• অবশেষে প্রথম স্তরে চট্টগ্রাম
    জাতীয় ক্রিকেট লিগ দুই স্তরে ভাগ হওয়ার পর থেকে চট্টগ্রাম বিভাগের দ্বিতীয় স্তরে খেলা যেন হয়ে গিয়েছিল অবধারিত। অবশেষে উন্নতি হলো তাদের। দ্বিতীয় স্তরে সেরা হয়ে উঠে গেল প্রথম স্তরে।
  • ৭ বছর পর চ্যাম্পিয়ন ঢাকা
    শিরোপা ঘরে তুলতে জয়ের বিকল্প ছিল না। শেষ দিনে প্রতিপক্ষের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন-আপ গুটিয়ে দেওয়াও ছিল না সহজ কাজ। কঠিন সেই চ্যালেঞ্জে তাইবুর রহমানের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে উতরে গেল ঢাকা বিভাগ। গতবারের চ্যাম্পিয়ন খুলনা বিভাগকে হারিয়ে সাত বছর পর জাতীয় লিগের শিরোপা জিতল তারা।
  • ১০ চার ও ৬ ছক্কায় ফরহাদ রেজার ৯৯
    টানা দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে এবার অল্পের জন্য পারলেন না ফরহাদ রেজা। রাজশাহী বিভাগের এই অলরাউন্ডার এবার আউট হলেন ৯৯ রানে! এবারের জাতীয় লিগে প্রথমবার পাঁচ উইকেটের স্বাদ পেলেন বাঁহাতি পেসার রুয়েল মিয়া।
  • ৭ উইকেট নিয়ে মিঠুনের চমক
    ব্যাট হাতে এবারের জাতীয় লিগ মোটেও ভালো কাটছে না মোহাম্মদ মিঠুনের। আট ইনিংসে নেই কোনো ফিফটি। তবে এবার তিনি চমক দেখালেন বোলিংয়ে। খুলনা বিভাগের হয়ে এক ইনিংসেই নিলেন ৭ উইকেট!
  • অল্পের জন্য হলো না ফজলে মাহমুদের ডাবল সেঞ্চুরি
    আগের দিন তিন অঙ্কে পা রাখা ফজলে মাহমুদ রাব্বি জাগালেন ডাবল সেঞ্চুরির আশা। কিন্তু পারলেন না অল্পের জন্য। ধ্বংসস্তূপ থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে তার দল বরিশাল বিভাগ অবশ্য পেল বড় সংগ্রহ।
  • মাইশুকুরের সেঞ্চুরি, আক্ষেপ মাহিদুলের
    টুকটাক রানের দেখা পাচ্ছিলেন। কিন্তু বড় ইনিংস খেলা হচ্ছিল না মাইশুকুর রহমানের। অবশেষে সেই বৃত্ত ভেঙে দারুণ এক সেঞ্চুরি উপহার দিলেন এই ওপেনার। তার অপরাজিত ইনিংসে সিলেট বিভাগের বিপক্ষে বড় সংগ্রহ গড়ার পথে রংপুর বিভাগ।
  • ফজলে মাহমুদের সেঞ্চুরি, ‘হ্যাটট্রিক’ হলো না মাহমুদুলের
    বারবার থেমে যাচ্ছিলেন ৭০-এর ঘরে গিয়ে। এবার আর ভুল করলেন না ফজলে মাহমুদ রাব্বি। দলের বিপর্যয়ের মুখে তুলে নিলেন দারুণ এক সেঞ্চুরি। জাতীয় ক্রিকেট লিগে টানা তিন ম্যাচে সেঞ্চুরির আশা জাগিয়েও অল্পের জন্য পারলেন না মাহমুদুল হাসান জয়।
  • আল আমিনের ৯ উইকেট
    প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়া আল আমিন হোসেন ভালো করলেন আবারও। তবে এই পেসারের ছোবলে প্রথম ইনিংসে দেড়শর নিচে গুটিয়ে যাওয়া সিলেট বিভাগ এবার গেল তিনশর কাছে। অমিত হাসান, জাকের আলি ও এনামুল হক জুনিয়রের তিন ফিফটিতে তারা প্রায় সারাদিন কাটিয়ে দেওয়ায় খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ম্যাচ হলো ড্র।
  • ব্যর্থ লিটন, মজিদ-রনির ফিফটি
    ব্যর্থতার বৃত্তে এখনও বন্দি লিটন কুমার দাস। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিষ্প্রভ থাকা এই ব্যাটসম্যান চলতি মৌসুমে প্রথমবার জাতীয় লিগে খেলতে নেমে ভালো করতে পারেননি। ফিফটি করেছেন আব্দুল মজিদ ও রনি তালুকদার।
  • রাজশাহীর প্রতিশোধ, জয়ের হাসি বরিশালের
    জাতীয় লিগের চলতি মৌসুমে প্রথম চার রাউন্ডে রাজশাহী বিভাগের একমাত্র হার চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে। আসরে নিজেদের প্রথম জয়ও তারা তুলে নিল চট্টগ্রামকে হারিয়েই। আগের দিন গড়া মঞ্চে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে প্রতিশোধটা ভালোই নিল ফরহাদ রেজা-সানজামুল ইসলামরা।
  • প্রিতম-ফরহাদের সেঞ্চুরি, সানজামুলের ১০ উইকেট
    আগের দিনের ফিফটিকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করেছেন প্রিতম কুমার ও ফরহাদ রেজা। তাদের দারুণ জুটিতে চট্টগ্রাম বিভাগকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার পর বোলারদের নৈপুণ্যে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছে রাজশাহী বিভাগ।
  • সৌম্যর ফিফটি, আবু জায়েদের ৪ উইকেট
    বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়ার দিন ঘরোয়া বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে রানের দেখা পেয়েছেন সৌম্য সরকার। দলের বিপর্যয়ের মুখে নেমে করেছেন ফিফটি। খুলনা বিভাগের হয়ে ইনিংসটি যদিও বড় করতে পারেননি তিনি। দারুণ বোলিংয়ে তাদের দুইশর আগে থামিয়ে দিয়েছেন আবু জায়েদ চৌধুরি, সৈয়দ খালেদ আহমেদরা।
  • সালমানের সেঞ্চুরি, সানজামুলের ৬ উইকেট
    আগের দিনের ফিফটির ইনিংসটি বেশিদূর টেনে নিতে পারলেন না ফজলে মাহমুদ। তবে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি উপহার দিলেন সালমান হোসেন। তার ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে বিশাল লিড পেল বরিশাল বিভাগ।
  • আল আমিনের সামনে ধুঁকছে সিলেট
    প্রতিপক্ষের দুই ওপেনারকে ফেরানো আল আমিন হোসেন শেষ বেলায় নিলেন আরও দুই উইকেট। এই পেসারের দুর্দান্ত বোলিংয়ে খুলনা বিভাগের বিপক্ষে দেড়শর আগে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় সিলেট বিভাগ।
  • নাঈমের ছোবলে নীল রাজশাহী, স্বস্তিতে নেই চট্টগ্রামও
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকেই দারুণ বোলিংয়ে সুরটা বেঁধে দিলেন শাহিন আলম। পরে রাজশাহী বিভাগের ব্যাটিং লাইন-আপকে গুঁড়িযে দিলেন নাঈম হাসান। প্রতিপক্ষকে দুইশর আগে গুটিয়ে দিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে চার উইকেট হারিয়ে স্বস্তিতে নেই চট্টগ্রাম বিভাগও।
  • শেষ দিনের চ্যালেঞ্জ উতরে রংপুরের জয়
    শেষ দিনে দরকার ছিল প্রায় ২০০ রান। শেষ দিন বলেই চ্যালেঞ্জটা ছিল বেশ কঠিন। রংপুর বিভাগের ব্যাটসম্যানরা সেই পরীক্ষা উতরে গেলেন দৃঢ়তায়। খুলনা বিভাগের বিপক্ষে দলকে এনে দিলেন দারুণ এক জয়।
  • তানজিদের প্রথম সেঞ্চুরিতে রাজশাহীর লিড
    আট ম্যাচের প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে আগের সর্বোচ্চ ছিল ৮২। এবার দারুণ একটি সেঞ্চুরি উপহার দিলেন তানজিদ হাসান। তরুণ এই ব্যাটসম্যানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে বড় লিডের পথে ছুটছে রাজশাহী বিভাগ।
  • অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে চট্টগ্রামের ইনিংস ব্যবধানে জয়
    প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও চট্টগ্রাম বিভাগের বোলারদের সামনে দাঁড়াতে পারল না বরিশাল বিভাগ। সুরটা বেঁধে দিলেন পেসার মেহেদি হাসান। পরে তা সঙ্গত করলেন বাকিরা। একদিন আগেই ইনিংস ব্যবধানে জয় তুলে নিল মুমিনুল হকের দল।
  • মিরাজের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স, মৃত্যুঞ্জয়ের ৫ উইকেট
    জাতীয় দলের হয়ে নতুন চ্যালেঞ্জের আগে ব্যাট ও বল হাতে নিজেকে শাণিত করে নিচ্ছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অপরাজিত এক ইনিংসে দলকে আড়াইশ ছাড়ানো পুঁজি এনে দিতে রাখলেন ভূমিকা। পরে বল হাতে জ্বলে উঠে খুলনা বিভাগকে এনে দিলেন লিড।
  • মাহমুদুলের সেঞ্চুরি, মুমিনুলের ঝড়ো ৮১
    ব্যাট হাতে আবারও জ্বলে উঠলেন মাহমুদুল হাসান। টানা দুই ম্যাচে উপহার দিলেন সেঞ্চুরি। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে একই সম্ভাবনা জাগান মুমিনুল হকও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারলেন না বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। তবে তাদের দারুণ পারফরম্যান্সে বরিশাল বিভাগের বিপক্ষে বড় লিডের পথে এগোচ্ছে চট্টগ্রাম বিভাগ।
  • তাইজুলের ৬ উইকেট
    ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে আসছে টেস্ট সিরিজের আগে প্রস্তুতি বেশ ভালোই হচ্ছে তাইজুল ইসলামের। জাতীয় ক্রিকেট লিগে প্রথম দুই রাউন্ডের পর বরিশাল বিভাগের বিপক্ষেও বল হাতে দারুণ পারফরম্যান্স করেছেন বাঁহাতি এই স্পিনার।
  • সাদমানের ব্যাটে লড়ছে মেট্রো
    প্রথম ওভারেই নেই একজন। সেই ধাক্কা কিছুটা কাটিয়ে ওঠার পর দ্রুত আরও তিন উইকেটের পতন। প্রতিপক্ষের বিশাল স্কোরের জবাবে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া ঢাকা মেট্রোকে একাই টানছেন সাদমান ইসলাম। এক প্রান্ত আগলে রেখে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের টেস্ট ওপেনার।
  • মুমিনুল ও মাহমুদুলের সেঞ্চুরি
    এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে মাঠে গড়াবে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ। এর আগে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। সঙ্গে মাহমুদুল হাসানের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে রয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ।
  • সোহাগের ঝড়ো সেঞ্চুরি, আশরাফুলের ব্যাটে রান
    শুরুতে ঝড় তুললেন ফজলে মাহমুদ। সেই সুর ধরে রেখে বরিশাল বিভাগকে বড় সংগ্রহ এনে দিলেন সোহাগ গাজী। রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে করলেন দারুণ এক সেঞ্চুরি।
  • মিরাজ-মিঠুনদের বিপক্ষে সিলেটের জয়
    জয়ের ভিত গড়া হয়েছিল আগের দিনই। সেই পথ ধরে শেষ দিনে এগিয়ে যেতে কোনো ভুল করেনি সিলেট বিভাগ। মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুনদের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়ে গড়া খুলনা বিভাগকে অনায়াসেই হারিয়েছে তারা।
  • বৃষ্টির আগে আমিনুল-আবু হায়দারের ফিফটি
    দুই ম্যাচ খেলে আগের সর্বোচ্চ ছিল কেবল ১০। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নেমে দারুণ এক ফিফটি উপহার দিলেন আমিনুল ইসলাম। পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেললেন আবু হায়দার রনি। তাদের জুটিতে রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে বড় লিড পেয়েছে ঢাকা মেট্রো।
  • সাদমানের সুযোগ হারানোর দিনে মেট্রোর লিড
    প্রথম ম্যাচেও সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে পারেননি সাদমান ইসলাম। আরও একবার সেই ভুলে পা দিলেন বাংলাদেশের টেস্ট ওপেনার। রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে আশা জাগিয়েও পারলেন না তিন অঙ্ক ছুঁতে।
  • স্পিনারদের ম্যাচে ২ দিনেই বরিশালের জয়
    প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনেও রাজত্ব করলেন স্পিনাররা। তাদের দাপটে যেন অসহায় আত্মসমর্পন করলেন দুই দলের ব্যাটসম্যানরা। দুই দিনেই শেষ হয়ে যাওয়া ম্যাচে স্বাগতিক দলকে হারিয়ে দিল বরিশাল বিভাগ।
  • আশরাফুল ও শরিফুল্লাহর হ্যাটট্রিক
    ব্যাট হাতে যেতে পারলেন না দুই অঙ্কে। তবে বোলিংয়ে আলো ছড়ালেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তার হ্যাটট্রিক ও মনির হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে দেড়শর কম পুঁজি নিয়েও লিড পেয়েছে বরিশাল বিভাগ।
  • জাভেদের সেঞ্চুরি, ৯ উইকেট নিয়ে সেরা মিরাজ
    দুই দলেরই দ্বিতীয় ইনিংস বাকি থাকতে শুরু হয় শেষ দিনের খেলা। অতি নাটকীয় কিছু না হওয়ায় ম্যাচের ভাগ্য অনুমিতভাবেই ড্র হয়েছে। এমন ম্যাড়মেড়ে ম্যাচে ব্যাট হাতে আলো ছড়ালেন জাহিদ জাভেদ। রংপুর বিভাগের এই ওপেনার উপহার দিলেন দারুণ এক সেঞ্চুরি।
  • সানজামুলের ছোবল এড়িয়ে চট্টগ্রামের জয়ের নায়ক ইয়াসির
    পুঁজি ছোট, এরপরও দারুণ লড়াই করলেন সানজামুল ইসলাম। টেস্ট দলের স্পিনার তাইজুল ইসলাম দিতে পারলেন না ততটা সঙ্গ। দায়িত্বশীল এক ইনিংসে চট্টগ্রাম বিভাগকে পথ দেখালেন ইয়াসির আলি চৌধুরি। তার ব্যাটে রাজশাহী বিভাগকে হারিয়ে প্রথম স্তরে ফেরার অভিযান শুরু করল দলটি। 
  • কক্সবাজারে ব্যাটে-বলের জমজমাট লড়াই
    বৃষ্টিতে পুরো একটি দিন ভেসে যাওয়ায় ম্যাচে ফল হয়তো সম্ভব নয়, কিন্তু কক্সবাজারে দারুণ জমল ব্যাটে-বলের লড়াই। সালমান হোসেন ও শামসুল ইসলামের ফিফটির পরও দারুণ বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে লিডের আশা জাগাল ঢাকা মেট্রো। তবে শেষের ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় ২ রানের লিড নিল বরিশাল বিভাগ।
  • অনায়াস জয়ে জাতীয় লিগ শুরু ঢাকার
    জয় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগের দিনই। সেই পথে এগিয়ে যেতে তৃতীয় দিন মোটেও সময় নেয়নি ঢাকা বিভাগ। অনায়াসেই সিলেট বিভাগকে হারিয়ে জাতীয় ক্রিকেট লিগের এবারের আসর শুরু করল তারা।
  • এনামুলের ব্যাটে এগোচ্ছে খুলনা
    ভালো শুরু পেয়েও ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হলেন ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ মিঠুন। অভিজ্ঞ দুই সতীর্থের হতাশার দিনে দারুণ ব্যাটিংয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন এনামুল হক। দুর্দান্ত বোলিংয়ের পর ব্যাট হাতে অবদান রাখছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।
  • সাদমানের ব্যাটে রান, তানভিরের ৬ উইকেট
    টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাঠে গড়ানোর দিনে বাংলাদেশে শুরু হলো জাতীয় ক্রিকেট লিগের নতুন আসর। দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের প্রধান টুর্নামেন্ট এবার আসন্ন পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতির মঞ্চ। সেখানে শুরুটা ভালোই হলো সাদমান ইসলামের। ফিফটি করলেন টেস্ট দলের বাঁহাতি এই ওপেনার। ৬ উইকেট নিয়ে আলো ছড়ালেন তরুণ বাঁহাতি স্পিনার তানভির ইসলাম।
  • নাঈম-নাসিরের সুযোগ হাতছাড়া, মিরাজের ৪ উইকেট
    ব্যাটিংয়ে নামা ১০ ব্যাটসম্যানের আট জনই গেলেন দুই অঙ্কে। কিন্তু কেউ পারলেন না ৪০ পার হতে। গড়ে উঠল না তেমন কোনো জুটি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট নিয়ে রংপুরকে চাপে ফেলে দিলেন খুলনার দুই বোলার মেহেদী হাসান মিরাজ ও আল আমিন হোসেন।
  • প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট নিয়ে ভাবনায় বদল দেখছেন রাজ্জাক
    একটা সময় পেশাদারিত্ব বলতে কিছু ছিল না। সরাসরি হোটেলে রিপোর্টিং হতো। দুয়েক দিন পর ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমে পড়তো খেলোয়াড়রা। সেখানটায় অনেক বদল এসেছে। এখন বেশ আগেই প্রস্তুতি শুরু করে বিভাগীয় দলগুলো। স্কিল ক্যাম্প-ফিটনেস ক্যাম্প আয়োজনের পর অংশ নেয় জাতীয় ক্রিকেট লিগে। সব মিলিয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট নিয়ে ভাবনায় পরিবর্তনের ছাপ দেখছেন আব্দুর রাজ্জাক।
  • জাতীয় লিগে প্রথমবার সেরা রাজ্জাক-তাইবুর
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার সাফল্যের ধারে কাছে নেই বাংলাদেশের কোনো বোলার। দুই দশকের ক্যারিয়ারে গত এক দশকে তার ধারাবাহিকতা অসাধারণ। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, সেই আব্দুর রাজ্জাক জাতীয় লিগের শীর্ষ উইকেট শিকারী হলেন এই প্রথমবার। ঘরোয়া ক্রিকেটের আরেক নিয়মিত পারফরমার তাইবুর রহমান প্রথমবার হলেন সর্বোচ্চ রান স্কোরার।
  • আরিফুলের দুর্দান্ত বোলিংয়ের ম্যাচে রাজশাহীর অবনমন
    গত আসরের চ্যাম্পিয়নই শুধু নয়,এবারের আগপর্যন্ত জাতীয় লিগের সবচেয়ে সফলতম দল ছিল তারা। তবে সেই সাফল্যের পথ ধরে এবার আর হাঁটা হয়নি রাজশাহীর। রংপুরের অলরাউন্ডার আরিফুল হকের দারুণ পারফরম্যান্সে শেষ রাউন্ডে হেরেছে তারা। নেমে গেছে দ্বিতীয় স্তরে।
  • সানির ৫ উইকেট, মঈন-সালমানের দৃঢ়তা
    দ্বিতীয় ইনিংসে দেড়শর আগেই বরিশালের ছয় ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল ঢাকা মেট্রো। তবে প্রথম ইনিংসের মতো আবারও প্রতিরোধ গড়লেন দুই তরুণ সালমান হোসেন ও মঈন খান। ড্রয়ে শেষ হলো ঢাকা মেট্রো ও বরিশালের দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচ।
  • রেকর্ড গড়ে চ্যাম্পিয়ন রাজ্জাক-সোহানের খুলনা
    শিরোপার আভাস পাওয়া গিয়েছিল আগের দিনই। বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন রকিবুল হাসান। ঢাকা বিভাগের সেই বাধা ভেঙে জাতীয় লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে খুলনা বিভাগ।
  • ৬ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাটিংয়েও আগ্রাসী আরিফুল
    আগের দিন বিকেলের বোলিং ধার সোমবার সকালেও ধরে রাখলেন আরিফুল হক। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে গুটিয়ে দিলেন রাজশাহীকে। পরে ব্যাট হাতেও খেললেন আক্রমণাত্মক এক ইনিংস। সঙ্গে তানবীর হায়দারের অপরাজিত ফিফটিতে রাজশাহীর বিপক্ষে অনেকটা এগিয়ে রংপুর।
  • সোহানের দুর্দান্ত দেড়শ, শিরোপার কাছে খুলনা
    অনেকটা একার লড়াইয়ে দলকে বড় লিড এনে দিলেন নুরুল হাসান। নিয়মিত অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাকের অনুপস্থিতিতে খুলনার নেতৃত্ব পাওয়া এই কিপার-ব্যাটসম্যান খেললেন অপরাজিত ১৫০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। এরপর জিয়াউর রহমানের দারুণ এক স্পেলে টালমাটাল ঢাকার দ্বিতীয় ইনিংস। দুইয়ে মিলে জাতীয় লিগে আবার শিরোপার সুবাস পাচ্ছে খুলনা।
  • শামসুর-মার্শালের সেঞ্চুরি, আল আমিনের আক্ষেপ
    সেঞ্চুরি পূরণের পর বেশি দূর এগোতে পারলেন না শামসুর রহমান ও অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। পরে দারুণ এক ইনিংসে দলকে লিড এনে দিলেন আল আমিন। তবে আট রানের জন্য পেলেন না সেঞ্চুরির দেখা। শেষ বিকেলে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই বরিশালের তিন উইকেট তুলে নিয়ে তাদের চাপে রেখেছে ঢাকা মেট্রো।
  • তাসকিনের ৪ উইকেটের পর মার্শাল-শামসুরের দৃঢ়তা
    লোয়ার-অর্ডারের দৃঢ়তায় প্রথম ইনিংসে চারশ ছাড়ানো সংগ্রহ গড়ল বরিশাল। দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শামসুর রহমান ও অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুবের ব্যাটে ভালোই জবাব দিচ্ছে ঢাকা মেট্রো।
  • রুহেলের রেকর্ড, দুই দিনেই জিতে প্রথম স্তরে উঠল সিলেট
    প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও বল হাতে আগুন ঝরালেন রুহেল মিয়া। গড়লেন ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে কোনো পেসারের এক ম্যাচে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ড। তার তোপে চট্টগ্রামকে দুই দিনেই হারিয়ে দিল সিলেট। দ্বিতীয় স্তরে চ্যাম্পিয়ন হয়ে উঠে গেল প্রথম স্তরে।
  • তুষার-সোহানের ব্যাটে লিডের পথে খুলনা
    ম্যাচের প্রথম পাঁচ সেশনে লড়াই হলো সমানে-সমান। ষষ্ঠ সেশনে দুর্দান্ত জুটি গড়ে খুলনাকে এগিয়ে নিলেন তুষার ইমরান ও নুরুল হাসান সোহান। ঢাকার বোলারদের দারুণভাবে সামলে ফিফটি করে অপরাজিত রয়েছেন দুই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।
  • ফজলে মাহমুদের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে বরিশাল
    ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস এনে দিয়েছিলেন ভালো শুরু। সেই ভিতের উপর দাঁড়িয়ে দলকে টানলেন ফজলে মাহমুদ। তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। সঙ্গী হিসেবে পেলেন সালমান হোসেনকে। তাদের ব্যাটে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে বড় সংগ্রহ গড়ার পথে রয়েছে বরিশাল বিভাগ।
  • দেলোয়ার-মোহরের ছোবল সামলে সোহরাওয়ার্দীর সেঞ্চুরি
    দুই পেসার দেলোয়ার হোসেন ও মোহর শেখের ছোবলে টালমাটাল রংপুরকে পথ দেখালেন সোহরাওয়ার্দী শুভ। রাজশাহীর বিপক্ষে দারুণ সেঞ্চুরিতে দলকে রাখলেন তিনশ রানের পথে। 
  • তাইবুরের সেঞ্চুরি, হালিমের ৫ উইকেট
    জাতীয় ক্রিকেট লিগের শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচের লড়াই জমে উঠেছে প্রথম দিনেই। ঢাকার হয়ে সেঞ্চুরি করেছেন তাইবুর রহমান। ফিফটি করেছেন আরও দুই জন। তারপরও খুলনার তরুণ পেসার আব্দুল হালিমের দারুণ বোলিংয়ে খুব বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি ঢাকা।
  • রুহেলের তোপে প্রথম দিনেই লিড সিলেটের
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মাত্র তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামা রুহেল মিয়া করলেন আগুনে বোলিং। চট্টগ্রামের ব্যাটিং গুঁড়িয়ে দিয়ে গড়লেন ইতিহাস। তার এমন কীর্তি গড়া ম্যাচে প্রথম দিনেই দলকে লিড এনে দিয়েছেন সিলেটের ব্যাটসম্যানরা।
  • ৮ উইকেট নিয়ে রুহেলের রেকর্ড
    শুরুর ধাক্কা সামলাতে চট্টগ্রামের ভরসা হয়ে ছিলেন অভিজ্ঞ তাসামুল হক। কিন্তু সিলেটের অনভিজ্ঞ পেসার রুহেল মিয়া যে এত ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবেন কে জানতো! প্রথম স্পেলে দুই উইকেট নেয়ার পর দ্বিতীয় স্পেলে এসে তাসামুলসহ চট্টগ্রামের শেষ ৬ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন তরুণ এই পেসার। গড়েছেন দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে কোনো পেসারের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড।
  • নাসিরের দেড়শর পর রকিবুলের দৃঢ়তা
    আগের দিন সেঞ্চুরি করে অপরাজিত থাকা নাসির হোসেনের দেড়শো ছাড়ানো ইনিংসে প্রতিপক্ষকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল রংপুর। দ্রুত উইকেট হারানোয় রান তাড়া করার চ্যালেঞ্জটা নিতে পারেনি ঢাকা। রকিবুলের অপরাজিত ফিফটিতে ম্যাচ বাঁচিয়েছে রাজধানীর দলটি।
  • মার্শালের সেঞ্চুরির পর শানাজ-তৌফিকের দৃঢ়তা
    অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুবের সেঞ্চুরিতে প্রতিপক্ষকে বড় লক্ষ্য দিল ঢাকা মেট্রো। সিলেটের ইনিংসের প্রথম ওভারেই আঘাত হেনে রোমাঞ্চকর শেষের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ। তবে দুই তরুণ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান শানাজ আহমেদ ও তৌফিক খানের দৃঢ়তায় ড্র হয়েছে ম্যাচটি।
  • ফরহাদ রেজার ৬ উইকেট, রাজ্জাকের ৪
    সকালে সুইং বোলিংয়ের দুর্দান্ত প্রদর্শনী মেলে ধরলেন ফরহাদ রেজা। দুপুরে স্পিন ভেল্কি দেখালেন আব্দুর রাজ্জাক। কিন্তু বিকেলে আর ঝলক দেখাতে পারলেন না কেউ। রোমাঞ্চের আভাস থাকলেও তাই শেষ পর্যন্ত জমে উঠল না লড়াই।
  • মরা ম্যাচে প্রাণ ফেরালেন রুবেল
    চার দিনের ম্যাচের প্রথম দুই দিনের প্রায় পুরো ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। ম্যাচের আর থাকে কী! প্রায় প্রাণহীন হয়ে পড়া সেই ম্যাচকেও জীবন্ত করে তুললেন রুবেল হোসেন। গতিময় ও আগ্রাসী ফাস্ট বোলিংয়ের প্রদর্শনীতে করলেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। তার আগুনে বোলিংয়ে পুড়ল রাজশাহীর ব্যাটিং।
  • আজমির-মার্শালের ব্যাটে ঢাকা মেট্রোর লিড
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথম ফিফটির দেখা পেলেন ওপেনার আজমির আহমেদ। অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব খেলছেন দৃঢ়তার সঙ্গে। দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে তৃতীয় দিন শেষে সিলেটকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে রয়েছে ঢাকা মেট্রো।
  • অলক কাপালীর ৯ হাজার
    ব্যাট হাতে এবারের জাতীয় লিগ মোটেও ভালো কাটছে না অলক কাপালীর। বড় স্কোরের দেখা পাচ্ছেন না। তবে এর মধ্যেও দেখা পেলেন বড় এক মাইলফলকের। স্পর্শ করলেন প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে ৯ হাজার রানের মাইলফলক।
  • ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে রুবেলের ৭ উইকেট
    রঙিন পোশাকে বল হাতে যতটা উজ্জ্বল, সাদা পোশাকে ততটাই বিবর্ণ রুবেল হোসেন। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট বা টেস্ট ম্যাচ, রেকর্ড ভালো নয় কোথাও। সেই রুবেল জ্বলে উঠলেন সাদা পোশাক আর লাল বলে। জাতীয় লিগের ম্যাচে আগুন ঝরা বোলিংয়ে ৭ উইকেট নিয়েছেন ভারত সফরের দলে সুযোগ না পাওয়া পেসার।
  • অপুর ৫ উইকেটের পর মজিদ-রকিবুলের ফিফটি
    নাসির হোসেন ও তানবীর হায়দারের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে ছিল রংপুর। দারুণ বোলিংয়ে তা হতে দেননি নাজমুল ইসলাম অপু। পাঁচ উইকেট নিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষকে। আব্দুল মজিদ ও রকিবুল ইসলামের ফিফটিতে ঢাকার শুরুটা ভালো হলেও শেষ বিকেলে দ্রুত উইকেট হারিয়ে স্বস্তিতে নেই তারাও।
  • অভিষেকে অমিতের সেঞ্চুরি
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন কিপার-ব্যাটসম্যান অমিত হাসান। ফিফটি করলেন আরেক অভিষিক্ত আসাদুল্লাহ গালিব। জাতীয় লিগে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে লিড পেয়েছে সিলেট।
  • মেঘলা দিনে সোহরাওয়ার্দীর ফিফটি
    ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব পড়েছে জাতীয় লিগে। বৃষ্টির বাধার মাঝে বগুড়ায় প্রথম দিন যতটুকু খেলা হয়েছে তাতে ছড়ি ঘুরিয়েছেন ঢাকার বোলাররা। রংপুরের প্রাথমিক ধস সামলে দারুণ এক ফিফটি করেছেন অলরাউন্ডার সোহরাওয়ার্দী শুভ।
  • শামসুরের সেঞ্চুরি, রেজাউরের ৪ উইকেট
    শামসুর রহমানের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল ঢাকা মেট্রো। তবে শেষ সেশনে রেজাউর রহমানের দারুণ বোলিংয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে সিলেট।
  • রুদ্ধশ্বাস শেষ জুটিতে খুলনার রেকর্ড গড়া জয়
    শেষ জুটির পথচলা যখন শুরু, জয়ের জন্য খুলনার তখনও প্রয়োজন ১৬ রান। এরপর প্রতিটি পদক্ষেপই জাগাল রোমাঞ্চ। ছড়াল উত্তেজনা। মইনুল হোসেন ও আব্দুল হালিম পথটুকু পাড়ি দিলেন দারুণ দৃঢ়তায়। রুদ্ধশ্বাস লড়াই শেষে খুলনা গড়ল দেশের ক্রিকেটে নতুন নজির।
  • ৭ ছক্কায় নাদিফের সেঞ্চুরি
    সেঞ্চুরির সুবাস নিয়ে দিন শুরু করা শুভাগত হোম ও তাইবুর রহমান পৌঁছে গেলেন কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায়।সাতে নেমে আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি করলেন নাদিফ চৌধুরি। এই ত্রয়ীর সেঞ্চুরিতে রাজশাহীর বিপক্ষে ঢাকা বিভাগ গড়ল বড় সংগ্রহ। 
  • ভারত সফরের আগে ইমরুলের জোড়া ব্যর্থতা
    আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য প্রস্তুতি আদর্শ হলো না ইমরুল কায়েসের। ভারত সফরের টেস্ট দলে ফেরা ওপেনার জাতীয় লিগের ম্যাচে ব্যর্থ হলেন দুই ইনিংসেই। ম্যাচ অবশ্য জমে উঠেছে দারুণ। আব্দুর রাজ্জাকের অসাধারণ বোলিং ও মেহেদি হাসানের দুর্দান্ত অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের পরও নিশ্চিত নয় খুলনার জয়। সম্ভাবনায় সমান্তরালেই আছে রংপুর।
  • নাসুম-ইবাদতের বোলিংয়ে সিলেটের ইনিংস ব্যবধানে জয়
    দ্বিতীয় ইনিংসেও জ্বলে উঠলেন পেসার ইবাদত হোসেন। আলো ছড়ালেন দুই স্পিনার নাসুম আহমেদ ও শাহানুর রহমান। তাদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে বরিশালকে ইনিংস ব্যবধানে হারাল সিলেট।
  • শহিদুলের ছোবলে চট্টগ্রামের ইনিংস হার
    প্রথম ইনিংসে একশর আগে অলআউট হয়ে ফলো-অনে পড়ার পর থেকেই বড় হার চোখ রাঙাচ্ছিল চট্টগ্রামকে। দ্বিতীয় ইনিংসে লড়াই করলেন পিনাক ঘোষ ও অধিনায়ক ইয়াসির আলি। তবে ইনিংস পরাজয় এড়াতে যথেষ্ট হলো না সেই রান। পেসার শহিদুল ইসলামের দারুণ বোলিংয়ে জাতীয় লিগের দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে ইনিংস ব্যবধানে জিতল ঢাকা মেট্রো।
  • আবারও ৫ উইকেট রাজ্জাকের, ম্যাচে ১২
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৬০০ উইকেট ছোঁয়ার ম্যাচটি দারুণ বোলিংয়ে স্মরণীয় করে রাখলেন আব্দুর রাজ্জাক। প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে এই বাঁহাতি স্পিনার নিয়েছেন ৫ উইকেট।
  • তাইবুর-শুভাগতর ব্যাটে ঢাকার লিড
    আগের দিন বোলিংয়ে আলো ছড়ানোর পর ব্যাটিংয়ে দারুণ পারফরম্যান্স উপহার দিলেন শুভাগত হোম চৌধুরী। অন্যপাশে সঙ্গী হিসেবে পেলেন তাইবুর রহমানকে। মিডল অর্ডারে এই দুই ব্যাটসম্যানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে রাজশাহীর বিপক্ষে লিড নিয়েছে ঢাকা।
  • শানাজ-জাকিরের ফিফটিতে সিলেটের বড় লিড
    ইবাদত হোসেনের আগের দিনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের পর ব্যাট হাতে অবদান রাখলেন দলের প্রায় সবাই। দারুণ দুটি অর্ধশতক এলো শানাজ আহমেদ ও জাকির হাসানের ব্যাট থেকে। বরিশালের বিপক্ষে বড় লিড পেল সিলেট।
  • মেহেদির অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরির পর রাজ্জাকের ১০
    মেহেদি হাসান যখন উইকেটে গেলেন, দল ততক্ষণে হারিয়ে ফেলেছে ৬ উইকেট। একটু পর আরও দুই উইকেট হারিয়ে রান দাঁড়াল ৮ উইকেটে ৮০। লিড পাওয়া তো বহুদূর, দলের একশ হওয়া নিয়েই টানাটানি। সেখান থেকে অসাধারণ এক সেঞ্চুরিতে খুলনাকে লিড এনে দিলেন তরুণ এই অলরাউন্ডার। পরে বল হাতে খুলনা অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক পূর্ণ করলেন ম্যাচে ১০ উইকেট।
  • ৬০০ উইকেট ‘নট আ ম্যাটার অব জোক’
    দিনের খেলা তখন শেষ। ড্রেসিং রুম থেকে বেরিয়ে আব্দুর রাজ্জাক বলছিলেন, “কী আর এমন করেছি ভাই…!” তার মুখে তখন হাসি, বলছিলেন মজা করেই। নিজেও তো জানেন, তার কীর্তি কত বড়। পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ইতিহাস গড়ার নায়ক বললেন তার তৃপ্তির কথা, গর্বের কথা। ৬০০ উইকেট, চাট্টিখানি কথা নয়!
  • শান্ত-মুক্তারের ফিফটি
    টপ অর্ডারে দুই সঙ্গীর ব্যর্থতার দিনে রান পেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। মিডল অর্ডারে অপরাজিত ফিফটি এলো মুক্তার আলীর ব্যাট থেকে। কিন্তু ইনিংস বড় হলো না কারোরই। ঢাকার বিপক্ষে রাজশাহীর প্রথম ইনিংসও তাই থামল আড়াইশর আগেই।
  • ইবাদতের ৫ উইকেটে সিলেটের দাপট
    ভারত সফরকে সামনে রেখে জাতীয় লিগে প্রথম খেলতে নেমে দুর্দান্ত বোলিং করলেন সিলেটের পেসার ইবাদত হোসেন। বরিশালের টপ অর্ডারকে কাঁপিয়ে দিলেন একাই, পেলেন পাঁচ উইকেট। অল্প রানে বরিশালকে গুটিয়ে দেওয়ার পর দুই ওপেনারের ব্যাটে ভালো শুরু পেয়েছে সিলেট।
  • মিরপুরে রাজ্জাকের রাজত্ব
    উইকেটে ঘাস আছে যথেষ্ট। প্রথম দেড় ঘণ্টা তাই পেসারদের দিয়েই চালিয়ে নিলেন খুলনা অধিনায়ক। সাফল্য মিলল সামান্য। বাধ্য হয়ে স্পিনার হয়েও নিজে এলেন বোলিংয়ে। কাজ হলো জাদুমন্ত্রের মতো। সেই জাদুর রেশ থাকল প্রায় দিনজুড়ে। ৬০০ উইকেটের উচ্চতায় ওঠার দিনটি ৭ উইকেট নিয়ে স্মরণীয় করে রাখলেন আব্দুর রাজ্জাক।
  • ভারত সফরের আগে দেড়শ ছাড়িয়ে সাদমান
    ভারত সফরের দলে যোগ দেওয়ার আগে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে প্রস্তুতিটা দারুণ হলো সাদমান ইসলামের। রানের দেখা পেলেন টপ ও মিডল অর্ডারের আরও তিন জন। সবার মিলিত অবদানে চট্টগ্রামের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে গেছে ঢাকা মেট্রো।
  • নাজমুল-সুমনের দৃঢ়তায় হার এড়ালো ঢাকা
    প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান এনামুল হক এবার খেললেন অপরাজিত দেড়শ রানের ইনিংস। সঙ্গে নুরুল হাসান সোহানের ফিফটিতে ঢাকাকে বিশাল লক্ষ্য দিল খুলনা। মেহেদি হাসানের স্পিনে জয়ের আশাও জাগাল দলটি। তবে শেষ বিকেলে নাজমুল ইসলাম অপু ও সুমন খানের দৃঢ়তায় হার এড়িয়েছে ঢাকা।
  • সানজামুল-সাকলাইন ঘূর্ণিতে রাজশাহীর রোমাঞ্চকর জয়
    শেষ দিনের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ম্যাচের রঙ পাল্টাল বার বার। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় পথ হারানো রংপুরকে লড়াইয়ে রেখেছিলেন নাঈম ইসলাম। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানের প্রতিরোধ ভেঙে রাজশাহীকে দারুণ এক জয় এনে দিলেন দুই বাঁহাতি স্পিনার সানজামুল ইসলাম ও সাকলাইন সজীব।
  • মেহেদী হাসান রানার ৫ উইকেটে চট্টগ্রামের নাটকীয় জয়
    ম্যাচের প্রথম দুই দিন ভেসে গেল বৃষ্টিতে। তৃতীয় দিনে ইফরান হোসেনের ছয় উইকেটে প্রথম ইনিংসে সিলেটকে অল্প রানে গুটিয়ে দেওয়ার পর পিনাক ঘোষের সেঞ্চুরিতে লিড নিল চট্টগ্রাম। শেষ দিনে আরেক পেসার মেহেদী হাসান রানার ৫ উইকেটে দ্বিতীয় ইনিংসেও ধসে গেল সিলেট। দুই দিনের লড়াইয়ে জয় তুলে নিল মুমিনুল হকের দল।
  • ম্যাচে জোড়া সেঞ্চুরি এনামুলের
    জাতীয় লিগের এবারের আসরে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ম্যাচে জোড়া সেঞ্চুরি করেছেন এনামুল হক। তৃতীয় রাউন্ডে ঢাকার বিপক্ষে দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন খুলনার ডানহাতি এই ওপেনার।
  • সাইফ-রকিবুলের পর এনামুল-ইমরানের ফিফটি
    সাইফ হাসান ও রকিবুল হাসানের ফিফটিতে ভালোই জবাব দিচ্ছিল ঢাকা। কিন্তু মেহেদি হাসান আর আব্দুর রাজ্জাকের স্পিনে ধ্বসে পড়ল সেই প্রতিরোধ। পরে এনামুল হক ও ইমরানউজ্জামানের ফিফটিতে বড় লিডের পথে রয়েছে খুলনা।
  • সোহরাওয়ার্দী-মাহমুদুলদের স্পিনে ধুঁকছে রাজশাহী
    সকালে লিড বড় করতে পারলেন না নাসির হোসেন, ধীমান ঘোষরা। তবে স্পিনারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে চ্যাম্পিয়ন রাজশাহীর বিপক্ষে তৃতীয় দিন শেষে সুবিধাজনক অবস্থায় আছে রংপুর।
  • রনি-জয়রাজের ফিফটির পর সাইফ-রকিবুলের দৃঢ়তা
    খুলনার সাড়ে তিনশ ছাড়ানো সংগ্রহের জবাব ভালোভাবেই দিচ্ছে ঢাকা। রনি তালুকদার ও জয়রাজ শেখের দুর্দান্ত শুরুর পর রাজধানীর দলকে এগিয়ে নিচ্ছেন সাইফ হাসান ও রকিবুল হাসান।
  • বদলি নেমে রানে ফিরলেন নাসির
    আগের দুই রাউন্ডে পাননি রানের দেখা। উপরন্তু আম্পায়ারের উদ্দেশ্যে বাজে ভাষা ব্যবহার করে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন এক ম্যাচের জন্য। লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেনকে বিসিবি ডেকে পাঠানোয় বদলি নামার সুযোগটা পুরোপুরি কাজে লাগালেন নাসির হোসেন। তুলে নিলেন অপরাজিত ফিফটি। ফিফটির দেখা পেলেন মেহেদী মারুফ ও নাঈম ইসলামও। রাজশাহীর বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে লিড নিয়েছে রংপুর।
  • অভিষেকেই রিশাদের ৫ উইকেট
    ঘরোয়া ক্রিকেটে লেগ স্পিনারদের খেলানো নিয়ে তুমুল আলোচনার মধ্যে জাতীয় লিগে নজরকাড়া পারফরম্যান্স উপহার দিলেন তরুণ লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন। অভিষেকে রাজশাহীর বিপক্ষে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন রংপুরের এই বোলার।
  • এনামুলের সেঞ্চুরি, তুষারের ফিফটি
    দারুণ ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন এনামুল হক। তুষার ইমরান পেলেন আসরের প্রথম ফিফটির দেখা। ঝড়ো ইনিংস এল মোহাম্মাদ মিঠুনের ব্যাট থেকে। তিন ব্যাটসম্যানের দৃঢ়তায় ঢাকার বোলারদের দারুণভাবে সামলে বড় সংগ্রহের পথে রয়েছে খুলনা।
  • এক ম্যাচ নিষিদ্ধ নাসির
    জাতীয় ক্রিকেট লিগে এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন নাসির হোসেন। দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে একটি আবেদনে সাড়া না দেওয়ায় আম্পায়ারের উদ্দেশে বাজে ভাষা ব্যবহার করেন এই অলরাউন্ডার। সেই ঘটনায় এই শাস্তি পেয়েছেন রংপুর অধিনায়ক।
  • ইমতিয়াজের দারুণ ইনিংসে আড়াল মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি
    মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরিতে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছিল ঢাকা মেট্রো। তবে প্রথম রাউন্ডে বরিশালের কাছে ইনিংস ব্যবধানে হারা সিলেট জ্বলে উঠলো ইমতিয়াজ হোসেনের ব্যাটে। অভিজ্ঞ এই ওপেনারের অপরাজিত সেঞ্চুরি ও জাকির হাসানের ফিফটিতে রান তাড়ায় দারুণ এক জয় পেয়েছে সিলেট।
  • দ্বিতীয় ইনিংসেও উজ্জ্বল নাঈম হাসান
    প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ৪ উইকেট পেলেন চট্টগ্রামের তরুণ অফস্পিনার নাঈম হাসান। শেষ সেশনে দ্রুত উইকেট হারিয়ে হারের শঙ্কায় পড়া বরিশালকে ম্যাচে রাখলেন মোসাদ্দেক হোসেন ও শামসুল ইসলাম। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের পর ড্র হলো দুই দলের ম্যাচ।
  • সোহরাওয়ার্দীর ৮ রানের আক্ষেপ
    প্রথম তিন দিনে দুই দলের প্রথম ইনিংস শেষ না হওয়ায় ড্রই ছিল সম্ভাব্য ফল। শেষ দিনেও নাটকীয় কিছু ঘটল না। রান উৎসবের ম্যাচে এদিন আলো ছড়ালেন সোহরাওয়ার্দী শুভ। তবে সঙ্গীর অভাবে সেঞ্চুরি পেলেন না বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার।
  • খুলনার জয়ে সৌম্যর ফিফটি
    সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ মিঠুন ব্যাটিং করলেন ওয়ানডে মেজাজে। আগের দিন জমজমাট লড়াই উপহার দেয়া ম্যাচের শেষটা তাই হয়ে গেল একপেশে। ১০৮ রান করতে শেষদিনে খুলনার হাতে ছিল পুরো ৯০ ওভার ও ৯ উইকেট। তবে টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে প্রথম সেশনেই লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে আব্দুর রাজ্জাকের দল।
  • ভারত সফরের আগে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি
    সেঞ্চুরির দুয়ারে দাঁড়িয়ে শেষ হয়েছিল আগের দিন। নতুন দিনে কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায় পৌঁছলেন অনায়াসেই। আগের দুই ইনিংসে ফিফটি পেরিয়ে আউট হয়ে যাওয়া মাহমুদউল্লাহ এবার করলেন সেঞ্চুরি। ভারত সফরের আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের শেষ ইনিংসে সেরে নিলেন সেরা প্রস্তুতি।
  • ১৫ উইকেটের দিনে জমজমাট লড়াই
    অল্পের জন্য সেঞ্চুরি পাননি নুরুল হাসান। তবে তার দারুণ ইনিংসেই খুলনা পায় কাঙ্ক্ষিত লিড। বোলারদের দাপুটে বোলিং এরপর তারা খুব বেশিদূর এগোতে দেয়নি রাজশাহীকে। শেষ ইনিংসে রান তাড়ায় শুরুতেই উইকেট হারালেও দিনশেষে সুবিধাজনক অবস্থানে আছে খুলনাই।তবে শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে শনিবার দুই দল উপহার দিয়েছে জমজমাট লড়াই।
  • আবারও ব্যর্থ মোসাদ্দেক, নাঈমের ৪ উইকেট
    আগের ম্যাচে ৫ রান করা মোসাদ্দেক এবার করলেন ৪। জাতীয় দলের এই ব্যাটসম্যানের ব্যর্থতার দিনে চার উইকেট নিয়েছেন চোট কাটিয়ে ফেরা অফ স্পিনার নাঈম হাসান। শেষ দিকে নুরুজ্জামান প্রতিরোধ গড়লেও পরে তাকে ফিরিয়ে বরিশালের বিপক্ষে বড় লিড পেয়েছে চট্টগ্রাম।
  • সেঞ্চুরির দুয়ারে মাহমুদউল্লাহ, ব্যর্থ নাঈম-আল আমিন
    জাতীয় লিগে টানা তৃতীয় ফিফটি তুলে নেওয়া মাহমুদউল্লাহ দাঁড়িয়ে আছেন সেঞ্চুরির দুয়ারে। সিলেটের বিপক্ষে বিপদ থেকে ঢাকা মেট্রোকে টেনে তুলে নিরাপদ জায়গায় নিতে লড়াই করছেন অভিজ্ঞ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। ভালো করতে পারেননি মোহাম্মদ নাঈম শেখ, আল আমিন, শামসুর রহমানরা। 
  • লিটন-নাঈমের সেঞ্চুরিতে রংপুরের জবাব
    সাইফ হাসানের ডাবল সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড় গড়া ঢাকাকে ভালোই জবাব দিচ্ছে রংপুর। ওপেনার লিটন দাসের পর সেঞ্চুরি করে অপরাজিত আছেন অভিজ্ঞ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান নাঈম ইসলাম।
  • সেঞ্চুরিতে তুষারের সাথে ব্যবধান কমালেন নাঈম
    ঘরোয়া ক্রিকেটের আরও একটি মৌসুম, আবারও হাসি নাঈম ইসলামের ব্যাটে। জাতীয় লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন রংপুরের এই ব্যাটসম্যান। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির তালিকার শীর্ষে থাকা তুষার ইমরানের সাথে কমিয়েছেন ব্যবধান।
  • জাতীয় লিগে নেমেই লিটনের সেঞ্চুরি
    ১৬ টেস্ট খেলে এখনও সেঞ্চুরি নেই। সবশেষ আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টেও খুব ভালো করতে পারেননি। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে বরাবরই দুর্দান্ত পারফরমার লিটন দাস। এবারও জাতীয় লিগে খেলতে নেমে প্রথম ইনিংসেই উপহার দিলেন সেঞ্চুরি।
  • সাইফের দুর্দান্ত ডাবল, লিটনের অপরাজিত ফিফটি
    প্রথম দিনে সাইফ হাসানকে আউট করতে পারেনি কেউ, দ্বিতীয় দিনে ইনিংস ঘোষণার সময়ও তিনি অপরাজিত। আগের দিন ছিল সেঞ্চুরির স্বস্তি। সেটিই পরে রূপ নিয়েছে অপরাজেয় ডাবল সেঞ্চুরির তৃপ্তিতে। তার সৌজন্যে ঢাকা বিভাগও গড়েছে বড় স্কোর। রংপুরের হয়ে জবাব দিতে ফিফটি করে উইকেটে আছেন লিটন দাস।