‘কাল প্রথম বল থেকেই মারব, চার-ছয় মারার চেষ্টা করব’

তিন ম‍্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৭৯ বলে বাউন্ডারি স্রেফ একটি, স্ট্রাইক রেট কেবল ৫৪.৪৩। মাহমুদউল্লাহর নামের পাশে যা বড্ড বেমানান। ব‍্যাটিংয়ে যেমন বিবর্ণ, ফিল্ডিংয়েও ছিলেন অনুজ্জ্বল। দৃষ্টিকটুভাবে ছেড়েছেন দুটি ক‍্যাচ। সময়টা ভালো কাটছে না তার। সেটি হয়তো প্রভাব ফেলল মেজাজেও। ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়ে প্রশ্ন তোলায় একটু যেন চটেই গেলে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 March 2022, 11:52 AM
Updated : 2 March 2022, 06:07 PM

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম‍্যাচের সিরিজে তিন ইনিংস মিলিয়ে ৭৯ বল খেলে কেবল ৬৩ রান করেন মাহমুদউল্লাহ। প্রথম ওয়ানডেতে রশিদ খানের শর্ট বলে বাজে এক শটে দ্রুত ফেরেন স্লিপে ক‍্যাচ দিয়ে।

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মেটাতে পারেননি সময়ের দাবি। শেষে ঝড় তোলার দায়িত্ব নিয়ে নেমে ৯ বলে করতে পারেন কেবল ৬। সবচেয়ে বেশি রান করেন তৃতীয় ম‍্যাচে, অপরাজিত ২৯। তবে সবচেয়ে বেশি প্রশ্নও জাগে এই ইনিংস নিয়ে। ৫৩ বলের ইনিংসে ছিল না কোনো বাউন্ডারি। লোয়ার অর্ডার ব‍্যাটসম‍্যানদের আড়াল করার চেষ্টা করেননি কিংবা অন‍্য প্রান্তে নিয়মিত উইকেট পড়লেও বড় শট খেলার চেষ্টা তার মধ্যে দেখা যায়নি।

ওয়ানডে সিরিজে এমন নিষ্প্রভ ব‍্যাটিংয়ের পর এখন টি-টোয়েন্টির চ্যালেঞ্জ। যেখানে ক্রিজে গিয়ে সময় নেওয়ার সময় খুব একটা নেই। এই সংস্করণে তিনি অধিনায়ক। দায়িত্বও বেশি। মাহমুদউল্লাহ কতটা প্রস্তুত?

টি-টোয়েন্টি সিরিজ আগের দিন বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মলনে এই প্রশ্নে মাহমুদউল্লাহর ঝাঁঝালো উত্তর, “আমি ইনশাল্লাহ কাল প্রথম বল থেকেই মারব। চার মারার চেষ্টা করব, ছয় মারার চেষ্টা করব।”

ফিল্ডিংয়ের প্রশ্নে অবশ্য মেজাজ হারানোর প্রকাশ খুব একটা থাকল না তার উত্তরে। ওয়ানডে সিরিজে সহজ দুটি ক্যাচ তিনি হাতছাড়া করেন সীমানায়। শরীরী ভাষাও খুব দৃষ্টি সুখকর ছিল না। মাহমুদউল্লাহ বললেন, টি-টোয়েন্টিতে চেষ্টা করবেন ফিল্ডিংয়ে ঘাটতি না রাখতে।

“অবশ্যই চেষ্টা করব, ফিল্ডিং এফোর্ট যেন ভালো থাকে। ঠিকমতো ওইরকম ভালো ফিল্ডিং করতে পারিনি। চেষ্টা করব ফিল্ডিংয়ের মাধ্যমে দলে অবদান রাখতে।”

তবে নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ আবার খানিকটা হারিয়ে ফেললেন আরেকটি প্রসঙ্গে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডেতে বাজে পারফরম্যান্স ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে টি-টোয়েন্টিতে ব্যাট হাতে তিনি ছন্দে নেই একটুও। গত বিশ্বকাপে প্রাথমিক রাউন্ডে পাপুয়া নিউ গিনির সঙ্গে ঝড়ো ফিফটির পর এখনও পর্যন্ত ৮ ইনিংসে ভালো কিছু করতে পারেননি। সবশেষ সিরিজে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচে করেন ৬, ১২ ও ১৩। কোনো ম্যাচেই স্ট্রাইক রেট একশ ছুঁতে পারেননি।

দলে নিজের জায়গা নিয়ে সংশয় আছে কিনা, সংবাদ সম্মেলনে এই প্রশ্নে মাহমুদউল্লাহ ছুঁড়ে দিলেন পাল্টা প্রশ্ন, “প্রথমে আমি আপনাকে প্রশ্ন করতে চাই, আপনার সংশয় আছে আমার অবস্থান নিয়ে?”

পরে বললেন, নিজের কাছে তার সংশয় নেই।

“আমার সংশয় নেই। আমার মনে হয়, আমি সম্ভবত ঠিক পথেই আছি। আমার কিছু ভালো শট খেলা প্রয়োজন। তাহলেই আমি ঠিক জায়গায় চলে আসবে।”

“আমার কাছে হয়তো দলের প্রত‍্যাশাও তেমন থাকে। সম্ভবত এই ওয়ানডে ম‍্যাচগুলোতে আমাদের সেভাবে কাজটা করতে পারিনি। আমার প্রতি দলের যে প্রত‍্যাশা সেটা পূরণ করার চেষ্টা করব। কোনো দিন হয়তো সফল হবে, কোনো দিন নয়। তবে দলের জন‍্য নিজেকে উজার করে দিচ্ছি কিনা, সেটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক