তাইজুল, মাহমুদউল্লাহর স্পিনে খুলনার প্রথম জয়

সঙ্গী টানা চারটি হারের ক্ষত। সম্বল ১২৮ রান। ভরসা ছিল কেবল উইকেট, দ্রুত রান তোলা যেখানে বেশ কঠিন। উইকেটের সেই সাহায্য দারুণভাবে কাজে লাগালেন বোলাররা। তাইজুল ইসলাম ও মাহমুদউল্লাহর স্পিন হয়ে উঠল দুর্বোধ্য। পঞ্চম ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের দেখা পেল খুলনা টাইটানস।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Jan 2019, 09:30 AM
Updated : 15 Jan 2019, 11:45 AM

বিপিএলের সিলেট পর্বেরপ্রথম ম্যাচেমঙ্গলবার রাজশাহীকিংসকে ২৫ রানেহারিয়েছে খুলনাটাইটানস।পাঁচ ম্যাচেরাজশাহীর এটিতৃতীয় হার।

বিপিএলের সিলেট পর্বেব্যাটিং উইকেটও রানউৎসবের আশায়ছিলেন অনেকে। কিন্তুপ্রথম ম্যাচেউইকেট বেশমন্থর।গ্রিপ করল,টার্ন মিলল। বল নিচুও হলোপ্রায়ই।তাতে ধুঁকলদুই দলেরব্যাটসম্যানরাই। উইকেটের চরিত্র বুঝেব্যাট করতেপারেনি কোনোদলই।খুলনা যতটাবাজে ব্যাটকরেছে, রাজশাহীকরেছে তারচেয়েও বাজে। খুলনার১২৮ রানতাড়ায় রাজশাহীশেষ ১০৩রানেই।

উইকেট যে সহজনয়, ফুটেওঠে ম্যাচেরপ্রথমভাগেই। মুস্তাফিজুর রহমানের বলগ্রিপ করেছেঅনেক, বেশকিছু কাটারস্পিনারদের মতো যেন টার্ন করেছে। রাজশাহীরদুই স্পিনারমেহেদী হাসানমিরাজ ওআরাফাত সানিওউইকেটের সাহায্যকাজে লাগান  দারুণভাবে। খুলনারব্যাটিংয়েও ছিল না পাল্টা জবাবদেওয়ার ধার।

পল স্টার্লিংকে বাইরেরেখে জুনায়েদসিদ্দিকের সঙ্গে জহুরুল ইসলামকে দিয়েইনিংস শুরুকরে খুলনা। কিন্তুনতুন জুটিওভাঙে দ্রুতই। একটি ছক্কাও চারে৬ বলে১৩ করেফেরেন জহুরুল।

একই পথে হেঁটেছেনজুনায়েদও, বিদায় নেন একটি করেচার ওছক্কায় ১৪রান করে। তিনেনামা ডাভিডমালান কিছুক্ষণটিকলেও গতিপাননি।আউট হয়েছেনবাজে শটে। মিডলঅর্ডারে মাহমুদউল্লাহ,নাজমুল হোসেনশান্ত ব্যর্থআবারও।

কার্লোস ব্র্যাথওয়েট পারেননিঝড় তুলতে। ৮রান করেছেন১২ বলে। আরিফুলহক একটাপাশ আটকেরেখে দলকেগিয়ে গেছেনলড়ার মতোরানে।শেষ ওভারেআউট হওয়াআরিফুল করেছেন২৭ বলে২৬ রান।

রান তাড়ায় রাজশাহীধুঁকেছে শুরুথেকেই।লরি ইভান্সকেওপেনিংয়ে তুলেএনেও লাভহয়নি।ইংলিশ ব্যাটসম্যানফিরে যানশূন্য রানেই।

মাহমুদউল্লাহর অনেক নিচুহয়ে যাওয়াডেলিভারিতে খুব বেশি কিছু করারছিল নামুমিনুল হকের। সৌম্যসরকার ক্যাচহয়ে ফিরেছেনতাইজুলকে ছক্কায়ওড়াতে গিয়ে।

তিনে নামা মিরাজদারুণ কিছুশটে রানবাড়িয়েছেন।কিন্তু ১৬বলে ২৩করে তিনিওআউট হয়েছেনতাইজুলের বলেবাজে শটে। রাজশাহীররান তাড়াপথ হারায়পাওয়ার প্লেরমধ্যেই ৪উইকেট হারিয়ে।

আগের ম্যাচে পরিস্থিতিরদাবি মেটানোব্যাটিংয়ে ম্যাচ সেরা জাকির হাসানকরতে পারেননিসেটির পুনরাবৃত্তি। অভিজ্ঞরায়ান টেনডেসকাটের জন্যমঞ্চ ছিলপ্রস্তুত।কিন্তু দারুণবোলিং করাতাইজুল ফিরিয়েছেনতাকেও।

রান তাড়ায় রাজশাহীজয়ের সম্ভাবনাইজাগাতে পারেনিকখনও।এমনকি অনিয়িমতবোলার ডেভিডমালানও ৪ওভার বোলিংকরেছেন, রাজশাহীপারেনি কাজেলাগাতে।শেষ দিকেআরাফাত সানিও কামরুলইসলাম রাব্বিরদুটি ছক্কায়কোনো রকমকেতারা পেরুতেপারে একশ।

দারুণ বোলিংয়ের পাশাপাশিখুলনার ক্যাচিংওছিল ভালো। কার্লোসব্র্যাথওয়েট একাই ৪ ক্যাচ নিয়েছুঁয়েছেন বিপিএলরেকর্ড।প্রথম জয়েরস্বস্তিতে মাঠ ছেড়েছেন মাহমুদউল্লাহরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

খুলনা টাইটানস: ২০ওভারে ১২৮/৯ (জহুরুল১৩, জুনায়েদ১৪, মালান১৫, মাহমুদউল্লাহ৯, শান্ত১১, ব্র্যাথওয়েট৮, আরিফুল২৬, ভিসা১৩, তাইজুল০, শরিফুল২*, জুনাইদ১*; রাব্বি৩-০-১৬-০,উদানা ৪-০-৩৬-২, মিরাজ৪-০-২১-২,মুস্তাফিজ ৪-০-২১-১,সানি ৪-০-২৫-২, সৌম্য১-০-৬-০)।

রাজশাহী কিংস: ১৯.৫ ওভারে১০৩ (মুমিনুল৭, ইভান্স০, মিরাজ২৩, সৌম্য২, ডেসকাট১৩, জাকির৭, ইয়োঙ্কার১৫, উদানা৬, সানি১৫, রাব্বি১৩, মুস্তাফিজ০*; জুনাইদ৩.৫-০-২৬-৩, ভিসা৩-০-২৮-১,তাইজুল ৪-০-১০-৩, মাহমুদউল্লাহ৪-১-১২-২,মালান ৪-০-২১-০, শরিফুল১-০-৪-০)

ফল: খুলনা টাইটানস২৫ রানেজয়ী

ম্যান অব দাম্যাচ: তাইজুলইসলাম

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক