টেন্ডুলকারের চোখে সুর্যকুমার ও কিষান বিশ্বকাপ খেলতে প্রস্তুত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সূর্যকুমার যাদব ও ইশান কিষানের পথচলা কেবলই শুরু হয়েছে। ম্যাচ খেলেছেন মাত্র দুটি করে। এরই মধ্যে তাদের প্রতিভা ও সামর্থ্যে অগাধ বিশ্বাস জন্মে গেছে শচিন টেন্ডুলকারের। আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তারা খেলতে প্রস্তুত বলে মনে করেন এই ব্যাটিং কিংবদন্তি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 March 2021, 11:10 AM
Updated : 20 March 2021, 11:10 AM

চলমান ইংল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় সূর্যকুমার ও কিষানের। ৩২ বলে ৫৬ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলে কিষান জানান দেন তার প্রতিভার। ওই ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি সূর্যকুমার।

চতুর্থ ম্যাচে সুযোগ আসে সূর্যকুমারের। মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলেই জফ্রা আর্চারকে ছক্কায় উড়িয়ে নজর কাড়েন সবার। আর দিন শেষে ৩১ বলে ৫৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে প্রথম ম্যাচেই দলের জয়ের নায়ক।

ম্যাচটি শেষে সূর্যকুমার বলেন, আইপিএলে ইংলিশ এই পেসারকে খেলার অভিজ্ঞতাই কাজে লেগেছে তার। এবার টেন্ডুলকারও বললেন একই কথা। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে ফোনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, আইপিএলে বিশ্বের সেরা বোলারদের বিপক্ষে খেলা এই দুই ক্রিকেটার বিশ্বকাপের জন্যও তৈরি।

“দুই জনের (সূর্যকুমার ও কিষান) প্রতিভা নিয়ে কোনো সংশয় নেই। দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে ও নির্বাচক কমিটির কাছেও এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমি বলতে পারি, আইপিএলে বিদেশি সেরা বোলারদের বিপক্ষে খেলে তারা এখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে প্রস্তুত।”

সূর্যকুমার ও কিষান দুই জনই আইপিএলে খেলেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে, যেখানে তাদের মেন্টর টেন্ডুলকার। দুই জনকে কাছ থেকে দেখার অভিজ্ঞতাও তুলে ধরেন ভারতের সাবেক এই তারকা ব্যাটসম্যান।

“তারা খুব ভালো ক্রিকেটার। আমি সূর্যকুমারের সঙ্গে অনেক সময় কাটিয়েছি, তাকে দেখে দারুণ মনে হয়েছে। গত আইপিএল আসর শুরুর আগে ইশান যখন নেটে অনুশীলন করছিল তখন কিছু বিষয় ছিল নজরে পড়ার মতো। সে তার ব্যাট ঘুরানো ও মানসিকভাবে স্থির হওয়ার চেষ্টা করছিল। ওই সময় থেকে সে যেভাবে উন্নতি করেছে তা অসাধারণ।”

আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতের মাটিতে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আসরটি হওয়ার কথা ছিল গত বছর অস্ট্রেলিয়ায়। করোনাভাইরাসের প্রকোপে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ২০২২ সালের অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় হবে সংক্ষিপ্ত এই সংস্করণের আরেকটি বিশ্বকাপ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক