• জীবন-শঙ্কা কাটিয়ে পাকিস্তান দলে ফেরার অপেক্ষায় আবিদ
    নিজের সবশেষ সিরিজেই মিলেছে ম্যান অব দা সিরিজের পুরষ্কার। কিন্তু পরের সিরিজে খেলা তো বহুদূর, ক্রিকেট তখন আবিদ আলির ভাবনায়ও নেই। সুস্থভাবে বেঁচে থাকাই তখন তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। শঙ্কার সেই অধ্যায় পেরিয়ে এখন আবার স্বস্তির আলোয় পাকিস্তানের এই ওপেনার। পুরোপুরি সুস্থ হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সবুজ সঙ্কেত পেয়েছেন তিনি।
  • হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন আবিদ
    বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার চার দিন পর ছাড়া পেলেন আবিদ আলি। পরপর দুই দিন দুটি এনজিওপ্লাস্টি করানো হয়েছে পাকিস্তানের এই ওপেনারের।
  • হাসপাতালে আবিদ আলির এনজিওপ্লাস্টি
    বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার একদিন পর পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান আবিদ আলির এনজিওপ্লাস্টি করা হয়েছে। আরেকটি এনজিওপ্লাস্টি করা হবে বৃহস্পতিবার।
  • হৃদরোগে আক্রান্ত পাকিস্তানের আবিদ আলি
    বাংলাদেশের বিপক্ষে পাকিস্তানের টেস্ট সিরিজ জয়ের নায়ক আবিদ আলি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। বুকে ব‍্যথা নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার পর তার এই সমস‍্যা ধরা পড়েছে।
  • আত্মবিশ্বাস আর ইউসুফের ছোঁয়ায় আবিদের এই ব‍্যাটিং
    দেশের বাইরে আগের সিরিজ মোটেও ভালো কাটেনি। চার ইনিংসে একবারও যেতে পারেননি ৪০ পর্যন্ত। সে কারণেই হয়তো বাংলাদেশ সফরের আগে মোহাম্মদ ইউসুফের শরণাপন্ন হন আবিদ আলি। পাকিস্তানের ব‍্যাটিং গ্রেটের সঙ্গে কাজ করেন লাহোরের জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে (এনসিএ)। চট্টগ্রাম টেস্টে ম‍্যাচ সেরার পুরস্কার জেতার পর আবিদ বললেন, তার এই পারফরম‍্যান্সের পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো করার আত্মবিশ্বাস ও ইউসুফের সঙ্গে ওই সেশনগুলোর।
  • যত কমে সম্ভব বাংলাদেশকে থামাতে চায় পাকিস্তান
    উইকেটে স্পিনারদের জন‍্য সহায়তা ক্রমেই বাড়ছে। রান তোলা হয়ে যাচ্ছে কঠিন। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে উইকেটে বাড়বে চিড়। দুরূহ পরিস্থিতিতে চতুর্থ ইনিংসে ব‍্যাটিংয়ের কথা মাথায় রেখে, বাংলাদেশকে যত কম রানে সম্ভব থামানোর পরিকল্পনা আঁটছে পাকিস্তান।
  • বোলিংয়ের স্বস্তি উধাও বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে
    দিনের শুরুটা বাংলাদেশের জন্য ছিল অভাবনীয় আনন্দে ভরা। শেষটা এলো সেই চেনা বিষাদ নিয়ে। আবারও টপ অর্ডারের ব্যর্থতা। আরেকটি ব্যাটিং বিপর্যয়। আরেকবার ধ্বংসস্তুপ থেকে উঠে দাঁড়ানোর লড়াই। তাইজুল ইসলাম ও অন্য বোলারদের সৌজন্যে পাওয়া উচ্ছ্বাস মিলিয়ে গেল হতাশাজনক ব্যাটিংয়ে।
  • তাইজুলের ৭ উইকেটে বাংলাদেশের লিড
    দিনের শুরুতে সামনে ছিল যেন ‘দুর্গম গিরি কান্তার মরু।’ তাইজুল ইসলামের বাঁ হাতে চড়ে বাংলাদেশ তা দোর্দণ্ড প্রতাপে পার হয়ে গেল দুই সেশনেই। কোনো উইকেট না হারিয়ে ১৪৫ রান নিয়ে দিন শুরু করা পাকিস্তান এ দিন সব উইকেট হারিয়ে যোগ করতে পারল না আর ১৪৫ রানও। তাইজুলের রেকর্ড গড়া বোলিংয়ে বাংলাদেশ পেল লিড।
  • তাইজুলের মোহনীয় ফ্লাইটে রাঙা সকাল বাংলাদেশের
    উইকেটে সহায়তা খুব বেশি নেই। তবে লাইন-লেংথ, ফ্লাইট আর গতি বৈচিত্র তো নিজের হাতে। অভিজ্ঞতা আর স্কিলের ঝুলি থেকে যেন সবই বের করলেন তাইজুল ইসলাম। এই বাঁহাতি স্পিনারের অসাধারণ বোলিংয়ে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরল বাংলাদেশ।
  • ‘উইকেটে স্পিন ধরতে শুরু করেছে’
    ব‍্যাটিংয়ের জন‍্য চট্টগ্রাম টেস্টের উইকেট এখনও ভালো। তবে এরই মধ‍্যে মিলতে শুরু করেছে স্পিনারদের জন‍্য সহায়তা। পাকিস্তানের দুই ওপেনারের সাবলীল ব্যাটিং দেখে অবশ্য সেটা বোঝা গেছে কমই। আবিদ আলি জানালেন, ধৈর্য‍্যের পরীক্ষায় জিতে এমন ব‍্যাটিং করেছেন তারা।
  • একটি সুযোগ ও অনেক হতাশার দিন বাংলাদেশের
    উইকেটে বোলারদের জন্য নেই প্রায় কিছুই। বোলারদের অস্ত্র ভাণ্ডারেও নেই এই উইকেটের জন্য কিছু। না আছে ধার, না আছে ব্যাটসম্যানদের ভড়কে দেওয়ার বৈচিত্র। সবকিছুর যোগফল, হতাশার পর হতাশা। প্রথম সেশনে মুখ থুবড়ে পড়ল বাংলাদেশের ব্যাটিং। পরের দুই সেশনে সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারলেন না বোলাররা।
  • আবিদের দ্বিশতক, নুমানের ৩ রানের আক্ষেপ
    দ্বিতীয় দিনের শুরুতে দারুণ লড়াই করল জিম্বাবুয়ে। এক প্রান্ত আগলে রাখা আবিদ আলি এদিনও পথ দেখালেন পাকিস্তানকে। লড়াকু ব্যাটিংয়ে করলেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। নয়ে নেমে সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন নুমান আলি। তাদের ব্যাটে পাঁচশ ছাড়ানো সংগ্রহ নিয়ে ইনিংস ঘোষণার পর জিম্বাবুয়েকে চেপে ধরেছে পাকিস্তান।
  • আবিদ-মাসুদ কীর্তিতে পাকিস্তানের বড় লিড
    অভিষেকের পর দ্বিতীয় টেস্টেও সেঞ্চুরির কীর্তি গড়লেন আবিদ আলি। তিন অঙ্কের দেখা পেলেন শান মাসুদও। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে করাচি টেস্টে দুই ওপেনারের ব্যাটে বড় লিড নিয়েছে পাকিস্তান।
  • আরেক কীর্তিতে ইতিহাসে আবিদ
    আগের টেস্টেই তার গড়া অনন্য কীর্তির রেশ রয়ে গেছে এখনও। এর মধ্যেই আরেক কীর্তিতে রেকর্ড বইয়ে আরেকবার জায়গা করে নিলেন আবিদ আলি। অভিষেকে সেঞ্চুরির পর ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টেও সেঞ্চুরি করেছেন এই ওপেনার। পাকিস্তানের হয়ে এমন শুরু আগে পাননি আর কেউ।
  • ধনাঞ্জয়ার ৫ দিনে সেঞ্চুরি, আবিদের ইতিহাস
    ম্যাচের প্রথম দিনে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। ৩৮ রানে অপরাজিত ছিলেন দিন শেষে। বৃষ্টি পরের তিন দিনেও শেষ হতে দিল না শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। একটু একটু করে এগিয়ে টিকে রইলেন ধনাঞ্জয়াও। অবশেষে শেষ দিনে দেখা গেল সূর্যের হাসি, ধনাঞ্জয়ার ব্যাটেও মিলল সেঞ্চুরির হাসি। বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টের শেষ দিনটি এরপর ইতিহাস গড়া সেঞ্চুরিতে রাঙালেন পাকিস্তানের আবিদ আলি।
  • যে রেকর্ড শুধুই আবিদ আলির
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ পেতে পেতে বয়স ছিল ৩২ ছুঁইছুঁই। অনেক প্রতীক্ষার সেই অভিষেক রাঙিয়েছিলেন দারুণভাবে। গত মার্চে ওয়ানডে অভিষেকে করেছিলেন সেঞ্চুরি। সেই আবিদ আলি এবার টেস্ট অভিষেকেও করলেন সেঞ্চুরি। গড়লেন এমন এক কীর্তি, ক্রিকেট ইতিহাসে যা করতে পারেননি আর কেউ!