‘সাতেই ঠিক আফিফ, মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে চিন্তা নেই’

ব্যাট হাতে সময়টা ভালো যাচ্ছে না মাহমুদউল্লাহর। লম্বা সময়ে ধরেই আসছে না তার বড় ইনিংস। তাই ওয়ানডে দলে তার জায়গা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ছন্দে থাকা আফিফ হোসেনকে এত নিচে না খেলিয়ে মাহমুদউল্লাহর জায়গায় ছয়ে খেলানো যায় কি না এ নিয়েও বেশ চর্চা হচ্ছে। তবে তামিম ইকবাল উড়িয়ে দিয়েছেন এই আলোচনা। তিনি বলেছেন, এখনও দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য মাহমুদউল্লাহ, সাতেই ঠিক আছেন আফিফ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 March 2022, 05:26 PM
Updated : 20 March 2022, 06:29 PM

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রোববার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে যখন ৩৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে কাঁপছে বাংলাদেশ, দলকে টেনে নিতে পারেননি অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ। কিছুক্ষণ আফিফকে নিয়ে লড়াই করেছেন বটে, তবে তা কাজে আসেনি খুব একটা।

তার উইকেটের জন্য লেগ স্লিপ রেখে বোলিং করছিলেন তাবরাইজ শামসি। মাহমুদউল্লাহ পা দেন সেই ফাঁদে। বাঁহাতি এই রিস্ট স্পিনারের বলে ৩ চারে ৪৪ বলে ২৫ রান করে ধরা পড়েন লেগ স্লিপেই।

শুধু এই ম্যাচেই নয়। প্রায় গত এক বছর ধরেই প্রত্যাশিত ইনিংস খেলতে পারছেন না মাহমুদউল্লাহ। ওয়ানডেতে গত ৮ ইনিংসে একটিও নেই তার পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস। সবশেষ ফিফটি করেন গত বছরের মে মাসে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

এখন সময় খারাপ গেলেও, ওয়ানডে অভিজ্ঞতায় পূর্ণ মাহমুদউল্লাহ। ক্যারিয়ারে খেলেছেন দুইশর বেশি ম্যাচ। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তামিম বললেন, মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে তাদের কারো কোনো দুর্ভাবনা নেই। 

“দেখেন, আমার কাছে মনে হয়, (মাহমুদউল্লাহ) রিয়াদ ভাই ওয়ানডে দলের খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ, বিশেষ করে আমার কাছে।”

“রিয়াদ ভাইকে নিয়ে...ভেরি প্লেইন এন্ড সিম্পল। আমি, টিম ম্যানেজমেন্ট, নির্বাচক কেউই তার ব্যাপারে এরকম কিছু (একাদশ থেকে বাদ দেওয়ার কথা) ভাবছে না। তিনি ওয়ানডে দলের খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ।”

গত বছর ওয়ানডে দলে ফেরার পর থেকে টানা সাত নম্বরেই ব্যাট করানো হচ্ছে আফিফকে। কয়েকটি ইনিংসে এই পজিশনের দাবি মেটানোর সামর্থ‍্য দেখা গেছে তার ব্যাটে।

লম্বা সময় ধরে ‘ফিনিশার’ খুঁজে ফেরা বাংলাদেশ তাই এখন আস্থা রাখতে পারছে আফিফের ওপর। দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনি অবশ্য দাবি জানাচ্ছেন আরও উপরে ব্যাটিং করার। তবে এখনই আফিফকে নিয়ে ওই রকম পরিকল্পনা নেই দলের।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে দলের বিপর্যয়ে আফিফের পারফরম্যান্স মুগ্ধ করেছিল সবাইকে। সে সময় প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছিলেন, সাত নম্বরেই পারফেক্ট আফিফ। এবার তামিমও বললেন একই কথা।

“আফিফ সাত নম্বরে খুব ভালো ব্যাট করছে। আমি যদি এখন আফিফকে ছয়ে নিয়ে আসি, তাহলে সাতে আরেকজনকে খুঁজতে হবে। তখন কথা হবে সাত নম্বরে কে খেলবে। ছয়-সাত মাস আগে আমরা বলতাম যে আমাদের ছয়-সাত নম্বর খুঁজে বের করা দরকার। যে আমাদের ইনিংস ফিনিশ করবে।”

“আমার মনে হয় আফিফ ঠিক ব‍্যক্তি এই পজিশনের জন‍্য। যেখানে ও ব্যাট করে ওখানে দুইটা ম্যাচ-তিনটা ম্যাচে ফেইল করতেই পারে। যেদিন ও ভালো খেলবে, ভালো রান করবে আমরা জেতার অবস্থায় চলে যাব। এই কোয়ালিটি তার কাছে। আমি তাকে সাত নম্বরেই ব্যাক করব। কারণ এখানে সে ভালো করছে।”

ওয়ান্ডারার্সেও নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দেন আফিফ। একশর আগে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়া দলকে নিয়ে যান দুইশর কাছে। ১৯৪ রানের পুঁজি নিয়ে যদিও শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটের বড় হারই সঙ্গী হয়েছে বাংলাদেশ। তবে আফিফের ৭২ রানের ইনিংসটি মন জয় করেছে তামিমের।

“পজিটিভ কিছু এইসব ম‍্যাচ থেকে পাওয়া কঠিন। সম্ভবত একটা ইতিবাচক ব‍্যাপার আফিফ ও মিরাজের জুটি। আফিফ যেভাবে ব‍্যাট করেছে, দেখতে খুব ভালো লেগেছে। সে খুব ঠাণ্ডা ছিল, বাজে বল কাজে লাগিয়েছে। ও ইনিংস শেষ করে এলে আরও ভালো লাগত। এটাই মনে হয় একমাত্র ইতিবাচক ব‍্যাপার।”

দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম ওয়ানডে জয়ের পর এবার হারের মুখ দেখল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচের সিরিজটি এখন ১-১ সমতায়। আগামী বুধবার সিরিজ জয়ের অভিযানে মাঠে নামবে দুই দল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক