‘দেশকে অনেক দিন সার্ভিস দিতে পারে মাহমুদুল’

মাহমুদুল হাসান জয়ের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের কেবল হাঁটি হাঁটি পা পা চলছে। তবে তাকে নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটের স্বপ্নগুলো ডানা মেলতে শুরু করে দিয়েছে। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন যেমন ছড়িয়ে দিলেন আশার রেণু, বাংলাদেশের ক্রিকেটাকাশে দীর্ঘদিন উজ্জ্বল তারা হয়ে থাকবেন তরুণ এই ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Feb 2022, 04:44 AM
Updated : 15 Feb 2022, 04:44 AM

প্রধান নির্বাচকের এই স্তুতি মাহমুদুলকে ওয়ানডে দলে জায়গা করে দেওয়ার পর। গত দুই মাসে বাংলাদেশের হয়ে দুটি টেস্ট খেলেছেন ২১ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। নিউ জিল্যান্ডে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞার এক ইনিংস খেলে চমকে দেওয়া ব্যাটসম্যান দেশে ফিরে বিপিএলে দারুণভাবে মিটিয়ে চলেছেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের দাবি।

মাহমুদুলের বিপিএল দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পরামর্শক ও বাংলাদেশের সাবেক প্রধান কোচ স্টিভ রোডস বারবার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেছেন, এদেশের ক্রিকেটকে অনেক কিছু দেওয়ার আছে তার।

টেস্টের পর মাহমুদুল এবার জায়গা পেয়েছেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের বাংলাদেশ দলে। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে সবশেষ খেলেছেন তিনি গত বছরের মার্চে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের হয়ে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে। সেবার ম্যান অব দা সিরিজ হয়েছিলেন একটি সেঞ্চুরিসহ সিরিজে সর্বোচ্চ রান করে।

টেস্টে মাহমুদুলের পারফম্যান্স, নানা সময়ে নানা সংস্করণে তার ব্যাটিংয়ের ধরন দেখেই তাকে নিয়ে বড় আশার ছবি আঁকছেন প্রধান নির্বাচক।

“জয় (মাহমুদুল) নিউজিল্যান্ড সিরিজে দুর্দান্ত একটা ইনিংস খেলেছে টেস্টে। আমরা ৫০ ওভারের ক্রিকেটেও ওর কাছ থেকে ভালো কিছু আশা করি। আগামী দিনে ওর থেকে আরও ভালো সার্ভিস পাব।”

“ও যে স্টাইলে ব্যাটিং করে, আমরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী (ওকে নিয়ে)। আমাদের মিডল অর্ডারে, যখন যেখানে টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করে…আমরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। ও যে স্টাইলে ব্যাটিং করে…অনেক নির্ভরযোগ্য ও আত্মবিশ্বাসী ব্যাটিং করে। যদি এভাবেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে ব্যাটিং করে, তাহলে অনেক দিন দেশকে সার্ভিস দিতে পারে।”

মাহমুদুলের ওয়ানডে দলে আসা নিয়ে প্রশ্ন খুব একটা না থাকলে বেশ প্রশ্নের উদ্রেক করেছে নাজমুল হোসেন শান্তর ফেরা। ক্যারিয়ারে ৮ ওয়ানডে খেলে মোট রান এখনও ১০০ হয়নি তার। সবশেষ সুযোগ পান গত বছরের জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে। সেবার পুরো সিরিজে তাকে তিন নম্বরে খেলানো হলেও তিন ইনিংসে রান করেছিলেন মোট ৩৮।

ওই সিরিজের পর ৫০ ওভারের ক্রিকেটে আর কোনো ম্যাচ তিনি খেলেননি। চলতি বিপিএলেও তার ব্যাট বলা যায় নিশ্চুপ হয়েই আছে।

তাকে নেওয়ার পেছনে প্রধান নির্বাচক শক্ত কোনো যুক্তি দেখাতে পারলেন না, শোনালেন স্রেফ আশার কথা।

“শান্তকে নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। ওয়ানডে ফরম্যাটে নিয়ে তাকে নিয়ে আমরাও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। সে আমাদের টেস্ট ক্রিকেটের নিয়মিত খেলোয়াড়। আশা করছি ৫০ ওভারের ফরম্যাটেও ভালো করবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক