‘উইকেটে স্পিন ধরতে শুরু করেছে’

ব‍্যাটিংয়ের জন‍্য চট্টগ্রাম টেস্টের উইকেট এখনও ভালো। তবে এরই মধ‍্যে মিলতে শুরু করেছে স্পিনারদের জন‍্য সহায়তা। পাকিস্তানের দুই ওপেনারের সাবলীল ব্যাটিং দেখে অবশ্য সেটা বোঝা গেছে কমই। আবিদ আলি জানালেন, ধৈর্য‍্যের পরীক্ষায় জিতে এমন ব‍্যাটিং করেছেন তারা।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Nov 2021, 03:56 PM
Updated : 27 Nov 2021, 04:16 PM

প্রথম সেশনে বাংলাদেশকে ৩৩০ রানে থামিয়ে দিয়ে পাকিস্তান দিন শেষ করেছে বিনা উইকেটে ১৪৫ রানে। ৯৩ রানে খেলছেন আবিদ। তার সঙ্গী অভিষিক্ত আব্দুল্লাহ শফিক অপরাজিত ৫২ রানে।

প্রথম দিনের খেলা শেষে পিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় আবিদ জানান, শুরু থেকেই সাবধানী ক্রিকেট খেলার পরিকল্পনা করেছিলেন তারা। সেটাতেই সফল হয়ে দলকে দিতে পেরেছেন এই ভালো শুরু।

“লক্ষ‍্য ছিল, যে বাজে বলই মিলবে সেটা কাজে লাগাব। কিছু কিছু বল নিচু হতে শুরু করেছে, স্পিনও ধরতে শুরু করেছে। আমার লক্ষ‍্য ছিল, ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে খেলা। বাজে বল কাজে লাগানোর পরিকল্পনা ছিল, সেটাতে আমি সফলও হয়েছি।”

আবিদের ১৮০ বলের ইনিংসে ৯ চার ও দুই ছক্কা। তার স্ট্রাইক রেট ৫০ এর উপরে। অন‍্য ওপেনার শফিকের স্ট্রাইক রেট কেবল ৩২। তার ১৬০ বলের ইনিংস গড়া দুটি করে ছক্কা ও চারে।

সেঞ্চুরির দুয়ারে থাকা আবিদের প্রথম লক্ষ‍্য, দলের লিড নিশ্চিত করা। এরপর যেতে চান যতদূর সম্ভব। দ্বিতীয় দিনই যেভাবে স্পিন ধরতে শুরু করেছে তাতে চতুর্থ ইনিংসে ব‍্যাটিংয়ের অর্থ অজানা নয় তার।

“সন্ধ‍্যার দিকে বল টার্ন করতে শুরু করে। বল পুরান হয়ে গেছে। গ্রিপও করতে শুরু করেছে। (স্পিন ধরলে যা যা হয়) সবই হতে শুরু করেছে। আমাদের পরিকল্পনা ছিল, আমরা উইকেটেই থাকব এবং বাজে বল কাজে লাগাব। কাল সকালেও আমার লক্ষ‍্য এটাই থাকবে। আমরা সেশন বাই সেশন খেলব। প্রথম লক্ষ‍্য হবে, ৩৩০ পর্যন্ত যাওয়া। এরপর একটা ভালো লক্ষ‍্য দেওয়া। যেন আমাদের বোলারদের সুবিধা হয়।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক