'৩৩০-৩৪০ অনায়াসেই হতে পারত'

শুরুর ধাক্কা সামলে ২৭ ওভারে দল পেরিয়ে গেছে দেড়শ। তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিংয়ের জবাব পাচ্ছিল না ভারত। শরীরী ভাষাও পড়তে শুরু করেছিল। বাংলাদশের ভাবনায় ৩২০, সম্ভব হলে আরেকটু বেশি। সেই দলটারই কিনা শেষে আড়াইশ হওয়া নিয়ে টানাটানি!

ক্রীড়া প্রতিবেদক বার্মিংহাম থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 June 2017, 06:30 AM
Updated : 16 June 2017, 09:30 AM

মাশরাফি বিন মুর্তজার মতে, বাংলাদেশ ম্যাচ হেরে গেছে ওখানেই। ২৫ রানের মধ্যে বাংলাদেশ হরিয়ে বসে দুই থিতু ব্যাটসম্যান তামিম ও মুশফিককে, মাঝে সাকিব আল হাসান। ম্যাচের মোড় পাল্টে গেছে ওখানেই।

এরপর মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেক হোসেন জুটি গড়ার চেষ্টা করলেও পারেননি। দুজনের কেউই পারেননি দলকে টানতে। শেষ দিকে মাশরাফির ৩০ রানের সৌজন্যে বাংলাদেশ করতে পারে ২৬৪।

কিন্তু যেখানে ৩২০ রান লাগে লড়াই করতেই, ৬০ রান কমে ম্যাচ জেতা যাবে কি করে! মাশরাফিও সেমি-ফাইনালে হারের দায় দিচ্ছেন ব্যাটিংকেই।

“আমাদের রান আরও বেশি হতে পারত। আমরা যেভাবে খেলছিলাম, তামিম ও মুশফিক যেভাবে ব্যাট করছিল, ওরা আউট হওয়ার পর কাজটা খুবই কঠিন ছিল। ওই সময়টায় আমরাই দাপট দেখাচ্ছিলাম। ৩০০, ৩৩০-৩৪০ রান অনায়াসেই হতে পারত।”

“কিন্তু হঠাৎই উইকেট পড়তে থাকল। পরে সাকিব ও রিয়াদও টানতে পারল না। এরপর সেখান থেকে ৩০০ করা কঠিন ছিল।”

কঠিন কাজটি পারেনি বাংলাদেশ। তাই পারা যায়নি ভারতীয় ব্যাটিংকে চ্যালেঞ্জ জানাতে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক