উদানা-মুস্তাফিজের ছোবলের পর মিরাজ চমক

আঁটসাঁট বোলিংয়ে লক্ষ্যটা ছোট রাখলেন দুই বাঁহাতি পেসার ইসুরু উদানা ও মুস্তাফিজুর রহমান। তিনে নেমে চমক দেখালেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অধিনায়কের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে খুলনা টাইটানসকে হারিয়ে বিপিএলের এবারের আসরে নিজেদের প্রথম জয় পেল রাজশাহী কিংস।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Jan 2019, 01:26 PM
Updated : 9 Jan 2019, 03:21 PM

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবারের দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটে জিতেছে রাজশাহী। ১১৮ রানের লক্ষ্য ৭ বল বাকি থাকতে ছুঁয়ে ফেলে তারা। এবারের আসরে টানা তৃতীয় হারের স্বাদ পেল মাহমুদউল্লাহর খুলনা।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করে খুলনা। শুরুর জুটিতে জুনায়েদ সিদ্দিকের সঙ্গে ৪০ রানের জুটি গড়েন পল স্টার্লিং। একটি করে ছক্কা-চারে ১৬ রান করা আইরিশ এই ওপেনারকে ফিরিয়ে জুটি মুস্তাফিজ। চারটি চারে ২৩ রান করা জুনায়েদকে ফেরান উদানা।

৪ রানের মধ্যে দুই ওপেনারের সঙ্গে জহুরুল ইসলামকে হারিয়ে চাপে পড়া খুলনা আর কক্ষপথে ফিরতে পারেনি। অনেক বিপদের ত্রাতা মাহমুদউল্লাহকে দ্রুত ফেরান মুস্তাফিজ।

প্রথমবারের মতো খেলতে নেমে একটি করে ছক্কা-চারে ২২ রান করে ফিরেন ইংলিশ ব্যাটসম্যান দাভিদ মালান। তার আগে-পরে ফিরে যান দুই অলরাউন্ডার আরিফুল হক ও ডেভিড ভিসা।

শুরুর জুটিই হয়ে থাকে খুলনার সেরা জুটি। দুই অঙ্কে যাওয়া ছয় ব্যাটসম্যানের কেউ যেতে পারেননি ত্রিশ পর্যন্ত। 

আঁটসাঁট বোলিংয়ে খুলনার ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রাখেন রাজশাহীর বোলাররা। ১৫ রানে ৩ উইকেট নিয়ে সেরা বোলার লঙ্কান পেসার উদানা। মুস্তাফিজ ২ উইকেট নেন ১৮ রানে।

রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি রাজশাহীর। দ্বিতীয় ওভারে মোহাম্মদ হাফিজকে ফিরিয়ে দেন তাইজুল ইসলাম। সৌম্যর জায়গায় প্রমোশন পেয়ে তিনে নেমে চমকে দেন মিরাজ। দ্বিতীয় উইকেটে মুমিনুল হকের সঙ্গে ৮৯ রানের জুটিতে দলকে নিয়ে যান সহজ জয়ের পথে।

স্টার্লিংকে ছক্কায় উড়িয়ে পঞ্চাশ ছুঁতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন মুমিনুল। বাঁহাতি এই ব্যটসম্যানের ৪৩ বলে খেলা ৪৪ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস গড়া ৪টি চারে।

আগের সেরা অপরাজিত ৪১ ছাড়িয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি পাওয়া

মিরাজ ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি। ৪৫ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ৫১ রান করা অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারকে বোল্ড করে বিদায় করেন চায়নাম্যান জহির খান।

লরি ইভান্সকে নিয়ে বাকিটা সারেন সৌম্য। চার হাঁকিয়ে দলকে জয় এনে দেওয়া বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান করেন ১১ রান।

আঁটসাঁট বোলিংয়ে ৩ উইকেট নিয়ে লক্ষ্য ছোট রাখায় সবচেয়ে বড় অবদান রাখা উদানা জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

খুলনা টাইটানস: ২০ ওভারে ১১৭/৯ (স্টার্লিং ১৬, জুনায়েদ ২৩, জহুরুল ১, মাহমুদউল্লাহ ১১, মালান ২২, আরিফুল ৪, ভিসা ১৪, তাইজুল ৮*, শরিফুল ১, শুভাশিস ০*; সানি ৩-০-১৯-১, হাফিজ ১-০-১৩-০, উদানা ৪-১-১৫-৩, মুস্তাফিজ ৪-০-১৮-২, কায়েস ৪-০-২৪-১, মিরাজ ৩-০-১৯-০, সৌম্য ১-০-৬-১)

রাজশাহী কিংস: ১৮.৫ ওভারে ১১৮/৩ (হাফিজ ৬, মুমিনুল ৪৪, মিরাজ ৫১, সৌম্য ১১*, ইভান্স ১*; শরিফুল ১-০-১১-০, তাইজুল ৩-০-২২-১, শুভাশিস ২-০-১৩-০, ভিসা ৩.৫-০-২৮-০, জহির ৪-০-১৮-১, মাহমুদউল্লাহ ২-০-১১-০ মালান ১-০-৬-০, স্টার্লিংন ২-০-৯-১)

ফল: রাজশাহী কিংস ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: ইসুরু উদানা

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক