র‌্যাঙ্কিংয়ে আফিফের উন্নতি, নাঈম-মাহমুদউল্লাহর অবনতি

পাকিস্তানের বিপক্ষে দলের বাজে পারফরম্যান্সের সিরিজে ব্যাট হাতে কিছুটা অবদান রাখার পুরস্কার পেয়েছেন আফিফ হোসেন। আইসিসি টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের এই ক্রিকেটারের। পিছিয়েছেন ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখ ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2021, 09:35 AM
Updated : 24 Nov 2021, 10:54 AM

বাংলাদেশ-পাকিস্তান ও ভারত-নিউ জিল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজের পারফরম্যান্স বিবেচনায় নিয়ে বুধবার র‍্যাঙ্কিংয়ের সাপ্তাহিক হালনাগাদ প্রকাশ করে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্তা সংস্থা।

পাকিস্তানের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হওয়া তিন ম্যাচের সিরিজে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক আফিফ। ১০০ স্ট্রাইক রেটে ৭৬ রান করার সুবাদে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান তালিকার সেরা একশতে ঢুকেছেন। ২৯ ধাপ এগিয়ে আছেন ৮৫তম স্থানে।

নাঈম প্রথম দুই ম্যাচে ১ ও ২ রান করার পর সিরিজের শেষ ম্যাচে খেলেন ৪৭ রানের ইনিংস। সব মিলিয়ে ৫০ রান আসে তার ব্যাট থেকে। অধারাবাহিক পারফরম্যান্সে তিন ধাপ পিছিয়ে তিনি আছেন ২৩ নম্বরে।

মাহমুদউল্লাহ রান করেছেন কেবল ৩১। যেখানে সর্বোচ্চই ১৩। এর ফলে তিনি এক ধাপ নিচে নেমে অবস্থান করছেন ৩০তম স্থানে।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে শেখ মেহেদি হাসানেরও। তিন ইনিংসে তিনি করেছেন ৩৮, যেখানে রয়েছে অপরাজিত ৩০ রানের একটি ইনিংস। ৪৬ ধাপ এগিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ২৫৫ নম্বরে।

পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এগিয়েছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান ও হায়দার আলি। সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে ৩৯ ও ৪০ রানের ইনিংস খেলা কিপার-ব্যাটসম্যান রিজওয়ান এক ধাপ এগিয়ে আছেন চতুর্থ স্থানে। আর শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৩৮ বলে ৪৫ রান করে হায়দারের উন্নতি ৫৩ ধাপ। তবে এখনও একশতে ঢুকতে পারেননি তিনি।

টি-টোয়েন্টির ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে বড় উন্নতি হয়েছে মার্টিন গাপটিলের। ভারতের বিপক্ষে নিউ জিল্যান্ডের ৩-০ তে হেরে যাওয়া সিরিজের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি। ২ ফিফটিতে করেছেন ১৫২। এতে র‍্যাঙ্কিংয়ে সেরা দশে ফিরেছেন নিউ জিল্যান্ড ওপেনার। তিন ধাপ এগিয়ে আছেন ঠিক ১০ নম্বরে।

ভারতের লোকেশ রাহুল এক ধাপ এগিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন পঞ্চম স্থানে। আর সর্বোচ্চ ১৫৯ রান নিয়ে সিরিজ সেরা হওয়া রোহিত শর্মা দুই ধাপ এগিয়ে আছেন ১৩ নম্বরে।

নিউ জিল্যান্ড সিরিজে না খেলা বিরাট কোহলি হারিয়েছেন সেরা দশে জায়গা। তিন ধাপ নিচে নেমে তার স্থান এখন ১১ নম্বরে। আগের মতোই শীর্ষস্থানে আছেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে মেহেদি উইকেট পেয়েছেন কেবল একটি, তবে বেশ মিতব্যয়ী ছিলেন তিনি। এতে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ছয় ধাপ এগিয়ে দ্বাদশ স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন এই অফ স্পিনার।

পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে ১৬ ধাপ উন্নতি হয়েছে হাসান আলির। শাদাব খান ঢুকেছেন সেরা ১৫-তে। নিউ জিল্যান্ডের মিচেল স্যান্টনার ১০ ধাপ এগিয়ে এখন ১৩ নম্বরে। ভারতের ভুবনেশ্বর কুমার, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, আকসার প্যাটেল ও দিপক চাহারও তালিকায় উপরে উঠে এসেছেন।

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে যথারীতি আছেন শ্রীলঙ্কার ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। আর অলরাউন্ডারদের সেরা আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক