‘অমুক-তমুকের’ কথা পাত্তা দেননি রোহিত

রোহিত শর্মার চোট নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে কী তোলপাড় না হয়ে গেল কিছুদিন! বিভ্রান্তিও কম ছড়ায়নি। তবে ওই আলোচনা কিংবা বিভ্রান্তির কোনো কারণই খুঁজে পাচ্ছেন না রোহিত। ভারতীয় এই ব্যাটসম্যানের দাবি, নিজের কাছে তিনি নিজে ঠিকই ছিলেন পরিস্কার, কান দেননি আশপাশের লোকজনের কথায়।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Nov 2020, 03:25 AM
Updated : 22 Nov 2020, 03:25 AM

রোহিতের চোট নিয়ে ধোঁয়াশার শুরু আইপিএল চলার সময়। হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে কিছু ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি। সেই সময়ই ঘোষণা করা হয় অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য ভারতের স্কোয়াড। চোটের কারণে তিন সংস্করণের কোনোটিতেই রাখা হয়নি রোহিতকে।

দল ঘোষণার একটু পরই রোহিত নেটে ব্যাটিংয়ে নামেন মুম্বাইয়ের অনুশীলনে। এর কদিন পর ম্যাচ খেলতেও নেমে যান। আইপিএলের ফাইনালে দলের শিরোপা জয়ের পথে দারুণ ফিফটিও করেন।

তার চোটের মাত্রা ও ধরন নিয়ে নানা পক্ষ থেকে অনেক কথা শোনা যায় তখন। রোহিত, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও ভারতীয় বোর্ডের সমন্বয়হীনতার ব্যাপারটিও ফুটে ওঠে প্রকটভাবে। স্বয়ং ভারতীয় বোর্ডের প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলির কথাতেও পাওয়া যায়নি নিশ্চিত কিছু। আইপিএলের পর রোহিতকে ফেরানো হয় অস্ট্রেলিয়া সফরের টেস্ট দলে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে রাখা হয়নি চোটের কারণেই।

অবশেষে আলোচনা স্তিমিত হওয়ার এতদিন পর মুখ খুললেন রোহিত। ভারতের বার্তা সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তার দাবি, চোট নিয়ে বিভ্রান্তির কারণ ছিল না।

“ সত্যি বলতে আমি জানি না কীসব হচ্ছিল এবং লোকে কী নিয়ে কথা বলছিল। আমি এটা প্রকাশ্যে বলছি, বিসিসিআই ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গে ক্রমাগত যোগাযোগ রাখছিলাম আমি। মুম্বাইকে আমি বলেছিলাম, এটা যেহেতু সংক্ষিপ্ত সংস্করণের খেলা, কোনোভাবে সামলে নেব। মাঠে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলার পর মূল ব্যাপার ছিল স্রেফ নিজের কাজে মন দেওয়া।”

“ অমুক বা তমুক কী বলছিল, এসব কথায় তাই আমি পাত্তা দেইনি। চোটে পড়ার পর প্রথম দুই দিনে বোঝার চেষ্টা করেছি, পরবর্তী ১০ দিনে কোন পথে এগোব। হ্যামস্ট্রিংয়ের অবস্থা প্রতিদিনই বদলাচ্ছিল। এজন্যই আমার বিশ্বাস ছিল যে আমি খেলতে পারব। এটিই মুম্বাইকে বলেছিলাম। তাদেরকে জানিয়েছিলাম, প্লে-অফের আগে আমি খেলতে পারব। তবে কোনো অস্বস্তি থাকলে খেলব না।”

আইপিএল থেকে ফেরার পর বেঙ্গালুরুতে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে পুনর্বাসন চালিয়ে যাচ্ছেন রোহিত। অবস্থা এখন উন্নতির দিকে বলে জানালেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ায় সীমিত ওভারের সিরিজে না খেলার কারণও ব্যাখ্যা করলেন।

“ হ্যামস্ট্রিং এখন খুব ভালো অবস্থায় আছে। এটিকে এখন শক্তিশালী করার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। টেস্ট ম্যাচ খেলার আগে আমি কোনো জায়গায় ঘাটতি রাখতে চাই না। এজন্যই জাতীয় একাডেমিতে এসেছি।”

“ এখনও কিছু কাজ অবশ্যই বাকি আছে। এজন্যই অস্ট্রেলিয়ায় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে যাইনি। সীমিত ওভারের সিরিজে পিঠেপিঠি অনেক খেলা, ১১ দিনের মধ্যে ৬ ম্যাচ। তাই ভাবলাম, বাড়তি ২৫ দিন সময় পেলে টেস্টের জন্য আরও ভালো প্রস্তুতির সময় পাব। সিদ্ধান্তটি আমার জন্য তাই সহজ ছিল। জানি না, অন্যদের জন্য কেন তা এত জটিল হয়ে গেল।”

অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের টেস্ট সিরিজ শুরু ১৭ ডিসেম্বর।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক