ার দেড়শতে রান পাহাড়ে খুলনা
    এক রাউন্ড আগেই দারুণ এক সেঞ্চুরিতে বিপর্যয় থেকে উদ্ধার করেছিলেন দলকে। এবার প্রেক্ষাপট ছিল ভিন্ন। পেয়েছিলেন শক্ত ভিত্তি। সেটিকে কাজে লাগিয়ে জিয়াউর রহমান খেললেন আরও বড় ইনিংস। দল গড়ল রানের পাহাড়।
  • রবির আরেকটি সেঞ্চুরি
    গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে অন্যতম চমক ছিলেন রবিউল ইসলাম রবি। ছিলেন দারুণ ধারাবাহিক। সেই ফর্ম দেখাচ্ছেন জাতীয় লিগেও। খুলনার এই ওপেনার করলেন লিগের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।
  • শুভাগতর দারুণ বোলিংয়েও বরিশালের লিড
    শুভাগত হোম চেষ্টা করলেন। তবে আটকাতে পারলেন না বরিশালকে। শামসুল আলমের ব্যাটে লিড পেল বরিশাল। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেও খুব সুবিধা করতে পারেনি ঢাকা।
  • সোহাগের ব্যাটে উদ্ধার বরিশাল
    বোলিংয়ের চেয়ে ইদানিং ব্যাটিংটাই বেশি ভালো করেন সোহাগ গাজী। বল হাতে আরেকবার উইকেটশূন্য বরিশালের হয়ে। তবে ঢাকা বিভাগের বিপক্ষে দলকে টানলেন ব্যাট হাতে।
  • রনির পর লড়ছেন শরিফ
    শুরু থেকে প্রায় দ্বিতীয় নতুন বল পর্যন্ত লড়ে গেছেন রনি তালুকদার। মাঝে তাকে খানিকটা সঙ্গ দিলেন তাইবুর পারভেজ। দিনের শেষ ভাগে লড়লেন মোহাম্মদ শরিফ। প্রথম দিনে ঢাকা বিভাগের প্রথম ইনিংসের গল্প এই।
  • রাজ্জাকের স্পিনে খুলনার বড় জয়
    জাতীয় দলে উপেক্ষিত অনেক দিন থেকেই। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি উইকেট নেন নামতা গুণে। বল হাতে আবারও তেমন পারফরম্যান্স দেখালেন আব্দুর রাজ্জাক। শেষ দিনে ৫ উইকেট নিয়ে বড় জয় এনে দিলেন খুলনাকে।
  • বরিশালের সামনে মাশরাফিদের চ্যালেঞ্জ
    দিনের শুরুটায় ব্যাট করছিল বরিশাল। তখন লড়াই ছিল ব্যবধান কমানোর। দিনের শেষ ভাগেও ব্যাটিংয়ে বরিশাল। লড়াই এবার জয়-পরাজয়ের। মাঝের সময়টুকুতে বরিশালের সামনে খুলনা রেখেছে কঠিন চ্যালেঞ্জ।