টেস্ট ক্রিকেট কতটা কঠিন, বুঝেছেন সাইফ

যেদিন থেকে ক্রিকেটার হয়ে ওঠার স্বপ্ন দেখেছেন, টেস্ট ক্রিকেটকে ঘিরে রঙিন সব ডালি সাজিয়েছেন সাইফ হাসান। কিন্তু কঠিন বাস্তবতার আঁচ পেয়েছেন অভিষেক টেস্টেই। মনে রাখার মতো খুব বেশি কিছু পাননি প্রথম টেস্ট থেকে। তবে পেয়েছেন শিক্ষা। হয়েছে উপলব্ধি। সেসবকে সঙ্গী করেই টেস্ট ক্রিকেটের বন্ধুর পথে এগিয়ে যেতে চান তরুণ এই ওপেনার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Feb 2020, 01:33 PM
Updated : 20 Feb 2020, 01:33 PM

কিছুদিন আগে পাকিস্তান সফরে রাওয়ালপিন্ডিতে বাংলাদেশের টেস্ট ক্যাপ পেয়েছেন সাইফ। অভিষেকের সেই আনন্দ তার উবে গেছে দ্রুতই। ম্যাচের প্রথম ওভারেই শূন্য রানে আউট হয়েছেন আলগা শটে। দ্বিতীয় ইনিংসে রানের দেখা পেয়েছেন বটে, তবে ইনিংস থেমে গেছে ১৬ রানেই।

বয়সভিত্তিক পর্যায় থেকেই সাইফকে মনে করা হচ্ছে, দেশের টেস্ট ব্যাটিংয়ের ভবিষ্যৎ। তিনি নিজেকে তৈরি করেছেন সেভাবেই। অভিষেক টেস্ট তাই একটি ধাক্কা হয়েই এসেছে তার জন্য।

সাইফ অবশ্য মুষড়ে পড়ছেন না। বরং বুঝে নিয়েছেন করণীয়। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টের আগে প্রস্তুতির ফাঁকে বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানালেন তার ভাবনা।

“অবশ্যই এতটা সহজ হবে না (টেস্ট খেলা)। কিন্তু এই লেভেলে আসার জন্যই সব কিছু করা। চেষ্টা করব। সামনের ম্যাচে যদি সুযোগ আসে, ভালো খেলার চেষ্টা করব।”

“সহজ হবে না বলতে, আমরা যেভাবে খেলে আসছি ঘরোয়া ক্রিকেটে, সেদিক থেকে চিন্তা করলে অত সহজ না। আমাদের সেভাবেই মানসিকভাবে তৈরি হতে হবে। প্রস্তুতি খুব ভালো হচ্ছে জাতীয় দলের। সুযোগ পেলে রান বড় করতে হবে।”

অভিষেক ম্যাচে স্নায়ুর চাপ কিছুটা পেয়ে বসেছিল তাকে। সেটি ঝেড়ে ফেলে দ্বিতীয় ইনিংসে শুরুটা ভালোই করেছিলেন। চারটি বাউন্ডারিতে করেছিলেন ১৬। এরপরই পেসার নাসিম শাহর ভেতরে ঢোকা বলে হয়েছেন বোল্ড।

সাইফের বড় শক্তির জায়গা বরাবরই মনে করা হয়েছে তার টেম্পারামেন্ট। অনেকবারই প্রমাণ দিয়েছেন সহজাত টেম্পারামেন্টের। তবে টেস্ট ক্রিকেটের জন্য যে আরও বেশি কিছু প্রয়োজন, সেই উপলব্ধি তার হয়েছে।

“প্রথম ইনিংসে নার্ভাস ছিলাম। সবাই প্রেরণা জুগিয়েছে তখন, সাহস দিয়েছে। পরে দ্বিতীয় ইনিংসে কোনো সমস্যা হয়নি। সবাই খুব সহায়তা করেছেন, ম্যানেজার-কোচ, সিনিয়র ক্রিকেটাররা সবাই সমর্থন করেছেন।”

“দ্বিতীয় ইনিংস বল ব্যাটে লাগছিল ভালো। দুর্ভাগ্য, বলটা নিচু হয়েছিল। আরেকটু ফোকাসড থাকলে হয়ত বলটা সামলাতে পারতাম কোনোভাবে। ফোকাস লেভেল আরও বাড়াতে হবে, মনোযোগ বাড়াতে হবে।”

শনিবার থেকে শুরু জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের টেস্ট। সাইফ হয়তো সুযোগ পাবেন, নিজের উপলব্ধির প্রমাণ দেওয়ার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক