বাংলাদেশের ব‍্যাটিং ব‍্যর্থতার পর ম‍্যাচ পরিত‍্যক্ত

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ব্যাটিং একদমই ভালো হলো না বাংলাদেশের। ত্রিশের ঘরে যেতে পারেননি কেউই। নেই পঞ্চাশ ছোঁয়া কোনো জুটি। সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহানের দুটি ক্যামিও ইনিংসের উপর ভর করে কোনোমতে একশ ছাড়ায় দল। সেই পুঁজি নিয়ে কতটা কী করতে পারতেন বোলাররা, তা জানতে দিল না বৃষ্টি। পাঁচ বছর পর ডমিনিকায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরার ম্যাচে সব রোমাঞ্চে জল ঢেলে দিল বৃষ্টি। পরিত্যক্ত হয়ে গেল বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 July 2022, 05:12 PM
Updated : 2 July 2022, 09:30 PM

বাংলাদেশের ব‍্যাটিং ব‍্যর্থতার পর পরিত‍্যক্ত ম‍্যাচ

বৃষ্টি শেষে আবার উঠল রোদ। তবে এবার আর মাঠে ফেরা হলো না ক্রিকেটারদের। দুই অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও নিকোলাস পুরানের সঙ্গে কথা বলে ম‍্যাচের ইতি টেনে দিলেন দুই আম্পায়ার!

ভেজা মাঠ ও বৃষ্টির জন‍্য নির্ধারিত সময়ের সোয়া এক ঘণ্টা পর খেলা শুরু হয়। ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য কমে হয় ১৬। বাংলাদেশ ইনিংসে প্রথম দফায় বৃষ্টিতে ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য কমে ২ ওভার। তবে শেষ পর্যন্ত ১৪ ওভার খেলতে পারেনি সফরকারীরা। ১৩ ওভার শেষে বৃষ্টি নামলে তাদের ইনিংস শেষ হয় সেখানেই।

তখনও বোঝা যায়নি, ম‍্যাচই শেষ হতে যাচ্ছে এখানে। বাংলাদেশ ফিল্ডিং নামার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। তবে এর আগেই মাহমুদউল্লাহ ও পুরানের সঙ্গে কথা বলে ম‍্যাচের ইতি টেনে দেন দুই আম্পায়ার।

এর আগে প্রথম ৬ ওভারে ২ উইকেটে ৫৬ রানের দৃঢ় ভিতের উপর দাঁড়ানো বাংলাদেশ পারেনি ঠিকভাবে নিজেদের ইনিংস এগিয়ে নিতে। বরং এক পর্যায়ে ২১ রানের মধ‍্যে ৫ উইকেট হারিয়ে ভীষণ বিপদে পড়ে যায় তারা। সেখান থেকে নুরুল হাসান সোহানের ক‍্যামিও ইনিংসে একশ ছাড়ায় বাংলাদেশের রান।

সেটা নিয়ে কতটা লড়াই করা সম্ভব ছিল, সেটা জানতে দিল না বৃষ্টি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ১৩ ওভারে ১০৫/৮ (মুনিম ২, এনামুল ১৬, সাকিব ২৯, লিটন ৯, মাহমুদউল্লাহ ৮, আফিফ ০, সোহান ২৫, মেহেদি ১, নাসুম ৭*, শরিফুল ০*; আকিল ৩-০-২২-১, শেফার্ড ৩-০-২১-৩, ম‍্যাককয় ২-০-১৬-১, স্মিথ ২-০-২২-১, ওয়ালশ জুনিয়র ৩-০-২৪-২)

আবার বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ

বাংলাদেশের ইনিংসের কেবল শেষ ওভার বাকি। তখন আবার ফিরে এলো বৃষ্টি। বন্ধ হয়ে গেল খেলা।

১৪ ওভারে নেমে আসা ম‍্যাচে আরেক দফায় ওভার কমা মোটামুটি নিশ্চিত। ব‍্যাটিংয়ে আর নামা হচ্ছে না বাংলাদেশের। আবার খেলা শুরু সম্ভব হলে ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন পদ্ধতিতে নতুন লক্ষ‍্য পাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

দলকে শতরানে নিলেন সোহান

আগের ওভারে কাজে লাগাতে পারেননি ফ্রি হিট। তবে পরের ওভারে ওডিন স্মিথের উপর চড়াও হলেন নুরুল হাসান সোহান। র‍্যাম্প শট ছক্কার পর স্লগ করে নিলেন ২ রান। পরের পল মিডউইকেট দিয়ে এলো ৯২ মিটার লম্বা ছক্কা।

তবে বিদায় নিতে হলো এরপরেই। অফ স্টাম্পের বাইরের বল টেনে লেগে ঘুরানোর চেষ্টায় সোহান বিদায় নিলেন সহজ ক‍্যাচ দিয়ে। বাংলাদেশের কিপার-ব‍্যাটসম‍্যান দুই ছক্কা ও এক চারে ১৬ বলে করেন ২৫।

১৩ ওভারে বাংলাদেশের রান ৮ উইকেটে ১০৫। ক্রিজে নাসুম আহমেদের সঙ্গী শরিফুল ইসলাম।

টিকলেন না মাহমুদউল্লাহ ও মেহেদি

রোমারিও শেফার্ডের অফ স্টাম্পের বাইরের বল মাটিতে রাখতে না পারার মাশুল দিলেন মাহমুদউল্লাহ। দলকে বিপদে রেখে বিদায় নিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

ব‍্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট দিয়ে হাওয়ায় ভাসিয়ে শট খেলেন মাহমুদউল্লাহ। জায়গা থেকেই  নিচু হযে ক‍্যাচ মুঠোয় নেন হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র। ১৩ বলে ৮ রান করেন মাহমুদউল্লাহ।

সেই ওভারেই কট বিহাইন্ড হয়ে বিদায় নেন অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান। আম্পায়ার আউট না দিলে রিভিউ নিয়ে সফল হন নিকোলাস পুরান। আল্ট্রা এজে মেলে ব‍্যাটের কানা নেওয়ার প্রমাণ।

১১ ওভারে বাংলাদেশের রান ৭ উইকেটে ৮১।  ক্রিজে নুরুল হাসান সোহানের সঙ্গী নাসুম আহমেদ।

ছক্কার চেষ্টায় আফিফের ‘অক্কা’

বৃষ্টির জন‍্য ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য আরও দুই ওভার কমে যাওয়াতেই হয়তো আর অপেক্ষা করতে চাইলেন না আফিফ হোসেন। বুঝতে চাইলেন না উইকেট, বোলার কিছুই। বিরতির পর প্রথম বলেই ছক্কার চেষ্টায় বিদায় নিলেন ক‍্যাচ দিয়ে।

বৃষ্টির আগে পরে মিলিয়ে শেষ হওয়া ওভারে তিন বলের মধ‍্যে দুই উইকেট পেলেন হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র। স্টাম্পে থাকা এই লেগ স্পিনারের বলে স্লগ সুইপের চেষ্টায় টাইমিং করতে পারেননি আফিফ। লংঅনে সহজ ক‍্যাচ নেন ব্রান্ডন কিং।

২ বলে শূন‍্য রানে ফেরেন আফিফ।

৮ ওভারে বাংলাদেশের রান ৫ উইকেটে ৬১। ক্রিজে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর সঙ্গী নুরুল হাসান সোহান।

বৃষ্টিতে কমল আরও ২ ওভার

আরেক দফায় কমল ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য। নির্ধারিত সময়ের সোয়া এক ঘণ্টা পর শুরু হওয়ায় ম‍্যাচ নেমে এসেছিল ১৬ ওভার। বাংলাদেশ ইনিংসের মাঝপথে বৃষ্টির বাগড়ায় ৩৪ মিনিট খেলা বন্ধ থাকায় ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য কমেছে আরও ২ ওভার।

১৪ ওভারের বাংলাদেশের ইনিংস শেষে ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন পদ্ধতিতে নির্ধারিত হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের লক্ষ‍্য।

সাকিবকেও হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ, বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ

নিয়মিত উইকেট পতনের মধ‍্যে রানের চাকা সচল রেখেছিলেন সাকিব আল হাসান। তাকে কট বিহাইন্ড করে বাংলাদেশকে বড় একটা ধাক্কা দিলেন হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র।

লেগ স্পিনারের গুগলি বোলারের মাথার উপর দিয়ে ওড়াতে চেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু ঠিক মতো খেলতে পারেননি, ব‍্যাটের কানায় লেগে ক‍্যাচ যায় উইকেটের পেছনে। দারুণ দক্ষতায় গ্লাভসে জমান ডেভন টমাস।

১৫ বলে দুটি করে ছক্কা ও চারে ২৯ রান করেন সাকিব।

বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার আউট হওয়ার পর হয় কেবল আর এক বল। এরপর বৃষ্টির জন‍্য বন্ধ হয়ে যায় খেলা।

৭.৪ ওভারে বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ৬০। ক্রিজে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর সঙ্গী আফিফ হোসেন।

স্লোয়ার-বাউন্সারে ধরা লিটন

ক্রিজে যাওয়ার একটু পরেই বাউন্ডারি মারেন লিটন দাস। পরে ফ্রি হিট পেয়ে মারেন আরেকটি। তবে এর বাইরে খুব একটা স্বচ্ছন্দ ছিলেন না ডানহাতি এই ব‍্যাটসম‍্যান। তার ইনিংস শেষ হয় রোমারিও শেফার্ডের বাউন্সারে।

স্লোয়ার বুঝতেই পারেননি লিটন। আগেভাগেই পুল করে বসেন তিনি। বেশ উঁচুতে ওঠে যাওয়া ক‍্যাচ মিডউইকেটে মুঠোয় নেন নিকোলাস পুরান।

১৪ বলে দুই চারে ৯ রান করেন লিটন।

৭ ওভারে বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৫৯। ১৩ বলে ২৯ রানে খেলছেন সাকিব আল হাসান। ৩ বলে মাহমুদউল্লাহর রান ২।

সাকিবের ব‍্যাটে ঝড়

পাওয়ার প্লেতে দুই ওপেনারকে হারালেও দলের উপর এর কোনো প্রভাব পড়তে দেননি সাকিব আল হাসান। বিস্ফোরক ব‍্যাটিংয়ে তিনিই দলকে এনে দিলেন উড়ন্ত সূচনা।

পাওয়ার প্লেতে ৫ ওভারে বাংলাদেশের রান ২ উইকেটে ৪৬। ৯ বলে সাকিবের রান ১৯। ৯ বলে ৮ রানে খেলছেন লিটন দাস।

তিন চারে এনামুল হক ১০ বলে ১৬ রান করে বিদায় নেওয়ার পর রানের গতি কমতে দেননি সাকিব। এরই মধ‍্যে তার ব‍্যাট থেকে এসেছে দুই চার ও এক ছক্কা। লিটনও মেরেছেন দুটি চার।

ঝড়ের আভাস দিয়ে ফিরলেন এনামুল

মুখোমুখি হওয়া প্রথম দুই বলে দুই বাউন্ডারি। এনামুল হক বুঝিয়ে দিলেন চড়াও হওয়ার মানসিকতা নিয়েই নেমেছেন তিনি। তবে তার ইনিংস বড় হলে না। ওবেড ম‍্যাককয়ের স্টাম্পের বলের লাইন মিস করে হয়ে গেলেন এলবিডব্লিউ।

আবুল হাসানকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশের হয়ে দুই টি-টোয়েন্টির মধ‍্যে বছর ও ম‍্যাচের দিক থেকে সবচেয়ে বড় বিরতির রেকর্ড গড়ার দিনে এনামুল তিন চারে ১০ বলে করেন ১৬।

বাঁহাতি পেসার ম‍্যাককয়ের বল শাফল করে লেগে খেলার চেষ্টা করেন এনামুল। বলের লাইনে যেতে পারেননি। আম্পায়ার এলবিডব্লিউ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রিভিউ নেন। তবে বল পিচ করেছিল মিডল স্টাম্পে, আঘাতও হানতো লেগ-মিডল স্টাম্পে। আউট হওয়ার সঙ্গে একটি রিভিউও নষ্ট করে যান এনামুল।

সেই ওভারেই ম‍্যাককয়কে চার মেরে রানের খাতা খোলেন লিটন দাস।

আগের ওভারে আকিল হোসেনকে ছক্কা ও চার হাঁকানো সাকিব আল হাসান করছেন সহজাত আক্রমণাত্মক ব‍্যাটিং। 

৪ ওভারে বাংলাদেশের রান ২ ওপেনারকে হারিয়ে ৪০।

শুরুতেই সাজঘরে মুনিম

বাংলাদেশের নতুন চেহারার উদ্বোধনী জুটি টিকল কেবল তিন বল। মুনিম শাহরিয়ারকে কট বিহাইন্ড করে দিলেন আকিল হোসেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ আক্রমণ শুরু করে বাঁহাতি স্পিনারকে দিয়ে। প্রথম বলটি ডট খেলান আকিল। দ্বিতীয় বলে স্লিপের পাশ দিয়ে খেলে দুই রান পান মুনিম। পরের বলেই ড্রাইভ করার চেষ্টায় কিপারের গ্লাভসে ধরা পড়েন এই বিস্ফোরক ওপেনার।

অফ স্টাম্পের একটু বাইরে বল ঠিক মতো খেলতে পারেননি মুনিম। ব‍্যাটের বাইরের কানা ছুঁয়ে জমা পড়ে কিপারের গ্লাভসে।

সেই ওভারের ষষ্ঠ বলে স্ট্রাইক পেয়ে চার দিয়ে টি-টোয়েন্টিতে ফেরা উদযাপন করেন এনামুল হক।

১ ওভারে বাংলাদেশের রান ১ উইকেটে ৭। ক্রিজে এনামুলের সঙ্গী সাকিব আল হাসান।

২ স্পিনার নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

বাংলাদেশ ৩ স্পিনার নিয়ে খেললেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ খেলছে দুই স্পিনার আকিল হোসেন ও হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়রকে নিয়ে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সবশেষ সিরিজের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড অবসর নিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে। তার জায়গায় নেতৃত্ব পাওয়া নিকোলাস পুরানের অধিনায়ক হিসেবে এটাই প্রথম ম‍্যাচ।

ভারতের বিপক্ষে সবশেষ ম‍্যাচ খেলা অনেকে স্কোয়াডেই নেই। স্বাভাবিকভাবে একাদশে এসেছে অনেক পরিবর্তন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল: নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), রভম্যান পাওয়েল (সহ-অধিনায়ক), শামার ব্রুকস, আকিল হোসেন, ব্রান্ডন কিং, কাইল মেয়ার্স, ওবেড ম্যাককয়, রোমারিও শেফার্ড, ওডিন স্মিথ, ডেভন টমাস, হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র।

৭ বছর পর টি-টোয়েন্টিতে এনামুল

সেন্ট লুসিয়া টেস্ট দিয়ে এরই মধ‍্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন এনামুল হক। এবার জায়গা পেলেন টি-টোয়েন্টি একাদশেও। এই সংস্করণে দেশের হয়ে সবশেষ তিনি খেলেছিলেন ২০১৫ সালে।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে রেকর্ড গড়া এক মৌসুম কাটিয়ে জাতীয় দলে ফেরা এই ডানহাতি ব‍্যাটসম‍্যানের সামনে সুযোগ নিজের রেকর্ড আরও ভালো করার। ৩২ এর বেশি গড়ে ও প্রায় ১১৮ স্ট্রাইক রেটে এই সংস্করণে রান করেছেন তিনি।

দুই পেসার ও তিন স্পিনার নিয়ে একাদশ সাজিয়েছে বাংলাদেশে। শেষ সময়ে দলে যুক্ত হওয়া তাসকিন আহমেদ ও মেহেদী হাসান সুযোগ পাননি। জায়গা মেলেনি মোসাদ্দেক হোসেনের।

বাংলাদেশ দল: মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), মুনিম শাহরিয়ার, লিটন দাস, এনামুল হক, সাকিব আল হাসান, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদি হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ।

ছবি: ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ

১৬ ওভারের ম‍্যাচ

মাঠ তৈরি করতে অনেকটা সময় নষ্ট হওয়ায় কমে এসেছে ম‍্যাচের দৈর্ঘ‍্য। বাংলাদেশ সময় রাত ১টা ১০ মিনিটে শুরু হতে যাওয়া ম‍্যাচ হবে ১৬ ওভার।

পাওয়ার প্লে ৫ ওভার। একজন সর্বোচ্চ ৪ ওভার বোলিং করতে পারবেন। বাকিরা সর্বোচ্চ ৩ ওভার করে।

টস হেরে ব‍্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

নির্ধারিত সময়ের সোয়া ১ ঘণ্টা পর হলো টস। ভাগ‍্যকে পাশে পেলেন নিকোলাস পুরান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক নিলেন বোলিং।

অনেক দিন পর আন্তর্জাতিক ম‍্যাচ হচ্ছে উইন্ডসর পার্কে। উইকেট লম্বা সময় ধরে কাভার দিয়ে ঢাকা। স্বাভাবিকভাবে এই পরিস্থিতিতে আগে ব‍্যাট করতে চাননি পুরান। টস জিতলে তার মতো বোলিং নিতেন বলে জানালেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। টস হারায় এখন দলের কাছে দায়িত্বশীল ব‍্যাটিং চাইলেন তিনি।

সোয়া ২টায় পর্যবেক্ষণ

মাঠের অবস্থা দেখতে স্থানীয় সময় বেলা সোয়া দুইটায় পর্যবেক্ষণে নামবেন দুই আম্পায়ার। মাঠ প্রস্তুতের কাজ চলছে জোরেশোরে। নতুন করে বৃষ্টি না নামলে হয়তো পর্যবেক্ষণের পর দ্রুতই শুরু হবে ম‍্যাচ।

ছবি: ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ

খেলা শুরুতে দেরি

ডমিনিকায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরার ম‍্যাচে বাগড়া দিয়েছে বিরূপ আবহাওয়া। তাতে পিছিয়ে গেছে টস। স্বাভাবিকভাবেই দেরি হচ্ছে খেলা শুরু করতে।

মাঠের নানা আংশ এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত নয়, কিছু অংশ এখনও ভেজা। মাঠকর্মীরা কঠোর পরিশ্রম করছেন মাঠ প্রস্তুত করতে। ওয়ার্ম আপ করতে নেমে দুই দলই।

টস হতে দেরি

বিরূপ আবহাওয়ার জন‍্য যথা সময়ে শেষ করা যায়নি মাঠ প্রস্তুতের কাজ। ফলে নির্ধারিত সময়ে টস করা যায়নি ডমিনিকায়। তাই বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি নির্ধারিত সময়ে শুরু করা নিয়ে জেগেছে শঙ্কা।

নতুন শুরুর আশায় বাংলাদেশ

পাঁচ বছর পর প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ম‍্যাচ হতে যাচ্ছে ডমিনিকায়। আট বছর পর হতে যাচ্ছে প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি। উইন্ডসর পার্কের জন‍্য এটা একরকম নতুন শুরুই। সবশেষ ভারত দল থেকে একগাদা পরিবর্তন এনে নতুন শুরু করতে যাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজও। স্বাগতিকদের মতো অতো না হলেও বেশ কিছু পরবির্তন আছে বাংলাদেশ দলেও।

টি-টোয়েন্টিতে এখনও নিজস্ব ঘরানা খুঁজে ফেলা দলটিও একরকম নতুন শুরু করতে চায় ক‍্যারিবিয়ানে।

বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত সাড়ে ১১টায় শুরু হওয়ার কথা ম্যাচটি।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কেমন ব‍্যাটিং প্রয়োজন, সেটা যেন এখনও বুঝে উঠতে পারছে না বাংলাদেশ। তবে শিগগির একটা পথ খুঁজে পাওয়ার আশায় দল। ডট বলের সংখ‍্যা কমিয়ে, বাউন্ডারির সংখ‍্যা বাড়িয়ে, পাওয়ার প্লে কাজে লাগিয়ে লড়াইয়ের পুঁজি গড়ার চেষ্টা করছে মাহমুদউল্লাহর দল। সেটা তারা কতটা করতে পারবেন, এই কৌশল কতটা কার্যকর হবে, সেটার একটা পরীক্ষা হয়ে যাবে দুইবারের বিশ্ব চ‍্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে।  

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক