‘দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসের সেরা ৫ জয়ের একটি’

নিজেরা নড়বড়ে অবস্থায়, প্রতিপক্ষ প্রবল প্রতাপশালী। খেলা যদিও দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে, কিন্তু ফেভারিট ভারত। সিরিজ শুরুও হয়েছিল অনুমিত ফল দিয়েই। তবে পরেরদিকে বদলে গেল চিত্র। পিছিয়ে পড়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে যেভাবে সিরিজ জিতে নিল দক্ষিণ আফ্রিকা, তা অবিশ্বাস্য লাগছে খোদ তাদের কোচ মার্ক বাউচারের কাছেই। কিংবদন্তি এই কিপার-ব্যাটসম্যানের কাছে দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা সাফল্যগুলির একটি এটি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Jan 2022, 05:46 AM
Updated : 15 Jan 2022, 07:52 AM

বেশ কিছুদিন ধরেই ভাঙাগড়ার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার দলটি। বিশেষ করে ব্যাটিং অর্ডারে বেশ কজন লড়ছেন নিজের জায়গা পাকা করতে। বোলিংয়ে তারা এই সিরিজে পায়নি আনরিক নরকিয়ার মতো গতিময় ও নির্ভরযোগ্য একজনকে। মাঠের বাইরেও নানা ঘটনায় দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে অস্থিরতা চলছে অনেক দিন থেকে। বিরাট কোহলির দল সেখানে তাদের দেশের ইতিহাসের সেরা দলগুলির একটি।

সব মিলিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় অধরা সিরিজ জয় পাওয়ার জন্য ভারতের সবচেয়ে বড় সুযোগ মনে করা হচ্ছিল এবার। প্রথম টেস্ট জিতে সেই লক্ষ্যেই ছিলেন কোহলিরা। ওই টেস্টের পর কুইন্টন ডি কক আচমকা টেস্ট থেকে অবসর নিলে আরেকটি ধাক্কা খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু তার পরও টানা দুই টেস্ট জিতে তারা অভাবনীয়ভাবে জিতে নেয় সিরিজ।

দলের এমন জয়ে অভিভূত বাউচার। নিজের বর্ণাঢ্য খেলোয়াড়ী জীবনে অনেক স্মরণীয় জয়ের স্বাক্ষী তিনি। কিন্তু কোচ হিসেবে পাওয়া এই জয়কে তিনি রাখছেন দেশের ইতিহাসের সেরাগুলির কাতারে।

“এটা যদি বিবেচনায় নেওয়া হয় যে আমরা তিন ম্যাচেই টস হেরেছি, প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের পর আমাদেরকে আর অনেক লোকে এবং সংবাদমাধ্যম আমাদের গোনায় ধরেনি, প্রথম টেস্টে বাজেভাবে হার, সেখান থেকে পরের দুই টেস্ট জিতে সিরিজ জয় একরকম অবিশ্বাস্য। সেরা জয়গুলির মধ্যেই থাকবে এটি… অবশ্যই সেরা পাঁচের মধ্যে।”

“গোটা সিরিজই যেভাবে হয়েছে, কঠিন লড়াই চলেছে, দারুণ ক্রিকেট হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় হওয়া সেরা সিরিজগুলির মধ্যে থাকবে এটি নিশ্চিতভাবেই।”

এই জয়ের সুবাস নিয়ে এখন সামনের পথচলায় আরও অনেক অর্জনে সমৃদ্ধ হবে দল, বিশ্বাস বাউচারের।

“এই জয় থেকে আমরা অবশ্যই অনেক আত্মবিশ্বাস নিতে পারি। এই দল এখন একটা মিশনে আছে, সত্যি। সাম্প্রতিক সময়ে অনেক কঠিন পথ পাড়ি দিতে হয়েছে আমাদের এবং যেভাবে ওরা নিজেদের মেলে ধরেছে, এটা স্পেশাল।”

“অল্প সময়ের মধ্যে ওরা যে জায়গায় চলে এসেছে, ওদের নিয়ে আমি অবিশ্বাস্যরকমের গর্বিত। এখন ফলও মিলতে শুরু করেছে, যা দারুণ ব্যাপার। আমাদের পা মাটিতেই আছে। আমরা জানি যে, সামনে অনেক লক্ষ্য পূরণ করার আছে। এই জয় আমরা উপভোগ করব, এরপর সামনে তাকাব।”

বাউচারের দলের পরের চ্যালেঞ্জ আগামী মাসে। টেস্টের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলবে তারা ক্রাইস্টচার্চ ও ওয়েলিংটনে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক