তাইজুল অবিশ্বাস্য বোলিং করেছে: টেইলর

ব্রেন্ডন টেইলরের জন্য দিনটি বড় এক প্রাপ্তির। দেশের বাইরে টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়েছেন প্রথমবার। তবে প্রতিপক্ষের একজন পারফরম্যান্সে এমন আলো ছড়াচ্ছেন যে তাকে নিয়ে মুগ্ধতাও কম নেই। এই সিরিজে তাইজুল ইসলামের বোলিং পারফরম্যান্সের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন জিম্বাবুয়ের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Nov 2018, 01:59 PM
Updated : 13 Nov 2018, 01:59 PM

মিরপুর টেস্টের তৃতীয় দিনে দারুণ এক সেঞ্চুরি করেছেন টেইলর, টেস্ট ক্যারিয়ারে যা তার পঞ্চম। এই টেস্টের আগে বিদেশের মাঠে ১২ টেস্টে তার কেবল ছিল একটিই ফিফটি, ব্যাটিং গড় ছিল ১৯.৪৭। এবার খেলেছেন ১১০ রানের ইনিংস।

তবে শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে ২১৮ রানের লিড এনে দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। টানা তিন ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে স্পর্শ করেছেন বাংলাদেশের রেকর্ড।

সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে যেভাবে দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তাইজুল, সেটি ছুঁয়ে গেছে টেইলরকে। পাশাপাশি জিম্বাবুয়ের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান বললেন প্রথম ইনিংসে মুশফিকের অসাধারণ ডাবল সেঞ্চুরির কথাও।

“তাইজুল দুর্দান্ত ফর্মে আছে। সাকিব না থাকায় সে ঘাটতি পূরণ করে দিয়েছে দারুণভাবে। অবিশ্বাস্য বোলিং করেছে সে। এর আগে মুশি যেমন খেলেছে, এতগুলো বল খেলে, এতটা মনোসংযোগ ও শৃঙ্খলা দেখিয়েছে, অবিশ্বাস্য একটি ইনিংস ছিল। আমাদেরকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে সে।”

টেস্ট ক্যারিয়ারে টেইলরের পাঁচ সেঞ্চুরির চারটিই বাংলাদেশের বিপক্ষে। ২০১৩ সালে দেশের মাটিতে করেছিলেন জোড়া সেঞ্চুরি। দেশের বাইরেও প্রথম সেঞ্চুরি করলেন বাংলাদেশেই। তবে বাংলাদেশের বিপক্ষে রান করাটা যে সহজ নয়, সেটিও মনে করিয়ে দিলেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। প্রায় এক যুগ ধরে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলছেন, জানালেন চ্যালেঞ্জ ছিল কতটা কঠিন।

“বাংলাদেশের বিপক্ষেই আমি সবচেয়ে বেশি খেলেছি। সবসময়ই মনে হয়েছি, ওরা সবচেয়ে কঠিন প্রতিপক্ষগুলোর একটি। মূল কারণ ওদের স্পিনাররা। বছরের পর বছর রাজ্জাক, সাকিব, এমনকি আগে মোহাম্মদ রফিক, আমাদের কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে। সবসময়ই কাজটি কঠিন ছিল। তবে আজকের দিনটি আমার ভালো ছিল।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক