• মইন-বেয়ারস্টোর পর রাহুল-কিষানের ঝড়
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দিলেন জনি বেয়ারস্টো, মইন আলি। কিন্তু রান তাড়ায় তাদের ছাড়িয়ে গেলেন লোকেশ রাহুল, ইশান কিষান। ব্যাট হাতে তাদের ঝড়ে স্রেফ উড়ে গেল ইংল্যান্ড।
  • বিশ্বকাপে কিষানকে ওপেনিংয়ে চান কোহলি
    রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলের মতো নিয়মিত দুই ওপেনার আছেন দলে। টি-টোয়েন্টিতে বিরাট কোহলিও ইনিংস ওপেন করে থাকেন। সঙ্গে ইশান কিষানকেও নাকি ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে নেওয়া হয়েছে ওপেনার হিসেবেই! অধিনায়কের কাছ থেকে এমন বার্তা পাওয়ার কথা জানালেন তরুণ এই আগ্রাসী ব্যাটসম্যান নিজেই।
  • প্রথম বলেই ছক্কা মারবেন, সতীর্থদের বলেছিলেন কিষান
    জন্মদিনে ওয়ানডে অভিষেক। উপলক্ষটা রাঙাতে চেয়েছিলেন ইশান কিষান। তাই বলে মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলেই ছক্কা মেরে! ভারতের তরুণ কিপার-ব্যাটসম্যান ব্যাটিংয়ে নামার আগেই নাকি ড্রেসিং রুমে সতীর্থদের দিয়ে এসেছিলেন এই বার্তা।
  • শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে এগিয়ে গেল ভারত
    লক্ষ্যটা আড়াইশর একটু বেশি। পৃথ্বী শ ও ইশান কিষানের মারমুখী ব্যাটিংয়ে সেটা হয়ে উঠল মামুলি। সঙ্গে অধিনায়ক শিখর ধাওয়ানের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিল ভারত।
  • টেন্ডুলকারের চোখে সুর্যকুমার ও কিষান বিশ্বকাপ খেলতে প্রস্তুত
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সূর্যকুমার যাদব ও ইশান কিষানের পথচলা কেবলই শুরু হয়েছে। ম্যাচ খেলেছেন মাত্র দুটি করে। এরই মধ্যে তাদের প্রতিভা ও সামর্থ্যে অগাধ বিশ্বাস জন্মে গেছে শচিন টেন্ডুলকারের। আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তারা খেলতে প্রস্তুত বলে মনে করেন এই ব্যাটিং কিংবদন্তি।
  • রোহিতের পরামর্শ, জাতীয় পতাকা ও ‘নার্ভাস’ কিষানের ঝড়
    অভিষেক ম্যাচে দুরুদুরু বুক। যদিও মাথায় গেঁথে ছিল রোহিত শর্মার পরামর্শ, তবু ইশান কিষানের মনে ছিল ভয়। প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ বলে কথা! কিন্তু যখন তার চোখে ভেসে উঠল জাতীয় পতাকা, যখন অনুভব করলেন জাতীয় দলে জার্সির রোমাঞ্চকর ছোঁয়া, বদলে গেল তখন মনোজগতও। ঝড়ো ইনিংস খেলে তিনিই হয়ে উঠলেন দলের জয়ের নায়ক।
  • কিষান-কোহলির সামনে দাঁড়াতেই পারল না ইংল্যান্ড
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে অভিষেক রাঙালেন ইশান কিষান। ঝড় তুললেন বিরাট কোহলিও। দুই জনের ব্যাটে ইংল্যান্ডের লড়াকু পুঁজি মামুলি বানিয়ে ফেলল ভারত।
  • ১১ ছক্কায় ১৭৩ ও ৭ ক্যাচ, কিষানের কীর্তি
    ১৭৩ রানের ইনিংস। ৭টি ক্যাচ। কোনো ম্যাচে এর যে কোনো একটি করতে পারলেই বর্তে যাবেন যে কেউ। ইশান কিষান দুটিই করে দেখিয়েছেন একসঙ্গে! উইকেটের সামনে বিস্ফোরক সেঞ্চুরি ও উইকেটের পেছনে একগাদা ক্যাচ নিয়ে ভারতীয় এই কিপার-ব্যাটসম্যান গড়েছেন অনন্য কীর্তি। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে সেঞ্চুরির পাশে ৫টির বেশি ক্যাচ ছিল না এতদিন আর কারও।
  • কিষান-পোলার্ডের খুনে ব্যাটিংয়ে সুপার ওভার রোমাঞ্চ
    সমীকরণ ছিল ভীষণ কঠিন। ৪ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৮০ রান। ইশান কিষান ও কাইরন পোলার্ডের ব্যাটে সেটাও প্রায় মিলিয়ে ফেলেছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। শেষ বলে বাউন্ডারিতে ম্যাচ সুপার ওভারে নেন পোলার্ড। সেখানে শেষ বলে বিরাট কোহলির বাউন্ডারিতে দারুণ এক জয় তুলে নেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর।
  • টেন্ডুলকারকে দেখে স্বপ্নের ঘোরে ছিলেন কিষান
    অনেক ক্রিকেটারের মতো শচিন টেন্ডুলকারকে আদর্শ মানেন ইশান কিষান। বয়সভিত্তিক ক্রিকেট পেরিয়ে মূল স্রোতে আসার পর সুযোগ আসে স্বপ্নের নায়কের সঙ্গে কথা বলার। তরুণ কিপার-ব্যাটসম্যান এখনও ভুলতে পারেননি ব্যাটিং কিংবদন্তির সঙ্গে প্রথম দেখা হওয়ার দিনটি।