দারুণ বোলিংয়ে মুস্তাফিজের ২ উইকেট

দুয়েকটি বাজে ডেলিভারি বাদে মুস্তাফিজুর রহমান প্রায় নিখুঁত লাইন-লেংথে বোলিং করে গেলেন শুরু থেকে। সাফল্যও মিলল। আইপিএলে প্রথম ম্যাচে খরুচে বোলিংয়ের হতাশা পেছনে ফেলে এবার দ্যুতি ছড়ালেন রাজস্থান রয়্যালসের বাঁহাতি পেসার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 April 2021, 03:54 PM
Updated : 15 April 2021, 07:27 PM

মুম্বাইয়ে বৃহস্পতিবার দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ৪ ওভারে ২৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো দিল্লি ২০ ওভারে তুলতে পারে ১৪৭ রান।

উইকেটে বল গ্রিপ করেছে। সেটা দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছেন রাজস্থানের বোলাররা। তাতে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম প্রথমবার দেখেছে আইপিএলে ২০ ওভার স্থায়ী ছক্কাহীন কোনো ইনিংস।

তিন বাঁহাতি পেসারে বোলিং আক্রমণ সাজানো রাজস্থানের শুরুটা হয় দারুণ। আসরে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা জয়দেব উনাদকাট তার প্রথম তিন ওভারে ফিরিয়ে দেন পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান ও অজিঙ্কা রাহানেকে। উইকেটের পেছনে ধাওয়ানের দুর্দান্ত ক্যাচ নেন অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন। পাওয়ার প্লেতে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে দিল্লি তুলতে পারে কেবল ৩৬ রান।

সপ্তম ওভারে বল হাতে পান মুস্তাফিজ। প্রথম বলে রিশাভ পান্ত নেন সিঙ্গেল। পরের তিন বলে মার্কাস স্টয়নিস নিতে পারেননি রান। চতুর্থটিতে স্লোয়ারে অল্পের জন্য তার ব্যাটের কানা ছোঁয়নি। পঞ্চম বলে আরেকটি স্লোয়ারে তাকে বিভ্রান্ত করে বিদায় করেন মুস্তাফিজ।

আগের ম্যাচে মুস্তাফিজের বলে একটি ক্যাচ মুঠোয় জমাতে ব্যর্থ হয়েছিলেন জস বাটলার। এবার ভুল করেননি এই ইংলিশ ক্রিকেটার। শর্ট এক্সট্রা কাভার থেকে কিছুটা পেছনে দৌড়ে স্টয়নিসের ক্যাচ তালুবন্দি করেন তিনি। ওভারে মাত্র ১ রান দিয়ে মুস্তাফিজের শিকার একটি।

দ্বাদশ ওভারে বোলিংয়ে ফিরে তিনি অল্পের জন্য আরেকটি উইকেট পাননি। তুলে মেরেছিলেন ললিত যাদব। ডিপ ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে লাফিয়ে দুই হাতে বল হাতে জমান রিয়ান পারাগ। তবে ভারসাম্য রাখতে পারেননি। বাইরে চলে যাওয়ার আগে ছুড়ে দেন বল, হয়নি ছক্কাও। শেষ বলে চার মারেন পান্ত। ওভার থেকে আসে ৮ রান।

দারুণ খেলতে থাকা পান্ত ফিফটি করে কাটা পড়েন রান আউটে। মুস্তাফিজ আবার বোলিং পান ১৭তম ওভারে। অফ স্টাম্পের বাইরে করা প্রথম বলে বাউন্ডারি মারেন ক্রিস ওকস। চতুর্থ বল আকাশে তুলেছিলেন টম কারান। লং অফ থেকে ছুটে এসে বলের নাগাল পাননি ডেভিড মিলার। এই ওভার থেকেও আসে ৮ রান।

১৯তম ওভারে মুস্তাফিজের প্রথম বলে চার মারেন কারান। পরের বলে দারুণ ডেলিভারিতে তাকে বোল্ড করে দেন বাঁহাতি পেসার। পরের বল অফ স্টাম্পের বাইরে পেয়ে চার মারেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। শেষ বলে দুই রানের চেষ্টায় রান আউট হয়ে যান তিনি। এই ওভারে আসে ১২ রান।

চার ওভারে মুস্তাফিজ ডট বল করেন ১১টি। ওয়াইড দেন দুটি। প্রথম ম্যাচে পাঞ্জাব কিংসের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৪৫ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি।

রাজস্থানের সেরা বোলার এ দিন উনাদকাট। ৪ ওভারে ১৫ রানে নেন ৩ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দিল্লি ক্যাপিটালস: ২০ ওভারে ১৪৭/৮ (পৃথ্বী ২, ধাওয়ান ৯, রাহানে ৮, পান্ত ৫১, স্টয়নিস ০, যাদব ২০, টম কারান ২১, ওকস ১৫*, অশ্বিন ৭, রাবাদা ৯; শাকারিয়া ৪-০-৩৩-০, উনাদকাট ৪-০-১৫-৩, মরিস ৩-০-২৭-১, মুস্তাফিজ ৪-০-২৯-২, পারাগ ২-০-১৬-০, তেওয়াতিয়া ৩-০-২৭-০)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক