মাহমুদউল্লাহর শততম ম্যাচে প্রত্যাশায় ৩-০

এমনিতে পাদপ্রদীপের আলোয় খুব একটা আসেন না মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশের ক্রিকেটে বরাবরই তার ভূমিকা পার্শ্বনায়কের। তবে সময়টা এখন তার। তিনিই নায়ক! নিউ জিল্যান্ড সিরিজের প্রথম ম্যাচ জয়ের পর তিনি হয়ে গেছেন বাংলাদেশের সফলতম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। এখন অপেক্ষায় তিনি দেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ১০০ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলার স্বাদ পাওয়ার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Sept 2021, 04:27 AM
Updated : 5 Sept 2021, 09:27 AM

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নামলেই টি-টোয়েন্টি খেলার সেঞ্চুরি হয়ে যাবে মাহমুদউল্লাহর। অধিনায়কের মাইলফলকের ম্যাচটি যদি বাংলাদেশ রাঙাতে পারে জয়ে, তাহলে তো সোনায় সোহাগা।

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে প্রত্যাশিত জয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে ২-০ ব্যবধানে। তৃতীয় ম্যাচটি জিতলে সিরিজ জয় ধরা দেবে দুই ম্যাচ বাকি রেখেই।

এই সিরিজের আগে নিউ জিল্যান্ডর বিপক্ষে ১০ টি-টোয়েন্টি খেলে একটিতেও জয় ছিল না বাংলাদেশের। সিরিজ জয়ও তাই স্বাভাবিকভাবে এবারই হবে প্রথম। পাশাপাশি সেটি হবে দলের টানা তৃতীয় সিরিজ জয়। গত মাসে অস্ট্রেলিয়া ও তার আগের মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও এসেছে সিরিজ জয়।

প্রথম ম্যাচে ব্যাটিংয়ে চরম দুর্দশার পর দ্বিতীয় ম্যাচে বেশ ভালো লড়াই করে নিউ জিল্যান্ড। লড়াই টেনে নিয়ে যায় শেষ বল পর্যন্ত। সেই ম্যাচ থেকে প্রেরণা নিয়ে সিরিজে ফেরার আশা তারা করতে পারে। তবে তাদেরকে আবার চোখরাঙানি দিচ্ছে ম্যাচের উইকেট!

তৃতীয় ম্যাচটি হওয়ার কথা প্রথম ম্যাচের উইকেটে। যেখানে নিউ জিল্যান্ড গুটিয়ে গিয়েছিল ৬০ রানে। মাঠকর্মীরা যদিও পরিচর্যার চেষ্টা করেছেন নিশ্চয়ই। তার পরও সেই উইকেট ব্যবহৃত হওয়ার পর আরও জীর্ণ হয়ে উঠতে পারে। সেক্ষেত্রে কিউই ব্যাটিং লাইন আপের জন্য আবার কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষায়।

বাংলাদেশ ধরে রাখতে চায় জয়ের ধারা। একের পর এক জয়ে দলের ভেতরে এখন বইছে আত্মবিশ্বাসের জোয়ার। স্পিনার তাইজুল ইসলাম বললেন, প্রক্রিয়াটা ধরে রাখতে পারলেই সিরিজ জয় ধরা দেবে।

“আমরা একটা দল হিসেবে খেলছি। সবাই যার যার দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করছে। দলের ভেতর এখন সবার আত্মবিশ্বাস খুব ভালো। এই আত্মবিশ্বাস নিয়েই সামনে এগোতে চাই।”

“আরেকটা ম্যাচ জিতলে আমার সিরিজ জিতব। আমার কাছে মনে হয়, আমাদের যে প্রক্রিয়া আছে, তা ঠিক রাখতে পারলে আমরা ভালো কিছু করব।”

এই ম্যাচেই সিরিজ জিতে গেলে শেষ দুই ম্যাচে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পরখ করার সুযোগ থাকবে বাংলাদেশ দলের। বিশ্বকাপের আগে শেষ সিরিজ বলে কথা। সেদিক থেকেও জয়টা এ দিন খুব করেই চাইবেন মাহমুদউল্লাহরা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক