এক ম্যাচেই এত রেকর্ড!

রান তাড়ার রেকর্ড, দুই দলের দুজনের সেঞ্চুরি, ছক্কা বৃষ্টি, সব মিলিয়ে অসাধারণ এক ম্যাচ উপহার দিয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী ও ফরচুন বরিশাল। স্মরণীয় এই লড়াইয়ে ব্যাট-বলের নানা কীর্তিতে ওলট-পালট হয়েছে রেকর্ড বইয়ে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2020, 03:39 PM
Updated : 8 Dec 2020, 04:02 PM

৪২- পারভেজ হোসেন ইমন সেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন ৪২ বলে। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দ্রুততম টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরি এটি।

২০১৯ সালে বিপিএলে তামিম ইকবালের ৫০ বলের সেঞ্চুরি ছিল আগের দ্রুততম। গত বিপিএলে নাজমুল হোসেন শান্তর ৫১ বলে সেঞ্চুরি এতদিন ছিল দ্বিতীয় দ্রুততম।

২- টি-টোয়েন্টিতে এক ম্যাচে দুই দলের দুই ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি বাংলাদেশে এই প্রথম।

এর আগে এক ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি একবার হয়েছিল, তবে সেটি ছিল একই দলের হয়ে। ২০১৯ বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের হয়ে সেঞ্চুরি করেছিলেন অ্যালেক্স হেলস ও রাইলি রুশো।

১১- ১০৯ রানের ইনিংসে ১১ ছক্কা মেরেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। এক ইনিংসে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের সবচেয়ে বেশি ছক্কার কীর্তিতে নাম লিখিয়েছেন তিনি তামিম ইকবালের পাশে। ২০১৯ সালে বিপিএল ফাইনালে ১৪১ রানের ইনিংসে ১১ ছক্কা মেরেছিলেন তামিম।

২৮- মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর ইনিংসে ছক্কা ছিল ১৮টি, ফরচুন বরিশালের ইনিংসে ১০টি। এক ম্যাচে ২৮ ছক্কা বাংলাদেশে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে নতুন রেকর্ড। ২০১৩ বিপিএলে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স ও সিলেট রয়্যালসের ম্যাচে ২৭ ছক্কা ছিল আগের রেকর্ড।

ঘরোয়া-আন্তর্জাতিক মিলিয়ে বাংলাদেশে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি ছক্কা ৩০টি। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সিলেটে আয়ারল্যান্ড-নেদারল্যান্ডস ম্যাচে দেখা গিয়েছিল সেই ছক্কা বৃষ্টি।

২- টি-টোয়েন্টিতে একাধিক সেঞ্চুরি করা বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। এই ম্যাচের আগে তিনি শতরান করেছিলেন গত জানুয়ারিতে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে।

৩টি সেঞ্চুরি করে বাংলাদেশের রেকর্ড তামিম ইকবালের।

১- রাজশাহীর ২২০ রান তাড়া করে জিতেছে বরিশাল, বাংলাদেশে এত বেশি রান তাড়া করে জয় এটিই প্রথম।

গত বিপিএলে ঢাকা প্লাটুনের ২০৫ রান তাড়ায় খুলনা টাইগার্সের জয় ছিল আগের সর্বোচ্চ রান তাড়া।

৪- টি-টোয়েন্টিতে হ্যাটট্রিক করা বাংলাদেশের চতুর্থ বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি। এর আগে এই স্বাদ আল আমিন হোসেন পেয়েছেন দুবার, একবার করে পেয়েছেন আলিস আল ইসলাম ও মানিক খান।

২- হ্যাটট্রিকসহ এক ওভারে ৪ উইকেট নেওয়া বাংলাদেশের দ্বিতীয় বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি। ২০১৩ সালে বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টিতে টানা চার বলে উইকেটসহ ওভারে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন আল আমিন হোসেন।

৪৪১- দুই দল মিলিয়ে এই ম্যাচের রান। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ রান এটিই।

বাংলাদেশের অন্য মাঠগুলি মিলিয়ে এর চেয়ে বেশি রান হয়েছে কেবল একটি ম্যাচে। ২০১৯ সালে বিপিএলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জোর্সের ২৩৮ রান তাড়ায় কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স করেছিল ২২২, ম্যাচে মোট রান ছিল ৪৬০।

১৩১- নাজমুল হোসেন শান্ত ও আনিসুল ইসলাম ইমন জুটির রান। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে এখনও পর্যন্ত যে কোনো জুটিতে সর্বোচ্চ রান।

এই ম্যাচেই তামিম ইকবাল ও পারভেজ হোসেন ইমনের ১১৭ রানের জুটি এখনও পর্যন্ত টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জুটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক