দুই স্পিনার না এক স্পিনার, ভাবনায় বাংলাদেশ

ডারবান টেস্টে বাংলাদেশ দলকে ঘিরে ওঠা প্রশ্নগুলো পোর্ট এলিজাবেথ টেস্ট এগিয়ে আসায় আরও উচ্চকিত হয়েছে। মূল‍ প্রশ্নটা অবশ‍্যই স্পিনার নিয়ে। দ্বিতীয় টেস্টে কি দুই বিশেষজ্ঞ স্পিনার নিয়ে খেলবে বাংলাদেশ? নানা সমীকরণ মেলানোর ভাবনায় বাংলাদেশ এখনও নেয়নি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। অধিনায়ক মুমিনুল হক জানিয়েছেন, ম‍্যাচের দিন আবার উইকেট দেখে ঠিক করবেন একাদশ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 April 2022, 03:38 PM
Updated : 7 April 2022, 09:38 PM

ডারবানে ২২০ রানে হেরে যাওয়া প্রথম টেস্ট এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে স্পষ্ট হয়ে ওঠে, মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে সেই উইকেটে একাদশে প্রয়োজন ছিল তাইজুল ইসলামকেও।

দক্ষিণ আফ্রিকা খেলেছিল দুই স্পিনার ও তিন পেসার নিয়ে। পেস বোলিং অলরাউন্ডার ভিয়ান মুল্ডার থাকায় একই সঙ্গে কেশভ মহারাজ ও সাইমন হার্মারকে খেলাতে কোনো সমস‍্যা হয়নি তাদের। এই দুই স্পিনারই ম‍্যাচে গড়ে দেন ব‍্যবধান।

প্রথম ইনিংসে দারুণ বোলিং করলেও কোনো উইকেট পাননি বাঁহাতি স্পিনার মহারাজ। একশর আগে বাংলাদেশের চার ব‍্যাটসম‍্যানকে বিদায় করে সুর বেঁধে দেন অফ স্পিনার হার্মার। দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি নেন ৩ উইকেট। আর বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন মহারাজ; ৩২ রানে ৭ উইকেট নিয়ে স্রেফ ৫৩ রানে গুঁড়িয়ে দেন সফরকারীদের।   

পোর্ট এলিজাবেথে সবশেষ দুই টেস্টেই ফল নির্ধারণে বড় ভূমিকা ছিল স্পিনারদের। সবশেষ ম্যাচে ডম বেস প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার পর ইংল‍্যান্ড অধিনায়ক জো রুট নেন ৪ উইকেট। এর আগের টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেট নেন শ্রীলঙ্কার ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। দুটি ম‍্যাচেই হেরে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

তিনে তিন করতে বাংলাদেশ কি বাড়াবে একজন স্পিনার? তাসকিন আহমেদের চোটে বোলিংয়ে একটা পরিবর্তন অনিবার্য। গতিময় এই পেসারের জায়গায় কে আসবেন? তিন পেসার নিয়ে খেলতে চাইলে সৈয়দ খালেদ আহমেদ ও ইবাদত হোসেনের সঙ্গী হতে পারেন আবু জায়েদ চৌধুরি কিংবা শহিদুল ইসলাম।

বাঁহাতি স্পিনার তাইজুলকে একাদশে ফেরালে পেসার হয়ে যাবে কেবল দুই জন। আপাতত দেশের বাইরে তিন পেসার নিয়ে খেলতে চায় বাংলাদেশ। স্পিনার বাড়িয়ে পেস শক্তি অটুট রাখতে বাংলাদেশের সামনে আরেকটি পথই খোলা। কমাতে হবে একজন ব‍্যাটসম‍্যান।

প্রথম টেস্টে সফরকারীরা খেলেছিল ৭ ব‍্যাটসম‍্যান নিয়ে। তবে ব‍্যাটিংয়ে শক্তি কমাতেও তাদের বেশ অনীহা রয়েছে। প্রথম ম‍্যাচে ব‍্যাটিং ব‍্যর্থতার পর সেটা আরও বাড়ার কথা।  এসব সমীকরণের সঙ্গে মাথায় রাখতে হচ্ছে মাঠের কন্ডিশনও। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল জানালেন, আবহাওয়া ও বাতাসের জন‍্য পেসারদের জন‍্য সহায়তা আশা করছেন তারা।

“তাসকিনের জায়গায় একজন পেসার না একজন স্পিনার? কাল একটু ‘ওভারকাস্ট’ আছে। উইকেটটা কাল পর্যন্ত না দেখে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না, কি হবে।”

“এখানে একটু গরম আছে। রিভার্স সুইংয়ের একটা চ্যালেঞ্জ আসতে পারে। আবার বাতাসের কারণে এয়ার সুইংও হতে পারে। এগুলো সব মানিয়ে নিয়েই খেলতে হবে।”

শেষ নয় এখানেই। আগের দুই ম‍্যাচের পরিসংখ‍্যান মাথায় না রাখার কথা বললেও উইকেটে স্পিনারদের জন‍্য কিছুটা সহায়তা থাকার আভাস অধিনায়কের চোখে ধরা পড়েছে।

“উইকেট যতটুকু দেখলাম, আমার মনে হয়েছে একটু শুষ্ক। আর আগে কি হয়েছিল না হয়েছিল, এগুলো নিয়ে ভাবা একটু কঠিন। হয়তো এখন ভিন্ন রকম হতে পারে। কাল সকালে আবার দেখে আমরা সিদ্ধান্ত নেব, একটা স্পিনার বেশি খেলবে না একটা পেসার বেশি খেলবে।”

“(পেসার না ব‍্যাটসম‍্যান কার জায়গায় স্পিনার আসতে পারে? ) আমার কাছে মনে হয় দুইটাই হতে পারে। একজন ব‍্যাটসম‍্যানের জায়গায় হতে পারে বা একজন পেসারের জায়গায় হতে পারে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক