চট্টগ্রামের হয়ে লড়লেন কেবল ইয়াসির  

জাতীয় লিগের সবশেষ ম্যাচে দুই ইনিংসেই নিয়েছিলেন ৫টি করে উইকেট। মাঝে ২ মাসের বিরতিতে বোলিংয়ে মরচে খুব একটা পড়েনি। আবার নেমেই এনামুল হক জুনিয়র নিলেন ৩ উইকেট। তিনটি নিলেন আবুল হাসানও। সিলেটের দারুণ বোলিংয়ের বিপক্ষে লড়লেন কেবল চট্টগ্রামের ইয়াসির আলি রাব্বি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Dec 2017, 12:35 PM
Updated : 20 Dec 2017, 01:45 PM

জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে বুধবার ২১৫ রানে অলআউট হয়েছে চট্টগ্রাম। তবে খুব স্বস্তিতে প্রথম দিন শেষ করতে পারেনি সিলেটও। রান তাদের ৩ উইকেটে ৫৪।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা চট্টগ্রাম ওপেনার জসিম ও তিনে নামা মুমিনুল হককে হারায় দ্রুত। দারুণ খেলতে থাকা আরেক ওপেনার সাদিকুর রহমান আউট হয়ে যান ৭ চারে ৪৬ রান করে।

সেই ধাক্কা সামাল দেওয়ার আগেই ৩৮ রানে রান আউট তাসামুল। ১১২ রানে ৫ উইকেট হারায় চট্টগ্রাম। বাকিটা শুধু ইয়াসিরের একার লড়াই।

ষষ্ঠ উইকেটে ৬৩ রানের জুটিতে সাইদ সরকারের অবদান ছিল স্রেফ ১৩ রান। এই জুটি ভাঙার পর ভেঙে পড়ে ইনিংসও। ৪০ রানে হারায় তারা শেষ ৫ উইকেট।

১৩৬ বলে ১২ চারে ৮১ রান করে ইয়াসির আউট হন শেষ ব্যাটম্যান হিসেবে।

আবুল হাসান ও এনামুল জুনিয়র ছাড়া উইকেটের দেখা পেয়েছেন আবু জায়েদ, এবাদতরাও।

বোলিংয়ে ভালো করার তৃপ্তি ব্যাটিংয়ে ধরে রাখতে পারেনি সিলেট। ওপেনার শানাজের পর অভিজ্ঞ ইমতিয়াজ ও তরুণ প্রতিভা জাকিরের উইকেটও হারিয়েছে তারা। দ্বিতীয় দিনে তাই সিলেটের ব্যাটসম্যানদের অপেক্ষায় কঠিন চ্যালেঞ্জ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

চট্টগ্রাম ১ম ইনিংস: ৬৭.৪ ওভারে ২১৫ (সাদিকুর ৪৬, জসিম ৮, মুমিনুল ৯, তাসামুল ৩৮, ইয়াসির ৮১, সাজ্জাদুল ০, সাইদ ১৩, সাইফ উদ্দিন ৫, রনি ০, রানা ২, সাখাওয়াত ০*; আবু জায়েদ ২/৫৮, আবুল হাসান ৩/৩৪, এবাদত ১/৪৮, শাহানুর ০/২৬, এনামুল ৩/৪৪)।

সিলেট ১ম ইনিংস: ১৮.১ ওভারে ৫৪/৩ (সায়েম ১৬*, শানাজ ১০, ইমতিয়াজ ১৯, জাকির ১, রাজিন ৪*; সাইফ উদ্দিন ০/১৩, রানা ১/১০, রনি ১/২১, সাখাওয়াত ১/১০)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক