ল্যাঙ্গারকে ‘দানব’ হিসেবে উপস্থাপন করায় বিরক্ত গিলক্রিস্ট

জাস্টিন ল্যাঙ্গারকে ‘কোণঠাসা করে বিদায় বলতে বাধ্য করায়’ বেজায় ক্ষেপেছেন তার সাবেক সতীর্থরা। রিকি পন্টিং ও ম‍্যাথু হেইডেনের পর এবার তার হয়ে বললেন অ‍্যাডাম গিলক্রিস্ট। প্রধান কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ানো ল‍্যাঙ্গারকে খুব খারাপ একজন হিসেবে উপস্থাপন করায় বিরক্ত সাবেক এই কিপার-ব‍্যাটসম‍্যান। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সমালোচনা করেছেন আরেক সতীর্থ শেন ওয়ার্নও।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2022, 04:48 PM
Updated : 7 Feb 2022, 05:16 PM

২০১৮ সালে বল-টেম্পারিং কাণ্ডে ওই সময়ের টালমাটাল অস্ট্রেলিয়ার দায়িত্ব নেন সাবেক ওপেনার ল‍্যাঙ্গার। এরপর দলকে পথে ফেরাতে নিরলস কাজ করে যান তিনি। মাঝে কঠিন সময় কাটালেও গত কয়েক মাসে তার হাত ধরে দুর্দান্ত সাফল্য পায় অস্ট্রেলিয়া। প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর অ‍্যাশেজে ইংল‍্যান্ডকে ৪-০ এ ধরাশায়ী করে তারা।

দল ছন্দে ফিরলেও ল্যাঙ্গারের কোচিংয়ের ধরন নিয়ে গত এক বছর ধরে খেলোয়াড়দের অসন্তোষের খবর শোনা যাচ্ছিল। সময়ের সঙ্গে তাই কোচিংয়ে বদল আনেন তিনি।

দলের সবশেষ সাফল্যগুলো দীর্ঘ মেয়াদে দায়িত্বে থাকার জন্য তাকে উৎসাহিত করেছিল। বোর্ডের কাছে লম্বা সময়ের জন্য কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেভাবে সাড়া পাননি। কেবল ৬ মাস চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাব দেয় বোর্ড।

পরে শনিবার পদত্যাগের ঘোষণা দেন ল্যাঙ্গার। এরপর থেকেই অস্ট্রেলিয়ান বোর্ডের পুরো পরিস্থিতি সামলানোর প্রক্রিয়া নিয়ে চলছে সমালোচনার ঝড়। এসইএন রেডিও-কে সোমবার গ্রিলক্রিস্ট বলেন, ল্যাঙ্গারকে যেভাবে সবার সামনে পরিচয় করানো হয়েছে, মোটেও ওই রকম নন তিনি।

“নির্দিষ্ট কিছু মানুষ তাকে দানব হিসেবে উপস্থাপন করেছে, জাস্টিন ল‍্যাঙ্গার মোটেও তা নয়। সে এমন একজন যে নিজেই সবার আগে তার দুর্বলতা নিয়ে কথা বলে। তার কিছু দুর্বল জায়গা আছে, তবে সেই সব সমস্যা কাটাতে সে চেষ্টা করবে এবং আপনার চোখে চোখ রেখে তা সমাধান করবে।”

“তাকে দানব রূপে উপস্থাপন করায় ব্যক্তিগতভাবে তার ওপর কী ধরনের প্রভাব পড়বে, তার পরিবারের ওপর কেমন প্রভাব পড়বে… বিশেষ করে এমন একটি সময় যখন তাকে ঘিরে নানারকম মিথ্যা রটানো ও গুজব ছড়ানো হচ্ছিল, তখন সত্যটা বুঝতে পারা প্রায় অসম্ভব।”

ল‍্যাঙ্গারকে নিয়ে ফক্স স্পোর্টসের পডকাস্টে কথা বলেন ওয়ার্ন। এই কিংবদন্তি লেগ স্পিনারের মতে, সদ‍্য সাবেক কোচের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ান বোর্ডের আচরণ খুবই লজ্জাজনক।

“আমরা যারা জাস্টিনের সঙ্গে খেলেছি, তারা এই কারণে কথা বলছি না যে, সে আমাদের বন্ধু বা একজন দুর্দান্ত ক্রিকেটার বা হল অফ ফেমার। বিষয়টা আসলে কোচের প্রতি কী ধরনের আচরণ করা উচিত, সেটার জন্যই আমরা কথা বলছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক