এই জয় ভুলে যেতে চান মুমিনুল

ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দেওয়া এক জয়। বাজে সময়ে স্বস্তির শ্বাস নেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া এক জয়। নিউ জিল্যান্ডের মাঠে ইতিহাস গড়া জয়। সময় এখন সাফল্য উপভোগ করার। কিন্তু মুমিনুল হক খুব ভালো করেই জানেন, কাজের কেবল অর্ধেক শেষ হয়েছে মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই ম্যাচ ভুলে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট মনোযোগ দিতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক। 

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Jan 2022, 04:02 AM
Updated : 5 Jan 2022, 04:02 AM

বে ওভালে বুধবার ৮ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। তিন সংস্করণ মিলিয়ে নিউ জিল্যান্ডে টানা ৩২ ম্যাচ হারার পর এসেছে জয়। দেশে ও বাইরে মিলিয়ে এটাই কিউইদের বিপক্ষে টেস্ট তাদের প্রথম জয়।   

টেস্টে বিস্মৃতির এক বছর কাটিয়ে ২০২২ সালের শুরুটা দুর্দান্ত হলো বাংলাদেশের। এক দশকের বেশি সময় পর উপমহাদেশের প্রথম দল হিসেবে জিতল নিউ জিল্যান্ডের মাটিতে। থামাল দেশের মাটিতে তাদের টানা ১৭ ম্যাচের অজেয় যাত্রা।

ঘরের মাঠে কিউইদের টানা আট সিরিজ জয়ের ইতি টানল বাংলাদেশ। স্বাভাবিকভাবেই এখন লক্ষ্য, তাসমান সাগর পাড়ের দেশটি থেকে প্রথমবারের মতো সিরিজ জিতে ফেরা। তাই মুমিনুলের নজর এখন রোববার শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে।

“আজকে আমি এই জয় ভুলে যেতে চাই এবং ক্রাইস্টচার্চে পরের টেস্টে নজর দিতে চাই।”

সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হওয়ার পর অনেকটা হুট করে টেস্ট দলের নেতৃত্ব পান মুমিনুল। তার অধিনায়কত্বে সময়টা খুব একটা ভালো কাটছিল না। ১১ ম্যাচে জয় ছিল মোটে দুটি, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। আর একটি ছিল ড্র, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

আট হারের চারটি ছিল ইনিংস ব্যবধানে। তবে এ সবের চেয়েও বড় ধাক্কা ছিল খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশড হওয়া।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ জয়ের পর কঠিন সময়ের কথা মনে পড়ছে মুমিনুলের। 

“গত ২ বছরে টেস্টে আমরা ভালো করিনি। পরের ধাপে যেতে এরকম জয়, এই ম্যাচ জয়টা জরুরি ছিল।”

“দলীয় প্রচেষ্টায় এসেছে এই জয়। সবাই জিততে মরিয়া ছিল। সব বিভাগে সবাই নিজেদের মেলে ধরেছে। দারুণ টিম ওয়ার্ক ছিল।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক