জয়ের স্বস্তি নিয়ে সুরক্ষা বলয়ে সাকিব-তামিমদের ঈদ

“প্রতিদিন সবাই ব্রেকফাস্টে আসে ট্র্যাকসুট পরে, আজকে সবার পরনে পাঞ্জাবি-পাজামা। এটাই আমাদের ঈদ। সকালে হোটেলে রেগুলার ব্রেকফাস্টই আমাদের ঈদের খাওয়া”, হারারে থেকে ফোনে হাসতে হাসতে বলছিলেন বাংলাদেশ দলে টিম লিডার আহমেদ সাজ্জাদুল আলম। সকালের নাশতার পর ঐচ্ছিক অনুশীলন সেশন আছে দলের, যাবেন ক্রিকেটারদের বেশ কজন। পরদিনই শুরু টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ঈদ নিয়ে বুঁদ থাকার সুযোগ কোথায়!

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 July 2021, 08:41 AM
Updated : 21 July 2021, 08:41 AM

বিদেশ বিভূঁইয়ে ঈদে এমনিতেই ঈদের রেশ খুব একটা থাকে না। এবার সেখানে ক্রিকেটারদের ঈদ কাটাতে হচ্ছে জৈব-সুরক্ষা বলয়ে। এর বাইরে কোথাও যাওয়ার সুযোগ নেই। নিরানন্দ এই আবহেই খানিকটা স্বস্তির ছোঁয়া মাঠের ক্রিকেটের ফল। টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ থেকে চাওয়ার প্রায় সবটুকুই পেয়েছে বাংলাদেশ।

বিসিবি পরিচালক ও এই সফরের টিম লিডার আহমেদ সাজ্জাদুল আলম জানালেন, ঈদ নিয়ে বাড়তি কোনো পরিকল্পনা নেই দলের।

“সকালে টিম হোটেলের গার্ডেনে দলের সবাই মিলে ঈদের নামাজ পড়েছি। বাড়তি কিছু করার সুযোগ নেই, বাইরেও যাওয়া যাবে না। সবাইকে বায়ো-বাবলে থাকতে হবে। একটু পর কোভিড টেস্ট আছে, এই নিয়ে সফরে ৬ বার কোভিড টেস্ট হচ্ছে। এরপর ঐচ্ছিক অনুশীলন আছে দলের।”

“এমনিতে সবাই ভালো আছে, হাসি-খুশিই আছে। দেশের বাইরে ঈদ করা বা লম্বা সময় পরিবার থেকে দূরে থাকা পেশাদার ক্রীড়াবিদদের জীবনের অংশই। সিরিজে আমরা এখনও সব ম্যাচ জিতেছি, এতেই সবাই ফুরফুরে আছে।”

ক্রিকেটারদের অনেকেই ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। মহামারীকালের ঈদে তাদের ঈদ শুভেচ্ছায় ছিল সতর্ক থাকার বার্তাও। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল ফেইসবুকে লিখেছেন, “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা। পরিবারের সাথে আনন্দময় ঈদ উদযাপন করুন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সর্তক থাকুন।”

অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বার্তাও ছিল একইরকম, “পবিত্র এই ঈদ প্রিয়জনদের সাথে আমাদের জীবনেও বয়ে আনুক প্রশান্তি ও সুস্থতা। আসুন প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি ও সবাই উপভোগ করি একটি সুস্থ ও সুন্দর ঈদ। আপনাদের সকলকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা।”

ঈদের দিন বিকেলেই ওয়ানডে দল থেকে দেশের পথে রওনা হবেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। তামিম ফিরছেন চোটের কারণে। দেশে ফিরে লম্বা সময় বিশ্রামে থাকতে হবে তাকে।

জিম্বাবুয়েতে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচ বৃহস্পতি, শুক্র ও রোববার।

জিম্বাবুয়ে থেকে ফেরার পরপরই আবার নতুন চ্যালেঞ্জ নামতে হবে বাংলাদেশ দলকে। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে আগামী ২৯ জুলাই বাংলাদেশে আসার কথা অস্ট্রেলিয়া দলের।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক