টেস্টের আঁধারে বাংলাদেশের ‘আলোর রেখা’ লিটন

টেস্ট চ‍্যাম্পিয়নশিপের প্রথম চক্রে প্রাপ্তি ছিল কেবল একটি ড্র। দেশের মাটিতে ডুবতে হয়েছিল খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোয়াইওয়াশ হওয়ার হতাশায়। এত সব আঁধারের মধ্যে রাসেল ডমিঙ্গোর চোখে আলোর রেখা লিটন কুমার দাসের ব‍্যাটিং। এই কিপার-ব‍্যাটসম‍্যানের পারফরম‍্যান্সে বাংলাদেশ কোচ এতটাই খুশি যে, আগামী এক বছরের মধ্যে তাকে চার কিংবা পাঁচে খেলানোর কথা ভাবছেন।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2021, 02:02 PM
Updated : 29 Nov 2021, 02:02 PM

লাল বলের ক্রিকেটে চলতি বছরটা দুর্দান্ত কাটছে লিটনের। বাংলাদেশের তিনি সেরা রান সংগ্রাহক। সব দল মিলিয়ে সর্বোচ্চ রান করা ১০ ব‍্যাটসম‍্যানের একজন তিনি।

গত ১৮ মাসে বাংলাদেশের একমাত্র ব‍্যাটসম‍্যান হিসেবে পাঁচশর বেশি রান করেছেন লিটন। ১০ ইনিংসে ৫৪.৩০ গড়ে তার রান ৫৪৩। একটি সেঞ্চুরির পাশে ফিফটি পাঁচটি। এই সময়ে বাংলাদেশের আর কারো নেই চারটির বেশি পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস।

পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসা প্রধান কোচ ডমিঙ্গো বলেন, তার চোখে সাম্প্রতিক সময়ে টেস্টে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি লিটনের ব‍্যাটিং।

“টেস্টে গত ১৮ মাসে লিটনের গড় ৬০ এর কাছাকাছি। এই সময়ে সে আমাদের জন‍্য খুব ভালো কিছু ইনিংস খেলেছে। আমরা ওর জন‍্য ভালো একটা জায়গা পেয়েছি ৬ ও ৭ নম্বরে। এটা তাকে লোয়ার অর্ডার ব‍্যাটসম‍্যানদের সঙ্গে ব‍্যাটিংয়ের সুযোগ দিচ্ছে এবং এগিয়ে যাওয়ার আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে।”

কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সঙ্গে লিটন দাস।

সবশেষ তিন ইনিংসেই অন্তত পঞ্চাশ ছোঁয়া রান এসেছে লিটনের ব‍্যাট থেকে। জিম্বাবুয়েতে ৯৫ রানের ইনিংস খেলার পর চট্টগ্রামে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিতে করেন ১১৪ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে খেলেন ৫৯ রানের আরেকটি ভালো ইনিংস।

এমন খেলতে থাকলে লিটনকে প্রমোশন দেওয়ার কথা ভাবছেন ডমিঙ্গো।

“আমরা জানি, সে অসাধারণ একজন খেলোয়াড়। টেস্ট ক্রিকেটের পথ পেতে তার কিছুটা সময় লেগেছে। গত এক বছরে সে-ই টেস্টে আমাদের সবচেয়ে বড় ইতিবাচক দিক। সম্ভবত আর এক বছরের মধ‍্যে সে বাংলাদেশের হয়ে চার কিংবা পাঁচে ব‍্যাট করতে পারে।”

আপাতত কিপিংয়ের পাশাপাশি মিডল অর্ডার ব‍্যাটম‍্যান হিসেবে খেলছেন লিটন। চার নম্বর ছাড়া প্রথম পাঁচের বাকি চার পজিশনে ১৫ ইনিংস খেলে পঞ্চাশ ছুঁতে পেরেছেন কেবল একবার। ছয়ে তার রেকর্ড সবচেয়ে ভালো। ৮ ইনিংসে এক সেঞ্চুরি ও তিন ফিফটিতে করেছেন ৩৫০ রান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক