ইয়াসিরের সেঞ্চুরি, মুমিনুলের সুযোগ হাতছাড়া

আগের দিন জাগানো সম্ভাবনাকে পূর্ণতা দিলেন ইয়াসির আলি রাব্বি। এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে প্রথম সেঞ্চুরি এলো তার হাত ধরে। বড় ইনিংস খেলার সুযোগ হাতছাড়া করলেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Oct 2021, 01:35 PM
Updated : 18 Oct 2021, 01:35 PM

দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচে ইয়াসিরের সেঞ্চুরি, মুমিনুল ও ইরফান শুক্কুরের ফিফটিতে প্রথম ইনিংসে ১৮৩ রানের বড় লিড পেয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। প্রথম দিন রাজশাহী বিভাগকে ১৬৬ রানে গুটিয়ে দেওয়া দলটির প্রথম ইনিংসে থেমেছে ৩৪৯ রানে।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নবম সেঞ্চুরিতে ১৯৮ বলে ১২৯ রানের ইনিংস খেলেন ইয়াসির। মুমিনুল ৫০ ও শুক্কুর করেন ৬৩ রান।

দ্বিতীয় দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে রাজশাহীর সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৭৯ রান। ৭ উইকেট হাতে রেখে এখনও ১০৪ রানে পিছিয়ে আছে তারা। প্রথম ইনিংসের পর এবারও দুই অঙ্কে যেতে পারেননি দলটির অধিনায়ক ও বাংলাদেশ টেস্ট দলের নিয়মিত মুখ নাজমুল হোসেন শান্ত।

রাজশাহীর হয়ে বোলিংয়ে আলো ছড়িয়েছেন দুই বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও সানজামুল ইসলাম। ৯৯ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন সানজামুল, ১১৯ রানে তাইজুলের প্রাপ্তি ৪টি।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে ২ উইকেটে ১২৬ রান নিয়ে সোমবার দ্বিতীয় দিন শুরু করে স্বাগতিক দল। আগের দিন ৩২ রানে অপরাজিত থাকা মুমিনুল ফিফটি করেই তাইজুলের বলে ডিপ মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন। ৯৪ বলে ৪টি চার ও একটি ছক্কায় সাজানো তার ইনিংস। ভাঙে ১৩৪ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি।

বেশিক্ষণ টেকেননি শাহাদাত হোসেন। শুক্কুরকে সঙ্গে নিয়ে দলকে এগিয়ে নেন ৭০ রানে দিন শুরু করা ইয়াসির। ৯২ থেকে তাইজুলকে টানা দুটি চার মেরে সেঞ্চুরিতে পা রাখেন তিনি।

তাকে এলবিডব্লিউ করে থামান সানজামুল। ১৫ চার ও ৩ ছক্কায় গড়া ইয়াসিরের ১২৯ রানের ইনিংস। ১০৪ বলে ৭ চার ও এক ছক্কায় ৬৩ রানের ইনিংসটি খেলেন শুক্কুর। আর পেসার মেহেদি হাসান রানার ৪৪ বলে ২টি করে চার-ছক্কায় অপরাজিত ৩৬ রানের ইনিংসে সাড়ে তিনশর কাছে যায় চট্টগ্রামের সংগ্রহ।

প্রথম ইনিংসের মতো এবারও ব্যর্থ রাজশাহীর টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান তানজিদ হাসান, মিজানুর রহমান ও শান্ত। তানজিদকে এলবিডব্লিউ করার পর শান্তকে বোল্ড করে দেন মেহেদি রানা, নাঈম হাসানের বলে মিজানুর হন স্টাম্পিং।

৩১ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর দিনের বাকিটা সময় কাটিয়ে দেন জহুরুল ইসলাম (২১) ও তৌহিদ হৃদয় (২৬)।       

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে ঢাকা মেট্রো ও বরিশাল বিভাগের মধ্যকার দ্বিতীয় স্তরের আরেক ম্যাচে দ্বিতীয় দিনে বৃষ্টির কারণে একটি বলও খেলা হয়নি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: (রাজশাহী-চট্টগ্রাম)

রাজশাহী ১ম ইনিংস: ১৬৬

চট্টগ্রাম ১ম ইনিংস: ১০০ ওভারে ৩৪৯ (আগের দিন ১২৬/২) (মুমিনুল ৫০, ইয়াসির ১২৯, শাহাদাত ১২, শুক্কুর ৬৩, নাঈম ১০, মেহেদি রানা ৩৬*, মুরাদ ৪, ইফরান ৪, নোমান ৪; শফিকুল ১৪-২-৩২-০, তাইজুল ২৮-৩-১১৯-৪, মোহর ১৩-৩-২৬-১, সানজামুল ২৯-৫-৯৯-৫, ফরহাদ ১৩-২-৪৫-০, হৃদয় ৩-০-১৩-০)

রাজশাহী ২য় ইনিংস: ২২ ওভারে ৭৯/৩ (তানজিদ ১২, মিজানুর ১৪, শান্ত ৪, জহুরুল ২১*, হৃদয় ২৬*; মেহেদি রানা ৭-২-১৬-২, নাঈম ৬-১-৩-১, ইফরান ৫-২-২১-০, মুরাদ ৪-১-১১-০)

সংক্ষিপ্ত স্কোর: (ঢাকা মেট্রো-বরিশাল)

ঢাকা মেট্রো ১ম ইনিংস: ২৩৯

বরিশাল ১ম ইনিংস: ৩ ওভারে ৬/১ (মইনুল ০, আশরাফুল ৬*; শরিফউল্লাহ ২-২-০-১, রকিবুল ১-০-৬-০)

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক