• আফিফের দুর্দান্ত ইনিংস, বোলিংয়ে উজ্জ্বল নাসুম
    রানিং বিটুইন দা উইকেটে আফিফ হোসেন হয়তো এই সময়ে দেশের সেরা। কিন্তু ভুল বোঝাবুঝি হলে তো আর রক্ষা নেই! তার অসাধারণ ইনিংসটি তাই পেল না পূর্ণতা। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ২ রান দূরে রান আউট হয়ে গেলেন তরুণ এই বাঁহাতি। সেই আক্ষেপ অবশ্য অনেকটা মুছে যাওয়ার কথা ম্যাচ শেষে। তার দল উড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষকে।
  • নজর থাকবে যে তরুণদের ওপর
    তারকাদের নিয়ে বাড়তি আগ্রহ বরাবরই থাকে। প্রেসিডেন্ট’স কাপেও তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমদের পারফরম্যান্স নিয়ে থাকবে তুমুল কৌতূহল। তবে তরুণ ও উঠতি ক্রিকেটারদের জন্যও এই টুর্নামেন্ট হতে পারে আলো ছড়ানোর দারুণ মঞ্চ।
  • ব্যাটিং টেকনিক নিয়ে ব্যস্ত আফিফ
    অনাকাঙ্ক্ষিত বিরতিতে ব্যাটিং নিয়ে চিন্তাভাবনা করার অনেক সময় পেয়েছেন। কিছু টেকনিক নিয়ে অনলাইনে আলোচনা করেছেন সদ্য সাবেক হওয়া ব্যাটিং পরামর্শক নিল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে। সেগুলিই এখন একক অনুশীলনে বাস্তবায়নে কাজ করছেন আফিফ হোসেন। চেষ্টা করছেন টেকনিক আরও শাণিত করতে।
  • সেরা ফিল্ডার: আফিফের মাঝে সবকিছুই দেখেন ইমরুল
    আফিফ হোসেনের সম্ভাবনা নিয়ে অনেক দিন ধরেই রোমাঞ্চিত বাংলাদেশের ক্রিকেট। অনেকেই তার মাঝে দেখেন ভবিষ্যৎ ‘জেনুইন’ অলরাউন্ডারের প্রতিচ্ছবি। ইমরুল কায়েসের চোখে অবশ্য আফিফের একটি ছবি এখনই দারুণ উজ্জ্বল। তরুণ এই ক্রিকেটারকেই বাংলাদেশের সবসময়ের সেরা ফিল্ডার মনে করেন ইমরুল।
  • সেরা ফিল্ডার: রাজ্জাকের চোখে আফতাব
    একসময় বাংলাদেশের তুমুল দর্শকপ্রিয় ক্রিকেটার ছিলেন আফতাব আহমেদ। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে যেমন মাতিয়েছেন, তার মিডিয়াম পেস বোলিংও ছিল অনেক সময় কার্যকর। প্রতিভাবান এই ক্রিকেটার শেষ পর্যন্ত তার সম্ভাবনার পূর্ণতা দিতে পারেননি, লম্বা হয়নি আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। একটি জায়গায় তবু তাকেই সবার ওপরে রাখেন আব্দুর রাজ্জাক। অভিজ্ঞ বাঁহাতি স্পিনার বললেন, বাংলাদেশে তার দেখা সেরা ফিল্ডার আফতাব।
  • সেরা ফিল্ডার: রুবেলের মতে শান্ত ‘ফুল প্যাকেজ’
    জাতীয় দলে এখনও থিতু হতে পারেননি নাজমুল হোসেন শান্ত। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন মোটে ১১টি, দীর্ঘ লড়াইয়ের পথ পড়ে আছে সামনে। কিন্তু ফিল্ডিংয়ে তাকে এখনই বাংলাদেশের সবসময়ের সেরা মনে করেন রুবেল হোসেন। অনুশীলন, ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মিলিয়ে তাকে যতটা দেখেছেন রুবেল, একজন আদর্শ ফিল্ডারের সবকিছুই তার চোখে পড়েছে শান্তর ভেতর।
  • সেরা ফিল্ডার: খালেদ মাসুদের মতে আফিফ-শান্ত
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও পায়ের নিচে শক্ত জমিন খুঁজে পেতে লড়ছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। আফিফ হোসেনের তো কেবল হাঁটি হাঁটি পা পা। কিন্তু একটি জায়গায় এই দুজনকে এখনই সেরা মনে করেন খালেদ মাসুদ। সাবেক এই অধিনায়কের চোখে বাংলাদেশের সবসময়ের সেরা ফিল্ডার আফিফ ও শান্ত।
  • সেরা ফিল্ডার: মুমিনুলের চোখে এখন সৌম্য, ভবিষ্যতে আফিফ
    মুমিনুল হক বেশ বিপাকেই পড়ে গেলেন। কারও সঙ্গে খেলেছেন অল্প সময়, তাকে বিবেচনায় নেওয়া উচিত হবে? কাউকে দেখেছেন শুধুই ঘরোয়া ক্রিকেটে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সঙ্গে তাকে মেলানো ঠিক হবে? সেরা ফিল্ডার নিয়ে মুমিনুল ভাবলেন অনেক। উঠে এলো অনেকের নাম। শেষ পর্যন্ত তিনি সৌম্য সরকারকে বেছে নিলেন এখনও পর্যন্ত সেরা হিসেবে। তবে তার ভবিষ্যতের বাজি, আফিফ হোসেন।
  • কাঙ্ক্ষিত ডাক পেয়ে সামনের দিকে তাকিয়ে আফিফ
    টি-টোয়েন্টিতে ধীরে ধীরে পায়ের নিচে মাটি শক্ত হচ্ছে। আশায় ছিলেন দেশের হয়ে ওয়ানডে খেলার। এবার হতে পারে অপেক্ষার অবসান। প্রথমবারের মতো ওয়ানডে দলে জায়গা পাওয়া আফিফ হোসেন জানালেন, সুযোগ কাজে লাগিয়ে টিকে যাওয়ার কথাই কেবল ভাবছেন। 
  • পরিবর্তনের মেলায় ওয়ানডে দলে আফিফ ও নাঈম শেখ
    বাংলাদেশের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের প্রতিভার ছাপ রেখেছেন আফিফ হোসেন ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ। এবার ওয়ানডে ক্রিকেটও রাঙানোর সুযোগ পাচ্ছেন তারা। প্রথমবার ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছেন সম্ভাবনাময় দুই তরুণ।
  • আফিফের সেঞ্চুরি, এনামুলের জোড়া সেঞ্চুরি
    আগের দিনের সম্ভাবনাময় ইনিংসটিকে শেষ দিনে তিন অঙ্কে নিয়ে গেলেন আফিফ হোসেন। তবে দিনের সব আলো কেড়ে নিলেন এনামুল হক। এবারের বিসিএলে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ম্যাচে করলেন জোড়া সেঞ্চুরি।তার পাশাপাশি শাহরিয়ার নাফিসের ফিফটিতে আসরে প্রথম জয় পেয়েছে দক্ষিণাঞ্চল।
  • মেহেদির ৫ উইকেট, পিনাকের সেঞ্চুরি
    প্রতিপক্ষকে দ্রুত গুটিয়ে দিতে পাঁচ উইকেট নিলেন মেহেদি হাসান। প্রথম ইনিংসে সুযোগ হাতছাড়া করা পিনাক ঘোষ এবার করলেন সেঞ্চুরি। তিন অঙ্ক ছোঁয়ার অপেক্ষায় আছেন আফিফ হোসেন। দক্ষিণাঞ্চলের বিপক্ষে ফলোঅনে পড়ে লড়ছে পূর্বাঞ্চল।
  • তারুণ্যে ভরসা রেখে পাকিস্তান জয়ের আশা মাহমুদউল্লাহর
    বঙ্গবন্ধু বিপিএলের পারফরমারদের নিয়ে গড়া টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল নিয়ে মাহমুদউল্লাহর অনেক আশা। আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, আমিনুল ইসলামের মতো তরুণদের সামর্থ্যে ভরসা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। দলে অভিজ্ঞতারও কোনো ঘাটতি নেই। পাকিস্তানে সিরিজ জিততে প্রয়োজন স্রেফ একটা দল হিসেবে নিজেদের সেরা ক্রিকেটটা খেলা।
  • ‘সৌম্য ব্যাট করতে পারে ছয়ে, তিন-চারে আফিফ’
    আভাস দিয়েছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন, নিশ্চিত করলেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো; পাকিস্তান সফরে ওপেনারদের কয়েকজনকে ব্যাট করতে হবে মিডল অর্ডারে। সৌম্য সরকার ব্যাট করতে পারেন ছয়ে, তিন-চারে দেখা যেতে পারে আফিফ হোসেনকে।
  • ‘অলরাউন্ডার’ হিসেবে সৌম্য, ‘ওপেনিংয়ে নন’ আফিফ
    স্কোয়াডে ওপেন করার মতো ব্যাটসম্যান ছয় জন। ম্যাচে করবেন কোন দুইজন? চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন জানালেন, ওই ছয় জনের অন্তত দুই জনকে তারা ওপেনিংয়ের ভাবনায় দলে নেননি। আফিফ হোসেনকে তারা ভেবেছেন তিন নম্বর থেকে নিচের যে কোনো পজিশনের জন্য। আর সৌম্যকে দলে রাখা হয়েছে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ও মিডিয়াম পেস বোলিং বিবেচনায়।
  • লিটন-আফিফ ও শান্ত-মিরাজ, সফল দুই জুটির দ্বৈরথ
    মিরপুর একাডেমি মাঠে ফিল্ডিং অনুশীলন করছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মেহেদী হাসান মিরাজ। খুলনা টাইগার্সের অনুশীলনে দুজনকে দেখা গেল দারুণ প্রাণবন্ত। রাজশাহী রয়্যালসের অনুশীলন ছিল না। নিজের তাগিদে তবু ব্যাটিং করতে এসেছিলেন লিটন দাস। একাডেমি মাঠে দেখা হলো তাদের, একচোট আড্ডাও জমল তিন জনের। স্রেফ আফিফ হোসেন থাকলেই পেত পূর্ণতা। এই বিপিএলের চার আলোচিত চরিত্রকে পাওয়া যেত এক ফ্রেমে!
  • ‘গেইলের বিপক্ষে বোলিং উপভোগ করে আফিফ’
    ক্রিস গেইল শট খেললেন যেন আলতো করে। কিন্তু বল বুঝে গেল ব্যাটের দাপট, চোখের পলকে উড়ে আছড়ে পড়ল গ্যালারিতে। পরের বলেই সব খতম! বল ছোবল দিল স্টাম্পে, উড়ল বেলস। গেইলের সঙ্গে দ্বৈরথে আবারও জয় তরুণ আফিফ হোসেনের। রাজশাহী রয়্যালস অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল বলছেন, গেইলের বিপক্ষে বোলিংয়ের কঠিন চ্যালেঞ্জ দারুণ উপভোগ করেন আফিফ।
  • আফিফের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে মজা পাচ্ছেন লিটন
    আফিফ হোসেনের প্রসঙ্গ উঠতেই হাসি দেখা গেল লিটন দাসের মুখে। মাঠে দুই তরুণের উদ্বোধনী জুটি জমেছে বেশ। রাজশাহী রয়্যালসের কিপার-ব্যাটসম্যান জানালেন, আফিফের সঙ্গে ব্যাটিং উপভোগ করছেন তিনি।
  • রাসেল-মালিকদের দেখে শিখছেন আফিফ
    টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আফিফ হোসেন বলেছিলেন, পাওয়ার হিটিং শিখতে চান আন্দ্রে রাসেলকে কাছ থেকে দেখে। টুর্নামেন্টের মাঝামাঝি এসে তরুণ অলরাউন্ডারের ব্যাটিংয়ে সেই তাড়নার প্রতিফলন পড়ছে বটে। বেশ আগ্রাসী ব্যাট করছেন। নিজেও জানালেন, শোয়েব মালিক, রাসেলদের কাছ থেকে শিখছেন অনেক কিছু।
  • ২০-৩০ এর চক্কর থেকে মুক্তির পথ খুঁজছেন আফিফ
    “হ্যাঁ, বলটা সোজা ব্যাটে খেলা যেত”-নিজের আউট নিয়ে সরল স্বীকারোক্তি দিলেন আফিফ হোসেন। এমন আউটগুলোর জন্য বারবার মৃত্যু ঘটছে তরুণ এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের সম্ভাবনাময় ইনিংসগুলোর। এর পুনরাবৃত্তি এড়ানোর পথের সন্ধান করছেন তিনি।
  • সেঞ্চুরিয়ান মালানকে ছাপিয়ে আফিফ
    সাব্বির রহমান-ইয়াসির আলীদের বাজে দিনে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে টেনেছেন দাভিদ মালান। ইংলিশ ব্যাটসম্যানের দারুণ সেঞ্চুরি ছাপিয়ে গেছে আফিফ হোসেনের চমৎকার ইনিংস। শেষটায় রবি বোপারা ও আন্দ্রে রাসেলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজ জয়ই পেয়েছে রাজশাহী রয়্যালস।
  • দেশের হয়ে সোনা জিতে গর্বিত আফিফ
    রাজশাহী রয়্যালসের আফিফ হোসেন তখন ব্যস্ত সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতায়। পাশ দিয়ে যেতে যেতে খুলনা টাইগার্সের নাজমুল হোসেন শান্ত বললেন, “ওর সাথে বেশি কথা বলেন, ও এসএ গেমসে সোনার পদক জিতে এসেছে।” সোনাজয়ী দলের অধিনায়ক শান্তর সেই কথায় হাসির ফোয়ারা ছুটল। নিজেদের এই সাফল্য নিয়ে এরপর কথা বললেন আফিফও। শোনালেন সোনার পদক জয়ের গর্বের কথা।
  • রাসেলের কাছ থেকে যা শিখতে চান আফিফ
    দুজনের শারীরিক গড়নের পার্থক্য অনেক। আরও বেশি পার্থক্য স্কিলে। আন্দ্রে রাসেল ও আফিফ হোসেনের মিল খুব বেশি নেই। তবে আপাতত দুইজন একই দলে। সেই সুযোগটাই নিতে চান আফিফ। রাসেলের কাছ থেকে শিখতে চান পাওয়ার হিটিংয়ের টেকনিক। সমৃদ্ধ করতে চান নিজেকে।
  • বিবর্ণ আফিফ-মোসাদ্দেকের পাশে বাংলাদেশ কোচ
    ওপেনারদের ভালো শুরুর শক্ত ভিতের উপর দাঁড়িয়েও দলকে বড় সংগ্রহ এনে দিতে না পারায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন আফিফ হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন। বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো পাশে দাঁড়িয়েছেন দুই তরুণ অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারের। মনে করিয়ে দিলেন, তাদের সাম্প্রতিক সাফল্যের কথা।
  • লিটন-আফিফ-মোসাদ্দেকের দিনের অপেক্ষায় মাহমুদউল্লাহ
    লিটন দাস যেদিন খেলবে সেদিন ও একাই দলকে টেনে নিয়ে যাবে। নিজেদের দিনে আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন পারবেন ম্যাচ শেষ করে আসতে, এভাবেই তিন তরুণের সামর্থ্যে নিজের আস্থার কথা জানান দিলেন মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ অধিনায়ক খুব করে চান, দিনটি হোক রোববারই।
  • আগ্রাসী আফিফ-আমিনুল-নাঈমকে চান অধিনায়ক
    সীমিত সুযোগে নিজেদের সামর্থ্য দেখানো আফিফ হোসেন, আমিনুল ইসলাম ও মোহাম্মদ নাঈম শেখকে নিয়ে দারুণ আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ। তরুণ সতীর্থদের আগ্রাসী ক্রিকেট খেলে যাওয়ার পরামর্শ দিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।
  • সাকিব ভাইকে ছোট বেলা থেকে অনুসরণ করি: আফিফ
    দুজনের শিকড় একই- বিকেএসপি। দুই জনই স্পিনিং অলরাউন্ডার। একজন গত ১০ বছরে সম্ভবত বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার। বাংলাদেশের ক্রিকেটে কিংবদন্তি। আরেকজনের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে চলছে কেবল হাঁটি হাঁটি পা পা। তবে এই পথচলাতেই পরেরজন ছুঁতে চান প্রথমজনকে। সাকিব আল হাসানকে অনুসরণ করে তার মতোই অলরাউন্ডার হয়ে উঠতে চান আফিফ হোসেন।
  • বাংলাদেশের বদলে যাওয়ার গল্প শোনালেন আফিফ
    কিছু দিন আগেও বাংলাদেশকে মনে হচ্ছিল ভেঙে পড়া এক দল। শরীরী ভাষায় ছিল হতাশার বিজ্ঞাপন। ঝুলে পড়া কাঁধ দেখে প্রতিপক্ষ বুঝে নিতো সবটা। সেই দলকেই ভারতের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দেখা গেল অন্য চেহারায়। মাঠে দেখা গেল আত্মবিশ্বাসে ভরপুর এক দলকে। এই বদলে যাওয়ার পেছনের গল্পটা শোনালেন তরুণ অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন।
  • আফিফের লক্ষ্য এবার ওয়ানডে
    জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছিলেন আফিফ হোসেন। এরই মধ্যে ডাক এলো শ্রীলঙ্কা সফরের দলে। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে খেলবেন এক দিনের ম্যাচের সিরিজে। দলের জয়ে সেখানে বড় অবদান রাখতে চান তরুণ এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার।
  • ‘আফিফের তো এমনই খেলার কথা’
    বয়স ভিত্তিক দলে খেলার সময় থেকেই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিত আফিফ হোসেন। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান কেমন তাণ্ডব চালাতে পারেন ভালো করেই জানা আছে রহমানউল্লাহ গুরবাজের। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আফিফের বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে তাই অবাক নন এই আফগান ওপেনার।
  • শিষ্যদের উল্টাপাল্টা শটে ভয় ব্যাটিং কোচের
    ক্রিকেটীয় শট খেলে শিষ্যরা আউট হলে উদ্বেগের কিছু দেখেন না বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জি। তবে ভাবনায় পড়েন চাপ মুক্ত হওয়ার চেষ্টায় কেউ উল্টাপাল্টা খেলে আউট হলে। 
  • ম্যাকেঞ্জির ভালো লেগেছে আফিফের হতাশা
    ম্যাচ শেষ করতে না পারায় হতাশ ছিলেন আফিফ হোসেন। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান আউট হয়ে সাজঘরে ফেরার সময় তার হতাশাটুকু বুঝতে পেরেছিলেন নিল ম্যাকেঞ্জিও। আর তা থেকেই ব্যাটিং কোচ বুঝতে পেরেছেন, আফিফের মাঝে বিশেষ কিছু একটা আছে।
  • ‘আফিফ অসাধারণ ইনিংস খেলেছে’
    ৬০ রানে বাংলাদেশের প্রথম ছয় ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দিয়ে জয় দেখছিল জিম্বাবুয়ে। মোসাদ্দেক হোসেনের সঙ্গে দারুণ এক জুটিতে খাদের কিনারা থেকে স্বাগতিকদের জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন আফিফ হোসেন। ক্যারিয়ারে প্রথম আন্তর্জাতিক ফিফটি পাওয়া এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন রায়ান বার্ল। একই সঙ্গে হারের জন্য দুষেছেন নিজেদের বাজে ফিল্ডিংকে।
  • উদযাপনই করতে পারলেন না আফিফ
    ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক ফিফটি, সেটিও দলে ফেরার ম্যাচে। দলের জয়ও তখন প্রায় নিশ্চিত। ২০ বছর ছুঁইছুঁই এক তরুণের উচ্ছ্বসিত হওয়ার জন্য যথেষ্ট। অথচ উইকেটে আফিফ হোসেনের তেমন কোনো প্রতিক্রিয়াই দেখা গেল না পঞ্চাশ ছুঁয়ে!
  • স্বাধীনতা পেয়েই প্রস্ফুটিত আফিফ
    সংবাদ সম্মেলনের প্রায় শেষ দিকে একজন বললেন, “ম্যাচ জিতিয়ে এসেও আপনার মুখে হাসি নেই!” পুরো সময়টাই নির্লিপ্ত কণ্ঠে এক-দুই লাইনে উত্তর দিচ্ছিলেন আফিফ হোসেন। এই কথা শুনে একটু হাসলেন। পরক্ষণেই আবার ফিরলেন আপন রূপে! আফিফ পছন্দ করেন নিজের মতো থাকতে। ভালোবাসেন নিজের মতো খেলতেও। এবার টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে পেয়েছেন সেই স্বাধীনতা। জাতীয় দলে ফেরার ম্যাচেই তাই উদ্ভাসিত তরুণ এই অলরাউন্ডার।
  • আফিফ-মোসাদ্দেক এনে দিলেন স্বস্তির জয়
    চোখরাঙানি তখন পরাজয়ের। অপেক্ষা আরেকটি হতাশাময় সমাপ্তির। হাওয়া বুঝে গ্যালারি ছেড়ে গেছেন দর্শকদের অনেকে। মোসাদ্দেক হোসেনের সঙ্গে আফিফ হোসেনের জুটির শুরু সেখান থেকেই। ঝড়ো ফিফটিতে জাতীয় দলে ফেরা রাঙালেন আফিফ। মোসাদ্দেক থাকলেন শেষ পর্যন্ত। দুঃসময়ের চক্রে থাকা বাংলাদেশকে স্বস্তির জয় এনে দিল দুজনের দারুণ জুটি।
  • প্রস্তুতি ম্যাচে বোলিংয়ে উজ্জ্বল আফিফ
    ব্যাটিংয়ে খুব একটা সুবিধা করতে পারলেন না মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, আফিফ হোসেন। বোলিংয়ে অকাতরে রান দিলেন ইয়াসিন আরাফাত। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে একমাত্র প্রাপ্তি আফিফের বোলিং।
  • প্রস্তুতি ম্যাচের দলে সাব্বির-সাইফ
    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের বিসিবি একাদশে ডাক পেয়েছেন ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান ও পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। আছেন অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ও পেসার ইয়াসিন আরাফাত।
  • শান্তর সেঞ্চুরি, আফিফের ফিফটি
    দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ছন্দে থাকা বাঁহাতি এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান দারুণ এক সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দলকে রেখেছেন বড় সংগ্রহের পথে।
  • সিপিএলে দল পেলেন আফিফ
    টি-টোয়েন্টি অভিষেকে পাঁচ উইকেট নিয়ে চমকে দিয়েছিলেন আফিফ হোসেন। পরে ভালো করেছেন ব্যাটিংয়েও। এই সংস্করণে ধীরে ধীরে নিজেকে পরিণত করছেন কার্যকর অলরাউন্ডার হিসেবে। সেই পথ চলায় এবার ডাক পেলেন ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট লিগ- সিপিএলে। খেলবেন সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস প্যাট্রিয়টসের হয়ে।
  • ওয়ার্নারকে দেখে যা শিখতে চান আফিফ
    সতীর্থ যখন ডেভিড ওয়ার্নার, তরুণ কোনো ক্রিকেটারের তখন তা শেখার বড় সুযোগ। সেই সুযোগ কাজে লাগাতে মুখিয়ে আছেন আফিফ হোসেন। সম্ভাবনাময় এই তরুণ ক্রিকেটার শিখতে চান কিভাবে ইনিংস গড়ে তোলেন ওয়ার্নার।
  • জিয়ার সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় আফিফ
    দুজনে যখন জুটি বেঁধেছিলেন উইকেটে, প্রতিপক্ষ তখন লিড নেওয়ার আশায়। কিন্তু দারুণ ব্যাটিংয়ে খুলনাকে শুধু উদ্ধারই করলেন না জিয়াউর রহমান ও আফিফ হোসেন, এনে দিলেন লিড। সেঞ্চুরি করে আউট হয়ে গেছেন জিয়া, তবে অপেক্ষায় আছেন আফিফ।
  • তুষারের জোড়া সেঞ্চুরি, আফিফের ৭ উইকেট
    ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৭ উইকেট নিয়েছেন খুলনার তরুণ অফ স্পিনার আফিফ হোসেন। তবে অপরাজিত সেঞ্চুরিতে ঠিকই রাজশাহীকে প্রথম ইনিংসে বড় লিড এনে দিয়েছেন জহুরুল ইসলাম। শুরুতে উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া খুলনাকে দ্বিতীয় ইনিংসেও টানছেন জোড়া সেঞ্চুরি করা তুষার ইমরান।
  • লিটন-আফিফের ব্যাটে ছয়শর কাছে পূর্বাঞ্চল
    শিরোপা লড়াইয়ে নেই দুই দল। ম্যাচটি তাই এক রকম রূপ নিয়েছে ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়া মেলানোর ম্যাচে। তাতে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস পেলেন আফিফ হোসেন। অনেক প্রাপ্তির পরও একটু না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়লেন লিটন দাস। প্রতিপক্ষের রান পাহাড় টপকে তাদের দলও নিল লিড।
  • তুষারের কীর্তির পর লিটন-আফিফের সেঞ্চুরি
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশের ব্যাটিং রেকর্ডের উল্লেখযোগ্য অনেকগুলোই তার। ছিল না ম্যাচে জোড়া সেঞ্চুরি। সেটিও করে ফেললেন তুষার ইমরান। দক্ষিণাঞ্চলকে নিয়ে গেলেন শক্ত অবস্থানে। কিন্তু লিটন দাস ও আফিফ হোসেনের দারুণ দুটি সেঞ্চুরিতে ম্যাচ বাঁচাল পূর্বাঞ্চল।
  • টি-টোয়েন্টি দলে অনেক পরিবর্তন
    নতুন চেহারা পেয়েছে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দল। সবশেষ সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন সাত জন। দলে নতুন মুখ পাঁচ জন, দলে ফিরেছেন তিন জন।
  • আফিফের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে পঞ্চমের লড়াইয়ে বাংলাদেশ
    গ্রুপ পর্বে ইংল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ। স্থান নির্ধারণী ম্যাচে সেই ইংলিশদেরই অনায়াসে হারিয়ে পঞ্চম স্থানের লড়াইয়ে টিকে থাকল বাংলাদেশ।
  • বাংলাদেশের জয়ে উজ্জ্বল হৃদয়-আফিফ
    দুর্দান্ত সেঞ্চুরি উপহার দিলেন তৌহিদ হৃদয়। ব্যাটে-বলে আলো ছড়ালেন আফিফ হোসেন। কানাডাকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালের পথে এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ।
  • যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের শক্তি কম্বিনেশন: অধিনায়ক
    পরস্পরের মধ্যে দারুণ যোগাযোগ আর ভারসাম্যপূর্ণ কম্বিনেশনকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে বড় শক্তি মনে করছেন সাইফ হাসান। সতীর্থদের সামর্থ্যে আস্থা রেখে নিউ জিল্যান্ডের অচেনা কন্ডিশনে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করতে আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক।
  • আবাহনীর জয়ে চ্যাম্পিয়ন গাজী
    হ্যাটট্রিক করেছেন আফিফ হোসেন, শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের বিপক্ষে জিতেছে আবাহনী। পাশের মাঠে তখন উৎসবে ব্যস্ত গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। আবাহনীর জয়ে যে প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে নিজের ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই শিরোপা জিতে গেছে নাসির হোসেনের দল। 
  • আবারও সেঞ্চুরিতে উজ্জ্বল আফিফ
    বিপিএলে প্রথম ম্যাচেই ৫ উইকেট চমকে অভিষেক। তবে তখন থেকেই নিজেকে বারবার দাবি করেছেন মূলত ব্যাটসম্যান। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে পথচলার শুরুতে সেই দাবিকেই প্রমাণ করে চলেছেন আফিফ হোসেন। তিন ম্যাচেই করে ফেললেন দুটি সেঞ্চুরি!
  • অভিষেকে আফিফের দারুণ শতক
    বিপিএলে অভিষেকে ৫ উইকেট নিয়ে চমকে দেওয়া আফিফ হোসেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকে করেছেন শতক। ১৭ বছর বয়সী এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান উত্তরাঞ্চলের বিপক্ষে পূর্বাঞ্চলকে গড়ে দিয়েছেন বড় সংগ্রহের ভিত।
  • আফিফের কাছে ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স চান স্যামি
    এসেই রাজশাহী কিংসের গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র হয়ে গেছেন আফিফ আহমেদ। তরুণ এই অলরাউন্ডারের কাছে আবারও ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স চান অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। চিটাগং ভাইকিংসের অধিনায়ক তামিম ইকবালও মনে করছেন, আফিফের পারফরম্যান্সের পুনরাবৃত্তি বারবার দেখা যাবে।
  • আমি মূলত ব্যাটসম্যান: আফিফ
    “প্রত্যাশা বোলিংয়ে বেশি থাকবে না। আমি মেইনলি ব্যাটসম্যান। ব্যাটিং আগে, তারপর আমার বোলিং” …সংবাদ সম্মেলনে যখন বলছেন আফিফ হোসেন, পাশে বসে চোখ বড় বড় করে তাকিয়ে জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন। আফিফ কথা বলছিলেন বাংলায়, তবে ‘মেইনলি ব্যাটসম্যান’ শুনেই অবাক কিউই অলরাউন্ডার। আফিফের বিপিএল সতীর্থের জন্যও কথাটি চমক। ফ্র্যাঙ্কলিন যেন আকাশ থেকে পড়লেন, “তুমি মূলত ব্যাটসম্যান।”
  • আফিফ চাপে ভাঙবে না: ফ্র্যাঙ্কলিন
    টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিজের প্রথম দুই বলেই চার হজম করার পর আফিফ হোসেন যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন তাতে মুগ্ধ জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন। নিউ জিল্যান্ডের এই অলরাউন্ডার মনে করছেন, বিপুল প্রত্যাশার চাপেও ভেঙে পড়বেন না এই তরুণ।