ওয়ার্নের সঙ্গে বোলিংয়ের স্মৃতি মনে পড়ছে রশিদের

দুজন দুই প্রজন্মের ক্রিকেটার। শেন ওয়ার্ন ও রশিদ খানের একসঙ্গে খেলার তাই প্রশ্নই ওঠে না। তবে অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তির সঙ্গে একবার বোলিং করার সুযোগ হয়েছিল রশিদের। সেটিও বিখ্যাত মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে। স্পিন জাদুকরের মৃত্যুর খবর শোনার পর আফগানিস্তানের লেগ স্পিনারের মনে পড়ছে সেই বিশেষ দিনের কথা। একসঙ্গে বোলিং করার স্মৃতি মনে পড়ায় গর্ব অনুভব করছেন তিনি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 March 2022, 12:02 PM
Updated : 5 March 2022, 02:54 PM

২০১৯-২০ মৌসুমে অ্যাডিলেইড স্ট্রাইকার্সের হয়ে বিগ ব্যাশে খেলতে অস্ট্রেলিয়াতে ছিলেন রশিদ। ঘটনাটা মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ড বক্সিং ডে টেস্টের চতুর্থ দিনের। সেদিন সব সময়ের সেরা লেগ স্পিনারের সঙ্গে বেশ খানিকটা সময় বোলিং করেন আফগান লেগ স্পিনার। তাকে কিছু পরামর্শও দেন টেস্টে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭০৮ উইকেট নেওয়া ওয়ার্ন।

মাত্র ৫২ বছর বয়সে শুক্রবার মারা গেছেন ওয়ার্ন। তার মৃত্যুতে শোকের সাগরে ভাসছে ক্রিকেট বিশ্ব। তার আগে একই দিন মারা যান আরেক অস্ট্রেলিয়ান গ্রেট রডনি মার্শ।

মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে শনিবার বাংলাদেশ-আফগানিস্তান দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ শুরুর আগে দুই গ্রেটকে স্মরণ করে দুই দল। বাংলাদেশের ব্যাটিং শেষে ইনিংস বিরতিতে রশিদ কথা বলেন ওয়ার্নকে নিয়ে। অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তির মৃত্যু ছুঁয়ে গেছে তাকেও।

“এটা (ওয়ার্নের মৃত্যু) মেনে নেওয়া কঠিন, বিশেষ করে একজন ক্রিকেটার হিসেবে। প্রত্যেক ক্রিকেটারের জন্য এটা একটা ধাক্কা। বিশ্বের প্রতিটি ক্রিকেটারের জন্য তিনি ছিলেন অনুপ্রেরণার। তার পরিবার এবং তার বন্ধুদের জন্য সমবেদনা। এটাই প্রমাণ করে যে এই বিশ্ব আনপ্রেডিক্টেবল। কেউ জানে না কখন তার সময় শেষ হবে।”

“এমসিজিতে তার সঙ্গে বোলিং করা আমার জন্য ছিল বিশাল সম্মানের বিষয়। তার সঙ্গে কাজ করতে খুব আগ্রহী ছিলাম আমি, বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটের জন্য। আমি শুধু সেই সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। এই বছর বিগ ব্যাশের সময়ে আমি যখন সেখানে ছিলাম, তখন আমরা কথা বলেছিলাম। তার এভাবে চলে যাওয়া অবিশ্বাস্য।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক