পুজারার ডাবল সেঞ্চুরি, ঋদ্ধিমানের সেঞ্চুরি

পুজারার ডাবল সেঞ্চুরি, ঋদ্ধিমানের সেঞ্চুরি

তিন দিন লড়াই হয়েছে সমানে সমান। চতুর্থ দিনে একটু একটু করে বাড়ল ব্যবধান। ধৈর্যের পরীক্ষায় প্রতিপক্ষের জীবনীশক্তি যেন আস্তে আস্তে শুষে নিলেন চেতেশ্বর পুজারা আর ঋদ্ধিমান সাহা। শেষ বিকেলে অস্ট্রেলিয়ানদের পিঠ দেয়ালে ঠেকিয়ে দিলেন রবীন্দ্র জাদেজা।

‘কপালে সেঞ্চুরি ছিল বলেই মুশফিক লাগাতে পারেনি’

‘কপালে সেঞ্চুরি ছিল বলেই মুশফিক লাগাতে পারেনি’

“অমন মিস দেখে বিস্মিত হননি? নিজেকে নিশ্চয়ই ভাগ্যবান ভাবছেন!” প্রশ্নের ধরণে হোক বা ঘটনাটি মনে করে, সংবাদ সম্মেলনে বসে হেসে ফেললেন ঋদ্ধিমান সাহা। তবে মাঠে ওই সময়টায় নিশ্চয়ই আত্মারাম খাঁচাছাড়া হওয়ার জোগাড় হয়েছিল!

ভারতের রেকর্ডে পিষ্ট বাংলাদেশ

ভারতের রেকর্ডে পিষ্ট বাংলাদেশ

মুখরোচক কোনো বুফে মেন্যুতে কী কী থাকতে পারে? রেস্তোরাঁ নয়, বলা হচ্ছে ২২ গজের কথা। ব্যাটসম্যানদের কাঙ্ক্ষিত তালিকায় থাকতে পারে শর্ট বল, বাইরে বল, হাফ ভলিসহ আলগা বোলিংয়ের সব পদ; বাজে ফিল্ডিং, ক্যাচ ছাড়া, স্টাম্পিং মিস, ম্যাড়মেড়ে শরীরী ভাষা, একঘেয়ে ও কল্পনাশক্তিহীন নেতৃত্ব। অতিথি হয়ে এসে বাংলাদেশই অতিথি-সেবা করল এই সব দিয়ে। সুস্বাদু সব খাবার পেয়ে গোগ্রাসে গিলল ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

অশ্বিন-সাহার শতকের পর উইন্ডিজের লড়াই

অশ্বিন-সাহার শতকের পর উইন্ডিজের লড়াই

১২৬ রানে পড়েছিল প্রথম ৫ উইকেট, শেষ ৫টি মাত্র ১৪ রানে। মাঝে ষষ্ঠ উইকেটে অসাধারণ এক জুটি। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও ঋদ্ধিমান সাহার সেঞ্চুরি। সাড়ে তিনশ ছাড়িয়ে ভারত। জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটাও হলো বেশ ভালো।