আবারও সুযোগ হাতছাড়া তানজিদের, পারভেজের ব্যাটে ঝড়

ঠিক যেন আগের ম্যাচের পুনরাবৃত্তি। তানজিদ হাসান তামিম দারুণ ব্যাটিংয়ে আশা জাগালেন সেঞ্চুরির। কিন্তু আবারও কাছাকাছি গিয়ে আক্ষেপ সঙ্গী করে ফিরলেন তরুণ এই ব্যাটসম্যান। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের বিপক্ষে ঝড়ো ইনিংস খেললেন হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দলের আরেক ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Sept 2021, 02:26 PM
Updated : 30 Sept 2021, 02:26 PM

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচে তাদের দারুণ ব্যাটিংয়ের পরও ৩০ রানে হেরেছে এইচপি দল। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের ৩২২ রানের জবাবে তারা থামে ২৯২ রানে।

ম্যাচের প্রথমভাগে সব আলো কেড়ে নেন মুমিনুল হক। ‘এ’ দলের হয়ে ওপেন করতে নেমে ১২১ বলে ১২৮ রানের ইনিংস খেলেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। তিনে নেমে মুশফিকুর রহিম করেন ৫২ বলে ৬৩। ফিফটি আসে নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকেও।

১০২ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলেন তানজিদ। প্রথম ম্যাচে তিনি ৯৩ বলে করেছিলেন ৮১। প্রথম ম্যাচে দুই অঙ্কে যেতে না পারা পারভেজ এবার ৫৮ বলে করেন ৭৭ রান। ইনিংসে ৪টি ছক্কার পাশাপাশি চার ৭টি।

বড় রান তাড়ায় এই দুই জনের ব্যাটে ভালো শুরু পায় এইচপি দল। দারুণ সব শটে পারভেজ ফিফটি পূরণ করেন ৪৩ বলে। পঞ্চাশ ছুঁতে তানজিদের লাগে ৬০ বল।

ফিফটির পর রুবেল হোসেনের বল ডিপ মিডউইকেটের ওপর দিয়ে গ্যালারিতে আছড়ে ফেলেন পারভেজ। মোহাম্মদ মিঠুনকে ছক্কায় ওড়ান তিনি লং অনের ওপর দিয়ে। তাইজুল ইসলামকে ছক্কা মারেন স্লগ করে। ওই ওভারেই আরেকটি ছক্কার চেষ্টায় ক্যাচ দিয়ে থামে পারভেজের ইনিংস। ভাঙে ১৩৬ রানের উদ্বোধনী জুটি।

তিনে নেমে টিকতে পারেননি প্রথম ম্যাচে ফিফটি করা শাহাদাত হোসেন। সীমানায় মুশফিকের অসাধারণ এক ক্যাচে বিদায় নেন তিনি ৮ রান করে। তানজিদকে এলবিডব্লিউ করে থামান অফ স্পিনার নাঈম হাসান। ৭ চার ও ২ ছক্কায় সাজানো তার ৮৬ রানের ইনিংসটি।

৩৬ ওভারে ৩ উইকেটে দুইশ পেরিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল এইচপি দল। কিন্তু এরপর তৌহিদ হৃদয় ছাড়া আর কেউ ধরতে পারেননি দলের হাল। দলও পারেনি সিরিজ হার এড়াতে।

৫৬ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ৪৯ রান করেন হৃদয়। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে থাকা শামীম হোসেন ব্যর্থ এবারও। আগের ম্যাচে ৮ রানের পর এবার করেন ১১। আকবর আলী ১৫।

অভিজ্ঞ পেসার রুবেল ৩ উইকেট নিলেও ১০ ওভারে রান দেন ৬৯।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানের দৃঢ়তায় তিনশ ছাড়ানো সংগ্রহ গড়ে ‘এ’ দল। দুই ওপেনার মুমিনুল ও শান্ত ২৯.১ ওভারে ১৫৪ রানের জুটিতে গড়ে দেন ভিত। ৮৫ বলে দুটি করে ছক্কা ও চারে ৬৭ রান করে শান্তর বিদায়ে ভাঙে জুটি।

মুশফিকের সঙ্গে ৯৮ রানের আরেকটি ভালো জুটি উপহার দিয়ে বিদায় নেন মুমিনুল। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ১২৮ রানের ইনিংস গড়া ১১ চার ও দুই ছক্কায়।

এ মাসের শুরুতে নিউ জিল্যান্ড সিরিজে ব্যাট হাতে ব্যর্থতার পর বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য এই সিরিজের দুটি ম্যাচ খেলার সিদ্ধান্ত নেন মুশফিক। প্রস্তুতিটা অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানের ভালোই হলো। প্রথম ম্যাচে তিনি ম্যাচ জেতানো ৭০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন। এবার ৬ চার ও ১ ছক্কায় করলেন ৬২ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ৩২২/৭ (মুমিনুল ১২৮, শান্ত ৬৭, মুশফিক ৬২, ইমরুল ০, মিঠুন ২৫, মোসাদ্দেক ১৩, শুক্কুর ১০*, নাঈম ৩, কামরুল রাব্বি ১*; রুহেল ১০-০-৭৩-১, রেজাউর ১০-০-৪২-৪, তানভির ৭-০-৬০-০, আমিনুল ৭-০-৪৯-১, শামীম ৫-০-৩০-০, সুমন ১০-০-৫৮-১, হৃদয় ১-০-৮-০)

বাংলাদেশ এইচপি দল: ৫০ ওভারে ২৯২/৯ (তানজিদ ৮৬, পারভেজ ৭৭, শাহাদাত ৮, হৃদয় ৪৯, ইয়াসির ১১, শামীম ১১, আকবর ১৫, সুমন ৯, রেজাউর ১২*, আমিনুল ১, রুহেল ৫*; রুবেল ১০-১-৬৯-৩, নাঈম ৯-০-৪৯-২, কামরুল রাব্বি ৬-০-৪৫-২, মিঠুন ৬-০-৩৭-১, ইবাদত ৪-০-১৯-০, মোসাদ্দেক ৫-০-২৪-০, তাইজুল ১০-০৪৭-১)

ফল: বাংলাদেশ ‘এ’ দল ৩০ রানে জয়ী।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক