র‌্যাঙ্কিংয়ে সৌম্য-মাহমুদউল্লাহর উন্নতি

নিউ জিল্যান্ড সফরে দলের সময় ভালো কাটছে না। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের দিক থেকেও কেউ তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি। তবে ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে একা লড়াই করে আইসিসির ওয়ানডে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে মাহমুদউল্লাহর। টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়েছেন সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ নাইম শেখ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2021, 10:55 AM
Updated : 31 March 2021, 10:55 AM

বাংলাদেশ-নিউ জিল্যান্ডের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচ ও প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি, ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডে এবং শ্রীলঙ্কা-ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টেস্টের ওপর ভিত্তি করে বুধবার র‍্যাঙ্কিংয়ের সাপ্তাহিক হালনাগাদ প্রকাশ করেছে আইসিসি।

ওয়ানডে

ওয়েলিংটনে তৃতীয় ওয়ানডেতে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে অপরাজিত ৭৬ রান করেন মাহমুদউল্লাহ। ওই ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে একমাত্র ফিফটি করা এই ব্যাটসম্যান র‍্যাঙ্কিংয়ে ৭ ধাপ এগিয়ে জিম্বাবুয়ের ব্রেন্ডন টেইলরের সঙ্গে যৌথভাবে আছেন ৪০তম স্থানে।

ভারতের বিপক্ষে ৫২ বলে ৯৯ রানের ইনিংস খেলা বেন স্টোকস ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ৪ ধাপ এগিয়ে আছেন ২৪তম স্থানে। জনি বেয়ারস্টো সপ্তম স্থান ধরে রেখেছেন, তবে হারিয়েছেন রেটিং পয়েন্ট।

ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে লোকেশ রাহুল ২৭তম ও হার্দিক পান্ডিয়া ক্যারিয়ার সেরা ৪২তম স্থানে উঠে এসেছেন। সেরা একশতে ঢুকেছেন কিপার-ব্যাটসম্যান রিশাভ পান্ত। আগের মতোই শীর্ষে বিরাট কোহলি।

ওয়ানডে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে অবনতি হয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুস্তাফিজুর রহমানের। চার থেকে পাঁচে নেমে গেছেন মিরাজ, ৬ ধাপ পিছিয়ে ১৭ নম্বরে এখন মুস্তাফিজ।

দুর্দান্ত বোলিংয়ে শেষ ওয়ানডেতে ২৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ক্যারিয়ার সেরা তিন নম্বর স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন নিউ জিল্যান্ড পেসার ম্যাট হেনরি। জেমস নিশাম ১৬ ধাপ এগিয়ে আছেন ৬২তম স্থানে। বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন তাদের সতীর্থ ট্রেন্ট বোল্ট।

বোলারদের তালিকায় ১১তম স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন ভুবনেশ্বর কুমার। ২০১৭ সালের পর যা তার সেরা। উন্নতি হয়েছে শার্দুল ঠাকুরেরও।

টি-টোয়েন্টি

টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৩ ধাপ উপরে উঠেছেন নাঈম। দুই ম্যাচে ২৭ ও ৩৮ রান করা বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান এখন ২৮ নম্বরে। নেপিয়ারে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ২৭ বলে ৫১ রান করা সৌম্য পাঁচ ধাপ এগিয়ে এখন ৪১ তম স্থানে।

ক্যারিয়ার সেরা চতুর্থ স্থানে ডেভন কনওয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে খেলেন ৫২ বলে ৯২ রানের অপরাজিত ইনিংস। নিউ জিল্যান্ডের বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান মাত্র ১৩ ম্যাচ খেলেই এখানে উঠে এসেছেন।

গ্লেন ফিলিপস জায়গা করে নিয়েছেন ক্যারিয়ার সেরা ২৬তম স্থানে। দুই ম্যাচে ২৪ ও ৫৮ রান করেন নিউ জিল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে হন ম্যাচ সেরা।

বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে দুই ধাপ এগিয়ে সাতে আছেন নিউ জিল্যান্ডের টিম সাউদি। উন্নতি হয়েছে দলে ফেরা লকি ফার্গুসনেরও। শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বাঁহাতি রিস্ট স্পিনার তাবরাইজ শামসি।

টেস্ট

ওয়েস্ট ইন্ডিজ-শ্রীলঙ্কার জমজমাট প্রথম টেস্টে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে র‍্যাঙ্কিংয়ে বড় উন্নতি হয়েছে নিরোশান ডিকভেলা ও এনক্রুমা বনারের।

সেঞ্চুরি ছাড়া সবচেয়ে বেশি ফিফটির মালিক লঙ্কান কিপার-ব্যাটসম্যান ডিকভেলা ১০ ধাপ এগিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ক্যারিয়ার সেরা ২৯তম স্থানে। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করা বনার প্রথমবারের মতো ঢুকেছেন সেরা পঞ্চাশে।

লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ওশাদা ফার্নান্দো, জশুয়া দা সিলভা ও লাহিরু থিরিমান্নেও এগিয়েছেন র‍্যাঙ্কিংয়ে। টেস্ট ব্যাটসম্যানদের শীর্ষস্থানে আছেন কেন উইলিয়ামসন।

সুরঙ্গা লাকমল বোলারদের তালিকায় ৫ ধাপ এগিয়ে ক্যারিয়ার সেরা ২২তম স্থানে আছে। লাসিথ এম্বুলদেনিয়া, বিশ্ব ফার্নান্দো ও দুশমন্থ চামিরারও উন্নতি হয়েছে। ক্যারিবিয়ান বোলারদের মধ্যে জেসন হোল্ডার তিন ধাপ এগিয়ে সাতে জায়গা করে নিয়েছেন। কেমার রোচ ১৪ থেকে ১২তম স্থানে এসেছেন।

তিন সংস্করণের অলরাউন্ডারদের শীর্ষস্থানগুলোতে আসেনি কোনো পরিবর্তন। টেস্টে সেরা হোল্ডার, ওয়ানডেতে সাকিব আল হাসান ও টি-টোয়েন্টিতে মোহাম্মদ নবি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক