নবির টর্নেডো ইনিংস, রশিদের ইতিহাস

বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে দলকে দুইশ ছাড়ানো সংগ্রহ এনে দিলেন মোহাম্মদ নবি। বড় লক্ষ্য তাড়ায় আয়ারল্যান্ডকে কক্ষপথে রেখেছিলেন কেভিন ও’ব্রায়েন। তবে শেষটায় জাদু দেখালেন রশিদ খান। টানা চার বলে উইকেট নিয়ে আফগানিস্তানকে এনে দিলেন দারুণ এক জয়। আইরিশদের হোয়াইটওয়াশ করল আফগানরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2019, 05:02 PM
Updated : 24 Feb 2019, 05:02 PM

তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৩২ রানে জিতেছে আফগানিস্তান। ২১০ রান তাড়ায় ৮ উইকেটে ১৭৮রান করে আয়ারল্যান্ড। তাদের বিপক্ষে এটি আফগানদের টানা দশম জয়।

সপ্তম ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে হ্যাটট্রিক করেন রশিদ। প্রথম বোলার হিসেবেটি-টোয়েন্টিতে পেলেন টানা চার বলে উইকেট।

দেরাদুনের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রোববার টস হেরে ব্যাটকরতে নেমে উসমান গনির সঙ্গে ৪৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতে আফগানিস্তানকে ভালো শুরু এনেদেন হজরতউল্লাহ জাজাই। গনিকে এলবিডব্লিউ করে ৪.১ ওভার স্থায়ী জুটি ভাঙেন বয়েড র‌্যানকিন।

এসেই বোলারদের ওপর চড়াও হওয়া নাজিব তারাকাই ফিরে যান দুই চার ও এক ছক্কায় ১৭রান করে। আগের ম্যাচে খুনে ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি করা জাজাই শুরু করেছিলেন এই ম্যাচেও।তবে এবার ৩১ রানে বাঁহাতি এই ওপেনারকে থামান র‌্যানকিন।

দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে আফগানিস্তানকে পথ দেখান নবি। অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারসাত ছক্কা ও ছয় চারে ফিরেন ৩৬ বলে ৮১ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলে।

৩ উইকেট নিলেও খরুচে বোলিংয়ে ৫৩ রান দেন র‌্যানকিন। আঁটসাঁট বোলিংয়ে ২৬ রানেএক উইকেট নেন জর্জ ডকরেল।

বড় রান তাড়ায় শুরুতেই পল স্টার্লিংকে হারায় আয়ারল্যান্ড। দ্বিতীয় উইকেটে অ্যান্ডিবালবার্নির সঙ্গে ৯৬ রানের জুটিতে দলকে কক্ষপথে রাখেন ও’ব্রায়েন। ৭ চারে ৩৩ বলে ৪৭রান করা বালবার্নিকে বোল্ড করে বিপজ্জনক হয়ে উঠা জুটি ভাঙেন জিয়াউর রহমান।

জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৬৯ রান প্রয়োজন ছিল আয়ারল্যান্ডের। সেই পাঁচ ওভারেরতিনটি ছিল রশিদের। তাই একটু এগিয়ে ছিল আফগানিস্তানই। তবে ও’ব্রায়েন ক্রিজে থাকায় আশায়ছিল আইরিশরা।  

ষোড়শ ওভারে বোলিংয়ে ফিরে শেষ বলে ও’ব্রায়েনকে কট বিহাইন্ড করে শিকার ধরেন রশিদ।৪৭ বলে তিন ছক্কা ও পাঁচ চারে ৭৪ রান করে ফিরেন ও’ব্রায়েন। পরের ওভারের প্রথম দুই বলেআফগান লেগ স্পিনার তুলে নেন ডকরেল ও শেন গেটকেটের উইকেট। হয়ে যায় হ্যাটট্রিক। পরেরবলে ফেরান সিমি সিংকে। নিজের শেষ ওভারে ফিরে বিদায় করেন জন লিটলকে।

২৭ রানে পাঁচ উইকেট নেন রশিদ। টি-টোয়েন্টি আগের পাঁচ উইকেট ছিল আয়ারল্যান্ডেরবিপক্ষেই। ২০১৭ সালের মার্চে গ্রেটার নয়ডায় ৩ রানে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন সময়ের অন্যতমসেরা এই স্পিনার।

শ্রীলঙ্কার অজন্তা মেন্ডিস, পাকিস্তানের উমর গুল ও ইমরান তাহিরের পর চতুর্থবোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে একাধিকবার পাঁচ উইকেট নিলেন রশিদ।

বিস্ফোরক ব্যাটিং আর আঁটসাঁট বোলিং নবিকে এনে দেয় ম্যাচ সেরার পুরস্কার। প্রথমম্যাচেও সেরার পুরস্কার জেতা এই অলরাউন্ডারের হাতে উঠে সিরিজ সেরার পুরস্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আফগানিস্তান: ২০ ওভারে ২১০/৭ (জাজাই ৩১, গনি ১৩, তারাকাই ১৭, আফগান ২০, নবি৮১, জাদরান ১২, শফিকউল্লাহ ১২, রশিদ ৭*, আশরাফ ৩*; সিমি ০/৫, র‍্যানকিন ৩/৫৩, চেইস১/৩৮, লিটল ০/৪৫, টম্পসন ০/১৬, ডকরেল ১/২৬, গেটকেট ১/২১)

আয়ারল্যান্ড: ২০ ওভারে ১৭৮/৮ (স্টার্লিং ১০, ও’ব্রায়েন ৭৪, বালবার্নি ৪৭, টম্পসন১, ডকরেল ১৮, গেটকেট ২, পয়েন্টার ১০*, সিমি ০, লিটল ৬, র‍্যানকিন ২*; জিয়া ২/৪২, শিরজাদ০/৪২, আশরাফ ০/৩৯, নবি ০/২৮, রশিদ ৫/২৭)

ফল: আফগানিস্তান ৩২ রানে জয়ী

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে আফগানিস্তান জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: মোহাম্মদ নবি

ম্যান অব দা সিরিজ: মোহাম্মদ নবি

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক