কেয়ারির দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয়ে শেষ অস্ট্রেলিয়ার

বোলারদের নৈপুণ্যে লক্ষ্যটা ছোট থাকলেও পথ হারাতে বসেছিল অস্ট্রেলিয়া। পড়েছিল আরেকটি হারের শঙ্কায়। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন অ্যালেক্স কেয়ারি। তার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয় দিয়ে শেষ করল সফরকারীরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 June 2022, 04:12 PM
Updated : 24 June 2022, 05:11 PM

সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে শুক্রবার ৪ উইকেটে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। স্বাগতিকদের ১৬০ রান তারা পেরিয়ে গেছে ৬৩ বল বাকি থাকতে।

পাঁচ ওয়ানডের প্রথমটি হারের পর টানা তিন ম্যাচ জিতে আগেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছিল শ্রীলঙ্কা।

মন্থর উইকেটে ছোট লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া অস্ট্রেলিয়া ঘুরে দাঁড়ায় কেয়ারির ব্যাটে। এই কিপার-ব্যাটসম্যান ৬৫ বলে এক চারে ৪৫ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন জয় সঙ্গে নিয়ে।

দল হারলেও ব্যাট হাতে দারুণ লড়াইয়ের পুরস্কার পান চামিকা করুনারত্নে। আট নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২ ছক্কা ও ৮ চারে ৭৫ বলে ৭৫ রানের ইনিংস খেলে জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

শ্রীলঙ্কার হয়ে ওয়ানডেতে আটে নেমে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের ইনিংস এখন করুনারত্নের। অল্পের জন্য তিনি ভাঙতে পারেননি গত বছর ভানিন্দু হাসারাঙ্গার খেলা অপরাজিত ৮০ রানের ইনিংসের রেকর্ড।

আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কা উইকেট হারাতে থাকে নিয়মিত বিরতিতে। যার শুরু পাথুম নিসানকাকে দিয়ে। তৃতীয় ওভারেই জশ হেইজেলউডের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে যান এই ওপেনার।

তিনি ছাড়া দুই অঙ্কে যেতে পারেননি দলে ফেরা দানুশকা গুনাথিলাকা, দিনেশ চান্দিমালও। কুসল মেন্ডিস হিট উইকেট হয়ে বিদায় নেন ২৬ রান করে। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান চারিথ আসালাঙ্কা ফেরেন দ্রুত।

৮৫ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে একশর আগে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়া দলের হাল ধরেন করুনারত্নে। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন অভিষিক্ত প্রমোদ মাদুশান।

এই দুইজনের ব্যাটেই লড়াই করার মতো পুঁজি পায় শ্রীলঙ্কা। নবম উইকেটে দুইজনে গড়েন ৫৮ রানের জুটি। ৬২ বলে ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি স্পর্শ করা করুনারত্নে বিদায় নেন শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে, প্যাট কামিন্সের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দারুণ বোলিংয়ে দুটি করে উইকেট নেন হেইজেলউড, ম্যাথু কুনেমান ও কামিন্স।

জবাব দিতে নেমে রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে যান অ্যারন ফিঞ্চ। টানা দুই ম্যাচে ফিরলেন তিনি শূন্য রানে। দুই চার মেরে ভালো শুরুর আভাস দিয়ে দ্রুত ফিরে যান আগের ম্যাচে ৯৯ রান করা ডেভিড ওয়ার্নার।

ওয়ানডে অভিষেকে দুই অঙ্কে যেতে পারেননি জশ ইংলিশ। মাহিশ থিকশানা ও দুনিথ ওয়াল্লালাগের স্পিনে ১৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা অস্ট্রেলিয়া কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে মিচেল মার্শ ও মার্নাস লাবুশেনের ব্যাটে।

মার্শকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম উইকেটের স্বাদ নেন মাদুশান। ভাঙে জমে যাওয়া জুটি। এরপর কেয়ারি ও লাবুশেনের ব্যাটে ইনিংসে একমাত্র পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি পায় অস্ট্রেলিয়া।

২ চারে ৩১ রান করা লাবুশেনের পর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে ফিরিয়ে ম্যাচে প্রাণ ফেরান বাঁহাতি স্পিনার ওয়াল্লালাগে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য সেটাই হয়ে থাকে তাদের শেষ উল্লাস।

ক্যামেরন গ্রিনকে নিয়ে বাকি পথ পাড়ি দেন কেয়ারি। জেফরি ভ্যান্ডারসেকে লং-অফ দিয়ে ছক্কায় উড়িয়ে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেওয়া গ্রিন অপরাজিত থাকেন ২৫ রান করে।

আগামী বুধবার শুরু হবে দুই দলের প্রথম টেস্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ৪৩.১ ওভারে ১৬০ (গুনাথিলাকা ৮, নিসানকা ২, মেন্ডিস ২৬, চান্দিমাল ৬, আসালাঙ্কা ১৪, শানাকা ১, ওয়াল্লালাগে ৪, করুনারত্নে ৭৫, ভ্যান্ডারসে ৪, মাদুশান ৪, থিকশানা ২*; হেইজেলউড ৭-৩-২২-২, ম্যাক্সওয়েল ১০-০-৩৮-১, কুনেমান ১০-৩-২৬-২, কামিন্স ৬.১-১-২২-২, মার্শ ১-০-৩-০, লাবুশেন ৭-১-৩৬-০, গ্রিন ২-০-১৩-১)

অস্ট্রেলিয়া: ৩৯.৩ ওভারে ১৬৪/৬ (ওয়ার্নার ১০, ফিঞ্চ ০, মার্শ ২৪, ইংলিস ৫, লাবুশেন ২২*, কেয়ারি ১৮*; করুনারত্নে ১-০-১০-০, থিকশানা ৭-১-১৬-২, ওয়াল্লালাগে ৫-০-১৫-১, ভ্যান্ডারসে ৪-০-১৭-০, মাদুশান ৩-০-১৩-১, আসালাঙ্কা ৩-০-১৩-০)

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৪ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: চামিকা করুনারত্নে

সিরিজ: পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জয়ী শ্রীলঙ্কা

ম্যান অব দা সিরিজ: কুসল মেন্ডিস

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক