৫ বছর পর বাদ পড়লেন মুমিনুল

ব‍্যাটিংয়ে পূর্ণ মনোযোগ দিতে ছেড়ে দিয়েছিলেন নেতৃত্ব। তবুও মুমিনুল হকের ব‍্যাটে ফেরেনি রান, খেলায় দেখা যায়নি আত্মবিশ্বাসের ছাপ। প্রলম্বিত বাজে ফর্মের মাশুল দিয়ে একাদশে জায়গা হারালেন বাঁহাতি এই ব‍্যাটসম‍্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 June 2022, 03:15 PM
Updated : 24 June 2022, 03:15 PM

সেন্ট লুসিয়ার ড‍্যারেন স‍্যামি ইন্টারন‍্যাশনাল স্টেডিয়ামে শুক্রবার টসের সময় সাকিব আল হাসান জানান, দুই পরিবর্তনের একটি মুমিনুল। তিনি নেই একাদশে, ফিরেছেন এনামুল হক।

২০১৩ সালে অভিষেকের পর টেস্টে বাংলাদেশের আশার আলো হয়ে এসেছিলেন মুমিনুল। নিজের প্রথম ১৪ টেস্টের ১৩টিতেই কোনো না কোনো ইনিংসে ছিল পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস। বড় ইনিংস খেলাকে অভ‍্যাসে পরিণত করে ৪৩ টেস্টেই করে ফেলেন ১১ সেঞ্চুরি।

এরপর থেকে আর তিন অঙ্কের দেখা পাচ্ছেন না তিনি। বছরের শুরুতে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে ঐতিহাসিক জয়ে ৮৮ রানের ইনিংস খেলার পর রান যেন হারিয়ে গেছে তার ব‍্যাট থেকে। পরের ১২ ইনিংসে মাত্র দুইবার স্পর্শ করতে পারেন দুই অঙ্ক। সর্বোচ্চ ৩৭।

১৩ টেস্ট শেষে তার গড় ছিল ৬১.৮৫, ২৬ টেস্ট শেষে তা কমে হয় ৪৮.২০। এখন তা নেমে হয়েছে ৩৭.৫৪। তার ক্যারিয়ারে ব্যাটিং গড় এতটা নিচে নামেনি আগে।

অ‍্যান্টিগায় প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে টেকেন কেবল ৬ বল। খুলতে পারেননি রানের খাতা। পরের ইনিংস ব‍্যাটের কানায় লেগে বোল্ড হতে হতে পেয়ে যান বাউন্ডারি। তবে থেমে যান ওই চার রানেই। আপাতত সেটাই হয়ে থাকছে তার শেষ টেস্ট ইনিংস।

বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি টেস্ট সেঞ্চুরির রেকর্ড মুমিনুলের। সবচেয়ে বেশি টানা ১১ ম‍্যাচে পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস খেলার কীর্তি তার। একমাত্র ব‍্যাটসম‍্যান হিসেবে টেস্টের দুই ইনিংসে সেঞ্চুরিও কেবল তার। সেইসব সময় পেছনে ফেলে এখন ভুগছেন তিনি রান করতে।

২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে রান উৎসবের গল টেস্টে ব‍্যর্থতায় বাদ পড়েছিলেন বাংলাদেশের শততম টেস্টের দল থেকে। পরে দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম‍্যাচেও খেলা হয়নি। দ্বিতীয় টেস্ট দিয়ে ফেরার পর টানা ৩১ ম‍্যাচ খেলে বাদ পড়লেন তিনি।

এবার সময় এসেছে নিজের টেকনিক নিয়ে কাজ করার। ঘরোয়া ক্রিকেটে আবার নিজেকে প্রমাণ করে নিজের জায়গায় ফেরার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক