স্মিথ-কোহলিকে টপকে উইলিয়ামসন নিজেই অবাক

র‍্যাঙ্কিং শীর্ষে স্টিভেন স্মিথ ও বিরাট কোহলির ৫ বছরের রাজত্বের অবসান ঘটাতে পেরে কেন উইলিয়ামসন চমকে দিয়েছেন নিজেকেই। অর্জনে আকাশ ছুঁলেও যথারীতি তিনি পা রাখছেন মাটিতে। বরাবরের বিনয়ী নিউ জিল্যান্ড অধিনায়কের কাছে দলের জন্য অবদান রাখতে পারাই ব্যক্তিগত স্বীকৃতির চেয়ে বড়।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Jan 2021, 04:47 AM
Updated : 1 Jan 2021, 04:47 AM

পাকিস্তানের বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পর টেস্ট ব্যাটসম্যানদের আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠেছেন উইলিয়ামসন। তাতে ছেদ পড়েছে স্মিথ-কোহলির ৫ বছরের ধারাবাহিকতার।

২০১৫ নভেম্বরে প্রথমবার শীর্ষে ওঠার স্বাদ পেয়েছিলেন উইলিয়ামসন। তবে কিছুদিন পরই হারান জায়গা। এরপর থেকে তা কেবল হাতবদল হয়েছে স্মিথ ও কোহলির মধ্যে। ২০২০ সালেও ৩১৩ দিন শীর্ষে ছিলেন স্মিথ, ৫১ দিন কোহলি। বছরের শেষ বেলায় শ্রেষ্ঠত্ব উইলিয়ামসনের।

তবে শীর্ষে ওঠার পর আইসিসির ভিডিও বার্তায় উইলিয়ামসন বলেন, শ্রেষ্ঠ মানেন তিনি স্মিথ-কোহলিকেই।

“ ওরা দুজন বিশ্বের সেরা দুই ক্রিকেটার। ওদেরকে কোনোভাবে টপকে যেতে পারা আমার জন্য খুবই বিস্ময়কর ও সম্মানজনক। পাশাপাশি এই র‍্যাঙ্কিং ওদের দুজনের সাফল্যও তুলে ধরছে। বছরের পর বছর সব সংস্করণে এই দুজন ভালো করছে, ক্রিকেট খেলাটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আমরা সবাই সৌভাগ্যবান তাদের বিপক্ষে খেলতে পেরে।”

নিজের এই অর্জনকে উইলিয়ামসন ব্যক্তিগত প্রাপ্তির মোড়কে রাখছেন না। দলের জন্য ভালো করার তাড়নাই র‍্যাঙ্কিংয়ে ফুটে উঠেছে বলে মনে করেন নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক।

“ (আমার জন্য) ব্যাপারটি হলো দলের জন্য যত বেশি সম্ভব করার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া। ব্যাটিং হোক বা বোলিং, ব্যক্তিগত র‍্যাঙ্কিংগুলোকে আমি এভাবেই দেখি যে, অন্য অনেক ক্রিকেটার যে লক্ষ্যে ধাবিত হতে চেষ্টা করে, সেই পথে এগিয়ে থাকা।  দলের জন্য সর্বোচ্চ অবদান রাখার চেষ্টার পর যদি সেটির প্রতিফলন র‍্যাঙ্কিংয়ে পড়ে, তাহলে তা দারুণ। তবে যেটা বললাম, মূল মনোযোগ অবশ্যই দলে যতটা সম্ভব অবদান রাখা।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক