১৭ বছরের ক‍্যারিয়ারের ইতি টানছেন বেনেট

জাতীয় দলে সুযোগ মেলে না অনেকদিন ধরে। ঘরোয়া ক্রিকেটেও সময় খুব একটা ভালো কাটছে না। ক্যারিয়ারে ভাটার টান ভালো করেই অনুভব করছেন হামিশ বেনেট। তাই এই পথচলার ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের ৩৫ বছর বয়সী পেসার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 April 2022, 12:04 PM
Updated : 12 April 2022, 12:04 PM

২০২১-২২ মৌসুম শেষেই ১৭ বছরের ক্যারিয়ারের সমাপ্তি টানবেন তিনি। বিদায় নেবেন সব ধরনের ক্রিকেট থেকে। 

২০১০ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন বেনেট। অভিষেকেই দারুণ বোলিংয়ে নেন তিন উইকেট। দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত তার শেষ ম্যাচও বাংলাদেশের সঙ্গে, গত সেপ্টেম্বরে মিরপুরে খেলেন টি-টোয়েন্টি।

এক যুগের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে কেবল ১৯ ম্যাচ খেলতে পেরেছেন বেনেট। যার সবশেষটি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে ভারতের বিপক্ষে। এই সংস্করণে ২৪.৮৪ গড়ে ৩৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার শুরু তার ২০২০ সালের জানুয়ারিতে। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ১১ ম্যাচ, নিয়েছেন ৩৩.১০ গড়ে ১০ উইকেট।

নিউ জিল্যান্ডের বর্তমান অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে টেস্ট অভিষেক হয় বেনেটের, ২০১০ সালে ভারতের বিপক্ষে আহমেদাবাদে। কুঁচকিতে চোট পাওয়ার আগে ১৫ ওভার করে ছিলেন উইকেটশূন্য। এরপর আর ফিরতে পারেননি টেস্ট দলে। 

২০০৫ সালে পেশাদার ক্রিকেটে পা রাখা বেনেট প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৭৯ ম্যাচ খেলে ২৬১ উইকেট নিয়েছেন। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে খেলেছেন ১১২ ম্যাচ, যেখানে তার নামের পাশে উইকেট ১৬০টি। ৮৭ স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি খেলে শিকার করেছেন ৭৮ উইকেট।

ঘরোয়া ক্রিকেটের ১২টি শিরোপা জিতেছেন বেনেট। যেখানে রয়েছে পাঁচটি প্লাঙ্কেট শিল্ড, দুটি ফোর্ড ট্রফি, চারটি সুপার স্ম্যাশ ট্রফি এবং একটি সুপার স্ম্যাশ জিতেছেন ওয়েলিংটন ব্লেজের কোচ হিসেবেও।

নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেটকে মঙ্গলবার বেনেট বলেন, তার অনুভূতির কথা।

“আমি যখন টিমারুতে নেটে তরুণ বোলার হিসেবে বোলিং শুরু করি,  তখন স্বপ্নেও ভাবিনি যে, এমন একটি ক্যারিয়ার আমি উপভোগ করতে পারব।”

খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার শেষে কোচিংয়ের কাজ চালিয়ে যেতে চান বেনেট।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক