মুস্তাফিজের টেস্ট খেলা নিয়ে রাসেলের উদাহরণ দিলেন ডোনাল্ড

মুস্তাফিজুর রহমানের প্রসঙ্গ ওঠা মাত্র অ্যালান ডোনাল্ডের মুখে চওড়া হাসি, “আমি কিন্তু ফিজের বিরাট ভক্ত। সাদা বলের দুর্দান্ত বোলার সে।” সাদা বলের মুস্তাফিজের ভক্ত এমন অনেকেই। তবে আপাতত টানাটানি চলছে লাল বলের মুস্তাফিজকে নিয়ে। বাঁহাতি এই পেসারের টেস্ট খেলা বা না খেলার বিতর্ক ঘুরেফিরে আসছে বারবার। মুস্তাফিজের এই প্রসঙ্গেই বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ ডোনাল্ড এবার টেনে আনলেন আন্দ্রে রাসেলকে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 May 2022, 01:52 PM
Updated : 12 May 2022, 03:18 PM

অনেক দিন ধরেই টেস্ট ক্রিকেটের ধারেকাছে নেই মুস্তাফিজ। দুই বছর ধরে বিসিবির লাল বলের কেন্দ্রীয় চুক্তিতেও তিনি সই করেন না। এখন তিনি ব্যস্ত আইপিএলে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের বাংলাদেশ দলে তিনি স্বাভাবিকভাবেই নেই। তবে তার নাম উঠে আসছে বারবার। সংবাদমাধ্যমের একটি অংশ কিছুদিন ধরেই উচ্চকিত তার টেস্ট না খেলা নিয়ে।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দলের অনুশীলন শেষে ডোনাল্ডের সংবাদ সম্মেলনেও উঠে এলো মুস্তাফিজের প্রসঙ্গ। বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ শুরুতেই বললেন, “বাই দা ওয়ে, আমি কিন্তু ফিজের বিরাট ভক্ত। আমার মতে, সে সাদা বলের দুর্দান্ত বোলার।”

মুস্তাফিজের টেস্ট খেলতে না চাওয়ার প্রশ্নে তিনি তুলে ধরলেন সময়ের বাস্তবতা।

“এটা সবসময়ই কঠিন এক প্রশ্ন হয়ে থাকবে। ক্রিকেটাররা কেউ এই পথ বেছে নেয়, কেউ অন্য পথ। ইংল্যান্ডের নতুন ক্রিকেট পরিচালকের (রব কি) কথা পড়েছি আমি যে, ছেলেরা একসময় ১২ মাসজুড়ে প্রস্তুত থাকত, এখন থাকে ৯ মাস। চূড়ান্ত তাই কোনটিকে ধরে নেবেন?”

লাল বলের চুক্তিতে সই না করা নিয়ে মুস্তাফিজ নানা সময়ে বলেছেন তার ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্ট ও চোটপ্রবণ শরীরকে ভারাক্রান্ত না করার কথা। চোটে কয়েক দফায় মাঠের বাইরে ছিটকে যেতে হয়েছে তাকে, কাঁধের অস্ত্রোপচারের পর ছন্দ ফিরে আসতে তার সময় লেগেছিল অনেক। এসব কারণেই টেস্ট থেকে তিনি দূরে রাখেন নিজেকে।

বিসিবি এই বাস্তবতা বুঝেই তাকে টেস্ট খেলা নিয়ে চাপ দেয়নি। এছাড়া লাল বলে তার স্কিল ও কার্যকারিতা নিয়ে সংশয়ের জায়গা তো আছেই। নির্বাচকরাও তাকে টেস্টে প্রবলভাবে চাননি। গত দুই বছরে টেস্টের জন্য পেস বোলারদের নিয়ে যে নিবিড়ভাবে কাজ করা হয়েছে নানা সময়ে, সেখানেও মুস্তাফিজকে রাখা হয়নি কখনও।

বারংবার প্রশ্নে তবু এই প্রসঙ্গে নিজের মতামত জানালেন ডোনাল্ড। ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলের উদাহরণ তুলে ধরলেন তিনি এখানেই।

“এটা ব্যক্তিগত পছন্দের ব্যাপার। আমরা এটা নিয়ে মুস্তাফিজের সঙ্গে বসে কথা বলতে পারি। তবে এটা ব্যক্তিগত ব্যাপার, একান্তই ব্যক্তিগত। বিশ্বজুড়ে অনেক ক্রিকেটারই এরকম করেছে। আন্দ্রে রাসেলের কথা তো জানেনই, গ্রেট আন্দ্রে রাসেল, সেও তো বেছে নিয়েছে।”

“তাকে যখন আমি প্রথম দেখি নাইটসে (দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া দল), তখন সে ১৫০ কিলোমিটার গতিতে বল করে, ব্যাট হাতে ১১০ মিটার লম্বা ছক্কা মারে। আমার মনে হয়েছিল, দুনিয়ার সেরা ক্রিকেটার সে। কিন্তু তার শরীর টেস্ট ক্রিকেটের জন্য তৈরি ছিল না এবং সে সংক্ষিপ্ত সংস্করণই বেছে নিয়েছে। আমাকে কিছু বলতে বললে আমি বলব, এটা ব্যক্তিগত পছন্দের ব্যাপার এবং আমি এটা নিয়ে নাড়াচাড়া করতে চাই না।”

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের গ্রেট আন্দ্রে রাসেল ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে টেস্ট খেলেছেন মোটে একটি। সেটি ছিল তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচ, সেই ২০১০ সালে। সবশেষ প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন তিনি ২০১৪ সালে। চোটপ্রবণ শরীরের কারণে বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে স্রেফ টি-টোয়েন্টিতেই ক্যারিয়ার গড়েছেন। খেলে বেড়ান বিশ্বজুড়ে টি-টোয়েন্টি লিগগুলোয়। এমনকি ওয়ানডে ক্রিকেটেও খুব নিয়মিত নন এই অলরাউন্ডার। ১১ বছরের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ওয়ানডে খেলেছেন তিনি স্রেফ ৫৬টি।

মুস্তাফিজ ৭ বছরের ক্যারিয়ারে টেস্ট খেলেছেন ১৪টি। সবশেষ টেস্ট খেলেছেন তিনি গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে। গত সাড়ে তিন বছরে টেস্ট খেলেছেন স্রেফ দুটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক