ফাঁকা গ্যালারির সামনে সাদা বল দেখছে না আইরিশরা

খেলা সাদা বলে। স্টেডিয়ামের ফাঁকা গ্যালারির আসনগুলিও সাদা। ফিল্ডিংয়ের সময় তাই বল দেখতে বিপত্তিতে পড়ছেন ক্রিকেটাররা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে এমন অদ্ভুত সমস্যায় পড়েছে আয়ারল্যান্ড।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 July 2020, 12:53 PM
Updated : 25 July 2020, 01:40 PM

সিরিজের তিনটি ওয়ানডে হবে সাউথ্যাম্পটনের আজিয়াস বৌলে। আয়ারল্যান্ড দল এখানে আছে গত সপ্তাহ থেকে। নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে খেলা প্রস্তুতি ম্যাচে ফিল্ডিংয়ে বল ধরতে গিয়ে ভুগতে হয়েছে আইরিশ ফিল্ডারদের।

এ মাসের শুরুতে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টেস্ট হয়েছিল এই মাঠেই। লাল বলে খেলা হওয়ায় ফাঁকা গ্যালারির সাদা আসনগুলি কোনো সমস্যা তৈরি করেনি তাদের ফিল্ডারদের জন্য। তবে আয়ারল্যান্ডের জন্য বিষয়টা বেশ চ্যালেঞ্জের, শুক্রবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জানালেন কোচ গ্রাহাম ফোর্ড।

“কিছুটা দুর্ভাবনার বিষয় হলো এখানকার পশ্চাদ্ভূমি। আসনগুলি ক্রিম বা সাদা এবং ফাঁকা স্টেডিয়ামে সাদা বলে খেলা। তাই ফিল্ডারদের জন্য ব্যাকগ্রাউন্ড একটি চ্যালেঞ্জ হতে পারে।”

আইরিশ অধিনায়ক অ্যান্ডি বালবার্নি অবশ্য আশাবাদী, আবহের সঙ্গে মানিতে নিতে পারবেন তারা।

“মানিয়ে নিতে খানিকটা সময় লাগছে বটে। তবে প্রস্তুতির জন্য এক সপ্তাহ সময় পাচ্ছি আমরা। নিজেদের তাই আমরা আরও শানিত করতে পারি। এটি নিশ্চিত করতে হবে, সবাই যেন স্বস্তিতে ফিল্ডিং করতে পারে এবং চোখ যাতে অভ্যস্ত হয়ে ওঠে। ক্রিম ও সাদা আসনের সামনে সাদা বলে খেলা খানিকটা বিভ্রান্তি তৈরি করতে পারে। তবে প্রস্তুতির জন্য আমরা পর্যাপ্ত সময় পাচ্ছি যেন এটিকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে না হয়।”

আগামী ৩০ জুলাই হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। সবগুলি ম্যাচই হবে দিবা-রাত্রির। সমস্যাটা হতে পারে তাই প্রথমে ফিল্ডিং করা দলের। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো জানাচ্ছে, গ্যালারির আসনগুলি ঢেকে দেওয়ার কোনো পরিকল্পনা নেই ইংল্যান্ডের বোর্ডের। ফিল্ডারদেরই তাই মানিয়ে নিতে হবে। ঘরের দল হ্যাম্পশায়ার এই মাঠে অনেক সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলেছে মাত্র অল্প কিছু দর্শকের উপস্থিতিতে, গ্যালারির বেশির ভাগ তখন ফাঁকাই থাকে। কাজেই ফিল্ডারদের চোখ অভ্যস্ত হয়ে ওঠা অসম্ভব নয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক