ওয়ানডে লিগে পায়ের ‘নো বল’ ডাকবেন তৃতীয় আম্পায়ার

ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের সিরিজ দিয়ে শুরু হতে যাওয়া ওয়ানডে সুপার লিগে সামনের পায়ের ‘নো বল’ ধরতে প্রযুক্তি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। একই সঙ্গে মন্থর ওভার রেটের জন্য কাটা হবে পয়েন্ট।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2020, 04:18 PM
Updated : 27 July 2020, 05:42 PM

আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার জিওফ অ্যালারডাইস এই নিয়মগুলির কথা নিশ্চিত করেছেন বলে সোমবার এক প্রতিবেদনে জানায় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো।

প্রতিটি বলের পর বোলারের সামনের পায়ের অবস্থান দেখবেন তৃতীয় আম্পায়ার। ‘নো বল’ হলে যোগাযোগ করবেন মাঠের আম্পায়ারের সঙ্গে। তৃতীয় আম্পায়ারের নির্দেশনা ছাড়া পায়ের কোনো ‘নো বল’ ডাকতে পারবেন না মাঠের আম্পায়াররা। বাকি সব নো বলের সিদ্ধান্ত মাঠ থেকে দেবেন তারা।

২০১৬ সালে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের ওয়ানডে সিরিজে প্রথমবার পরীক্ষামূলকভাবে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তিন বছর পর ২০১৯ সালে ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সীমিত ওভারের সিরিজে আবারও পায়ের ‘নো বল’ ডাকার দায়িত্ব দেওয়া হয় টিভি আম্পায়ারকে। চলতি বছরের শুরুতে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ছিল এই নিয়ম।

প্রায়ই পায়ের ‘নো বল’ চোখ এড়িয়ে যায় মাঠের আম্পায়ারদের। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনাও হয়েছে অনেক। ২০১৮ সালের নভেম্বরে ইংল্যান্ডের শ্রীলঙ্কা সফরের সময় ব্রডকাস্টাররা জানিয়েছিল, অন্তত ১২টি ‘নো বল’ চোখ এড়িয়ে গিয়েছিল আম্পায়ারদের।

২০১৯ আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের টানটান উত্তেজনার ম্যাচের শেষ বলে ‘নো বল’ মিস করেছিলেন আম্পায়ার এস রবি। গত বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচেও একটি ‘নো বল’ চোখ এড়িয়ে যায় আম্পায়ারের। পরের বলে আউট হন ক্রিস গেইল, যে বলটা হওয়ার কথা ছিল আসলে ফ্রি-হিট।

আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার অ্যালারডাইসও তুলে ধরলেন, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ফ্রি-হিটের গুরুত্বের কথা।

“বৃহস্পতিবার (ইংল্যান্ড-আয়ারল্যান্ড ম্যাচে) এবং সিরিজে এই নিয়ম থাকবে। সাদা বলের ক্রিকেটে অবশ্যই ফ্রি-হিটের গুরুত্ব আছে এবং ‘নো’ বল নির্ভুলভাবে ডাকা দরকার। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ক্রিকেট কমিটি এই নিয়ম চালু করার সুপারিশ করেছে এবং এটি সুপার লিগের প্লেয়িং কন্ডিশনে আছে।”

সুপার লিগে প্রতি জয়ের জন্য মিলবে ১০ পয়েন্ট। টাই অথবা ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে মিলবে ৫ পয়েন্ট। অ্যালারডাইচ জানান, সুপার লিগে নির্ধারিত সময়ের পর করা প্রতিটি ওভারের জন্য একটি করে পয়েন্ট কাটা হবে।

সাউথ্যাম্পটনের আজিয়াস বৌলে আগামী বৃহস্পতিবার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ড।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক