রাঁচির অভিজ্ঞতায় বাংলাদেশে আত্মবিশ্বাসী হ্যান্ডসকম

ক্যারিয়ারের সবে শুরু। এর মধ্যেই দুবার উপমহাদেশ সফর! শুরুতেই কঠিন পরীক্ষায় পিটার হ্যান্ডসকম। তবু ঘাটতি নেই আত্মবিশ্বাসে। এই বছরই ভারত সফর করে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। সেই সফরের অভিজ্ঞতাই বাংলাদেশে ভরসা জোগাচ্ছে হ্যান্ডসকমকে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 August 2017, 02:42 PM
Updated : 20 August 2017, 02:42 PM

গত নভেম্বরেটেস্ট অভিষিক্ত হ্যান্ডসকমের শুরুটা ছিল স্বপ্নের মতো। প্রথম চার টেস্টে করেন দুটিসেঞ্চুরি, দুটি হাফ সেঞ্চুরি। তবে সেই মধুচন্দ্রিমা শেষ হয় দেশের বাইরে পা রাখতেই।ভারত সফর তাকে নামিয়ে আনে বাস্তবতার জমিনে। চার টেস্টে পঞ্চাশ স্পর্শ করতে পারেন মাত্রএকবার।

তবে একমাত্রহাফ সেঞ্চুরিই বিশ্বাস জোগাচ্ছে হ্যান্ডসকমকে। রাঁচিতে সেই টেস্টে শেষ দিনের উইকেটেস্পিন পরীক্ষায় উতরে গিয়েছিলেন এই ডানহাতি। প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টায় ২০০ বল খেলে অপরাজিতছিলেন ৭১ রানে। ৮ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ দিন শুরু করা অস্ট্রেলিয়া বাঁচিয়ে ফেলে ম্যাচ।

হ্যান্ডকমেরবিশ্বাস, তার নিজের তো বটেই, বাংলাদেশ সিরিজে গোটা দলেরই অনুপ্রেরণা হবে ওই টেস্ট।

“আমার জন্যইনিংসটি ছিল অবশ্যই দারুণ গুরুত্বপূর্ণ। তবে দলের জন্যও। আমি মনে করি, গোটা দলই সেটিথেকে অনেক কিছু বয়ে আনতে পারে। ভারতে আমরা যেভাবে খেলেছি, আমার বিশ্বাস, আমরা প্রায়একই মানসিকতা নিয়ে নামব। আশা করি শুরুটা ভালো হবে আমাদের।”

মাত্র ৮টেস্ট খেলেই অস্ট্রেলিয়ার মিডল অর্ডারের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছেন হ্যান্ডসকম। আরেকতরুণ ম্যাট রেনশ যেমন হয়ে উঠেছেন ওপেনিংয়ে আস্থা। টেকনিক ও টেম্পারামেন্ট দিয়ে দুজনইকুড়িয়েছেন প্রশংসা।

ক্যারিয়ারেরশুরুর দিকেই উপমহাদেশে দুটি সফর অস্ট্রেলিযান ব্যাটসম্যানদের জন্য কঠিন। হ্যান্ডসকমেরবিশ্বাস, এই অভিজ্ঞতা দুজনকেই করবে সমৃদ্ধ।

“উপমহাদেশেঅন্যদের মত খুব বেশি অভিজ্ঞতা নেই আমাদের। ভারতে খেলতে পেরেছি বলে আমি ও রেনশ বেশ ভাগ্যবানযে ওই অভিজ্ঞতা এখানে আমাদের কাজে লাগবে।”

“তবে একদিকথেকে অভিজ্ঞতা কম থাকাটা খারাপ নয়, খোলা মন নিয়ে মাঠে নামা যাবে। অভিজ্ঞতা খুব বেশিনেই মানে বল অনেক কিছু করতে পারে ভেবে দুশ্চিন্তা করতে হবে না আমাদের। একটু স্বাধীনতানিয়ে খেলা যাবে।”

বাংলাদেশকেনিয়ে অবশ্য এখনও খুব বেশি জানাশোনা নেই তাদের। হ্যান্ডসকম জানালেন, সামনেই টিম মিটিংয়েকাঁটাছেড়া করা হবে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স।

“আমরা অবশ্যজানি নিজেদের কন্ডিশনে বাংলাদেশ দারুণ শক্তিশালী দল। এই সপ্তাহেই আমাদের টিম মিটিংআছে। সেখানে আমরা ওদের পুরো স্কোয়াডে চোখ রাখব। চেষ্টা করব পরিকল্পনা গড়ার এবং সেভাবেখেলার।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক