সাব্বিরের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে শাইনপুকুরের প্রথম জয়

সাব্বির হোসেনের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙল শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব। নবাগত উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবকে উড়িয়ে দিয়ে প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে আফিফ হোসেনের দল।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 March 2019, 09:40 AM
Updated : 23 March 2019, 12:44 PM

প্রিমিয়ার লিগের পঞ্চম রাউন্ডে ৮ উইকেটে জিতেছে শাইনপুকুর। ১৪৬ রানের লক্ষ্য ১৪৯ বল বাকি থাকতে পেরিয়ে যায় তারা।

ব্যাটে-বলে নিজেকে মেলে ধরে শাইনপুকুরকে প্রথম জয় এনে দেওয়া সাব্বির ফিরেছেন অবশ্য আক্ষেপ নিয়ে। মাত্র ১ রানের জন্য লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পাননি তিনি।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে শনিবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা খারাপ হয়নি উত্তরার। তিন চার ও এক ছক্কায় ২৫ বলে ২৫ রান করে ওপেনার তানজিদ রান আউট হলে ভাঙে ৩৫ রানের উদ্বোধনী জুটি।

এরপর থেকে জুটি গড়তে সংগ্রাম করতে হয়েছে উত্তরার। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাইমিনুল খান, মিনহাজ খান ও শাকির হোসেনেকে ফিরিয়ে দেন মিডিয়াম পেসার সাব্বির। 

এক সময়ে একশ রানের নিচে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়া শাইনপুকুরকে প্রায় একার চেষ্টায় দেড়শ রানের কাছে নিয়ে যান মিনহাজুল আবেদীন। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৫১ রানে অপরাজিত থাকেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তার ৭৩ বলের ইনিংস গড়া ৬ চারে। মিনহাজুলের লড়াইয়ের পরও ১৪৫ রানে গুটিয়ে যায় উত্তরা।

২৭ রানে তিন উইকেট নিয়ে শাইনপুকুরের সেরা বোলার সাব্বির। বাঁহাতি স্পিনার রকিবুল হাসান ২ উইকেট নেন ১৮ রানে।

কদিন আগে ফতুল্লায় শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের বিপক্ষে ১০৭ রানের ছোট লক্ষ্য তাড়ায় হেরে গিয়েছিল শাইনপুকুর। এবার শতরানের জুটিতে এমন কিছুর সম্ভাবনা অনেকটাই উড়িয়ে দেন সাদমান ইসলাম ও সাব্বির।

দুই জনের ব্যাটিং ছিল দুই রকম। বাঁহাতি ওপেনার সাদমান গুটিয়ে রেখেছিলেন নিজেকে। অন্য দিকে ডানহাতি ওপেনার সাব্বিরের ব্যাট ছিল উত্তাল। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দ্রুত এগোচ্ছিল শাইনপুকুর।

৭৩ বলে ৩৮ রান করা সাদমানকে বোল্ড করে ১১৭ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন নাইমুল ইসলাম। সাব্বিরের সেঞ্চুরির সম্ভাবনায় নিজেকে গুটিয়ে রেখেছিলেন অমিত হাসান। বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তেই পৌঁছে গিয়েছিলেন সাব্বির।

দুই দলের স্কোর ছিল তখন সমতায়। এবারের আসরে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে তুলে নিতে সাব্বিরের প্রয়োজন ছিল কেবল আর এক রান। কিন্তু ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জাহাঙ্গীর আলমকে। ৭২ বলে খেলা সাব্বিরের ৯৯ রানের ইনিংস গড়া সাতটি করে ছক্কা ও চারে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাব: ৪৪.৪ ওভারে ১৪৫ (তানজিদ ২৫, আনিসুল ১৩, আবরার ৬, মোহাইমিনুল ২১, মিনহাজ ৪, শাকির ৯, মিনহাজুল ৫১*, জাহাঙ্গীর ০, শহিদুল ১, নাইমুল ৮, রানা ০; শরিফুল ১/২৯, দেলোয়ার ১/২৪, শুভাগত ০/২১, শুভ ১/২৪, সাব্বির ৩/২৭, রকিবুল ২/১৮)

শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব: ২৫.১ ওভারে ১৪৯/২ (সাদমান ৩৮, সাব্বির ৯৯, আমিত ৬*, হৃদয় ০*; জাহাঙ্গীর ১/২৪, রানা ০/২৫, নাইমুল ১/৪৭, মোহাইমিনুল ০/৯, শহিদুল ০/৩৮, তানজিদ ০/৪)

ফল: শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব ৮ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: সাব্বির হোসেন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক