কামিন্সের আগুনে পুড়ল ইংল্যান্ড

প্রথম বলেই মিচেল স্টার্কের দুর্দান্ত এক ইয়র্কার, বোল্ড ররি বার্নস। ইংল্যান্ডকে চেপে ধরতে এরপর দেখা গেল ‘প্যাট কামিন্স শো’। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে নেতৃত্বের শুরুটা দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে রাঙালেন এই পেসার। উপহার দিলেন আগুন ঝরা বোলিং। পুড়ে ছাই হলো ইংলিশ ব্যাটিং।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2021, 09:56 AM
Updated : 8 Dec 2021, 09:56 AM

ব্রিজবেন টেস্টের প্রথম দিনে সফরকারীদের স্রেফ ১৪৭ রানে গুটিয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। বৃষ্টির বাগড়ায় এদিন আর ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি স্বাগতিকরা।

ইংল্যান্ডকে দেড়শর আগে থামিয়ে দেওয়ার কারিগর কামিন্স ৩৮ রান নেন ৫ উইকেট। অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচেই পাঁচ উইকেট নেওয়া অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বোলার তিনি। সেই ১৮৯৪ সালে অ্যাশেজের মেলবোর্ন টেস্টে মিডিয়াম পেস বোলিং অলরাউন্ডার জর্জ গিফেন ৬ উইকেট নিয়েছিলেন ১৫৫ রানে।

গ্যাবার ঘাসের ছোঁয়া থাকা উইকেটে টস জিতে ব্যাটিং নেওয়া ইংল্যান্ড প্রথম বলেই উইকেট হারানোর পর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। ইনিংসে নেই একজনেরও ৪০ ছোঁয়া রান। জুটির পঞ্চাশ আছে কেবল একটি।

৮৫ বছর পর অ্যাশেজ সিরিজের কোনো ম্যাচের প্রথম বলে উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখালেন স্টার্ক। সবশেষ এই দৃশ্য দেখা গেছে ব্রিজবেনেই, ১৯৩৬ সালে অস্ট্রেলিয়ান পেসার আর্নি ম‍্যাকক্রমিকের হাত ধরে।

ইংলিশদের শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার সুযোগই দেয়নি অস্ট্রেলিয়া। চতুর্থ ওভারে জস হেইজেলউড কট বিহাইন্ড করে দেন দাভিদ মালানকে। এই পেসারের পরের ওভারে প্রথম স্লিপে শূন্য রানে ধরা পড়েন ইংল্যান্ড ব্যাটিংয়ের সবচেয়ে বড় স্তম্ভ জো রুট।

লম্বা সময় পর দলে ফেরা বেন স্টোকসও পারেননি প্রতিরোধ গড়তে। তাকে দিয়ে শিকার ধরা শুরু করেন কামিন্স। তৃতীয় স্লিপে মার্নাস লাবুশেনের হাতে ধরা পড়েন স্টোকস।

২৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে দিশেহারা ইংল্যান্ডের হাল ধরার চেষ্টা চালান হাসিব হামিদ ও অলি পোপ। প্রথম সেশন দৃঢ়তার সঙ্গে কাটিয়ে দেন দুইজন।

তবে লাঞ্চ বিরতির পর চতুর্থ বলেই আবার উইকেট পতন। কামিন্সের বলে দ্বিতীয় স্লিপে ক্যাচ দেন ওপেনার হামিদ (৩ চারে ২৫)। এরপর পোপ ও জস বাটলারের ব্যাটে ইংল্যান্ড পায় তাদের একমাত্র পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি।

দেখেশুনে ব্যাটিং করে এগিয়ে যাচ্ছিলেন দুইজন। কিন্তু তাদের সামনে এবার বাধা হয়ে দাঁড়ান স্টার্ক। ৫ চারে ৩৯ রান করে বাটলারকে কট বিহাইন্ড করে দেন এই পেসার। ভাঙেন ৫২ রানের জুটির প্রতিরোধ।

পোপকে কয়েক ওভার পর ফিরিয়ে দিয়ে টেস্টে প্রথম উইকেটের স্বাদ পান ক্যামেরন গ্রিন। তার শর্ট বলে হুক শট খেলে বাউন্ডারিতে হেইজেলউডের দারুণ ক্যাচে বিদায় নেন ২ চারে ৩৫ রান করা পোপ।

পরের তিন ব্যাটসম্যানকে দ্রুত ফিরিয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন কামিন্স। ১৯৬২ সালে লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার রিচি বেনোর পর অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক হিসেবে পাঁচ উইকেট নিলেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৫০.১ ওভারে ১৪৭ (বার্নস ০, হামিদ ২৫, মালান ৬, রুট ০, স্টোকস ৫, পোপ ৩৫, বাটলার ৩৯, ওকস ২১, রবিনসন ০, উড ৮, লিচ ২*; স্টার্ক ১২-২-৩৫-২, হেইজেলউড ১৩-৪-৪২-২, কামিন্স ১৩.১-৩-৩৮-৫, লায়ন ৯-২-২১-০, গ্রিন ৩-১-৬-১)

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক