• কুমিল্লাকে হারিয়ে টিকে থাকল খুলনার আশা
    ম্যাচ থেকে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পাওয়ার ছিল সামান্যই। শীর্ষস্থান নিশ্চিত হয়ে গেছে আগেই। তবে সেরা দুইয়ে থাকতে হলে জয়টা খুব করে প্রয়োজন ছিল খুলনা টাইটানসের। শেষের দিকে বিস্ফোরক ব্যাটিং আর নিয়ন্ত্রিত বোলিং পারফরম্যান্সে খুলনা মেলাতে পেরেছে সেই চাওয়া-পাওয়ার হিসেব।
  • আরিফুল ঝড়ে খুলনার দারুণ জয়
    ডোয়াইন স্মিথের ফুলটস ডিপ মিড উইকেট দিয়ে উড়ালেন আরিফুল হক। জয় চলে এল হাতের নাগালে। আবার ফুলটস, এবার ফাইন লেগ দিয়ে বাউন্ডারির দিকে পাঠিয়ে জয় উদযাপন করতে ছুটলেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। বারবার রঙ পাল্টানো ম্যাচে খুলনা টাইটানসকে এনে দিলেন দারুণ এক জয়।
  • মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে খুলনার জয়
    ফিল্ডিং শেষে মাঠ ছাড়ার সময় যেন খলনায়ক মাহমুদউল্লাহ। তিনটি ক্যাচ ছেড়েছেন যে খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক। পরে রান তাড়া করতে নেমে চার হাঁকিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়লেন মাথা উঁচু করে। চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে জয়ের নায়ক তো তিনিই।
  • বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত বিপিএলের ২ ম্যাচ
    লম্বা সময় অপেক্ষা করেও কাজ হয়নি। শেষ হাসি হেসেছে বৃষ্টি। বৈরী আবহাওয়ায় পরিত্যক্ত হয়েছে খুলনা টাইটান্স ও সিলেট সিক্সার্স এবং ঢাকা ডায়নামাইটস ও চিটাগং ভাইকিংসের ম্যাচ।
  • আরিফুল ঝড়ের পর জায়েদের তোপ
    আরিফুল হক আর কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের শেষের ঝড়টাই গড়ে দিল পার্থক্য। খুলনা টাইটান্সের বড় সংগ্রহের নাগাল পেল না চিটাগং ভাইকিংস। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে দলের জয়ে বড় অবদান রাখলেন তরুণ পেসার আবু জায়েদ।
  • ঢাকার রান পাহাড়ে চাপা পড়ল খুলনা
    প্রথম ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটস হেরেছিল মূলত ব্যাটিং ব্যর্থতায়। বিস্ফোরক সব নাম ছিল একদমই চুপসে। হারের ঘা হয়তো জাগিয়ে দিল তাদের। দ্বিতীয় ম্যাচেই বারুদের বাক্সে বিস্ফোরণ। রানের পাহাড় গড়ল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা, যার কোনো জবাবই খুঁজে পেল না খুলনা টাইটানস।
  • চোটে লিন, আশা ছাড়ছে না খুলনা
    আসছে বিপিএলের জন্য বেশকজন বিদেশি ক্রিকেটারকে নিশ্চিত করেছে খুলনা টাইটান্স। তবে দলটি সবচেয়ে বেশি রোমাঞ্চিত ছিল ক্রিস লিনকে পেয়ে। এখন তাকে পাওয়া নিয়েই শঙ্কা। কাঁধের অস্ত্রোপচারে লম্বা সময়ের জন্য মাঠের বাইরে যাচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যাটসম্যান। খুলনা অবশ্য আশা ছাড়ছে না এখনই।
  • জয়াবর্ধনের হৃদয়ের কাছে বাংলাদেশ
    তখন তিনি কলম্বোর বিখ্যাত নালন্দা কলেজ দলের অধিনায়ক। রানের বন্যা বইয়ে দিচ্ছেন স্কুল ক্রিকেটে। মাত্রই শ্রীলঙ্কার স্কুল ক্রিকেটার অব দা ইয়ার হলেন। স্কুলের পারফরম্যান্সেই ডাক পেলেন বাংলাদেশ সফরের শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলে। সেটি ১৯৯৪ সাল, মাহেলা জয়াবর্ধনের বয়স ১৭!
  • মাহমুদউল্লাহ-বাশারের সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে জয়াবর্ধনে
    হাবিবুল বাশারের বিপক্ষে অনেক খেলেছেন মাহেলা জয়াবর্ধনে। খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও তার চেনা। বিপিএলের দলটির নতুন কোচ মুখিয়ে আছেন হাবিবুল-মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে কাজ করতে।