সমালোচকদের জবাবে টেইলর বললেন, ‘খেলতে চাই আরও’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কাটিয়ে দিয়েছেন ১৫ বছর। বয়স হয়ে গেছে ৩৭ বছর। অনেক খেলোয়াড় এর বেশ আগেই পাট চুকিয়ে ফেলেন। কিন্তু রস টেইলর সেখানে ভিন্ন। খেলার প্রতি টান তার কমেনি একটুও। নতুন কিছু শেখার ও ভালো করার তাড়না এখনও কাজ করে নিউ জিল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যানের মাঝে। সেই প্রেরণা থেকেই খেলা চালিয়ে যেতে চান তিনি যতদিন সম্ভব।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 June 2021, 04:06 PM
Updated : 30 June 2021, 04:06 PM

২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলতে চাওয়ার কথা আগেই বলেছিলেন টেইলর। নতুন করে তার অবসর নিয়ে আলোচনা শুরু হয় টেস্ট ক্রিকেট ঘিরে। এই সংস্করণে খেলছেন প্রায় ১৪ বছর। এবার পেয়েছেন সবচেয়ে বড় অর্জন, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা। দলের এই অর্জনে বড় অবদানও রেখেছেন তিনি।

লাল বলের ক্রিকেট ঘিরে এখন তার ভবিষ্যৎ ভাবনা কী?-সাংবাদিকদের সঙ্গে বুধবার ভার্চুয়াল আলাপচারিতায়, টেইলর খোলাসা করেন তার চাওয়া। নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেটের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা করার কথাও বললেন তিনি।

“আমি এখনও খেলাটি ভালোবাসি… এখনও শিখতে চাই, ভালো করতে চাই, যা ভালো লক্ষণ। এই মুহূর্তে আমার চাওয়া, যতদিন সম্ভব ক্রিকেট খেলা চালিয়ে যেতে চাই, সেটা যে পর্যায়েই হোক।”

“অতীতের (অবসর নেওয়া) অনেক ক্রিকেটার আমাকে বলেন, তোমার আরও আগে অবসর নিতে হতো। অনেকে আবার বলেন, ক্যারিয়ারের ইতি টানার পর তাদের মনে হয়েছে খুব তাড়াতাড়ি অবসর নিয়ে ফেলেছেন তারা।”

২০০৭ সালের নভেম্বরে টেস্ট অভিষেকের পর টেইলর দেশের হয়ে সাদা পোশাকে খেলেছেন ১০৮ ম্যাচ। এই সংস্করণে নিউ জিল্যান্ডের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও তিনি, ৭ হাজার ৫৬৪।

লম্বা ক্যারিয়ারে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে অনেকবার। সম্প্রতি শেষ হওয়া ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজের প্রথম টেস্টে ১৪ ও ৩৩ রানে আউট হওয়ার পর তার টেকনিক নিয়ে শুরু হয় সমালোচনা। সঙ্গে যোগ হয় তার বয়স নিয়ে নানা কথা।

ভারতের বিপক্ষে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের প্রথম ইনিংসে ১১ রানে আউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি দলের ৮ উইকেটের জয়ে রাখেন বড় ভূমিকা। কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে গড়েন ৯৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। ৪৭ রানে অপরাজিত থেকে নিউ জিল্যান্ডকে পৌঁছে দেন জয়ের বন্দরে।

“আমার বয়সে এলে যে কাউকে নিয়েই সবসময় কথা হবে। বয়স নিয়ে এবং আরও কত কিছু নিয়ে। পুরো ক্যারিয়ারেই আমাকে এসব সহ্য করতে হয়েছে। তবে আমার মনে হয়, একজনের বয়স বাড়লে তাকে সেটা নিয়ে আক্রমণ করাই সবচেয়ে সহজ পথ।”

“তবে বিষয়গুলো আসলে এমনই। আমি এখনও ক্রিকেট খেলতে পছন্দ করি। আমার মনে হয়, মাঠ ও মাঠের বাইরে খেলটিকে এখনও কিছু দেওয়ার আছে আমার।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক