গুনাথিলাকার ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ নিয়ে বিতর্ক

আইনে আছে, ইচ্ছাকৃতভাবে বাধা দিলে আউট। দানুশকা গুনাথিলাকা কি ইচ্ছা করেই বাধার সৃষ্টি করেছিলেন? এই লঙ্কান ওপেনারের ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ আউট নিয়ে চলছে বিতর্ক।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 March 2021, 04:22 AM
Updated : 11 March 2021, 06:44 AM

অ্যান্টিগায় বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রথম ম্যাচে গুনাথিলাকাকে ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ আউট দেন তৃতীয় আম্পায়ার। ৬১ বলে ৫৫ রান করা ওপেনারের বিদায়ের পর দিশা হারায় লঙ্কান ইনিংস।

ম্যাচের ২২তম ওভারের ঘটনা সেটি। ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের অফ স্টাম্প ঘেষা বল আলতো ডিফেন্স করে রান দিতে উদ্যত হন গুনাথিলাকা। বল ছিল উইকেটেই। গুনাথিলাকা এগিয়ে যান দুই-তিন পদক্ষেপ। কিন্তু ফিল্ডিংয়ে ছুটে আসা বোলার পোলার্ডকে দেখে থমকে যান তিনি। উল্টো হেঁটেই ক্রিজে ফেরেন বাঁহাতি ওই ব্যাটসম্যান।

বল ছিল তার পেছনে। তিনি ক্রিজে ফেরার সময় বল তার পায়ে লেগে সরে যায়। আরেকপ্রান্ত থেকে অভিষিক্ত ব্যাটসম্যান পাথুম নিসানকা ছুটে এসেছিলেন অনেকদূর। তাকে রান আউট করার একটি সুযোগ সৃষ্টি হতে পারত। কিন্তু ফিল্ডিং করতে আসা পোলার্ড বলের নাগাল পাননি গুনাথিলাকার পায়ে লেগে সরে যাওয়ায়। 

সঙ্গে সঙ্গে আবেদন করেন পোলার্ড। টিভি রিপ্লে দেখে তৃতীয় আম্পায়ার দেন আউট। যদিও টিভি রিপ্লে দেখে মনে হয়েছে, গুনাথিলাকা বল খেয়ালই করেননি। কারণ বল ছিল তার পেছনে।

তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে বড় ভূমিকা থাকতে পারে মাঠের আম্পায়ারের ‘সফট সিগন্যালের।’ সফট সিগন্যাল ছিল আউট।

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে হতবাক হয়ে যান গুনাথিলাকা। লঙ্কান কোচ মিকি আর্থারকে দেখা যায় ম্যাচ রেফারি কিংবা চতুর্থ আম্পায়ারের কক্ষে যেতে।

ক্রিকেটের আইনে আছে, কেউ যদি তার কথা বা কাজ দিয়ে ফিল্ডিং দলের জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে বাধার সৃষ্টি করে বা বিঘ্ন ঘটায়, তাহলে ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ আউট হবে। অনিচ্ছাকৃত বা দুর্ঘটনাক্রমে বাধার সৃষ্টি হলে আউট হবে না।

টিভি ধারাভাষ্যে সাবেক ক্যারিবিয়ান ফাস্ট বোলার ইয়ান বিশপ বলেন, তিনি নিশ্চিত নন, এটা ইচ্ছাকৃত ছিল কিনা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমও এই আউট নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে দ্রুতই।

সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার ও সময়ের শীর্ষ কোচদের একজন টম মুডির টুইট, “ ইচ্ছাকৃতভাবে বাধা দেওয়া- কোনো ভাবেই এটি ইচ্ছাকৃত ছিল না।”

এমনকি দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ড্যারেন স্যামির মতেও এটি আউট ছিল না।

“ মোটেও এটি ইচ্ছাকৃত ছিল বলে মনে করি না। আমি এখানে আবেদনই করতাম না, কিন্তু…”

ম্যাচের পর গুনাথিলাকার সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলতে দেখা যায় পোলার্ডকে। পরে আলিঙ্গন করে কথা শেষ করেন দুজন।

ওয়ানডে ক্রিকেটে এটি অষ্টম ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ আউটের ঘটনা, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একাদশ আর শ্রীলঙ্কার প্রথম।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক